× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
Gunman attack on passenger bus in Pakistan kills 8
google_news print-icon

পাকিস্তানে যাত্রীবাহী বাসে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৮

পাকিস্তানে-যাত্রীবাহী-বাসে-বন্দুকধারীর-হামলা-নিহত-৮
বাসটি কারাকোরাম হাইওয়ে দিয়ে যাতায়াত করছিল। ছবি: রয়টার্স
কোনো গোষ্ঠী তাৎক্ষণিকভাবে এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

পাকিস্তানের চিলাস শহরের কাছে একটি বাসে বন্দুকধারীদের হামলায় আটজন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা ও আঞ্চলিক কর্মকর্তারা।

আঞ্চলিক সরকারের মুখপাত্র মুহাম্মদ আলী জোহরের বরাত দিয়ে রয়টার্সের রোববারের প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় একটি শহরে শনিবার সন্ধ্যায় দুর্বৃত্তরা বাসে হামলা চালায়।

গিলগিত-বালতিস্তান পুলিশের মুখপাত্র গোলাম আব্বাস ডিপিএ নিউজ এজেন্সিকে জানিয়েছেন, নিহতদের মধ্যে দুজন সেনাসদস্যও রয়েছেন।

আব্বাসের মতে, হামলায় আহতদের মধ্যে কিছু গুলিবিদ্ধও আছেন। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বাসটি কারাকোরাম হাইওয়ে দিয়ে যাতায়াত করছিল, যা বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু সড়কগুলোর একটি।

কোনো গোষ্ঠী তাৎক্ষণিকভাবে এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

আরও পড়ুন:
বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ছাত্রাবাসে হামলায় আহত ১৫
হামলায় বিধ্বস্ত গাজার ৬০ মসজিদ
সাংবাদিকের বাড়িতে হামলা, অস্ত্রসহ আটক ৪
গাজার প্রধান হাসপাতালে হামলা, মৃত্যুর প্রহর গুনছে ৩৯ শিশু
আগুন দেয়ার কথা স্বীকার করেছেন বিএনপি নেতারা: ডিবি প্রধান

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Trapped Indians fighting for Russia
বিবিসির প্রতিবেদন

ফাঁদে পড়ে রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধে ভারতীয়রা

ফাঁদে পড়ে রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধে ভারতীয়রা রাশিয়ার হয়ে যুদ্ধ করা ভারতীয় এক যুবক। ছবি: বিবিসি
রাশিয়ায় যাওয়া ভারতীয়দের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতারণার শিকার হওয়া এসব যুবকের বয়স ২২ থেকে ৩১ বছর। রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সহায়তা করার জন্য তাদের রাশিয়ায় নেন এজেন্টরা। পরবর্তী সময়ে প্রশিক্ষণের অজুহাতে তাদের যুদ্ধক্ষেত্রে পাঠানো হয়।

এজেন্টদের প্রতারণার ফাঁদে পড়ে কমপক্ষে ১২ জন ভারতীয় নাগরিক রাশিয়ার হয়ে ইউক্রেনের বিপক্ষে যুদ্ধ করছেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে জানানো হয়, রাশিয়ার হয়ে লড়া এসব ভারতীয় নাগরিকের একজন ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দুর বরাতে বিবিসির খবরে বলা হয়, গত সপ্তাহে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত হন ভারতের গুজরাট রাজ্য থেকে রাশিয়ায় যাওয়া হেমল অশ্বিনভাই।

হেমলের বাবা গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিবিসিকে জানান, তিন দিন আগে তিনি ছেলের সঙ্গে কথা বলেছিলেন।

ওই ব্যক্তি জানান, রাশিয়া সীমান্ত থেকে ২০ থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে ইউক্রেনের অভ্যন্তরে মোতায়েন করা হয় তার ছেলেকে। মোবাইল নেটওয়ার্ক পেলে কয়েক দিন পরপরই কল দিতেন হেমল।

এমন পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগে থাকা ভারতীয় পরিবারগুলো তাদের সন্তানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে সহযোগিতা চেয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের।

রাশিয়ায় যাওয়া ভারতীয়দের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতারণার শিকার হওয়া এসব যুবকের বয়স ২২ থেকে ৩১ বছর। রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর সদস্যদের সহায়তা করার জন্য তাদের রাশিয়ায় নেন এজেন্টরা। পরবর্তী সময়ে প্রশিক্ষণের অজুহাতে তাদের যুদ্ধক্ষেত্রে পাঠানো হয়।

রাশিয়ায় থাকা ভারতীয় সূত্রগুলো জানায়, রুশ সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছেন বিপুলসংখ্যক ভারতীয় নাগরিক।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র দ্য হিন্দুকে বলেছে, গত বছর রুশ সেনাবাহিনীতে নিয়োগকৃত ভারতীয়র প্রকৃত সংখ্যা প্রায় ১০০।

এ বিষয়ে জানতে দিল্লিতে রুশ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে বিবিসি, তবে তাদের পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, রাশিয়ার সেনাবাহিনীতে সহায়কের ভূমিকায় যুক্ত করা হয়েছে ভারতীয় কিছু নাগরিককে।

আরও পড়ুন:
দুর্ঘটনার ১০ দিন না যেতে সড়কেই প্রাণ গেল তেলেঙ্গানার বিধায়কের
ক্যানসারের উপাদান পাওয়ায় তামিলনাড়ুতে নিষিদ্ধ হাওয়াই মিঠাই
রাশিয়া সংশ্লিষ্ট ৫ শতাধিক লক্ষ্যবস্তুকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র
ভোটের প্রচারে বাড়ি বাড়ি গিয়ে গর্ভনিরোধক বিতরণ
ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে রাহুলের মন্তব্যের নিন্দা সংগীতশিল্পীর

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The driver went down to have tea when the train ran at a speed of 90 km

চা খেতে নেমেছিলেন চালক, ৯০ কিলোমিটার গতিতে ছুটল ট্রেন

চা খেতে নেমেছিলেন চালক, ৯০ কিলোমিটার গতিতে ছুটল ট্রেন
ইঞ্জিন চালু রেখেই চা খেতে নেমেছিলেন পাথরবোঝাই ওই ট্রেনের চালক। প্রায় ৮০ কিলোমিটার যাওয়ার পর অবশেষে এটিকে থামানো সম্ভব হয়। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

হলিউডি সিনেমা ‘আনস্টপএবল’-এরই যেন পুনারাবৃত্তি ঘটল ভারতে, চালক ছাড়াই চলতে শুরু করল ট্রেন। ৯০ কিলোমিটার গতি ছুটে চল পণ্যবাহী ট্রেনটিকে অবশেষে ঠেকানো সম্ভব হয়েছে।

রোববার জম্মুর কাঠুয়া থেকে পাঞ্জাবের হশিয়ারপুর যাওয়ার পথে ট্রেনটি এমন বিপত্তি ঘটিয়েছে বলে টাইমস অফ ইন্ডিয়ার সোমবারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিবেদন বলছে, ইঞ্জিন চালু রেখেই চা খেতে নেমেছিলেন পাথরবোঝাই ওই ট্রেনের চালক। প্রায় ৮০ কিলোমিটার যাওয়ার পর অবশেষে এটিকে থামানো সম্ভব হয়। এতে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

এরই মধ্যে ট্রেনটির দুজন চালকসহ ছয়জনকে বরখাস্ত করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে চালকবিহীন ট্রেনের ছুটে চলার ভিডিও।

একজন কর্মকর্তা বলেছেন, চালক চা খেতে নেমেছিলেন স্টেশনে। তবে ইঞ্জিন চালু থাকায় এটি চলতে শুরু করে। থামাতে থামাতে ট্রেনটি ৮০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে।

ফিরোজপুর বিভাগী রেলওয়ে ম্যানেজার সঞ্জয় শাহু বলেন, সকালে ওই ঘটনা ঘটার সময় ট্রেন লাইনে সব ট্রেন বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। ছয়জনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:
বগি লাইনচ্যুত, রংপুর-পার্বতীপুরের ট্রেন বন্ধ
৪০ দিন পর ট্রেনে দগ্ধ চারজনের মরদেহ হস্তান্তর
মেট্রো ট্রেন শনিবার থেকে চলবে ৮ মিনিট পর পর

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
There is no restriction on Hindu prayers at Gnanabapi Masjid

জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুদের প্রার্থনায় বাধা নেই

জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুদের প্রার্থনায় বাধা নেই জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুদের প্রার্থনায় বাধা নেই। ছবি: পিটিআই
৩১ জানুয়ারির রায়ের পরেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ২ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় মসজিদ কমিটি। শীর্ষ আদালত আবেদন শুনতে না চেয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টে যেতে বলে। তার দুই ঘণ্টার মধ্যে আবেদন জমা পড়ে হাইকোর্টে। আজ এর রায় ঘোষণা করা হলো।

ভারতের উত্তর প্রদেশে জ্ঞানবাপী মসজিদের ভেতরে হিন্দুদের প্রার্থনা করার অনুমতির বিষয়ে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টে করা মসজিদ কমিটির আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে আদালত। অর্থাৎ হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা মসজিদের ভূগর্ভস্থ কক্ষটিতে প্রার্থনা চালিয়ে যেতে পারবে।

এনডিটিভির সোমবারের প্রতিবেদনে বিষয়টি জানানো হয়।

এর আগে ৩১ জানুয়ারি ভারতের উত্তর প্রদেশে জ্ঞানবাপী মসজিদের ভূগর্ভস্থ কক্ষে হিন্দুদের প্রার্থনা করার অনুমতি দিয়েছিল বারানসি জেলা আদালত। রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে মসজিদ কমিটি। সেই রায় ঘোষণার দিন ধার্য হয় সোমবার।

মসজিদটির ভূগর্ভে চারটি ‘তেখানা’ বা সেলার রয়েছে। সেখানে একজন পুরোহিতদের পরিবার বসবাস করছে।

পরিবারের দাবি, ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত বংশগত পুরোহিত হিসেবে তাদের পূজা করার অনুমতি দেয়া হয়েছিল। এরপর সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা, অশান্তির কারণে তৎকালীন মুলায়ম সিং সরকার পূজার অনুমতি বাতিল করে দেয়।

মসজিদের বেসমেন্টে উপাসনা করার অনুমতি চেয়ে পিটিশন দায়ের করেছিলেন কয়েকজন হিন্দু ধর্মাবলম্বী। এরপর বেসমেন্টে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের পূজা করার অনুমতি দেয় সেখানকার একটি আদালত।

মসজিদ কমিটির দাবি, সেলারে কোনো মূর্তি নেই। তাই ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত সেখানে হিন্দু প্রার্থনা করার কোনো প্রশ্ন আসে না।

৩১ জানুয়ারির রায়ের পরেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ২ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় মসজিদ কমিটি। শীর্ষ আদালত আবেদন শুনতে না চেয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টে যেতে বলে। তার দুই ঘণ্টার মধ্যে আবেদন জমা পড়ে হাইকোর্টে। আজ এর রায় ঘোষণা করা হলো।

আরও পড়ুন:
ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে রাহুলের মন্তব্যের নিন্দা সংগীতশিল্পীর
যেভাবে ভারতে পাঠানো হলো বন্য দুই হাতিকে
নিজস্ব মুদ্রায় ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যে আগ্রহ প্রধানমন্ত্রীর
দিল্লি অভিমুখে লক্ষাধিক কৃষক, আটকাতে সড়কে কংক্রিটের দেয়াল
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Allahabad High Court verdict on Hindu prayer at Gnanabapi Masjid on Monday

জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুদের প্রার্থনা নিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায় সোমবার

জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দুদের প্রার্থনা নিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায় সোমবার জ্ঞানবাপী মসজিদে হিন্দু প্রার্থনা নিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্ট রায় দেবে আজ। ছবি: এনডিটিভি
৩১ জানুয়ারির রায়ের পরেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ২ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় মসজিদ কমিটি। শীর্ষ আদালত আবেদন শুনতে না চেয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টে যেতে বলে। তার দুই ঘণ্টার মধ্যে আবেদন জমা পড়ে হাইকোর্টে।

ভারতের উত্তর প্রদেশে একটি মসজিদের ভেতরে হিন্দুদের প্রার্থনা করার অনুমতি দিয়েছিল বারানসি জেলা আদালত। রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে আবেদন করে মসজিদ কমিটি। আজ সেই রায় ঘোষণা করবে এলাহাবাদ হাইকোর্ট।

এনডিটিভির সোমবারের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের বারানসির জ্ঞানবাপী মসজিদের একটি সেলারে হিন্দু প্রার্থনার অনুমতি দেয়ার বারানসি জেলা আদালতের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে একটি পিটিশনের ওপর তার রায় দেবে এলাহাবাদ হাইকোর্ট।

মসজিদের ভূগর্ভস্থ কক্ষে হিন্দুরা পূজা-অর্চনা করতে পারবে বলে ৩১ জানুয়ারি রায় দেয় বারনসির আদালত।

মসজিদটির ভূগর্ভে চারটি ‘তেখানা’ বা সেলার রয়েছে। সেখানে একজন পুরোহিতদের পরিবার বসবাস করছে।

পরিবারের দাবি, ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত বংশগত পুরোহিত হিসেবে তাদের পূজা করার অনুমতি দেয়া হয়েছিল। এরপর সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা, অশান্তির কারণে তৎকালীন মুলায়ম সিং সরকার পূজার অনুমতি বাতিল করে দেয়।

মসজিদের বেসমেন্টে উপাসনা করার অনুমতি চেয়ে পিটিশন দায়ের করেছিলেন কয়েকজন হিন্দু ধর্মাবলম্বী। এরপর বেসমেন্টে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের পূজা করার অনুমতি দেয় সেখানকার একটি আদালত।

মসজিদ কমিটির দাবি, সেলারে কোনো মূর্তি নেই। তাই ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত সেখানে হিন্দু প্রার্থনা করার কোনো প্রশ্ন আসে না।

৩১ জানুয়ারির রায়ের পরেই চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ২ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় মসজিদ কমিটি। শীর্ষ আদালত আবেদন শুনতে না চেয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টে যেতে বলে। তার দুই ঘণ্টার মধ্যে আবেদন জমা পড়ে হাইকোর্টে। আজ এর রায় ঘোষণা।

আরও পড়ুন:
যেভাবে ভারতে পাঠানো হলো বন্য দুই হাতিকে
নিজস্ব মুদ্রায় ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যে আগ্রহ প্রধানমন্ত্রীর
দিল্লি অভিমুখে লক্ষাধিক কৃষক, আটকাতে সড়কে কংক্রিটের দেয়াল
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার
অজিত দোভালের ঢাকা সফর নিয়ে যা বলল দিল্লি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Assams decision to repeal the Muslim Marriage Act

মুসলিম বিয়ে ও তালাক আইন বাতিলের সিদ্ধান্ত আসামের

মুসলিম বিয়ে ও তালাক আইন বাতিলের সিদ্ধান্ত আসামের আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা। ছবি: পিটিআই
পর্যটনমন্ত্রী জয়ন্ত মল্ল বড়ুয়ার দাবি, ১৯৩৫ সালের মুসলিম বিয়ে ও তালাক নিবন্ধন আইনের আওতায় আইনিভাবে নির্দিষ্ট বিয়ের বয়সের আগেই তরুণ-তরুণীদের বিয়ে দেয়া হচ্ছিল। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ওই আইনটি বাতিল করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এটি বাল্যবিয়ের সংখ্যা কমিয়ে আনতে ভূমিকা রাখবে।

ইউনিফর্ম সিভিল কোড বা অভিন্ন দেওয়ানি বিধি কার্যকরের মাধ্যমে প্রায় ৯০ বছরের পুরোনো মুসলিম বিয়ে ও তালাক নিবন্ধন আইন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের আসাম সরকার।

১৯৩৫ সালের এ আইন বাতিলের সিদ্ধান্তে শুক্রবার আসামের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভা চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

ভারতের স্বাধীনতার পর দেশটির প্রথম রাজ্য হিসেবে কিছুদিন আগে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি বা ইউনিফর্ম সিভিল কোড পাস করিয়ে নেয় উত্তরাখণ্ডের বিজেপি সরকার। আসামের এ সিদ্ধান্তের মাধ্যমে অভিন্ন দেওয়ানি বিধি কার্যকরের দিকে বিজেপি সরকার আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর শুক্রবার আসামের পর্যটনমন্ত্রী জয়ন্ত মল্ল বড়ুয়া বলেন, ‘আমাদের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা ইতোমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন অভিন্ন দেওয়ানি বিধি কার্যকর করবে আসাম। আর ১৯৩৫ সালের মুসলিম বিয়ে ও তালাক নিবন্ধন আইন বাতিল করে দিয়ে সেই লক্ষ্যপূরণের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হল।’

তিনি বলেন, ‘এ সিদ্ধান্তের ফলে এবার থেকে আসামে আর মুসলিমদের বিয়ে এবং ডিভোর্সের বিষয়টি এ আইনের মাধ্যমে নথিভুক্ত করা যাবে না। আমাদের ইতোমধ্যে একটি স্পেশাল ম্যারেজ অ্যাক্ট আছে; আমরা চাই যে সেই আইনের আওতায় সব বিয়ে নথিভুক্ত হোক।’

পর্যটনমন্ত্রী জয়ন্ত মল্ল বড়ুয়ার দাবি, ১৯৩৫ সালের মুসলিম বিয়ে ও তালাক নিবন্ধন আইনের আওতায় আইনিভাবে নির্দিষ্ট বিয়ের বয়সের আগেই তরুণ-তরুণীদের বিয়ে দেয়া হচ্ছিল। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ওই আইনটি বাতিল করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এটি বাল্যবিয়ের সংখ্যা কমিয়ে আনতে ভূমিকা রাখবে।

অভিন্ন দেওয়ানি বিধি বা ইউনিফর্ম সিভিল কোড হচ্ছে ভারতে নাগরিকদের ব্যক্তিগত আইন প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের প্রস্তাব, যা সব নাগরিকের ক্ষেত্রে তাদের ধর্ম নির্বিশেষে সমানভাবে প্রযোজ্য হবে।

আরও পড়ুন:
নিজস্ব মুদ্রায় ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যে আগ্রহ প্রধানমন্ত্রীর
দিল্লি অভিমুখে লক্ষাধিক কৃষক, আটকাতে সড়কে কংক্রিটের দেয়াল
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার
অজিত দোভালের ঢাকা সফর নিয়ে যা বলল দিল্লি
ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরল ২৫ নারী-পুরুষ ও শিশু

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The Telangana MLA who died in the accident had survived a car accident 10 days ago

দুর্ঘটনার ১০ দিন না যেতে সড়কেই প্রাণ গেল তেলেঙ্গানার বিধায়কের

দুর্ঘটনার ১০ দিন না যেতে সড়কেই প্রাণ গেল তেলেঙ্গানার বিধায়কের ভারতের তেলেঙ্গানার বিধায়ক ছিলেন ৩৭ বছর বয়সী লাস্য নন্দিতা। ছবি: এনডিটিভি
১০ দিন আগে তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী রেভান্থ রেড্ডির জনসভায় অংশ নিতে গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন নন্দিতা। ওই সময় মাতাল এক চালক তার গাড়িটিকে ধাক্কা দেয়। সেই দুর্ঘটনায় নন্দিতার বাড়ির রক্ষী নিহত হলেও এ বিধায়ক সামান্য আহত হয়েছিলেন।

ভারতের হায়দরাবাদে শুক্রবার সড়ক ‍দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন তেলেঙ্গানার বিধায়ক (এমএলএ) লাস্য নন্দিতা।

ভারত রাষ্ট্র সমিতির (বিআরএস) এ নেত্রী মাত্র ১০ দিন আগে তেলেঙ্গানার নারকেটপল্লি এলাকায় একটি দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে গিয়েছিলেন বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমটি জানায়, শুক্রবার লাস্য নন্দিতাকে বহনকারী স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিক্যাল তথা এসইউভিটি ধাক্কা খায় একটি রোড ডিভাইডারে। এতে প্রাণ হারান ৩৭ বছর বয়সী বিধায়ক।

এর ১০ দিন আগে তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী রেভান্থ রেড্ডির জনসভায় অংশ নিতে গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন নন্দিতা। ওই সময় মাতাল এক চালক তার গাড়িটিকে ধাক্কা দেয়। সেই দুর্ঘটনায় নন্দিতার বাড়ির রক্ষী নিহত হলেও এ বিধায়ক সামান্য আহত হয়েছিলেন।

সর্বশেষ শুক্রবার তেলেঙ্গানার এমএলএকে বহনকারী মারুতি এক্সএলসিক্স গাড়িটির চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হায়দরাবাদের আউটার রিং রোডের ডিভাইডারে ধাক্কা দেন। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন লাস্য নন্দিতা। তার গাড়ির চালকের অবস্থা গুরুতর, যাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বেসরকারি একটি হাসপাতালে।

দুর্ঘটনার পর নন্দিতাকে সেকেন্দ্রাবাদ ক্যান্টনমেন্ট (এসসি) এলাকার একটি হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানকার চিকিৎসক তাকে মৃত বলে জানান।

হায়দরাবাদে ১৯৮৬ সালে জন্মগ্রহণ করেন লাস্য নন্দিতা, যিনি রাজনীতিতে প্রবেশ করেন এক দশক আগে। ২০২৩ সালে অনুষ্ঠিত তেলেঙ্গানা বিধানসভা নির্বাচনে সেকেন্দ্রাবাদ ক্যান্টনমেন্ট আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে এমএলএ নির্বাচিত হন তিনি।

আরও পড়ুন:
দিল্লি অভিমুখে লক্ষাধিক কৃষক, আটকাতে সড়কে কংক্রিটের দেয়াল
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার
অজিত দোভালের ঢাকা সফর নিয়ে যা বলল দিল্লি
ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরল ২৫ নারী-পুরুষ ও শিশু
পররাষ্ট্রমন্ত্রী নয়াদিল্লিতে, জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক বুধবার

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Hawaii Sweets Banned In Tamil Nadu Due To Cancer Content

ক্যানসারের উপাদান পাওয়ায় তামিলনাড়ুতে নিষিদ্ধ হাওয়াই মিঠাই

ক্যানসারের উপাদান পাওয়ায় তামিলনাড়ুতে নিষিদ্ধ হাওয়াই মিঠাই প্রতীকী ছবি
তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রী মা সুব্রামানিয়ান গত সপ্তাহে একটি বিবৃতিতে বলেছিলেন, ল্যাব পরীক্ষায় ক্যান্ডিতে যুক্ত কৃত্রিম রঙে রোডামাইন-বি উপস্থিতি পাওয়া গেছে, যা ভারতের ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ডস অ্যাক্ট ২০০৬-এর বিধান অনুযায়ী ‘নিম্নমান’ এবং ‘অনিরাপদ’ খাদ্য বলে নিশ্চিত করা হয়েছে।

তামিলনাড়ুসহ ভারতের কিছু রাজ্যে ক্যান্ডি ফ্লস (হাওয়াই মিঠাই) নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জনপ্রিয় মিষ্টি স্বাদের এ খাবারে কৃত্রিম রঞ্জক পদার্থে ক্যানসার সৃষ্টিকারী উপাদান পাওয়া গেছে বলে দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিপেনডেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, ল্যাব পরীক্ষায় এ খাবারটিটে ক্যানসার সৃষ্টিকারী উপাদান ‘রোডামাইন-বি’ পাওয়া গেছে।

ইতোমধ্যে দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ুর গত সপ্তাহে মিষ্টির বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে। অন্য রাজ্যগুলোও শিশুদের কাছে জনপ্রিয় এ ক্যান্ডি পরীক্ষা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রী মা সুব্রামানিয়ান গত সপ্তাহে একটি বিবৃতিতে বলেছিলেন, ল্যাব পরীক্ষায় ক্যান্ডিতে যুক্ত কৃত্রিম রঙে রোডামাইন-বি উপস্থিতি পাওয়া গেছে, যা ভারতের ফুড সেফটি অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ডস অ্যাক্ট ২০০৬-এর বিধান অনুযায়ী ‘নিম্নমান’ এবং ‘অনিরাপদ’ খাদ্য বলে নিশ্চিত করা হয়েছে।

ইন্ডিপেনডেন্টের প্রতিবেনে বলা হয়, ক্যানসারের ঝুঁকির সম্পৃক্ততা থাকায় রোডামাইন-বি ইউরোপ ও ক্যালিফোর্নিয়ায় খাদ্য পণ্যে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

চেন্নাইয়ের ফুড সেফটি ডিপার্টমেন্টের মনোনীত অফিসার পি সতীশ কুমার ‘দ্য হিন্দুকে’ বলেন, ‘এটি (রোডোমিন-বি) চামড়ার রঙের পাশাপাশি কাগজের মুদ্রণেও ব্যবহৃত হয়। এটি খাদ্য রঙের জন্য ব্যবহার করা যাবে না, এটির তাৎক্ষণিক এবং দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্যের ঝুঁকি রয়েছে।’

জনস্বাস্থ্য রক্ষায় অন্ধ্রপ্রদেশ এবং দিল্লিও হাওয়াই মিঠাই নিষিদ্ধ করার কথা ভাবছে।

ন্যাশনাল লাইব্রেরি অফ মেডিসিন ওয়েবসাইট অনুসারে, দীর্ঘদিন রোডামাইন-বি গ্রহণের ফলে যকৃত অচল হয় বা ক্যানসারের দিকে পরিচালিত করে এবং যখন অল্প সময়ের জন্য বেশি পরিমাণে গ্রহণ করা করা হয়, তখন এটি তীব্র বিষক্রিয়া তৈরি করে।

আরও পড়ুন:
ভারত থেকে দেড় লাখ টন পেঁয়াজ চিনি কিনতে চায় সরকার
অজিত দোভালের ঢাকা সফর নিয়ে যা বলল দিল্লি
ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরল ২৫ নারী-পুরুষ ও শিশু
পররাষ্ট্রমন্ত্রী নয়াদিল্লিতে, জয়শঙ্করের সঙ্গে বৈঠক বুধবার
ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছাড়ার পরই গ্রেপ্তার হেমন্ত

মন্তব্য

p
উপরে