20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
ইউটিউব চ্যানেল-আইপি টিভিতে সংবাদ নয় : তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) সংলাপে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

ইউটিউব চ্যানেল-আইপি টিভিতে সংবাদ নয় : তথ্যমন্ত্রী

‘আইপি টিভি অন্য সবকিছু করতে পারবে, তবে সংবাদ পরিবেশনের কাজটি তারা আপাতত করতে পারবে না, এটি আমাদের মন্ত্রণালয়ের নিয়ম, আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকের সিদ্ধান্ত।’

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, ইউটিউব চ্যানেল ও আইপি টিভি শুধু এন্টারটেইনমেন্ট চ্যানেল হিসেবে কাজ করবে, তারা সংবাদ পরিবেশন করতে পারবে না।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) সংলাপে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন তথ্য জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আইপি টিভি অন্য সবকিছু করতে পারবে, তবে সংবাদ পরিবেশনের কাজটি তারা আপাতত করতে পারবে না, এটি আমাদের মন্ত্রণালয়ের নিয়ম, আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকের সিদ্ধান্ত।’

‘অনেক ইউটিউব চ্যানেল ও আইপি টিভি রয়েছে, যেগুলো বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি খবরও প্রচার করে থাকে। মন্ত্রণালয়ের এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে সেগুলো আর খবর প্রচার করতে পারবে না,’ বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে আইপি টিভি শুধু এন্টারটেইনমেন্ট চ্যানেল হিসেবে কাজ করবে। তাদের নরমাল টেলভিশন চ্যানেলের মতো কাজ করার কথা নয়।’

ইউটিউব চ্যানেলগুলোর জন্য পরবর্তী নির্দেশনা প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক ইউটিউব চ্যানেল বা আইপি টিভি আছে, সেগুলোকে নিবন্ধনের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছি। সেগুলোর তদন্তের কাজ চলছে। প্রাথমিক তদন্তের কাজ শেষ হওয়ার পর আমরা নিবন্ধনের কাজ শুরু করব।’

ইউটিউব চ্যানেল ও আইপি টিভির নিয়মিত সংবাদ পরিবেশন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘এমনিতেই কোনো টেলিভিশন চ্যানেল যখন অনুমতি পায়, শুরুতে তারা সংবাদ পরিবেশনের অনুমতি পায় না। সেজন্য তাদের কিছু প্যারামিটার পূরণ করতে হয়, আবার দরখাস্ত করতে হয়। তারপর তারা সংবাদ সম্প্রচারের অনুমতি পায়। সুতরাং আইপি টিভির ক্ষেত্রেও অন্যান্য সবকিছু করতে পারবে কিন্তু সংবাদ পরিবেশনের কাজটি তারা আপাতত করতে পারবে না, এটি আমাদের মন্ত্রণালয়ের নিয়ম, আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকের সিদ্ধান্ত ।’

অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধন কোন পর্যায়ে আছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘অনলাইন নিবন্ধনের কাজ হচ্ছে। ইতিমধ্যে অনেকগুলো অনলাইন নিউজ পোর্টালকে নিবন্ধন দেওয়া হয়েছে। বাকিগুলো শিগগির দেওয়া হবে। তবে যেহেতু কয়েক হাজার অনলাইন, ফলে নিবন্ধন প্রক্রিয়ায় কয়েক মাস লেগে যাবে। তদন্ত সংস্থা প্রতিবেদন দেওয়ার পরই আমরা নিবন্ধন দিতে পারছি। তার আগে দিতে পারছি না। সে কারণে আমাদের একটু সময় লাগছে। তবে এ বছরের মধ্যে শেষ করতে পারব।’

শেয়ার করুন

মন্তব্য