বেগমগঞ্জের ‘জঘন্য ঘটনা’ হাইকোর্টের নজরে

বেগমগঞ্জের ‘জঘন্য ঘটনা’ হাইকোর্টের নজরে

নির্যাতনের ঘটনা ৩২ দিন পর ফেসবুকে আসার পর প্রশাসনের টনক নড়েছে। ফেসবুকে না আসলে এই ঘটনা গোপনই থেকে যেত: হাইকোর্ট

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের ঘটনা উচ্চ আদালতের নজরে এনেছেন দুই জন আইনজীবী। তারা এই ‘জঘন্য ঘটনায়’ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানালে আদালত বেলা আড়াইটায় আদেশ দেয়ার কথা জানিয়েছে।

ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ সোমবার সকালে বিচারপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের বেঞ্চের নজরে আনেন নজরে আনেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না ও আব্দুল্লাহ আল মামুন। তারা এই ঘটনায় ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ দেন।

সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, ‘মাই লর্ড গতকাল রাতে আমি ফেসবুকে এ জঘন্য ঘটনার ভিডিও দেখিছি। এরূপ ঘটনা আগে কখনও দেখিনি। এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।’

বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীম বলেন, ‘নির্যাতনের ঘটনা ৩২ দিন পর ফেসবুকে আসার পর প্রশাসনের টনক নড়েছে। ফেসবুকে না আসলে এই ঘটনা গোপনই থেকে যেত।’

আগেরদিন ঘটনাটির ভিডিওটি ফেসবুকে ফাঁস হয়। এক মিনিট ৩৮ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে দেখা যায়, ভুক্তভোগী নারীটি নিজেকে রক্ষার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। তবে তাকে ঘিরে রেখে কয়েকজন পুরুষ ক্রমাগত মারধর করছেন।

ঘটনাটি ফাঁস হলে নোয়াখালীর পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন বেগমগঞ্জ থানাকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলেন। আর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আটক করে একজনকে।

পরে রাতে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রধান অভিযুক্ত বাদল ও দেলোয়ারসহ চারজনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

ভুক্তভোগী নারী এরই মধ্যে বেগমগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

শেয়ার করুন