20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
‘হেফাজতে মৃত্যু’, বরখাস্ত এসআই আত্মগোপনে

আকবর হোসেন ভুইয়া

‘হেফাজতে মৃত্যু’, বরখাস্ত এসআই আত্মগোপনে

পুলিশের দাবি, নগরের কাস্টঘর এলাকায় ছিনতাই করতে গিয়ে গণপিটুনীতে রায়হানের মৃত্যু হয়। তবে তার পরিবারের অভিযোগ, পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে।

সিলেটের বন্দরবাজার ফাঁড়ি পুলিশের হেফাজতে যুবকের মৃত্যুর অভিযোগ ওঠার পর বরখাস্ত এসআই আকবর হোসেন ভুইয়া আত্মগোপন করেছেন।

মঙ্গলবার নিউজবাংলাকে এ তথ্য জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৌমেন মিত্র। ওসি বলেন, ‘আকবরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তার ফোন নম্বর বন্ধ রয়েছে।’

এ মামলার তদন্তের দায়িত্ব পিবিআইকে (পুলিশের তদন্ত ব্যুরো) দেয়া হয়েছে বলেও জানান ওসি।

গত রোববার সকাল ৭টা ৫০মিনিটে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রায়হান উদ্দিন আহমদ নামে একজনের মৃত্যু হয়। নিহত রায়হান আহমেদ (৩৪) সিলেট নগরের আখালিয়া নেহারিপাড়া এলাকার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি নগরের রিকাবীবাজার এলাকায় একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কাজ করতেন।

ওই সময় পুলিশ দাবি করেছিল, নগরের কাস্টঘর এলাকায় ছিনতাই করতে গিয়ে গণপিটুনীতে রায়হানের মৃত্যু হয়। তবে তার পরিবারের অভিযোগ, পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় রোববার রাতে কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা করেন রায়হানের স্ত্রী। এজাহারে বলা হয়, বাদীর স্বামীকে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে আটকে রেখে ১০ হাজার টাকা চাওয়া হয়। সেই টাকা না পেয়ে রায়হানকে নির্যাতন করে মেরে ফেলা হয়েছে।

এ ঘটনায় সোমবার বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভুইয়া এবং কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, তৌহিদ মিয়া ও টিটু চন্দ্র দাসকে বরখাস্ত করা হয়।

প্রত্যাহার করা হয় এএসআই আশেক এলাহী ও কুতুব আলী এবং কনস্টেবল সজিব হোসেনকে।

শেয়ার করুন