20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
বরিশালে দুর্গা পূজার ‘বাজেট কম’

বরিশালে দুর্গা পূজার ‘বাজেট কম’

এবার খুব সাধারণভাবেই পালিত হবে দুর্গা পূজা। করোনা মহামারীতে অর্থনৈতিক অবস্থা সংকটাপন্ন থাকায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পূজার উদ্যোক্তারা।

করোনাভাইরাসের কারণে অর্থনৈতিক সংকটে গোটা দেশ। এর প্রভাব পড়েছে সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজায়।

১৭ সেপ্টেম্বর মহালয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে দেবীপক্ষ। আগামী ২২ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাচ্ছে পূজার আনুষ্ঠানিকতা।

এবারের পূজাতে আলোকজ্জ্বল হবে না বরিশাল নগরী। প্রতিবছর পূজার ১৫ দিন আগে থেকেই শুরু হয় সাজসজ্জা। কিন্তু এবার খুব সাধারণভাবেই পালিত হবে দুর্গা পূজা। করোনা মহামারীতে অর্থনৈতিক অবস্থা সংকটাপন্ন থাকায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পূজার উদ্যোক্তারা।

বরিশালের সবচেয়ে বড় মন্দির ও পূজামণ্ডপ শ্রীশ্রী শংকর মঠ। এখানকার নেতারা বলেছেন, এবারে সকলের অর্থনৈতিক সংকটের কথা চিন্তা করে পূজার আয়োজন সীমিত করা হয়েছে।

শংকর মঠ পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি কিশোর কুমার দে ও সাধারণ সম্পাদক লিমন কৃষ্ণ সাহা কানু জানান, ‘বড় উৎসব হিসেবে গত বছরও বেশ জাঁকজমকভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছিলো শারদীয় দুর্গাপূজা। প্রতিমা নির্মাণ ও সাজসজ্জা মিলিয়ে আমাদের খরচ হয়েছিল সাত লাখ টাকা। তবে এবার মাত্র দেড় থেকে দুই লাখ টাকার মধ্যে পূজা সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তারা আরও বলেন,‌‘করোনা মহামারির কারণে সকলেরই অর্থনৈতিক সংকট। তাই আমাদের বাজেট বেশ কমিয়ে আনা হয়েছে। অষ্টমী পূজার দিন এই মন্দিরে মহাপ্রসাদ সবাই গ্রহণ করে থাকে। তবে এবারে তা বাতিল করা হয়েছে।’

একই কথা বলেছেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতা ও নগরীর জগন্নাথ দেব মন্দিরের সদস্য গোবিন্দ সাহা। তিনি বলেন, ‘করোনার কারণে পূজার আয়োজন সীমিত করা হয়েছে। অনেক জায়গায় এবারে প্রতিমাই তৈরি করা হয়নি, সেখানে ঘট পূজার আয়োজন করা হয়েছে।’

পুকুরের মধ্যে মণ্ডপ তৈরি করেছে নগরীর পাষানময়ী কালিমাতার মন্দির। এই মণ্ডপ কমিটির কয়েকজন সদস্য এবং মহানগর পূজা মণ্ডপ সদস্যরাও বলছেন অর্থনৈতিক সংকটের কথা।

সরেজমিনে নগরীর বিভিন্ন পূজা মণ্ডপে গিয়ে একই চিত্র দেখা গেছে। তেমন কোনো আয়োজন নেই কারোরই। সবার মুখে একই কথা ‘বাজেট কম’।

বরিশাল মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুরঞ্জিৎ দত্ত লিটু বলেন, ‘সব পূজা মণ্ডপের নেতৃবৃন্দকে নির্দেশনা দিয়ে দেয়া হয়েছে। মণ্ডপে যারা আসবেন তাদের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের বিষয়টি কঠোর ভাবে নিশ্চিত করতে হবে।’

বরিশাল জেলা ও মহানগর মিলিয়ে এবারে ৬১৭টি মণ্ডপে দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য