রেললাইনে ঘুমিয়ে গেল তিন প্রাণ

রেললাইনে ঘুমিয়ে গেল তিন প্রাণ

গ্রামের কয়েকজন লোক রেললাইনের পাশের জলাশয়ে রাতে মাছ ধরছিলেন। এক পর্যায়ে রাতে রেললাইনের ওপর তারা বিশ্রাম নিতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা হাওর এক্সপ্রেস ট্রেন এই লাইন দিয়ে যাওয়ার সময় তারা কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।

কয়েক ঘণ্টা মাছ ধরার কঠোর পরিশ্রমের পর ক্লান্তিতে রেল লাইনেই ঘুম। সে ঘুম হয়ে গেল ‌‘চিরদিনের ঘুম’। ট্রেনের চাকায় কাটা পড়ে থেমে গেল তাদের জীবনের চাকা।

মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে নেত্রকোণার বারহাট্টায়। রোববার ভোর সাড়ে চারটার দিকে উপজেলার স্বল্পদশাল গ্রামে ট্রেনে কাটা পড়ে মারা যান তিন মাছ শিকারী। নিহতরা হলেন স্বল্পদশাল গ্রামের আব্দুল হেকিমের দুই ছেলে রিপন মিয়া, স্বপন মিয়া ও একই গ্রামের কুরফান আলীর ছেলে মুখলেছ মিয়া।
নেত্রকোণায় ট্রেন দুর্ঘটনা

এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নেত্রকোণার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফখরুজ্জামান জুয়েল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করলেও কারও নাম জানাতে পারেননি।

নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ রেল পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক সুকুমার বড়ুয়া জানান, গ্রামের কয়েকজন লোক রেললাইনের পাশের জলাশয়ে রাতে মাছ ধরছিলেন। এক পর্যায়ে রাতে রেললাইনের ওপর তারা বিশ্রাম নিতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। এ সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা হাওর এক্সপ্রেস ট্রেন এই লাইন দিয়ে যাওয়ার সময় তারা কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।
নেত্রকোণায় ট্রেন দুর্ঘটনা

নিহতের পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহগুলো হস্তান্তর করতে জেলা প্রশাসক কাজী মো. আব্দুর রহমানের কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন