20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
ক্ষমা না চাইলে গণমাধ্যম থেকে নুরকে বয়কটের আহ্বান

ক্ষমা না চাইলে গণমাধ্যম থেকে নুরকে বয়কটের আহ্বান

সচেতন সাংবাদিক সমাজ আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ আহ্বান জানানো হয়।

সাংবাদিকদের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরকে গণমাধ্যম থেকে বয়কটের আহ্বান জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সহ-সভাপতি এম এ কুদ্দুসের সভাপতিত্বে সচেতন সাংবাদিক সমাজ আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এ আহ্বান জানানো হয়।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সূর্য বলেন, ‘আমি আজকে এই মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছি একজন গণমাধ্যমকর্মী হিসেবে। যে গণমাধ্যম স্বাধীনতার স্বপক্ষে কাজ করে, দেশের সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য কাজ করে, সেই গণমাধ্যমকে নিয়ে কটূক্তি এই দেশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধেই কটূক্তি।’

তিনি আরও বলেন, ‘নুরদের যারা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছে, তারা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করে না। তা না হলে ডিজিটাল আইনে যার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, সে কীভাবে স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়ায়? তাহলে সরকারের প্রশাসনেও নুরদের মদতদাতা রয়েছে। এদের মুখোশও উন্মোচন করতে হবে।’

মানববন্ধনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের কোষাধ্যক্ষ নাগরিক টিভির বার্তাপ্রধান দ্বীপ আজাদ বলেন, ‘এ নুর কে? তার পরিচয় কী? আমরা যখন ডাকসু নির্বাচন কাভার করেছি, তখন আমরা তার পক্ষে ছিলাম। যখন তিনি ছাত্রলীগের দ্বারা নিগৃহীত ছিলেন, আমরা তার পাশে দাঁড়িয়েছি। আর এখন যখন গণমাধ্যমে তার ধর্ষণের অভিযোগের খবর প্রচার করা হচ্ছে, তখন গণমাধ্যম তার শত্রু হয়ে গেছে।’

‘গণমাধ্যম যখন দেশের সার্বভৌমত্ব, স্বাধীনতা, নারীর অধিকার, খেটে খাওয়া মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলে তখন তিনি কাদের প্রেতাত্মা সেটা স্পষ্ট হয়ে যায়। যিনি নারীদের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ কথা বলেন, তিনি কীভাবে ছাত্রনেতা হন? আমরা আজ থেকে সব টেলিভিশন তাকে বয়কট করলাম।’

এ সময় ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খায়রুল আলম, বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতির সভাপতি নাসিমা সোমা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন