রাজধানীতে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়ানোর হুমকি, গ্রেফতার ১

রাজধানীতে ধর্ষণের পর ভিডিও ছড়ানোর হুমকি, গ্রেফতার ১

র‍্যাব কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‌‘দুই মাস আগে ভুক্তভোগী একটি বাসায় কাজে যাওয়ার সময় সেলিমের সঙ্গে কথা হয়। তখনই আরো ভালো বেতনে কাজ পাইয়ে দেয়ার প্রস্তাব দেন সেলিম। বেশি বেতনে অন্য বাসায় কাজের জন্য রাজি হন ভুক্তভোগী।'

বিভিন্ন বাসায় ভালো বেতনে কাজের লোভ দেখিয়ে রাজধানীতে এক গৃহপরিচারিকাকে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকির অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

র‌্যাব-২ এর সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন রবিবার সন্ধ্যায় জানান, গ্রেফতার মো. সেলিম (৩৪) প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকারও করেছেন।

তিনি বলেন, ‌‘ভুক্তভোগীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করেন রাখে সেলিম। এই ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার নাম করে ভুক্তভোগীর কাছ থেকে টাকা চাইছিল সেলিম। টাকা দেয়ার জন্য একজনকে হুমকি দেয়া হচ্ছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে শ্যামলীবাগ আবাসিক এলাকা থেকে সেলিমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা মামুন জানান, সেলিমের গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুরের উত্তর দুর্গাপুর এলাকায়। ঢাকায় থাকতেন দক্ষিণ পীরেরবাগ পাকা মসজিদ এলাকায়। বর্তমানে তার কোনো পেশা নেই বলে জানিয়েছে সেলিম। র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেছে সে। তার বিরুদ্ধে শের ই বাংলা নগর থানায় ধর্ষণ মামলা হবে।

আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‌‘দুই মাস আগে ভুক্তভোগী একটি বাসায় কাজে যাওয়ার সময় সেলিমের সঙ্গে কথা হয়। তখনই আরো ভালো বেতনে কাজ পাইয়ে দেয়ার প্রস্তাব দেন সেলিম। বেশি বেতনে অন্য বাসায় কাজের জন্য রাজি হন ভুক্তভোগী।

‘পরিচয়ের দুদিন পর সেলিম এসে জানান, যে বাসায় কাজ রয়েছে সেখানে যেতে হবে। ভুক্তভোগী তার সঙ্গে যায়। কিন্তু বাসায় নেয়ার পরিবর্তে ভুক্তভোগীকে শ্যামলী বাসস্ট্যান্ডের কাছাকাছি ফল পট্টি নামে পরিচিত গলিতে রাজ ইন্টারন্যাশনাল আবাসিক হোটেলের একটি কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে এবং নিজের মোবাইলে সে ভিডিও ধারণ করে রাখেন।’

র‍্যাব কর্মকর্তা মামুন আরো জানান, সেলিম পরবর্তীতে ভুক্তভোগীকে আবার একই হোটেলে যেতে বলেন এবং টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে ধারণ করা ভিডিও ফেসবুকে প্রচার করে দিবেন বলে ভয় দেখান।

তিনি বলেন, শনিবার (১০ অক্টোবার) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সেলিম ভুক্তভোগীর বাসার সামনে গিয়ে দাবি করা টাকা দিতে হুমকি দিতে থাকেন। এসময় আশপাশের লোকজন র‌্যাবকে বিষয়টি জানালে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

শেয়ার করুন

মন্তব্য