20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
বরগুনায় প্রতিবেশীর দায়ের কোপে বাবা-ছেলে জখম

দায়ের কোপে জখম বাবা-ছেলে। ছবি: নিউজবাংলা

বরগুনায় প্রতিবেশীর দায়ের কোপে বাবা-ছেলে জখম

নিজের মেয়েকে মারধর করছিলেন সোবাহান নামের এক ব্যক্তি। পরে তাকে কোপানোর জন্য দা আনেন।  মেয়েটিকে রক্ষা করতে এগিয়ে এলে প্রতিবেশী বাবা-ছেলে আক্রমণের শিকার হন।

বরগুনার পাথরঘাটায় প্রতিবেশী এক ব্যক্তির দায়ের কোপে বাবা-ছেলে জখম হয়েছেন। এ ঘটনায় হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। তবে মামলা হয়নি।

রোববার দুপুর ১টার দিকে বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার কাকচিড়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) ভবন সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত দুজন হলেন আবদুস সাত্তার ও তার ছেলে নান্না। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আটক ব্যক্তির নাম আবদুস সোবাহান।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা একটার দিকে আবদুস সোবাহান তার মেয়ে রিচাকে (১০) বেধড়ক মারধর করেন। এক পর্যায়ে তিনি ঘর থেকে দা এনে রিচাকে কোপনোর চেষ্টা করেন। এ সময় রিচাকে রক্ষা করতে প্রতিবেশী সাত্তার এগিয়ে আসেন। এতে সোবাহান ক্ষুব্ধ হন।

তিনি সাত্তারকে কুপিয়ে জখম করেন। বাবাকে রক্ষা করতে এগিয়ে যান নান্না। সোবাহান তাকেও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেন।

পরে পুলিশ গিয়ে বাবা-ছেলেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়; সোবাহানকে আটক করে।

ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দীন পল্টু জানান, সোবাহান উগ্র প্রকৃতির লোক। বিভিন্ন সময়ে তুচ্ছ কারণে পরিবারের লোকজনকে মারধর করেন। সাত্তার কিংবা তার ছেলের সঙ্গে সোবাহানের কোনো বিরোধ ছিল না।

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহাব উদ্দীন জানান, সোবাহানের ঘরে তল্লাশি চালিয়ে ছয়টি দা উদ্ধার করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন