ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের ‘সর্বোচ্চ অবস্থান’ চান রওশন

ধর্ষণ-নারী নির্যাতনের সর্বোচ্চ সাজা ফাঁসির দাবিতে চলা বিক্ষোভের ছবি: সাইফুল ইসলাম

ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের ‘সর্বোচ্চ অবস্থান’ চান রওশন

‘আইনি কাঠামো এসব অপরাধ দমনে কার্যকর হচ্ছে না’

অপরাধীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে ‘ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান’- এর বার্তা দেয়ার ওপর জোর দিয়েছেন সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। ধর্ষণ মামলার বিচারে আইন ও বিচার ব্যবস্থার দুর্বলতা থাকলে তা শোধরানোরও তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

বুধবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিরোধীদলীয় নেতা এ কথা বলেন।

রওশন বলেন, “সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী পর্যায় থেকে আইন ও বিচার ব্যবস্থার প্রতিটি স্তরে, ‘ধর্ষণের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ অবস্থান’ এই বার্তা পৌঁছে দিতে হবে।”

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নারী নির্যাতনের ঘটনা সামনে আসার পর ধর্ষণবিরোধী আন্দোলন হচ্ছে দেশের নানা প্রান্তে।আন্দোলনকারীরা ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড করার দাবি জানাচ্ছে।

সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ

রওশন বলেন, ‘নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধের জন্য দেশে একাধিক আইন আছে। আইনে কঠোর শাস্তির বিধান রয়েছে। আলাদা বিচারের জন্য বিশেষ ট্রাইব্যুনাল রয়েছে। তারপরও স্পষ্ট, বর্তমান আইনি কাঠামো এসব অপরাধ দমনে কার্যকর হচ্ছে না।’

‘আইনি কাঠামো কার্যকর করতে হলে ধর্ষণের ক্ষেত্রে আইন ও বিচার ব্যবস্থার যদি কোনো দুর্বলতা থাকে তা শুধরাতে হবে।’

ধর্ষণ এবং যৌন নিপীড়নের চিত্র ধারণ করে অনলাইনে ছড়িয়ে দেয়ার প্রবণতা নিয়েও কথা বলেন রওশন। বলেন, ‘প্রযুক্তির যথেচ্ছ ব্যবহারের কারণে সমাজে এর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। প্রযুক্তির ইতিবাচক ব্যবহারের পাশাপাশি উন্নত মূল্যবোধের চর্চায় গুরুত্ব বাড়াতে হবে।’

অপরাধীদের বিচার নিশ্চিত করার পাশাপাশি নৈতিকতার চর্চা ও সামাজিক আন্দোলন নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে সহায়ক হবে বলে মনে করেন বিরোধীদলীয় নেতা।

শেয়ার করুন