20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
ধর্ষণবিরোধী মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা, আহত ৫

হামলায় আহত একজনকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

ধর্ষণবিরোধী মিছিলে ছাত্রলীগের হামলা, আহত ৫

দেশব্যাপী ধর্ষণ-নির্যাতন বন্ধ ও ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মৌলভীবাজারে প্রগতিশীল বাম ছাত্র সংগঠনের মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে ছাত্রলীগ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

দেশব্যাপী ধর্ষণ-নির্যাতন বন্ধ ও ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মৌলভীবাজারে প্রগতিশীল বাম ছাত্র সংগঠনের মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশে ছাত্রলীগ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে ৫ জন আহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের চৌমুহনা এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের দিকে যাওয়ার সময় প্রেসক্লাব চত্বরে এ হামলা চালানো হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

আহতরা হলেন, ছাত্রফ্রন্ট মৌলভীবাজার জেলা সংসদের সহসভাপতি বিশ্বজিৎ নন্দী, দপ্তর সম্পাদক রাজীব সূত্রধর, ছাত্র ইউনিয়ন মৌলভীবাজার জেলা সংসদের শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক শামীম আহমেদ, সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রইয়ান শিপু ও মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ সংসদের সাধারণ সম্পাদক শিহাব আহমেদ।

ছাত্রফ্রন্টের মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি রেহনুমা রুবাইয়াত নিউজবাংলাকে বলেন, শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ মিছিলে ছাত্রলীগের কর্মীরা অতর্কিতে হামলা করে বাম ছাত্র সংগঠনের ৫ জন সদস্যকে আহত করেন।

জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আকতার উদ্দিন আহমদ বলেন, ছাত্রলীগের একটি কর্মসূচিতে যোগ দিতে যাওয়ার পথে বামপন্থী ছাত্র সংগঠনের নেতারা সাধারণ ছাত্রের ব্যানারে ধর্ষণের প্রতিবাদে সরকারবিরোধী স্লোগান দিচ্ছিল। তখন ওই নেতারা নিজেদের মধ্যে ঝগড়া করেন। ওই মিছিলে ছাত্রশিবিরের লোকজনও ছিল। এ ঘটনায় ছাত্রলীগ দায়ী নয় বলেও আকতার উদ্দিন দাবি করেন।

মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার ওসি ইয়াসিনুল হক বলেন, শহরের চৌমোহনায় বিএনপির কর্মসূচি চলাকালে ছাত্রফ্রন্টের নেতাদের সঙ্গে দলটির নেতাদের বাক্বিতণ্ডা হয়। সেখান থেকে এ ঘটনা ঘটতে পারে। এ ঘটনায় ঠিক কতজন আহত হয়েছে তা জানা নেই।

শেয়ার করুন