পথহারা শিশুকে ধর্ষণ: চার জন রিমান্ডে

পথহারা শিশুকে ধর্ষণ: চার জন রিমান্ডে

রাতে বাবার সঙ্গে রাগ করে বাইরে গিয়েছিল শিশুটি। বাসায় ফেরার পথ চিনতে পারছিল না। বাবার কাছে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে চারজন তাকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করা হয়েছে মামলায়

রাজধানীর পল্লবীতে শিশুকে দল বেঁধে ধর্ষণের মামলায় গ্রেফতার চার জনকে রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ।

সোমবার ঢাকার মহানগর হাকিম মোর্শেদ আল মামুন ভুঁইয়া এই আদেশ দেন। আসামিরা হলেন: মো. জুয়েল, আব্দুর রহমান মিন্টু, হৃদয় ও আল আমিন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্লবী থানার ইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) আবু সাইদ আল মামুন আসামিদের আদালতে হাজির করে সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন।

আসামিদের পক্ষে আইনজীবী মোহাম্মদ আমিন আহমেদ (হীরা) করেন জামিনের আবেদন। শুনানি শেষে বিচারক সে আবেদন নাকচ করেন।

এজাহারের বিবরণ অনুযায়ী, রোববার ভোরে মিরপুর পল্লবী কালশী কবরস্থান এলাকায় ধর্ষণের এই ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করতে আন্দোলনের মধ্যেই রাজধানীতে এই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ আলী সাংবাদিকদের জানান, মেয়েটির বাড়ি নোয়াখালী। গত দুইদিন আগে রাজধানীর কালশীতে বাবার কাছে বেড়াতে আসে। শনিবার রাতে সে রাগ করে বাসার বাইরে গিয়ে রাস্তায় বসে কান্নাকাটি করতে থাকে।

এ সময় চার আসামি শিশুটি বাসায় পৌঁছে দেয়ার কথা বলে কালশী কবরস্থান এলাকার একটি মেসে নিয়ে ধর্ষণ করেন বলে মামলায় বলা হয়েছ।

রোববার সকাল সাতটার দিকে শিশুটি নিজেই পল্লবী থানায় এসে বিষয়টি জানায়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে চার যুবককে আটক করে।

শিশুটিকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পল্লবী থানার ওসি।

শেয়ার করুন

মন্তব্য