৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ: মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগ

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ: মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগ

প্রতীকী ছবি

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষক নিয়োগে মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগের কিছু কপি এসেছে নিউজবাংলার হাতে। প্রার্থীরা বলছেন, মেধাক্রম যথাযথভাবে অনুসরণ না করেই ফল প্রকাশ করেছে এনটিআরসিএ।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষক নিয়োগের জন্য প্রকাশিত তৃতীয় গণনিয়োগ বিজ্ঞপ্তির ফলাফলে মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগে উঠেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে সুপারিশবঞ্চিত নিয়োগপ্রত্যাশীরা মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) কাছে লিখিত আবেদন জমা দিচ্ছেন।

এখন পর্যন্ত অভিযোগকারীর সংখ্যা দুই শতাধিক। চলমান লকডাউনের পর পুরোদমে অফিস চালু হলে এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন সুপারিশবঞ্চিত নিয়োগপ্রত্যাশীরা।

মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগের কিছু কপি এসেছে নিউজবাংলার হাতেও। প্রার্থীরা বলছেন, মেধাক্রম যথাযথভাবে অনুসরণ না করেই ফল প্রকাশ করেছে এনটিআরসিএ।

১৪তম ব্যাচের কৃষি শিক্ষায় নিবন্ধনধারী যশোরের তহমিনা খাতুন নিউজবাংলাকে বলেন, ‘সম্মিলিত মেধা তালিকায় আমার মেধাক্রম ৩৪০ এবং সিরিয়াল ৪০৪। আমি সাতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য আবেদন করে একটিতেও সুপারিশপ্রাপ্ত হইনি। কিন্তু আমার ৩ নং পছন্দের প্রতিষ্ঠান (যশোর) কেকেআর হাই স্কুলে যিনি সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন, তার মেধাক্রম ৪৩৯ এবং সিরিয়াল ৫১৭।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ ছাড়া খলসি আদর্শ গার্লস হাইস্কুলে যিনি সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন, তার মেধাক্রম ৪৩৯ এবং সিরিয়াল ৫৭০। যেখানে নিয়ম অনুযায়ী দুটি প্রতিষ্ঠানে আমার সুপারিশ পাওয়ার কথা। কিন্তু তা হয়নি।’

একই অভিযোগ ১২তম ব্যাচে ইংরেজি বিষয়ে নিবন্ধনধারী নিখিল চন্দ্র গোলদারেরও। তিনি বলেন, ‘সম্মিলিত মেধাতালিকায় আমার মেধাক্রম ৩০৮৩ এবং সিরিয়াল ৩৩৯৫। আমি মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার শশীকর উচ্চ বিদ্যালয়ে আবেদন করে নিয়োগ পাইনি। কিন্তু যে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন, তার মেধাক্রম ৪৬৬৫ এবং সিরিয়াল ৬০৪৪।’

বাগেরহাটের মোসা. আজমিরা খাতুনেরও একই অভিযোগ। তিনি বলেন, ‘আমি ১৫তম ব্যাচের ব্যবসায় শিক্ষায় একজন নিবন্ধনধারী। মোট আটটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আবেদন করেছি। এই আটটি প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনোটিতে মেধাক্রম অনুসরণ করা হয়নি।’

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ: মেধাক্রম লঙ্ঘনের অভিযোগ
শিক্ষক নিয়োগে মেধাক্রম লঙ্ঘনের একটি অভিযোগ

আজমিরা বলেন, ‘আমার মেধাক্রম ৩৭১। আমার প্রথম চয়েস (বাগেরহাটের) বরনি সাইরাবাদ এমএল হাই স্কুলে যিনি নিয়োগ পেয়েছেন তার মেধাক্রম ২৩৪০। এ ছাড়া আমার আবেদন করা অন্য সাতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও নিয়োগের ক্ষেত্রে মেধাক্রম অনুসরণ করা হয়নি। যারা নিয়োগ পেয়েছেন তাদের মেধাক্রম যথাক্রমে ২৩৪০, ৯৫৫, ২৩৪০, ১৫১৪, ৭০১, ২৩৪০ ও ১৫১৪।’

১৪তম ব্যাচের ভৌতবিজ্ঞান বিষয়ের নিবন্ধনধারী টাঙ্গাইলের সাইফুল ইসলাম জানান তিনিও মোট আটটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য আবেদন করেছেন। তার অভিযোগ, আটটি প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনোটিতেই মেধাক্রম অনুসরণ করা হয়নি।

সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আমার মেধাক্রম ৩৫৩৩ ও সিরিয়াল ৩৮১৬। কিন্তু আমার আবেদন করা প্রথম পছন্দ (টাঙ্গাইলের) লতিফপুর একতা উচ্চ বিদ্যালয়ে যিনি নিয়োগের সুপারিশ পেয়েছেন, তার মেধাক্রম ৪৯৭৬। আর বাকি সাতটিতেও যারা নিয়োগের সুপারিশ পেয়েছেন, তাদের মেধাক্রম যথাক্রমে ৪৩১৮, ৪৭২৯, ৪৭২৯, ৪৭২৯, ৪০০৯, ৪২৯৯ ও ৪৩১৮।’

নিউজবাংলার হাতে মেধাক্রম লঙ্ঘনের এমন অর্ধশতাধিক অভিযোগ এসেছে। সুপারিশবঞ্চিত এসব নিয়োগপ্রত্যাশীরা ফলাফল পুনর্বিবেচনা করে আবার নির্ভুলভাবে প্রকাশের আবেদন করেছেন।

তবে এ ধরনের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)।

তারা বলছে, এ ধরনের বেশ কিছু অভিযোগ যাচাই-বাছাই করে কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। ফল প্রকাশের যথাযথ প্রক্রিয়া না বুঝেই প্রার্থীরা এ রকম অভিযোগ করছেন। তারপরও যদি মেধাক্রম লঙ্ঘনের কোনো ঘটনা ঘটে থাকে, তাহলে তা তদন্ত করে সংশোধনের উদ্যোগ নেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএর সচিব ড. এ টি এম মাহবুব-উল করিম নিউজবাংলাকে বলেন, ‘এনটিআরসিএর তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশের পর বেশ কিছু অভিযোগ প্রার্থীরা করছেন। সেই অভিযোগগুলোর বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী, উপমন্ত্রী ও সচিব মহোদয়কে লিখিত আকারে তথ্যপ্রমাণসহ ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে অভিযোগগুলো সত্য নয়। প্রার্থীরা ফল প্রকাশের সঠিক প্রক্রিয়া না জেনেই অভিযোগ করছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি এনটিআরসিএর নিয়োগ-প্রক্রিয়া শতভাগ স্বচ্ছ। এরপরেও যারা অভিযোগ করছেন, তাদের কাছে আমার অনুরোধ লকডাউন শেষে অভিযোগগুলো এনটিআরসিএতে জমা দিন অথবা ই-মেইল করুন। আমরা অভিযোগগুলো যাচাই-বাছাই করে করব এবং সত্যতা পেলে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব। কেন তারা নিয়োগের সুপারিশ পাননি, সে বিষয়টিও তাকে জানিয়ে দেবো।’

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

মন্তব্য

১৬৫০ উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগ নিয়ে আপিল

১৬৫০ উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগ নিয়ে আপিল

২০ রিটের পরিপ্রেক্ষিতে জারি করা রুল বৃহস্পতিবার খারিজ করে দেয় হাইকোর্ট। ওই আদেশের পর আপিল বিভাগে আবেদন করেন রিটকারীরা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরে ১ হাজার ৬৫০ উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগ নিয়ে হাইকোর্টে খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল হয়েছে। শুনানির জন্য ২০ সেপ্টেম্বর দিন ঠিক করেছে চেম্বার আদালত।

শনিবার আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি ওবায়দুল হাসান এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী বিএম ইলিয়াস কচি। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ ও অ্যাটির্ন জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন ।

এ সংক্রান্ত ২০ রিটের পরিপ্রেক্ষিতে জারি করা রুল বৃহস্পতিবার খারিজ করে দেয় হাইকোর্ট। ওই আদেশের পর আপিল বিভাগে আবেদন করেন রিটকারীরা।

রিট থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি ১ হাজার ৬৫০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তার নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সব ধরনের পরীক্ষা শেষে ২০২০ সালের ১৭ জানুয়ারি ফল প্রকাশ করা হয়।

তবে এতে কোটা পদ্ধতি সঠিকভাবে অনুসরণ না করে প্রাথমিক ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে উল্লেখ করে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর আবেদন করেন মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নেয়া ৩৪ প্রার্থী।

পরে ফল না পেয়ে চাকরিপ্রার্থী ৩৪ জন রিট আবেদন করে। এরপর একে একে ২০ রিট হয়। সব রিটের শুনানি নিয়ে রুল জারি করেছে আদালত।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

শেরপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ১৪ নিয়োগ

শেরপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ১৪ নিয়োগ

প্রতি পদের জন্য ১০০ টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দিয়ে চালানের মূল কপি আবেদনপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে।

শূন্যপদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে শেরপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়। আগ্রহী প্রার্থীদের ১৭ অক্টোবরের মধ্যে ডাকে আবেদনপত্র পাঠাতে হবে।

১. পদের নাম: সাঁটলিপিকার কাম কম্পিউটার অপারেটর

পদের সংখ্যা: ৩টি

চাকরির গ্রেড: ১৩

বেতন স্কেল: ১১,০০০-২৬,৫৯০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক/সমমান

২. পদের নাম: সাঁটমুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর

পদের সংখ্যা: ৪টি

চাকরির গ্রেড: ১৪

বেতন স্কেল: ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক/সমমান

৩. পদের নাম: লাইব্রেরি সহকারী

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ১৬

বেতন স্কেল: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান

৪. পদের নাম: সার্টিফিকেট সহকারী

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ১৬

বেতন স্কেল: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান

৫. পদের নাম: হিসাব সহকারী

পদের সংখ্যা: ৫টি

চাকরির গ্রেড: ১৬

বেতন স্কেল: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/সমমান

প্রার্থীকে জন্মসূত্রে বাংলাদেশি এবং শেরপুরের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

২০২০ সালের ২৫ মার্চ প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে শারীরিক প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বয়স প্রমাণের ক্ষেত্রে অ্যাফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

প্রার্থীকে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে। ফরম পেতে এখানে ক্লিক করুন।

প্রতি পদের জন্য ১০০ টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে ১-০৭৪২-০০০০-২০৩১ নম্বর কোডে জমা দিয়ে চালানের মূল কপি আবেদনপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে।

আবেদনপত্রের সঙ্গে নিজ ঠিকানাসংবলিত ১৫ টাকার ডাকটিকিট যুক্ত ৯.৫ X ৪.৫ ইঞ্চি মাপের একটি ফেরত খাম দিতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ দিচ্ছে ৫৪ নিয়োগ

জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ দিচ্ছে ৫৪ নিয়োগ

আবেদনপত্র পূরণের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ১ থেকে ৬ নং পদের জন্য ৭০০ টাকা, ৭ ও ৮ নং পদের জন্য ৫০০ টাকা, ৯ থেকে ১২ নং পদের জন্য ১০০ টাকা এবং ১৩ নং পদের জন্য ৫০ টাকা টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল সংযোগের মাধ্যমে জমা দিতে হবে।

শূন্য পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (এনএসডিএ)। আগ্রহী প্রার্থীকে অনলাইনে ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

১. পদের নাম: সিস্টেম অ্যানালিস্ট

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৫

বেতন স্কেল: ৪৩,০০০-৬৯,৮৫০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

অভিজ্ঞতা: ৫ বছর

বয়স: সর্বোচ্চ ৪০ বছর

২. পদের নাম: প্রোগ্রামার

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৬

বেতন স্কেল: ৩৫,৫০০-৬৭,০১০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

অভিজ্ঞতা: ৪ বছর

বয়স: সর্বোচ্চ ৩৫ বছর

৩. পদের নাম: সহকারী পরিচালক

পদের সংখ্যা: ২১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

৪. পদের নাম: সহকারী প্রোগ্রামার

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

৫. পদের নাম: সহকারী মেইনটেন্যান্স ইঞ্জিনিয়ার

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

৬. পদের নাম: হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

৭. পদের নাম: সহকারী লাইব্রেরিয়ান

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ১০

বেতন স্কেল: ১৬,০০০-৩৮,৬৪০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

৮. পদের নাম: ব্যক্তিগত কর্মকর্তা

পদের সংখ্যা: ৪টি

চাকরির গ্রেড: ১১

বেতন স্কেল: ১২,৫০০-৩০,২৩০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

৯. পদের নাম: সাঁট মুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর

পদের সংখ্যা: ৪টি

চাকরির গ্রেড: ১৪

বেতন স্কেল: ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

১০. পদের নাম: ক্যাশিয়ার

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ১৪

বেতন স্কেল: ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

১১. পদের নাম: ভান্ডার রক্ষক

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ১৬

বেতন স্কেল: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

১২. পদের নাম: ডাটা এন্ট্রি অপারেটর

পদের সংখ্যা: ২টি

চাকরির গ্রেড: ১৬

বেতন স্কেল: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

১৩. পদের নাম: অফিস সহায়ক

পদের সংখ্যা: ১৫টি

চাকরির গ্রেড: ২০

বেতন স্কেল: ৮,২৫০-২০,০১০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি / সমমান

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

প্রার্থীকে বাংলাদেশের নাগরিক এবং বাংলাদেশের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

২০২০ সালের ২৫ মার্চ প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে শারীরিক প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বয়স প্রমাণের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

অনলাইনে ফরম পূরণ করতে এখানে ক্লিক করুন।

আবেদনপত্র পূরণের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ১ থেকে ৬ নং পদের জন্য ৭০০ টাকা, ৭ ও ৮ নং পদের জন্য ৫০০ টাকা, ৯ থেকে ১২ নং পদের জন্য ১০০ টাকা এবং ১৩ নং পদের জন্য ৫০ টাকা টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল সংযোগের মাধ্যমে জমা দিতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

১১ শিক্ষক নিচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

১১ শিক্ষক নিচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

মোট ৮ কপি আবেদনপত্র পাঠাতে হবে। প্রতি কপি ফরমের সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, ট্রান্সক্রিপ্ট / মার্কশিট, পজিশনের প্রমাণপত্র, অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট, জাতীয়তার সনদ, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে মুক্তিযুদ্ধের সার্টিফিকেটের কপি সংযুক্ত করতে হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন পদে শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। আগ্রহী প্রার্থীকে ৭ অক্টোবরের মধ্যে ডাকে আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

১. পদের নাম: সহযোগী অধ্যাপক

বিভাগ: আর্কিটেকচার

পদের সংখ্যা: ১টি

বেতন স্কেল: ৫০,০০০-৭১,২০০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

২. পদের নাম: সহযোগী অধ্যাপক

বিভাগ: ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রোপ্রসেসিং ইঞ্জিনিয়ারিং

পদের সংখ্যা: ১টি

বেতন স্কেল: ৫০,০০০-৭১,২০০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

৩. পদের নাম: সহকারী অধ্যাপক

বিভাগ: আর্কিটেকচার

পদের সংখ্যা: ১টি

বেতন স্কেল: ৩৫,৫০০-৬৭,০১০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

৪. পদের নাম: সহকারী অধ্যাপক

বিভাগ: ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রোপ্রসেসিং ইঞ্জিনিয়ারিং

পদের সংখ্যা: ১টি

বেতন স্কেল: ৩৫,৫০০-৬৭,০১০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

৫. পদের নাম: সহকারী অধ্যাপক

বিভাগ: উদ্ভিদবিজ্ঞান

পদের সংখ্যা: ১টি

বেতন স্কেল: ৩৫,৫০০-৬৭,০১০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

৬. পদের নাম: প্রভাষক

বিভাগ: আর্কিটেকচার

পদের সংখ্যা: ২টি

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

৭. পদের নাম: প্রভাষক

বিভাগ: ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রোপ্রসেসিং ইঞ্জিনিয়ারিং

পদের সংখ্যা: ২টি

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

৮. পদের নাম: প্রভাষক

বিভাগ: উদ্ভিদবিজ্ঞান

পদের সংখ্যা: ২টি

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

আবেদন ফি: ১,২০০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিজ্ঞপ্তি দেখুন

প্রার্থীকে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে। ফরম পেতে এখানে ক্লিক করুন।

মোট ৮ কপি আবেদনপত্র পাঠাতে হবে। প্রতি কপি ফরমের সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, ট্রান্সক্রিপ্ট / মার্কশিট, পজিশনের প্রমাণপত্র, অভিজ্ঞতার সার্টিফিকেট, জাতীয়তার সনদ, মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে মুক্তিযুদ্ধের সার্টিফিকেটের কপি সংযুক্ত করতে হবে।

খামের ওপরে পদের নাম উল্লেখ করতে হবে।

ঠিকানা: রেজিস্ট্রার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ-৮১০০।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

জয়পুরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নিয়োগ

জয়পুরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নিয়োগ

১ নং পদের জন্য ১০০ টাকা এবং ২ নং পদের জন্য ৫০ টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে ১-৪৬৩২-০০০১-২০৩১ নম্বর কোডে জমা দিয়ে চালানের মূল কপি আবেদনপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে।

জয়পুরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে শূন্য পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। আগ্রহী প্রার্থীকে ১৫ অক্টোবরের মধ্যে ডাকে আবেদনপত্র পাঠাতে হবে।

১. পদের নাম: অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ১৬

বেতন স্কেল: ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা

চাকরির ধরন: অস্থায়ী

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি / সমমান

২. পদের নাম: অফিস সহায়ক

পদের সংখ্যা: ২টি

চাকরির গ্রেড: ২০

বেতন স্কেল: ৮,২৫০-২০,০১০ টাকা

চাকরির ধরন: অস্থায়ী

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এসএসসি / সমমান

প্রার্থীকে বাংলাদেশের নাগরিক এবং জয়পুরহাট জেলার স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।

২০২০ সালের ২৫ মার্চ প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে শারীরিক প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বয়স প্রমাণের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

প্রার্থীকে নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে। ফরম পেতে এখানে ক্লিক করুন।

১ নং পদের জন্য ১০০ টাকা এবং ২ নং পদের জন্য ৫০ টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে ১-৪৬৩২-০০০১-২০৩১ নম্বর কোডে জমা দিয়ে চালানের মূল কপি আবেদনপত্রের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে।

আবেদনপত্রের সঙ্গে নিজ ঠিকানাসংবলিত ১৫ টাকার ডাকটিকিট যুক্ত ১০.৫ X ৪.৫ ইঞ্চি মাপের একটি ফেরত খাম দিতে হবে।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে এবং প্রবেশপত্রের ফরম পেতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

শিক্ষক নিচ্ছে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষক নিচ্ছে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

প্রার্থীকে ৩ অক্টোবরের মধ্যে আট সেট আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। শুধু ডাকে আবেদনপত্র পাঠানো যাবে।

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। আগ্রহী প্রার্থীকে ৩ অক্টোবরের মধ্যে ডাকে আবেদনপত্র পাঠাতে হবে।

১. পদের নাম: সহকারী অধ্যাপক

বিভাগ: ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৬

চাকরির ধরন: স্থায়ী

বেতন স্কেল: ৩৫,৫০০-৬৭,০১০ টাকা।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর

অভিজ্ঞতা: ৩ বছর

২. পদের নাম: প্রভাষক

বিভাগ: পরিসংখ্যান

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

চাকরির ধরন: স্থায়ী

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর

আগ্রহী প্রার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে। ফরম পেতে এখানে ক্লিক করুন।

সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের তিন কপি রঙিন ছবি, শিক্ষাগত যোগ্যতার সত্যায়িত কপি, জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধনের সত্যায়িত কপি, অভিজ্ঞতা সনদের সত্যায়িত কপি, প্রকাশনা ও প্রশিক্ষণসংশ্লিষ্ট সনদের সত্যায়িত কপি এবং ব্যাংক ড্রাফট অথবা পে-অর্ডারসহ আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

প্রতি পদের জন্য ৫০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট অথবা পে-অর্ডার পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুকূলে জনতা ব্যাংকের যেকোনো শাখা থেকে করতে হবে।

এ ছাড়া নিজ ঠিকানাসংবলিত ১০ টাকার ডাকটিকিটসহ একটি ফেরত খাম দিতে হবে।

যেকোনো পদের জন্য প্রার্থীকে ৩ অক্টোবরের মধ্যে আট সেট আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। শুধু ডাকে আবেদনপত্র পাঠানো যাবে।

চাকরিরত প্রার্থীদের যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। বিভাগীয় প্রার্থীরা অগ্রাধিকার পাবেন।

মুক্তিযোদ্ধা কোটার ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান প্রার্থীদের সর্বশেষ সরকারি নীতিমালা অনুসারে কর্তৃপক্ষের সনদপত্রসহ আবেদনপত্র দিতে হবে। এ ছাড়া প্রার্থীর পিতা-মাতার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দেয়া সনদের সত্যায়িত কপি দিতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবেদনপত্র বাছাইয়ের পর শুধু যোগ্য প্রার্থীদের লিখিত-মৌখিক পরীক্ষার জন্য ডাকবে। এ জন্য কোনো ধরনের টিএ-ডিএ দেয়া হবে না।

কোনো কারণ দর্শানো ছাড়াই কর্তৃপক্ষ এই বিজ্ঞপ্তি বাতিল বা সংশোধন করতে পারবে।

আবেদনপত্র পাঠানোর ঠিকানা: রেজিস্ট্রার, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজাপুর, পাবনা।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন

৬০ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নিচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন

৬০ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নিচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন

সব শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদের কপি, জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি, নাগরিকত্বের সনদের কপি, ৩ কপি পাসপোর্ট আকারের ছবিসহ আবেদনপত্র পাঠাতে হবে। সব কাগজপত্র প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা দ্বারা সত্যায়িত করতে হবে।

শূন্য পদে জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। আগ্রহী প্রার্থীকে ৭ অক্টোবরের মধ্যে ডাকে অথবা সরাসরি আবেদনপত্র পাঠাতে হবে।

১. পদের নাম: জনসংযোগ অফিসার কাম প্রটোকল অফিসার

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক / স্নাতকোত্তর

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

২. পদের নাম: ডাক্তার

প্রার্থীর ধরন: পুরুষ

পদের সংখ্যা: ১০টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এমবিবিএস

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৩. পদের নাম: ডাক্তার

প্রার্থীর ধরন: নারী

পদের সংখ্যা: ১১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এমবিবিএস

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৪. পদের নাম: প্যাথলজিস্ট

প্রার্থীর ধরন: পুরুষ

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: এমবিবিএস

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৫. পদের নাম: ম্যালেরিয়া ও মশক নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা

পদের সংখ্যা: ১টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতকোত্তর

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৬. পদের নাম: সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক)

পদের সংখ্যা: ২টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৭. পদের নাম: সহকারী প্রকৌশলী (পুর)

পদের সংখ্যা: ৩টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৮. পদের নাম: সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ)

পদের সংখ্যা: ৩টি

চাকরির গ্রেড: ৯

বেতন স্কেল: ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

৯. পদের নাম: সহকারী এস্টেট অফিসার

পদের সংখ্যা: ২টি

চাকরির গ্রেড: ১০

বেতন স্কেল: ১৬,০০০-৩৮,৬৪০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: স্নাতক (সম্মান) / এলএলবি

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

১০. পদের নাম: উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পুর)

পদের সংখ্যা: ৮টি

চাকরির গ্রেড: ১০

বেতন স্কেল: ১৬,০০০-৩৮,৬৪০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

১১. পদের নাম: উপ-সহকারী প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ)

পদের সংখ্যা: ৮টি

চাকরির গ্রেড: ১০

বেতন স্কেল: ১৬,০০০-৩৮,৬৪০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

১২. পদের নাম: উপ-সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক)

পদের সংখ্যা: ৫টি

চাকরির গ্রেড: ১০

বেতন স্কেল: ১৬,০০০-৩৮,৬৪০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

১৩. পদের নাম: ড্রাফটসম্যান

পদের সংখ্যা: ৫টি

চাকরির গ্রেড: ১০

বেতন স্কেল: ১৬,০০০-৩৮,৬৪০ টাকা

শিক্ষাগত যোগ্যতা: ডিপ্লোমা

আবেদন ফি: ১,০০০ টাকা

প্রার্থীর বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে শারীরিক প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান-পোষ্যদের ক্ষেত্রে বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বয়স প্রমাণের ক্ষেত্রে এফিডেভিট গ্রহণযোগ্য হবে না।

সব শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদের কপি, জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি, নাগরিকত্বের সনদের কপি, ৩ কপি পাসপোর্ট আকারের ছবিসহ আবেদনপত্র পাঠাতে হবে। সব কাগজপত্র প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা দ্বারা সত্যায়িত করা হতে হবে।

আবেদনপত্রের সঙ্গে নিজ ঠিকানা সম্বলিত ডাকটিকিট যুক্ত একটি ফেরত খাম দিতে হবে।

আবেদনপত্র পাঠানোর ঠিকানা: প্রধাণ নির্বাহী কর্মকর্তা, সংস্থাপন শাখা, চতুর্থ তলা, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, চট্টগ্রাম।

বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

আরও পড়ুন:
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের ফল আজ
৫৪ হাজার নিয়োগের ফল আদায়ে আন্দোলনের ‘হুমকি’
৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগ কবে?
২৫০০ নিবন্ধনধারী শিক্ষক নিয়োগে সুপারিশের আদেশ চেম্বারে বহাল

শেয়ার করুন