20201002104319.jpg
তার কাটা বন্ধ, দেড় মাস সময় তাপসের

ইন্টারনেট সেবাদাতা ও কেবল অপারেটরদের সঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়দ শেখ ফজলে নূর তাপসের বৈঠক

তার কাটা বন্ধ, দেড় মাস সময় তাপসের

সোমবার থেকে আইএসপিবিএ ও কোয়াব নিজ উদ্যোগে উপরের তার তার অপসারণ করে মাটির নিচে নিয়ে যাবে। এই কাজে করপোরেশনের রাস্তা, ফুটপাত বা অবকাঠামো ব্যবহারের জন্য যে নির্ধারিত ফি আছে তা মওকুফ করা হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ইন্টারনেট ও কেবল টিভির তার মাটির নিচে নিতে নতুন করে দেড় মাস সময় দিয়েছেন মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

এর আগেও সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিল। আর এর মধ্যে সব তার মাটির নিচে না যাওয়ায় বিভিন্ন এলাকায় তার কেটে দিচ্ছিল নগর কর্তৃপক্ষ। এর প্রতিবাদে রোববার থেকে তিন ঘণ্টা ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেয়ার হুমকি ছিল ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভির সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের।

পরে দুই পক্ষের সমঝোতা হয়। আর রোববার মেয়রের কাছে যান ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) ও কেবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (কোয়াব) এর নেতারা।

এ সময় মেয়র চলমান অভিযান বন্ধ করে দুই প্রতিষ্ঠানকে নতুন করে নভেম্বর র্পযন্ত সময় বেঁধে দেন।নগর ভবনে বৈঠক

তারের জঞ্জাল থেকে ঢাকাকে মুক্ত করতে গত ৫ আগস্ট থেকে অভিযান শুরু করেছিল সিটি করপোরেশন।

সভা শেষে মেয়র জানান, সোমবার থেকে আইএসপিবিএ ও কোয়াব নিজ উদ্যোগে উপরের তার তার অপসারণ করে মাটির নিচে নিয়ে যাবে। এই কাজে করপোরেশনের রাস্তা, ফুটপাত বা অবকাঠামো ব্যবহারের জন্য যে নির্ধারিত ফি আছে তা মওকুফ করা হবে।

মেয়র বলেন, ‘আমরা আমাদের প্রাণের ঢাকাকে সুন্দর ঢাকা হিসাবে পরিণত করতে চাই। আমরা যৌথভাবে কাজ করলে সেটা সম্ভব। এ জন্য একটা ঐক্যমতের জায়গায় আমরা উপনীত হয়েছি। আমাদের মাঝে যে ভুল ভ্রান্তি বা ভুল বোঝাবুঝি ছিল সেটার অবসান হয়েছে।’

পরে আইএসপিবিএর এর সভাপতি এম এ হাকিম বলেন, ‘আমরা আগামী কয়েক মাসের মধ্যে পর্যায়ক্রমে এই কাজটি করব।’

রাস্তায় তার কাটা
গত ৫ আগস্ট থেকে ঝুলে থাকা তার অপরাসণ শুরু করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন

 

মেয়র বলেছেন নভেম্বরের মধ্যে আপনারা বলছেন কয়েক মাস- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে এম এ হাকিম বলেন, ‘এমন হতে পারে কোন সড়কে নির্ধারিত সময়ের আগেই কাজ শেষ হয়ে যাচ্ছে। আবার কিছু সড়কে দেরি হচ্ছে। সব মিলিয়ে এটা নভেম্বর মাস অতিক্রম হতে পারে।’

মাটির নীচে প্রতিস্থাপন প্রক্রিয়ায় গ্রাহক ভোগান্তি যেন না হয় সে ব্যাপারে আইএসপিবিএ সতর্ক থাকবে বলে মন্তব্য করেন এম এ হাকিম। এ জন্য গ্রাহককে বাড়তি কোনো পয়সা দিতে হবে না বলেও জানান তিনি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য