× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
3 Palestinian students shot dead in US
google_news print-icon

যুক্তরাষ্ট্রে ৩ ফিলিস্তিনি ছাত্র গুলিবিদ্ধ

যুক্তরাষ্ট্রে-৩-ফিলিস্তিনি-ছাত্র-গুলিবিদ্ধ
যুক্তরাষ্ট্রের ভারমন্টে শনিবার তিন ফিলিস্তিনি ছাত্রকে গুলি করা হয়। ছবি: সিএনএন
ঘটনার সময় তিন ছাত্র কেফিয়্যাহ পরা অবস্থায় ছিলেন এবং তারা আরবিতে কথা বলছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ভারমন্টের বার্লিংটনে তিন ফিলিস্তিনি ছাত্রকে গুলি করা হয়েছে।

বার্লিংটন পুলিশ বিভাগের বরাত দিয়ে সোমবার সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারমন্ট বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের কাছে স্থানীয় সময় শনিবার ২০ বছর বয়সী তিন যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে নেয়া হয়। তাদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা স্থিতিশীল হলেও একজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

ঘটনার সময় তিন ছাত্র কেফিয়্যাহ পরা অবস্থায় ছিলেন এবং তারা আরবিতে কথা বলছিলেন।

গুলিবিদ্ধ তিনজন হলেন হিশাম আওয়ারতানি, তাহসিন আহমেদ ও কিন্নান আবদালহামিদ। তারা রামাল্লা ফ্রেন্ডস স্কুলের ছাত্র।

ছাত্রদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, থ্যাংকস গিভিংয়ের ছুটিতে বার্লিংটনে এক আত্মীয়র সঙ্গে দেখা করার জন্য প্রসপেক্ট স্ট্রিট দিয়ে যাচ্ছিলেন তারা। ওই সময় একজন শ্বেতাঙ্গ ব্যক্তি কিছু না বলেই পিস্তল বের করে অন্তত চার রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যান।

গুলিবিদ্ধ তিনজনের মধ্যে দুজন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক এবং একজন বৈধ বাসিন্দা।

পুলিশ প্রধান জন মুরাদ জানান, সন্দেহভাজন হামলাকারীকে শনাক্ত বা গ্রেপ্তার করা হয়নি, পুলিশ তাদের খুঁজছে।

বিবিসির তথ্য অনুযায়ী, গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েল-হামাস সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর থেকে নানা ইসলামোফোবিক ঘটনা বৃদ্ধির মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রে এই হামলার ঘটনা ঘটল।

আরও পড়ুন:
‘শ্রমঅধিকার রক্ষাকারীদের ওপর হামলা হলে ভিসা নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র’
বাংলাদেশে অবাধ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরির তাগিদ যুক্তরাষ্ট্রের
মিছিল আগুন গুলি, অগ্নিগর্ভ সিলেট
বাংলাদেশে সহিংসতামুক্ত নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র
সংলাপের চিঠি নিয়ে প্রশ্নের জবাবে যা বলল যুক্তরাষ্ট্র

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Canada plans to airlift aid to Gaza

গাজায় বিমান থেকে ত্রাণসামগ্রী ফেলার চিন্তা কানাডার

গাজায় বিমান থেকে ত্রাণসামগ্রী ফেলার চিন্তা কানাডার গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফাহতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ত্রাণসামগ্রী ফেলে জর্ডানের বিমান। ছবি: রয়টার্স
গাজায় ইসরায়েলের স্থল অভিযান শুরুর পর উপত্যকার জনগণের সহায়তায় ১০ কোটি কানাডিয়ান ডলার দিয়েছে অটোয়া। দেশটি শুধু জানুয়ারিতেই দিয়েছে চার কোটি ডলার।

ইসরায়েলের সঙ্গে গাজার শাসক দল হামাসের যুদ্ধে অবরুদ্ধ উপত্যকাটিতে বিমান থেকে মানবিক সহায়তার সামগ্রী ফেলার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন কানাডার আন্তর্জাতিক উন্নয়ন মন্ত্রী আহমেদ হুসেন।

মন্ত্রীর বরাত দিয়ে আল জাজিরা বৃহস্পতিবার জানায়, জর্ডানের মতো সমমনা দেশকে সঙ্গে নিয়ে গাজায় আকাশ থেকে ত্রাণসামগ্রী ছুড়তে চায় উত্তর আমেরিকার দেশটি।

সংবাদমাধ্যমটির খবরে জানানো হয়, গত সপ্তাহে মিসর ও জর্ডান সফর করা হুসেন বলেন, মিসরের রাফাহ সীমান্তে ত্রাণসামগ্রীবাহী ট্রাককে প্রয়োজনের বেশি সময় ধরে আটকে রাখছে ইসরায়েল, যার অর্থ হলো গাজায় প্রয়োজনের ধারেকাছেও সহায়তা প্রবেশ করছে না।

গাজায় ইসরায়েলের স্থল অভিযান শুরুর পর উপত্যকার জনগণের সহায়তায় ১০ কোটি কানাডিয়ান ডলার দিয়েছে অটোয়া। দেশটি শুধু জানুয়ারিতেই দিয়েছে চার কোটি ডলার।

কানাডার আন্তর্জাতিক উন্নয়ন মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি মাত্র ওই অঞ্চল (মধ্যপ্রাচ্য) থেকে ফিরে এসেছি এবং কানাডার সহায়তা ব্যবধান গড়ছে।’

আরও পড়ুন:
ইসরায়েলি হামলায় গাজায় নিহত বেড়ে ২৯ হাজার ৪১০
ইসরায়েলের দখলের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ শীর্ষ আদালতে শুনানি শুরু
ইসরায়েলের হামলায় নিহতের সংখ্যা ২৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে
রাফাহতে ইসরায়েলের আসন্ন অভিযানকে ‘আমাদের’ বললেন বাইডেন
গাজায় নিহত বেড়ে ২৮ হাজার ৩৪০

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
New York Times claims OpenAI hacked ChatGPT

চ্যাটজিপিটি ‘হ্যাক’ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস, দাবি ওপেনএআইয়ের

চ্যাটজিপিটি ‘হ্যাক’ করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস, দাবি ওপেনএআইয়ের ওপেনএআইয়ের লোগো। ছবি: সংগৃহীত
চ্যাটজিপিটি তাদের ব্যবহারকারীদের তথ্য সরবরাহ করার জন্য চ্যাটবটকে প্রশিক্ষণ দিতে অনুমতি ছাড়াই নিউ ইয়র্ক টাইমসের আর্টিকেল ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ এনে গত ডিসেম্বরে ওপেনএআই ও এর বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের বিরুদ্ধে মামলা করে যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যমটি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি খাতের আলোচিত প্রতিষ্ঠান ওপেনএআই আদালতে তাদের বিরুদ্ধে করা নিউ ইয়র্ক টাইমসের কপিরাইট বা মেধাস্বত্ব লঙ্ঘনের মামলাটি খারিজ করতে বলেছে। ওপেনএআইয়ের দাবি, মামলার জন্য বিভ্রান্তিকর প্রমাণ তৈরি করতে সংবাদমাধ্যমটি চ্যাটবট চ্যাটজিপিটি এবং অন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সিস্টেম ‘হ্যাক’ করেছে।

ওপেনএআই সোমবার ম্যানহাটন ফেডারেল আদালতে এ দাবি করে বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়।

চ্যাটজিপিটি তাদের ব্যবহারকারীদের তথ্য সরবরাহ করার জন্য চ্যাটবটকে প্রশিক্ষণ দিতে অনুমতি ছাড়াই নিউ ইয়র্ক টাইমসের আর্টিকেল ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ এনে গত ডিসেম্বরে ওপেনএআই ও এর বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের বিরুদ্ধে মামলা করে যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যমটি।

মামলায় বলা হয়, শতকোটি ডলারের বেশি ক্ষতির জন্য ওপেনএআই ও মাইক্রোসফটকে দায়ী করা উচিত। চ্যাটজিপিটির এ কাজের জন্য পাঠকরা অর্থ প্রদান ছাড়াই নিউ ইয়র্ক টাইমসের আর্টিকেল পেয়ে যেতে পারেন। অর্থাৎ, নিউ ইয়র্ক টাইমস সাবস্ক্রিপশনের পাশাপাশি বিজ্ঞাপনে পাঠকের ক্লিক থেকে আয় হারাচ্ছে।

ওপেনএআই ম্যানহাটন ফেডারেল আদালতে বলেছে, টাইমসের এ অভিযোগ তাদের সাংবাদিকতার মানদণ্ড পরিপন্থি। এ ক্ষেত্রে যে সত্যটি বেরিয়ে আসবে, তা হলো টাইমস চ্যাটজিপিটি হ্যাক করার জন্য কাউকে অর্থ প্রদান করেছে।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিনিধিরা এ বিষয়ে এখনও কোনো সাড়া দেননি।

টাইমস এর আগেও অনেক টেক কোম্পানির বিরুদ্ধে কপিরাইট লঙ্ঘনের মামলা করেছে। এ ছাড়াও এ তালিকায় রয়েছে লেখক, ভিজ্যুয়াল শিল্পী এবং সঙ্গীত প্রকাশকদের গ্রুপ।

আরও পড়ুন:
চাকরি ফিরে পেয়েছেন চ্যাটজিপিটির উদ্ভাবক স্যাম
চ্যাটজিপিটির নামে মামলা ‘গেম অফ থ্রোনস’ লেখকের

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Biden hopes for a ceasefire in Gaza soon

গাজায় শিগগিরই যুদ্ধবিরতির আশা বাইডেনের

গাজায় শিগগিরই যুদ্ধবিরতির আশা বাইডেনের ফিলিস্তিনের গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফাহতে ইসরায়েলি বোমায় গুঁড়িয়ে যাওয়া আল-ফারুক মসজিদের পাশ দিয়ে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি যাচ্ছিল গাধাচালিত একটি গাড়ি। ছবি: এএফপি
নিউ ইয়র্কে সফরের সময় বাইডেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা আমাকে বলেছেন যে, আমরা (চুক্তির) কাছাকাছি। আমরা কাছাকাছি। আমরা এখনও সম্পন্ন করতে পারিনি।’

ফিলিস্তিনের গাজায় উপত্যকার শাসক দল হামাসের সঙ্গে ইসরায়েলের যুদ্ধে আগামী শনি থেকে সোমবারের মধ্যে বিরতি শুরু হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

কাতারে যুদ্ধবিরতি ও হামাসের হাতে বন্দি ইসরায়েলিদের মুক্তির আলোচনায় বিবাদমান দুটি পক্ষ চুক্তির কাছাকাছি পৌঁছার মধ্যে সোমবার এ আশার কথা জানান যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, কাতারে একই শহরে মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে ইসরায়েল ও হামাসের আলাদা আলাদা বৈঠকের অর্থ হলো দরকষাকষি যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি এগিয়েছে।

এর আগে ফেব্রুয়ারির শুরুতে যুদ্ধবিরতি নিয়ে বড় ধরনের তৎপরতা শুরু হয়। সে সময় সাড়ে চার মাস যুদ্ধবিরতির জন্য হামাসের দেয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে ইসরায়েল।

বাইডেন বলেন, তার আশা কয়েক দিনের মধ্যেই যুদ্ধবিরতি শুরু হবে।

যুদ্ধবিরতি কখন শুরু হতে পারে, তা নিয়ে করা প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি সপ্তাহান্তের শুরুতে (শনিবার), সপ্তাহান্ত শেষে (সোমবার)।’

নিউ ইয়র্কে সফরের সময় বাইডেন সাংবাদিকদের আরও বলেন, ‘আমার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা আমাকে বলেছেন যে, আমরা (চুক্তির) কাছাকাছি। আমরা কাছাকাছি। আমরা এখনও সম্পন্ন করতে পারিনি।

‘আমার আশা আগামী সোমবারের মধ্যে আমরা যুদ্ধবিরতি দেখতে পাব।’

আরও পড়ুন:
ইসরায়েলের হামলায় নিহতের সংখ্যা ২৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে
রাফাহতে ইসরায়েলের আসন্ন অভিযানকে ‘আমাদের’ বললেন বাইডেন
গাজায় নিহত বেড়ে ২৮ হাজার ৩৪০
রাফাহতে ইসরায়েলি হামলায় নিহত ৩৭, দুই বন্দিকে মুক্ত করার দাবি
ইসরায়েলি হামলা থেকে বাঁচতে চাওয়া শিশুর মরদেহ উদ্ধার

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
A member of the US Air Force set himself on fire in front of the Israeli embassy

ইসরায়েলি দূতাবাসের সামনে গায়ে ‍আগুন যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনী সদস্যের

ইসরায়েলি দূতাবাসের সামনে গায়ে ‍আগুন যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনী সদস্যের যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসিতে ইসরায়েলের দূতাবাস ভবন। ছবি: সংগৃহীত
ওয়াশিংটন ডিসিতে ইসরায়েলের দূতাবাসের এক মুখপাত্র বলেন, আগুনে তাদের কোনো কর্মী আহত হননি এবং আগুন ধরানো ব্যক্তিটির তাদের কাছে অপরিচিত।

ওয়াশিংটন ডিসিতে ইসরায়েলের দূতাবাসের সামনে গায়ে আগুন ধরিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর এক সদস্য গুরুতর দগ্ধ হয়েছেন বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

পুলিশের বরাতে দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওয়াশিংটন ডিসির ইন্টারন্যাশনাল ড্রাইভ এলাকায় স্থানীয় সময় রোববার বেলা একটার দিকে একটি ঘটনায় সিক্রেট সার্ভিসকে সহায়তার আহ্বানে সাড়া দেয় মেট্রোপলিটন পুলিশ।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, গায়ে আগুন ধরানো ব্যক্তি গুরুতর দগ্ধ হন।

ওয়াশিংটন ডিসির পুলিশ বিভাগ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে জানায়, ডিসি ফায়ার ও ইমার্জেন্সি মেডিক্যাল সার্ভিসেস (ইএমএস) প্রাপ্তবয়স্ক একজন পুরুষকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করে, যার অবস্থা গুরুতর।

অনলাইনে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, পোশাক পরা এক ব্যক্তি পোড়ার সময় ‘ফ্রি প্যালেস্টাইন’ বলে চিৎকার করছিলেন। তিনি নিজেকে বিমান বাহিনীর সক্রিয় সদস্য হিসেবে পরিচয় করাচ্ছিলেন।

আগুন নেভানোর আগে ওই ব্যক্তি এক মিনিট ধরে দগ্ধ হন বলে খবর পাওয়া যায়।

ঘটনাটির বিষয়ে অবগত এক ব্যক্তি বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে (এপি) বলেন, হেঁটে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের দিকে গিয়ে ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম টুইচে লাইভ শুরু করেন ওই ব্যক্তি। পরবর্তী সময়ে ফোন রেখে গায়ে তরল ঢেলে তাতে আগুন ধরিয়ে দেন তিনি।

ওই সূত্রটি এপিকে জানায়, বিমান বাহিনীর সদস্য একপর্যায়ে বলেন, তিনি ‘গণহত্যায় আর সহযোগী হবেন না’।

যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর এক মুখপাত্র বার্তা সংস্থা এএফপিকে বিস্তারিত কিছু না জানিয়ে বলেন, আগুন ধরানো ব্যক্তিটি বাহিনীর সক্রিয় সদস্য।

ওয়াশিংটন ডিসিতে ইসরায়েলের দূতাবাসের এক মুখপাত্র বলেন, আগুনে তাদের কোনো কর্মী আহত হননি এবং আগুন ধরানো ব্যক্তিটির তাদের কাছে অপরিচিত।

আরও পড়ুন:
গাজায় মানবিক সহায়তা পৌঁছে দেয়ার মিশরকে ধন্যবাদ জানাল বাংলাদেশ
ইসরায়েলি হামলায় গাজায় নিহত বেড়ে ২৯ হাজার ৪১০
সরকার গঠন পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়: যুক্তরাষ্ট্র
ইসরায়েলের দখলের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ শীর্ষ আদালতে শুনানি শুরু
ইসরায়েলের হামলায় নিহতের সংখ্যা ২৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
US and UK warplanes hit 18 Houthi sites in Yemen

এবার হুতিদের ১৮টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের

এবার হুতিদের ১৮টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের হুতিদের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার জন্য শনিবার প্রস্তুত করা যুক্তরাজ্যের রয়্যাল এয়ার ফোর্সের একটি টাইফুন বিমান। ছবি: রয়টার্স
সর্বশেষ হামলা নিয়ে পেন্টাগনের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ইয়েমেনের আটটি অবস্থানে হুতি সংশ্লিষ্ট ১৮টি লক্ষ্যবস্তুতে প্রয়োজনীয় ও আনুপাতিক হামলা চালানো হয়েছে। হামলার লক্ষ্যবস্তুর মধ্যে ছিল হুতিদের ভূগর্ভস্থ অস্ত্র মজুত স্থাপনা, ক্ষেপণাস্ত্র মজুত স্থাপনা, ড্রোন, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ও হেলিকপ্টার।

ইয়েমেনে সশস্ত্র গোষ্ঠী হুতিদের ১৮টি অবস্থান লক্ষ্য করে শনিবার যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের যুদ্ধবিমান হামলা চালিয়েছে বলে জানিয়েছে আমেরিকার প্রতিরক্ষা সদরদপ্তর পেন্টাগন।

এ নিয়ে দুই দেশ চতুর্থবারের মতো হুতিদের ওপর যৌথ অভিযান চালিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটির খবরে বলা হয়, হুতিদের বিভিন্ন সরঞ্জাম মজুতের স্থাপনা, ড্রোন, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, রাডার ও হেলিকপ্টারকে লক্ষ্য করে গতকালের হামলাটি চালানো হয়েছে।

যুক্তরাজ্য বলেছে, হুতিদের সামর্থ্য আরও খর্ব করতে মিত্র দুই রাষ্ট্র অভিযান চালিয়েছে।

সামুদ্রিক বাণিজ্যের গুরুত্বপূর্ণ পথ লোহিত সাগর দিয়ে চলাচলকারী জাহাজের ওপর সাম্প্রতিক দিনগুলোতে বেশ কিছু হামলা চালিয়েছে হুতিরা।

ইয়েমেনের রাজধানী সানাসহ বিশাল অংশের দখল নেয়া গোষ্ঠীটির দাবি, গাজায় ইসরায়েলি হামলার জবাবে ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানানোর অংশ হিসেবে তারা জাহাজগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানাচ্ছে।

হুতিদের এসব হামলার জবাবে এর আগে তিনবার ইয়েমেনে বিমান হামলা চালায় পশ্চিমা বন্ধু দুই রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য।

সর্বশেষ হামলা নিয়ে পেন্টাগনের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, ইয়েমেনের আটটি অবস্থানে হুতি সংশ্লিষ্ট ১৮টি লক্ষ্যবস্তুতে প্রয়োজনীয় ও আনুপাতিক হামলা চালানো হয়েছে। হামলার লক্ষ্যবস্তুর মধ্যে ছিল হুতিদের ভূগর্ভস্থ অস্ত্র মজুত স্থাপনা, ক্ষেপণাস্ত্র মজুত স্থাপনা, ড্রোন, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ও হেলিকপ্টার।

আরও পড়ুন:
প্রতারণা মামলায় ট্রাম্পকে সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার জরিমানা
কানসাস সিটিতে বন্দুক হামলায় একজন নিহত, আহত ২১
ভিসা নীতির পরিবর্তন হয়নি, ড. ইউনূসকে ভয় দেখানো হচ্ছে: যুক্তরাষ্ট্র
হুতিদের ওপর ফের হামলা যুক্তরাষ্ট্রের
এবার হুতিদের ওপর হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Trump wins in Haleys state

হ্যালির রাজ্যে ট্রাম্পের জয়

হ্যালির রাজ্যে ট্রাম্পের জয় যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। ফাইল ছবি
বিশাল এ জয়ে একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী হ্যালিকে প্রার্থিতার দৌড় থেকে সরে দাঁড়াতে ট্রাম্পের মিত্রদের চাপ বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে, তবে এখনই মাঠ ছাড়বেন না বলে জানিয়েছেন হ্যালি।

রিপাবলিকান পার্টি থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার লড়াইয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী নিকি হ্যালিকে তার জন্মস্থান সাউথ ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যে সাবলীলভাবে হারিয়েছেন আলোচিত সাবেক রাষ্ট্রপ্রধান ডনাল্ড ট্রাম্প।

স্থানীয় সময় শনিবার এ জয়ের মধ্য দিয়ে ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার দৌড়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেলেন ট্রাম্প।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, বেশ কিছু ফৌজদারি অপরাধের মামলা থাকার পাশাপাশি প্রতিদ্বন্দ্বী সাউথ ক্যারোলিনার দুইবারের গভর্নর হওয়ার পরও দক্ষিণের রাজ্যটিতে ট্রাম্প জিতবেন বলে ধরে নেয়া হচ্ছিল, যেটি সত্য প্রমাণ হলো।

বিশাল এ জয়ে একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী হ্যালিকে প্রার্থিতার দৌড় থেকে সরে দাঁড়াতে ট্রাম্পের মিত্রদের চাপ বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে, তবে এখনই মাঠ ছাড়বেন না বলে জানিয়েছেন হ্যালি।

জাতিসংঘে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এ দূত বলেছেন, আগামী ৫ মার্চ ‘সুপার টুয়েসডে’ নাগাদ লড়বেন তিনি, যেদিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৫টি অঙ্গরাজ্য ও একটি অঞ্চলের রিপাবলিকান ভোটাররা তাদের ভোট দেবেন।

সর্বশেষ প্রাইমারিতে এডিসন রিসার্চের হিসাব অনুযায়ী, গণনাকৃত ৮৩ শতাংশ ভোটের মধ্যে ট্রাম্প পান ৬০ শতাংশ, যার বিপরীতে হ্যালি পান ৩৯ দশমিক ৪ শতাংশ ভোট। সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে এগিয়ে ছিলেন ২০ দশমিক ৬ শতাংশ ভোটে।

এর আগে রাজ্যজুড়ে জনমত জরিপগুলোতে গড়ে ২৭.৬ শতাংশ ভোটে এগিয়ে ছিলেন ট্রাম্প।

আরও পড়ুন:
ঢাকার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারে বসবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল
রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নিষেধাজ্ঞা
রাশিয়া সংশ্লিষ্ট ৫ শতাধিক লক্ষ্যবস্তুকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র
সরকার গঠন পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়: যুক্তরাষ্ট্র
প্রতারণা মামলায় ট্রাম্পকে সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার জরিমানা

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The United States will ban more than 500 targets related to Russia

রাশিয়া সংশ্লিষ্ট ৫ শতাধিক লক্ষ্যবস্তুকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র

রাশিয়া সংশ্লিষ্ট ৫ শতাধিক লক্ষ্যবস্তুকে নিষেধাজ্ঞা দেবে যুক্তরাষ্ট্র মস্কোর ক্রেমলিনে ২০ ফেব্রুয়ারি বৈঠকের সময় কৃষিমন্ত্রী দিমিত্রি পাত্রুশেভের বক্তব্য শোনেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: রয়টার্স
আদেয়েমো জানান, নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে রাশিয়ার সামরিক শিল্প এবং রাশিয়ার প্রত্যাশা অনুযায়ী দেশটিকে পণ্য সরবরাহ করা অন্য দেশের কোম্পানিগুলো।

ইউক্রেনে রুশ হামলার দ্বিতীয় বার্ষিকীর প্রাক্কালে শুক্রবার রাশিয়া সংশ্লিষ্ট পাঁচ শতাধিক লক্ষ্যবস্তুকে যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞার আওতায় আনবে বলে জানিয়েছেন আমেরিকার ডেপুটি ট্রেজারি সেক্রেটারি ওয়ালি আদেয়েমো।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা জানান।

ইউক্রেনে ২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া, যা শেষ হয়নি দুই বছরেও।

ইউক্রেনে যুদ্ধ ও রুশ কারাগারে বিরোধীদলীয় নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনির মৃত্যুর ঘটনায় রাশিয়াকে জবাবদিহির মুখোমুখি করতে বেশ কিছু দেশকে সঙ্গে নিয়ে এ নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

আদেয়েমো জানান, নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে রাশিয়ার সামরিক শিল্প এবং রাশিয়ার প্রত্যাশা অনুযায়ী দেশটিকে পণ্য সরবরাহ করা অন্য দেশের কোম্পানিগুলো।

ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর পর যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা রাশিয়ার ওপর হাজারো নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। ইউরোপের বৈশ্বিক পরাশক্তিটির ওপর চাপ বাড়াতে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে আমেরিকা ও মিত্র রাষ্ট্রগুলো। যদিও ইউক্রেনকে আরও নিরাপত্তা সহায়তা দেয়ার বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভা কংগ্রেসে অনুমোদন পাবে কি না, তা নিয়ে রয়েছে সংশয়।

আরও পড়ুন:
পোল্যান্ড বা লাটভিয়ায় হামলার পরিকল্পনা নেই: পুতিন
ভিসা নীতির পরিবর্তন হয়নি, ড. ইউনূসকে ভয় দেখানো হচ্ছে: যুক্তরাষ্ট্র
হুতিদের ওপর ফের হামলা যুক্তরাষ্ট্রের
এবার হুতিদের ওপর হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের
ইরাক ও সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় নিহত ৩৯

মন্তব্য

p
উপরে