করোনায় আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী

করোনায় আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী

শনিবার মন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা আকরাম উদ্দিন নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তাকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার মন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা আকরাম উদ্দিন নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে মন্ত্রী রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) থেকে করোনা পরীক্ষা করান। তার ফল পজেটিভ আসে।

আকরাম আরও জানান, মন্ত্রী বর্তমানে সুস্থ আছেন। তিনি রোগমুক্তির জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

শেয়ার করুন

থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূতের পরিচয়পত্র পেশ

থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূতের পরিচয়পত্র পেশ

থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মো. আব্দুল হাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ব্যাংককের দুসিত প্রাসাদে থাই রাজা মাহাভাজিরালংকর্নের কাছে পরিচয়পত্র পেশ করেন। ছবি সংগৃহীত

এ সময় রাজা মাহাভাজিরালংকর্ন যুবরাজ থাকাকালে দুইবার বাংলাদেশ সফরের স্মৃতিচারণ করেন এবং বাংলাদেশের জনগণের উষ্ণ আতিথেয়তা তাকে মুগ্ধ করেছিল বলে উল্লেখ করেন।

থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মো. আব্দুল হাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ব্যাংককের দুসিত প্রাসাদে থাই রাজা মাহাভাজিরালংকর্নের কাছে পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।

পরিচয়পত্র গ্রহণের সময় রাজা বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতকে থাইল্যান্ডে স্বাগত জানান বলে বুধবার এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়েছে ব্যাংককে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস।

এসময় রাজা মাহাভাজিরালংকর্ন যুবরাজ থাকাকালে দুইবার বাংলাদেশ সফরের স্মৃতিচারণ করেন এবং বাংলাদেশের জনগণের উষ্ণ আতিথেয়তা তাকে মুগ্ধ করেছিল বলে উল্লেখ করেন।

রাষ্ট্রদূত মো. আব্দুল হাই রাজার কাছে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন পৌঁছে দেন। তাকে রাষ্ট্রপতির পক্ষ থেকে রাজা হিসাবে পুনরায় বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান।

আব্দুল হাই ২০০৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের দূতাবাসে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন। রাজা থাইল্যান্ডে পরিচিত পরিবেশে আব্দুল হাইয়ের সাফল্য কামনা করেন।

শেয়ার করুন

করোনায় বেকার, আগুনে সর্বস্বান্ত

করোনায় বেকার, আগুনে সর্বস্বান্ত

রাজধানীর তুরাগের রানাভোলা এলাকার বালুরমাঠ বস্তিতে বুধবার আগুন ধরে যায়। ছবি: নিউজবাংলা

আগুনের উৎপত্তি ঘরের খুব কাছাকাছি হওয়ায় তারা কিছুই বের করতে পারেননি। পুড়েছে খাট, ফ্রিজ, ওয়্যারড্রবসহ সব কাপড় ও আসবাবপত্র। গতকাল কাজের বেতন হিসেবে শেফালীর পাওয়া ১০ হাজার টাকাও ঘরেই ছিল। তাও পুড়ে শেষ।

শেফালীর স্বামী সাইফুল সিকিউরিটি গার্ড হিসেবে কাজ করতেন। গত বছর দেশে করোনার সংক্রমণ শুরুর পর চাকরি হারান তিনি। এরপর থেকে বেকার; সঙ্গে রয়েছে নানা অসুস্থতা।

শেফালী একাধিক বাসায় কাজ করে যা পান, তা দিয়েই দুই ছেলে-মেয়েসহ চারজনের সংসার কোনো রকমে চলে যায়। পরিবারটি থাকত রাজধানীর তুরাগের রানাভোলা এলাকার বালুরমাঠ বস্তিতে।

বুধবার ৩০০ ঘরের বস্তিটির প্রায় অর্ধেক পুড়ে যায়। এ আগুনে পোড়ে শেফালী ও সাইফুলের শেষ সম্বলটুকুও।

আগুনের উৎপত্তি ঘরের খুব কাছাকাছি হওয়ায় তারা কিছুই বের করতে পারেননি। পুড়েছে খাট, ফ্রিজ, ওয়্যারড্রবসহ সব কাপড় ও আসবাবপত্র। গতকাল কাজের বেতন হিসেবে শেফালীর পাওয়া ১০ হাজার টাকাও ঘরেই ছিল। তাও পুড়ে ছাই।

বুধবার দুপুর ২টার দিকে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টর সংলগ্ন তুরাগের রানাভোলা এলাকার বালুরমাঠ বস্তিতে গিয়ে দেখা যায়, আগুনে পোড়া ধ্বংসস্তূপের মধ্যে অক্ষত কিছু পাওয়া যায় কি না খুঁজছেন শেফালী ও সাইফুল। শুধু তারাই নন, এই বস্তির ক্ষতিগ্রস্ত শতাধিক পরিবারের সদস্য একই আশায় পুড়ে যাওয়া জিনিসগুলো খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখছেন।

ফায়ার সার্ভিস বলছে, দুপুর ১২টা ২০ মিনিটে আগুন লাগার খবর পান তারা। ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা লিমা খানম নিউজবাংলাকে বলেন, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বেলা ১ টা ৩৫ মিনিটে। ফায়ার ব্রিগেডের পাঁচটি ইউনিট আগুন নেভানোর কাজ করে।

বস্তির বাসিন্দারা জানান, পুরো বস্তিটিতে প্রায় ৩০০ ঘর রয়েছে। বস্তির দক্ষিণ পাশের ঘরগুলো পুড়ে গেছে।

যেভাবে আগুনের সূত্রপাত

বস্তির পূর্ব পাশের ভবনের বাসিন্দা সোলাইমান বলেন, এখানে (বস্তির দক্ষিণ পাশ ঘেঁষে) প্রায়ই ময়লা স্তূপ করে পোড়ানো হয়। আজকেও প্রথমে এই অংশ থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখেছি। পরে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলেছে।

আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত বাসিন্দাদেরও অভিযোগ একই। তারা বলছে, বস্তির দক্ষিণ পাশে কয়েক দিন পরপর ময়লা একসঙ্গে করে আগুন দেয় পাশের একটি বাড়ির বয়স্ক বাসিন্দা। আজকেও ছেঁড়া তোষক ও অন্যান্য ময়লায় আগুন দেয়া হয়েছিল।

এ থেকেই বস্তিতে আগুন লেগেছে বলে জানান বস্তির বাসিন্দা রিকশাচালক মকবুল। তিনি বলেন, ‘আমরা কতবার না করছি, এখানে আগুন দিয়েন না, তারা ময়লা পুড়ায়, আজকে আমাদের পুড়ায়া দিল।’

তবে ময়লাতে আগুন দেয়া বয়স্ক ব্যক্তির সন্ধান তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি। পুলিশ বলছে, কেউ ইচ্ছাকৃতভাবে আগুন দিয়ে থাকলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তুরাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান বলেন, ‘আমাদের কাছে এখনও কেউ এ ধরনের অভিযোগ করেনি। আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব।’

আগুন লাগার কারণ প্রসঙ্গে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু বলতে চাননি ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের উপপরিচালক নিয়াজ আহমেদ। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রথম কাজ ছিল আগুন নিয়ন্ত্রণ করা। নিয়ন্ত্রণের পর ভুক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলছি। আগুনের সুনির্দিষ্ট কারণ তদন্তে বেরিয়ে আসবে।’

শেয়ার করুন

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে যুক্ত হলো পুলিশের বেতার

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে যুক্ত হলো পুলিশের বেতার

ভিস্যাটের (VSAT) সাহায্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে ঘূর্ণিঝড়সহ যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে দুর্গম এলাকার সঙ্গে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের সহজ ও নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ থাকবে।

ভিস্যাটের (VSAT) সাহায্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ব্যবহার করে ঢাকাসহ পুলিশের অন্যান্য ইউনিটের সঙ্গে বেতার যোগাযোগ শুরু হয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ পুলিশের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ভিস্যাট (VSAT) এর সাহায্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে ঘূর্ণিঝড়সহ যেকোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগে দুর্গম এলাকার সঙ্গে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের সহজ ও নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ থাকবে।

সোহেল রানা আরও জানান, এই প্রযুক্তির ফলে নোয়াখালীর ভাসানচর থানা ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন হয়েছে। বাংলাদেশ পুলিশের উন্নয়ন ও আধুনিকায়নের এ উদ্যোগটি নেন বর্তমান আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ।

শেয়ার করুন

সেই রিটু প্রধানের জামিন বাতিল শুনানি ২৯ এপ্রিল

সেই রিটু প্রধানের জামিন বাতিল শুনানি ২৯ এপ্রিল

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস জানান, রিটু প্রধানের জামিনাদেশ বাতিল এবং আসামির আত্মসমর্পণের নির্দেশনা চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে আপিল করা হয়েছে। চেম্বার আদালত আপিল শুনানির জন্য ২৯ এপ্রিল দিন ঠিক করে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দিয়েছেন।

অস্ত্র আইনের মামলায় মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ার থানার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন প্রধানের ছোটভাই আন্তজেলা ট্রাকচালক ইউনিয়নের গজারিয়া শাখার সভাপতি রিটু প্রধানের জামিন বাতিলে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

আবেদনটি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য আগামী ২৯ এপ্রিল দিন রেখেছেন চেম্বার আদালত। বুধবার চেম্বার বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস।

মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া থানার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের তেতৈতলা গ্রামের মৃত গিয়াসউদ্দিন প্রধানের ছেলে রিটু প্রধানকে অস্ত্র মামলায় র‌্যাব গত বছরের ১৯ অক্টোবর গ্রেপ্তার করে।

এ সময় তার কাছ থেকে দুটি বিদেশি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, দুটি ম্যাগাজিন এবং ২৯০টি ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। রিটুকে গ্রেপ্তার করার সময় তার ভাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন প্রধান ও তাদের ব্যবসায়ী পার্টনার আলমগীর হোসেন বাধা দিলে তাদেরকেও আটক করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পরে অস্ত্র আইনে, সরকারি কাজে বাধাদান এবং মাদকসহ তিনটি মামলা হয়।

এর মধ্যে প্রধান আসামি রিটু প্রধান সরকারি কাজে বাধা এবং মাদক মামলায় আগেই জামিন পান। সবশেষ গত ২১ মার্চ অস্ত্র আইনের মামলায় হাইকোর্ট তাকে জামিন দেয়।

সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস নিউজবাংলাকে বলেন, ‘ওই জামিনাদেশ বাতিল এবং আসামির আত্মসমর্পণের নির্দেশনা চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে আপিল করি। আজ চেম্বার আদালত ওই আপিলের শুনানির জন্য ২৯ এপ্রিল দিন ঠিক করে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দিয়েছেন।’

শেয়ার করুন

ঢাকায় এলো মেট্রোরেলের কোচ

ঢাকায় এলো মেট্রোরেলের কোচ

ঢাকায় আসা শুরু হয়েছে মেট্রোরেলের কোচ। ছবি: নিউজবাংলা

৪ মার্চ বাংলাদেশ সময় বিকেল তিনটায় জাপানের কোবে বন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে কোচের সেটগুলো। ৩১ মার্চ বিকেল সাড়ে চারটায় মোংলা বন্দরে পৌঁছে। ওই দিন ও তার পরের দিন পহেলা এপ্রিল সেখানে সেটগুলো খালাস করা হয়। এর দুটি কোচ ঢাকায় পৌঁছাল বুধবার বিকেলে।

দুইদিন আগেই ঢাকায় পৌঁছেছে মেট্রো রেলের দুই কোচ। ২৩ এপ্রিল পৌঁছানোর কথা থাকলেও বুধবার বিকেল তিনটার দিকেই তা ঢাকায় আসে।

সড়ক ও সেতু বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ ওয়ালিদ ফয়েজ বিষয়টি নিশ্চিত করে নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আগামীকাল বৃহস্পতিবার সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিস্তারিত তুলে ধরবেন।’

মোংলা থেকে নৌপথে বরিশাল, চাঁদপুর, মুন্সীগঞ্জ, সদরঘাট হয়ে উত্তরার তুরাগ পাড়ের জেটিতে ভিড়েছে মেট্রোরেল বহনকারী বার্জ।

মেট্রোরেলের কোচ আনার জন্য উত্তরার দিয়াবাড়িতে বিশেষ জেটি তৈরি করেছে ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল)।

৪ মার্চ বাংলাদেশ সময় বিকেল তিনটায় জাপানের কোবে বন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে কোচগুলো। ৩১ মার্চ বিকেল সাড়ে চারটায় মোংলা বন্দরে পৌঁছে। ওই দিন ও তার পরের দিন পহেলা এপ্রিল কোচগুলো সেখানে খালাস করা হয়।

মোংলা থেকে বার্জে করে মেট্রোরেলের দুটি কোচে সেট ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করে।

কোচগুলো জাপানের কাওয়াসাকি-মিতসুবিশি কনসোর্টিয়াম কোম্পানি লিমিটেড তৈরি করছে। বাংলাদেশে এই কোচ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)।

সার্বিক কাজের অগ্রগতি

মেট্রোরেলের পুরো প্রকল্পের কাজ শেষ করার তাগিদ রয়েছে ২০২২ সালের জুনের মধ্যে। সে অনুযায়ী শ্রমিকরা দিনরাত শ্রম দিয়ে এগিয়ে নিচ্ছেন মেট্রোরেলের কাজ।

ডিএমটিসিএল-এর সর্বশেষ তথ্যমতে, রাজধানীর প্রথম মেট্রোরেল প্রকল্পের (এমআরটি লাইন-৬) নির্মাণকাজের অগ্রগতি এসেছে প্রায় ৬৩ শতাংশ। এর মধ্যে প্রথম ভাগ উত্তরা-আগারগাঁও অংশের অগ্রগতি ৮৪ দশমিক ৫২ শতাংশ। আর আগারগাঁও-মতিঝিল অংশের অগ্রগতি ৫৮ দশমিক ৬৮ শতাংশ।

ডিএমটিসিএল সূত্র আরও জানিয়েছে, ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার ভায়াডাক্টের মধ্যে ১৩ দশমিক ২৭৫ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট এখন দৃশ্যমান। ইতোমধ্যে ডিপোর ভিতরে ১৬ দশমিক ৯০ কিলোমিটার রেললাইন স্থাপিত হয়েছে। এ ছাড়া ভায়াডাক্টের উপরে ১০ কিলোমিটার রেল ট্র্যাক প্লেট কাস্টিং সম্পন্ন হয়েছে। রোড কাম রেল ভেহিক্যাল ব্যবহার করে ডিপোর অভ্যন্তরে এবং ভায়াডাক্টের উপরে ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেম স্থাপনের কাজও এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে ডিপোর ভিতরে ৬ কিলোমিটার ওভারহেড ক্যাটেনারি সিস্টেম স্থাপন হয়ে গেছে।

ডিএমটিসিএল-এর বাস্তবায়ন অগ্রগতি প্রতিবেদন মতে, উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের প্লাটফর্ম নির্মাণকাজ শেষ। উত্তরা উত্তর স্টেশনের প্লাটফর্ম নির্মাণকাজ শেষ পর্যায়ে। উত্তরা উত্তর ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনে স্টিল স্ট্রাকচার ইরেকশন কাজ চলমান। উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনে বৈদ্যুতিক সাব স্টেশন, সিগন্যালিং ও টেলিকমিউনিকেশন এবং স্টেশন কন্ট্রোলার কক্ষ নির্মাণকাজও চলমান। এ ছাড়া উত্তরা উত্তর, উত্তরা সেন্টার ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের ছাদ নির্মাণের কাজ চলছে। মেট্রোরেল নির্মাণে স্বাভাবিক পানির প্রবাহ ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা যাতে বাধাগ্রস্ত না হয়, সেই বিবেচনায় পাঁচটি লং স্প্যান ব্যালান্স ক্যান্টিলিভারের মধ্যে তিনটির কাজও ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে।

চলবে ২৪ ট্রেন

ঢাকার যানজট নিরসনসহ নগরবাসীর যাতায়াত আরামদায়ক, দ্রুততর ও নির্বিঘ্ন করতে এই মেট্রোরেল প্রকল্পের মাধ্যমে সব কটি পয়েন্টে ২৪ সেট ট্রেন চলাচল করবে। প্রত্যেকটি ট্রেনে থাকবে ৬টি করে কার বা কামরা। এই ট্রেনের গতিবেগ হবে ঘণ্টায় এক শ কিলোমিটার। প্রতি ৪ মিনিট পরপর ১ হাজার ৮০০ যাত্রী নিয়ে চলবে মেট্রোরেল। চলাচল শুরু হলে উভয় দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ হাজার যাত্রী বহনে সক্ষমতা থাকবে মেট্রোরেলের।

ভাড়া হবে কত

মেট্রোরেলে উত্তরা থেকে কমলাপুর পর্যন্ত দূরত্ব ২০ দশমিক ১ কিলোমিটার। প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া হতে পারে ২ টাকা ৪০ পয়সা। ডিএমটিসিএল প্রাথমিকভাবে এই হারে ভাড়া নির্ধারণের বিষয়টি বিবেচনা করছে। এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হলে উত্তরা থেকে কমলাপুর পর্যন্ত দূরত্বে যেতে ভাড়া আসবে ৪০ টাকা ২৫ পয়সা।

শেয়ার করুন

ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত-মারধর, আটক ১

ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত-মারধর, আটক ১

উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদে হাসপাতালের সামনের সড়ক কিছুক্ষণ অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। ছবি: নিউজবাংলা

পপি জানান, আমাকে ফোন করে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। আমি তাকে বলেছি, আমার বিয়ে হয়েছে। তারপরেও সে আমাকে বিরক্ত করে আসছিল। শুধু তাইও নয় সে আমাকে হুমকিও দেয়।

শেরপুরে জেলা সদর হাসপাতালের এক নারী ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় আরেক ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে।

প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক হাসপাতালের সামনের রাস্তা প্রায় এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখেন শতাধিক ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টকে উত্ত্যক্ত ও মারধরের ঘটনায় আরাফাত নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্টরা জানান, সাইক মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটের ম্যাটসের শিক্ষার্থী পপি আক্তার জেলা সদর হাসপাতালে ইন্টার্নশিপ করছিলেন। শহরের নারায়ণপুর এলাকার আরাফাত নামে এক যুবক পপিকে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিলেন। এর প্রতিবাদ করায় আজ দুপুরে পপির বন্ধু নাজমুল ইবনে হাফিজকে পিটিয়ে আহত করেন আরাফাত, হালিম ও রনিসহ কয়েকজন।

প্রতিবাদে পপির সহপাঠীরা জেলা সদর হাসপাতালের সামনের সড়ক অবরোধ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং অভিযান চালিয়ে উত্ত্যক্তকারী আরাফাতকে আটক করে।

এ বিষয়ে শিক্ষার্থী পপি জানান, আরাফাত আমাকে ফোন করে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। আমি তাকে বলেছি, আমার বিয়ে হয়েছে। তারপরেও সে আমাকে বিরক্ত করে আসছিল। শুধু তাইও নয় সে আমাকে হুমকিও দেয়।

তার সহপাঠী নাজমুল ইবনে হাফিজ জানান, বিষয়টি সিভিল সার্জন স্যারকে জানানোর পর স্যার পুলিশকে জানান। এ কারণে আরাফাত ও তার বন্ধুরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে বিচার দাবি করেছি।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) খায়রুল কবীর সুমন জানান, বিষয়টি আগেও একবার পুলিশকে জানিয়েছি। আজকের এ ঘটনায় পুলিশ সুষ্ঠু ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে আমরা আশা করছি।

শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, অভিযোগের সঙ্গে সঙ্গে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আরাফাতকে আটক করেছি। এ ঘটনায় জড়িত বাকিদের ধরতে অভিযান চলছে।

শেয়ার করুন

হেফাজতের আরও দুই নেতা গ্রেপ্তার

হেফাজতের আরও দুই নেতা গ্রেপ্তার

হেফাজতের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব আল্লামা খুরশিদ আলম কাশেমীকে মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে এবং যুগ্ম-মহাসচিব ও খেলাফত মজলিসের সাধারণ সম্পাদক সারাফাত হোসেন কাফরুল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার চলছেই। এবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে ধর্মভিত্তিক সংগঠনটির আরও দুই শীর্ষস্থানীয় নেতাকে।

বুধবার ঢাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ। ডিবির যুগ্ম-কমিশনার মাহবুব আলম নিউজবাংলাকে জানান, হেফাজতের কেন্দ্রীয় সহকারী মহাসচিব আল্লামা খুরশিদ আলম কাশেমীকে মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে এবং যুগ্ম-মহাসচিব ও খেলাফত মজলিসের সাধারণ সম্পাদক শারাফাত হোসাইনকে কাফরুল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ নিয়ে হেফাজতের শীর্ষ ১৪ নেতা গ্রেপ্তার হলেন।

চলমান গ্রেপ্তার অভিযানের মধ্যে সমঝোতার আশায় সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে বৈঠকের পর এ নিয়ে গ্রেপ্তার হলেন চারজন।

বুধবার প্রথম প্রহরে হেফাজতের কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনকে ধরে আনা হয় মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে।

এখান থেকেই গ্রেপ্তার হন হেফাজতের আলোচিত নেতা মামুনুল হক। আতাউল্লাহ আমীন মামুনুলের রাজনৈতিক দল খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব।

এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে হেফাজত ইসলামের ঢাকা মহানগর সহ-সভাপতি ও খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা কোরবান আলী কাসেমীকে গ্রেপ্তার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

গত ২৬ ও ২৮ মার্চ ও ৩ এপ্রিল দেশের বিভিন্ন স্থানে হেফাজতের তাণ্ডবের পর তাদের বিরুদ্ধে এই অভিযান শুরু হয়।

প্রথমে ১১ এপ্রিল গ্রেপ্তার করা হয় সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক ইসলামাবাদীকে। এরপর একে একে গ্রেপ্তার করা হয় ঢাকা মহানগরের সভাপতি জুনায়েদ আল হাবীবসহ ১৪ জনকে।

তাদেরকে সাম্প্রতিক সহিংসতার মামলার পাশাপাশি ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরে অবস্থানকে ঘিরে দিনভর তাণ্ডবের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হচ্ছে।

এখন পর্যন্ত যাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাদের সবাইরে রিমান্ডে নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বা চলছে।

এই অভিযান শুরুর আগে হেফাজত নেতারা উত্তেজক বক্তব্য দিলেও সোমবার ভিডিও বার্তায় এসে সংগঠনের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী কথা বলেন নরম সুরে।

‘মাননীয় সরকার’ সম্বোধন করে ওই লাইভে বাবুনগরী ২৬ মার্চ হাটহাজারীতে সহিংসতার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়াতেও কিছু ঘটনা ঘটেছে। এর আগ পর্যন্ত সংগঠনটি সহিংসতার দায় অস্বীকার করে আসছিল।

এর মধ্যে সমঝোতা আশোয় সোমবার রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন হেফাজতের মহাসচিব নুরুল ইসলামসহ ১০ জন শীর্ষ নেতা। সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো না হলেও বৈঠকে উপস্থিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা জানান, মন্ত্রী তাদের আবেদনে ‘না’ করে দিয়েছেন।

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, বৈঠক করে অভিযানের কোনো ব্যত্যয় হবে না।

শেয়ার করুন