× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
Amazon sales in Brazil drop 34 in first half of year
google_news print-icon

ব্রাজিলে বছরের প্রথমার্ধে আমাজন উজাড়করণ কমেছে ৩৪%

ব্রাজিলে-বছরের-প্রথমার্ধে-আমাজন-উজাড়করণ-কমেছে-৩৪
ব্রাজিলের প্যারা রাজ্যে আমাজনের উজাড়কৃত অংশ। ছবি: রয়টার্স
ব্রাজিলের জাতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইনপে জানায়, গত ছয় মাসে চিরহরিৎ বনের ‍দুই হাজার ৬৪৯ বর্গকিলোমিটার অংশ উজাড় করা হয়েছে। উজাড়করণের দিক থেকে ২০১৯ সালের পর ছয় মাসের হিসাবে এটিই সবচেয়ে কম।

চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে ব্রাজিলে আমাজন বন উজাড়করণ ৩৪ শতাংশ কমেছে বলে সরকারি প্রাথমিক ডেটায় উঠে এসেছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ডেটা অনুযায়ী, গত চার বছরের মধ্যে এ বছরের ছয় মাসে সবচেয়ে কম উজাড় করা হয়েছে আমাজনকে।

ব্রাজিলের জাতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইনপে জানায়, গত ছয় মাসে চিরহরিৎ বনের ‍দুই হাজার ৬৪৯ বর্গকিলোমিটার অংশ উজাড় করা হয়েছে। উজাড়করণের দিক থেকে ২০১৯ সালের পর ছয় মাসের হিসাবে এটিই সবচেয়ে কম।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, বন উজাড়করণ অপেক্ষাকৃত কম হলেও গত ছয় মাসে যে পরিমাণ জায়গা গাছপালাশূন্য করা হয়েছে, এটি আয়তনে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সিটির তিন গুণের বেশি। সংখ্যাটি বন উজাড়করণ সম্পূর্ণ বন্ধে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুই ইনাসিও লুলা দা সিলভার সামনে থাকা চ্যালেঞ্জকে তুলে ধরল।

আমাজন উজাড়করণ কমার বিষয়ে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ফান্ড ফর নেচার (ডব্লিউডব্লিউএফ) ব্রাজিলের বিশ্লেষক ড্যানিয়েল সিলভা বলেন, ‘এটি (উজাড়করণ কমা) খুবই ইতিবাচক, তবে আমরা অব্যাহতভাবে খুবই উচ্চ পর্যায়ের উজাড়করণ পাচ্ছি।’

চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেন লুলা দা সিলভা। তিনি ২০৩০ সালের মধ্যে আমাজন উজাড়করণ বন্ধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

আরও পড়ুন:
সমর্থকদের তাণ্ডব: তদন্তে বলসোনারোর ভূমিকা
বলসোনারোকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দেয়ার আহ্বান
ব্রাজিলে দাঙ্গা: সাবেক মন্ত্রী গ্রেপ্তার
হাসপাতাল ছাড়লেন বলসোনারো
সমর্থকদের তাণ্ডবের পর হাসপাতালে বলসোনারো

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Government Formation Pakistan Internal Affairs United States

সরকার গঠন পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়: যুক্তরাষ্ট্র

সরকার গঠন পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়: যুক্তরাষ্ট্র ওয়াশিংটন ডিসিতে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র ম্যাথু মিলার। ফাইল ছবি
মিলার বলেন, যেকোনো দেশে জোটভিত্তিক রাজনীতি ওই দেশের নিজস্ব বিষয়। এ সংক্রান্ত আলোচনায় জড়াতে চায় না যুক্তরাষ্ট্র।

পাকিস্তানে সরকার গঠন নিয়ে হস্তক্ষেপ না করার বিষয়ে অটল রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেতৃত্বাধীন প্রশাসন।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে গত ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত নির্বাচনের ফলকে স্বীকৃতি না দিতে আইনপ্রণেতাসহ বিভিন্ন মহলের দাবিকে নাকচ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওয়াশিংটন ডিসিতে স্থানীয় সময় বুধবার অনুষ্ঠিত ব্রিফিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র ম্যাথু মিলার পাকিস্তানে সরকার গঠন নিয়ে আমেরিকার অবস্থান ব্যক্ত করেন।

পাকিস্তানে জোট সরকার প্রতিনিধিত্বমূলক কি না, এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘গঠন হওয়ার আগে আমি সরকার নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

মিলার আরও বলেন, যেকোনো দেশে জোটভিত্তিক রাজনীতি ওই দেশের নিজস্ব বিষয়। এ সংক্রান্ত আলোচনায় জড়াতে চায় না যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে মঙ্গলবার ব্রিফিংয়ে স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র পাকিস্তানে জোট সরকার গঠনের চেষ্টাকে অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে আখ্যা দেন।

ওই দিন তিনি বলেন, ‘আমি পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে জড়াতে চাই না।’

পাকিস্তানে সরকার গঠন নিয়ে কথা না বললেও দেশটিতে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নির্বাচনে হস্তক্ষেপ, অনিয়ম কিংবা ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানোর বিষয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করতে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের কথা বিভিন্ন ব্রিফিংয়ে তুলে ধরেন মিলার।

আরও পড়ুন:
পাকিস্তানে সরকার গঠনে ঐকমত্য, প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ-প্রেসিডেন্ট জারদারি
ক্ষমতায় এলে রাজনৈতিক প্রতিশোধ নেব না: ইমরান
প্রতারণা মামলায় ট্রাম্পকে সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার জরিমানা
ইসলামাবাদ হাইকোর্টে তিন মামলায় আপিল করবেন ইমরান
কানসাস সিটিতে বন্দুক হামলায় একজন নিহত, আহত ২১

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Trump fined 350 million dollars in fraud case

প্রতারণা মামলায় ট্রাম্পকে সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার জরিমানা

প্রতারণা মামলায় ট্রাম্পকে সাড়ে ৩৫ কোটি ডলার জরিমানা ডনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: ডেডলাইন
রায়ে ট্রাম্পের দুই ছেলে ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র ও এরিক ট্রাম্পকে ৪০ লাখ ডলার করে জরিমানা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। ট্রাম্প তিন বছর নিউ ইয়র্কে কোনো ব্যবসা করতে পারবেন না আর তার দুই ছেলে দুই বছরের জন্য এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকবেন।

ঋণদাতার কাছে নিজের সম্পদের মূল্য বেশি দেখিয়ে প্রতারণার দায়ে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে ৩৫ কোটি ৪৯ লাখ ডলার জরিমানার আদেশ দিয়েছে নিউ ইয়র্কের এক আদালত।

বিচারক আর্থার এনগোরন শুক্রবার জালিয়াতির অভিযোগে করা এ মামলার রায় দেন বলে জানায় রয়টার্স। এ ছাড়া ট্রাম্প তিন বছর নিউ ইয়র্কে কোনো ব্যবসা করতে পারবেনা না।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ রায়ে ট্রাম্পের বিশাল আবাসন ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

জরিমানা ছাড়াও তিন মাস ধরে চলা এ মামলার রায়ে ট্রাম্পকে তিন বছরের জন্য নিউ ইয়র্কে যেকোনো কর্পোরেশনের পরিচালক বা কর্মকর্তা হওয়ার বিষয়েও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানান ট্রাম্পের আইনজীবী আলিনা হাবা।

নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিটিয়া জেমসের করা এ মামলায় বলা হয়, ট্রাম্প ঋণ সুবিধা নেয়ার জন্য প্রায় এক দশক ধরে ব্যাংকারদের বোকা বানিয়ে তার মোট সম্পদের মূল্য প্রায় ৩৬০ কোটি ডলার বেশি দেখিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ও তার কোম্পানি ব্যাংক, বিমাকারী ও অন্যান্যদের সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। অর্থায়ন নিশ্চিত করতে ট্রাম্প তার সম্পদ ও নেট মূল্যকে কাগজপত্রে অতিরঞ্জিত করে উপস্থাপন করেছেন।

ট্রাম্পের নামে আরও চারটি ফৌজদারি মামলা চলমান আছে, তবে সাবেক এ প্রেসিডেন্টের দাবি, ডেমোক্র্যাট জেমস রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে এসব করছেন।

রায়ে ট্রাম্পের দুই ছেলে ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র ও এরিক ট্রাম্পকে ৪০ লাখ ডলার করে জরিমানা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। ট্রাম্প তিন বছর নিউ ইয়র্কে কোনো ব্যবসা করতে পারবেন না আর তার দুই ছেলে দুই বছরের জন্য এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকবেন।

ট্রাম্প তার কোম্পানি বা এই কোম্পানির অধিভুক্ত কোনো প্রতিষ্ঠান তিন বছরের জন্য কোনো ঋণের আবেদন করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন:
হামলার কথা ইরাককে জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র: হোয়াইট হাউস
ইরাক সিরিয়ায় ইরান সংশ্লিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলা শুরু যুক্তরাষ্ট্রের
ইরানের সেনাদের ওপর সিরিজ হামলা পরিকল্পনায় অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের
বাংলাদেশে গ্রেপ্তার বিরোধীদের স্বচ্ছ আইনি প্রক্রিয়া নিশ্চিতের তাগিদ যুক্তরাষ্ট্রের
যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যন্ত এলাকায় গুলিবিদ্ধ ৬ মরদেহ উদ্ধার

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Putin Monster Trudeau

পুতিন দানব: ট্রুডো

পুতিন দানব: ট্রুডো রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। ছবি: উইকিমিডিয়া কমন্স
কানাডার একদল ব্যবসায়ী নেতার সঙ্গে আলাপকালে ট্রুডো ‘মৌলিক স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের’ পক্ষে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে নাভালনির ‘অপরিসীম সাহসের’ প্রশংসা করেন।

ক্রেমলিন সমালোচক অ্যালেক্সেই নাভালনির মৃত্যুকে ‘ট্র্যাজেডি’ আখ্যা দিয়ে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো শুক্রবার বলেছেন, এর মধ্য দিয়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দানব রূপটি প্রকাশ পেয়েছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়, রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম সিবিসিকে নাভালনির মৃত্যুর বিষয়ে ট্রুডো বলেন, ‘এটি ট্র্যাজেডি।’

তিনি বলেন, ‘এর মধ্য দিয়ে আসলে প্রমাণ হয় যে, রাশিয়ার জনগণের মুক্তির জন্য লড়াই করা যে কারও ওপর কতটা চড়াও হতে পারেন পুতিন। একই সঙ্গে এটি পুরো বিশ্বকে মনে করিয়ে দিয়েছে যে, পুতিন কেমন দানব।’

রাশিয়ার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ শুক্রবার জানায়, উত্তর মেরুর কারাগারে বন্দি ৪৭ বছর বয়সী নাভালনির আকস্মিক মৃত্যু হয়।

চলতি বছরের মার্চে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দুই দশকের ক্ষমতাকে দীর্ঘায়িত করতে পুতিনের চেষ্টার মধ্যে তার বিরোধী নাভালনির মৃত্যুর খবরটি প্রকাশ হয়।

কারিশম্যাটিক আইনজীবী নাভালনিকে রাশিয়ার শীর্ষ বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে অনেকে বিবেচনা করতেন। তাকেই বিরোধী একমাত্র রাজনীতিক মনে করা হতো যিনি বিপুল লোকসমাগমের পাশাপাশি ৭১ বছর বয়সী পুতিনকে টেক্কা দিতে পারতেন।

এদিকে কানাডার একদল ব্যবসায়ী নেতার সঙ্গে আলাপকালে ট্রুডো ‘মৌলিক স্বাধীনতা ও গণতন্ত্রের’ পক্ষে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে নাভালনির ‘অপরিসীম সাহসের’ প্রশংসা করেন।

আরও পড়ুন:
গাজায় দ্রুত যুদ্ধবিরতি চান পুতিন
রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র দৃঢ় সম্পর্কের প্রতীক: পুতিন
কিমের বাসায় দাওয়াত পেলেন ‘বন্ধু’ পুতিন
ঠিক হয়েছে বিমান, কানাডার পথে ট্রুডো
‘প্লেনের অভাবে’ ভারত থেকে বাড়ি যেতে পারছেন না ট্রুডো

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
One dead 21 injured in Kansas City shooting

কানসাস সিটিতে বন্দুক হামলায় একজন নিহত, আহত ২১

কানসাস সিটিতে বন্দুক হামলায় একজন নিহত, আহত ২১ যুক্তরাষ্ট্রের মিজৌরি অঙ্গরাজ্যের কানসাস সিটিতে বুধবার বন্দুক হামলার পর নিরাপদে ছুটছেন সুপার বোলে জয়ী দলের সমর্থকরা। ছবি: ইউএসএ টুডে
কানসাস সিটি পুলিশের প্রধান স্ট্যাসি গ্রেভসের বরাত দিয়ে এবিসি নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়, বন্দুক হামলার ঘটনায় তদন্তের প্রয়োজনে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তিনি এ হামলাকে ‘ট্র্যাজেডি’ আখ্যা দিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের মিজৌরি অঙ্গরাজ্যের কানসাস সিটিতে বুধবার বন্দুক হামলায় একজন নিহত ও কমপক্ষে ২১ জন আহত হয়েছেন।

দেশটির ন্যাশনাল ফুটবল লিগের ফাইনাল সুপার বোলে কানসাস সিটি চিফসের জয় উপলক্ষে প্যারেড ও র‌্যালির পর এ হামলা হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা।

কানসাস সিটি পুলিশের প্রধান স্ট্যাসি গ্রেভসের বরাত দিয়ে এবিসি নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়, বন্দুক হামলার ঘটনায় তদন্তের প্রয়োজনে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তিনি এ হামলাকে ‘ট্র্যাজেডি’ আখ্যা দিয়েছেন।

কানসাস সিটি ফায়ার সার্ভিসের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান রস গ্রুন্ডিসন জানান, বন্দুক হামলায় আহত ব্যক্তিদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, যাদের মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

চিল্ড্রেন’স মার্সি কানসাস সিটি হাসপাতালের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও চিফ নার্সিং অফিসার স্টেফানি মেয়ার বুধবার সাংবাদিকদের জানান, স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানটিতে ১২ জন রোগীকে চিকিৎসা দেয়া হয়, যাদের মধ্যে ১১ জনের বয়স ৬ থেকে ১৫ বছর।

তিনি জানান, হাসপাতালে আসা রোগীদের মধ্যে ৯ জন গুলিতে আহত। অপর তিনজন পরিস্থিতির শিকার হয়ে আহত হন।

হামলায় হতাহত ব্যক্তির সংখ্যা নিরূপণে এখনও কাজ করছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো।

আরও পড়ুন:
ইরাক সিরিয়ায় ইরান সংশ্লিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলা শুরু যুক্তরাষ্ট্রের
ইরানের সেনাদের ওপর সিরিজ হামলা পরিকল্পনায় অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের
বাংলাদেশে গ্রেপ্তার বিরোধীদের স্বচ্ছ আইনি প্রক্রিয়া নিশ্চিতের তাগিদ যুক্তরাষ্ট্রের
যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যন্ত এলাকায় গুলিবিদ্ধ ৬ মরদেহ উদ্ধার
যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের ওপর হামলা বাড়বে: হারাকাত হিজবুল্লাহ

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Biden told us about Israels upcoming operation in Rafah

রাফাহতে ইসরায়েলের আসন্ন অভিযানকে ‘আমাদের’ বললেন বাইডেন

রাফাহতে ইসরায়েলের আসন্ন অভিযানকে ‘আমাদের’ বললেন বাইডেন হোয়াইট হাউসে স্থানীয় সময় সোমবার জর্ডানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহর সঙ্গে বৈঠক করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: এএফপি
অনুলিপি অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট শুরুতে বলেন, ‘রাফাহতে আমাদের সামরিক অভিযান।’ তারপর তিনি বলেন, ‘সেখানে (রাফাহ) আশ্রয় নেয়া ১০ লাখের বেশি মানুষের সুরক্ষা ও সহায়তার বিশ্বাসযোগ্য পরিকল্পনা নিশ্চিত না করে রাফাহতে তাদের (ইসরায়েল) বড় ধরনের সামরিক অভিযান চালানো উচিত হবে না।’

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফাহতে ইসরায়েলের আসন্ন সামরিক অভিযানকে মুখ ফসকে ‘আমাদের সামরিক অভিযান’ বলে ফেলেছেন কথায় তালগোল পাকানো নিয়ে সম্প্রতি আলোচনায় আসা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

স্থানীয় সময় সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দপ্তর হোয়াইট হাউসে দেয়া এক বক্তব্যের সময় উল্লিখিত কথা বলেন তিনি।

আল জাজিরা মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে জানায়, বাইডেনের বক্তব্যের হোয়াইট হাউস প্রকাশিত অনুলিপিতে দেখা যায়, বাক্যের মাঝখানে দৃশ্যত শব্দ পরিবর্তন করছেন বাইডেন।

অনুলিপি অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট শুরুতে বলেন, ‘রাফাহতে আমাদের সামরিক অভিযান।’ তারপর তিনি বলেন, ‘সেখানে (রাফাহ) আশ্রয় নেয়া ১০ লাখের বেশি মানুষের সুরক্ষা ও সহায়তার বিশ্বাসযোগ্য পরিকল্পনা নিশ্চিত না করে রাফাহতে তাদের (ইসরায়েল) বড় ধরনের সামরিক অভিযান চালানো উচিত হবে না।’

গাজার শাসক দল হামাসের সঙ্গে যুদ্ধরত ইসরায়েলকে শত শত কোটি ডলার সামরিক সহায়তা দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি কূটনৈতিক ফোরামগুলোতেও ইসরায়েলকে সমর্থন দেয়, তবে ওয়াশিংটন জোর দিয়ে বলেছে, তারা গাজায় যুদ্ধে সরাসরি জড়িত নয়।

আরও পড়ুন:
গাজায় ১৩৫ দিনের যুদ্ধবিরতি, ইসরায়েলি সেনা প্রত্যাহারের প্রস্তাব হামাসের
গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাবে সাড়া হামাসের: কাতার
যুদ্ধে পরিবারহারা গাজার ১৭ হাজার শিশু: জাতিসংঘ
ইসরায়েলি ৪ বসতি স্থাপনকারীর ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা
ইসরায়েলি হামলায় গাজায় নিহত প্রায় ২৭ হাজার

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
No plans to attack Poland or Latvia Putin

পোল্যান্ড বা লাটভিয়ায় হামলার পরিকল্পনা নেই: পুতিন

পোল্যান্ড বা লাটভিয়ায় হামলার পরিকল্পনা নেই: পুতিন যুক্তরাষ্ট্রের রক্ষণশীল সাংবাদিক টাকার কার্লসনকে দেয়া সাক্ষাৎকারের একটি মুহূর্তে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: রয়টার্স
সামরিক জোট ন্যাটোভুক্ত দেশ পোল্যান্ডে রুশ সেনা পাঠানোর কোনো পরিকল্পনা আছে কি না জানতে চাইলে পুতিন বলেন, পোল্যান্ড যদি রাশিয়ায় হামলা চালায়, তাহলে দেশটিতে সেনা পাঠানো হবে। এ ছাড়া পোল্যান্ড, লাটভিয়া কিংবা অন্য কোথাও হামলার পরিকল্পনা নেই রাশিয়ার।

রাশিয়া তার স্বার্থে লড়ে যাবে মন্তব্য করে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ইউক্রেন যুদ্ধকে পোল্যান্ড কিংবা লাটভিয়া পর্যন্ত টেনে নেয়ার কোনো ইচ্ছা নেই তার।

যুক্তরাষ্ট্রের রক্ষণশীল সাংবাদিক টাকার কার্লসনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পুতিন এ কথা বলেন, যেটি প্রকাশ হয় বৃহস্পতিবার।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০২২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর পর প্রথম কোনো আমেরিকান সাংবাদিককে সাক্ষাৎকার দেন পুতিন। এতে রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, পশ্চিমা নেতারা বুঝতে পেরেছেন যে, রাশিয়ার কৌশলগত পরাজয় অসম্ভব। পরবর্তী করণীয় নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে রয়েছেন তারা।

টাকার কার্লসনের সঙ্গে মঙ্গলবার দুই ঘণ্টা ধরে প্রশ্নোত্তরে অংশ নেন পুতিন, যা দুই দিন পর প্রকাশ হয় টাকারকার্লসন ডটকমে।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, রাশিয়ায় বন্দি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের সাংবাদিক ইভান গেরশকোভিচের মুক্তির জন্য একটি চুক্তিতে পৌঁছা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি। রাশিয়ায় প্রায় এক বছর ধরে বন্দি গেরশকোভিচ, যিনি গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগের বিচার ‍শুরুর প্রতীক্ষায় আছেন।

সামরিক জোট ন্যাটোভুক্ত দেশ পোল্যান্ডে রুশ সেনা পাঠানোর কোনো পরিকল্পনা আছে কি না জানতে চাইলে পুতিন বলেন, পোল্যান্ড যদি রাশিয়ায় হামলা চালায়, তাহলে দেশটিতে সেনা পাঠানো হবে। এ ছাড়া পোল্যান্ড, লাটভিয়া কিংবা অন্য কোথাও হামলার পরিকল্পনা নেই রাশিয়ার।

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশে ‘আরব বসন্তের উসকানি’ নিয়ে রাশিয়ার মন্তব্যে নীরব যুক্তরাষ্ট্র
পাঁচ লাখ নতুন সেনার প্রয়োজন: জেলেনস্কি
‘বাংলাদেশ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে না রাশিয়া’
যুক্তরাষ্ট্র জনগণের ইচ্ছায় সন্তুষ্ট না হলে বাংলাদেশে ‘আরব বসন্ত’র পরিস্থিতি হতে পারে: রাশিয়া
বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে রাশিয়া সবকিছু করবে: রাষ্ট্রদূত

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The United States attacks the Houthis again

হুতিদের ওপর ফের হামলা যুক্তরাষ্ট্রের

হুতিদের ওপর ফের হামলা যুক্তরাষ্ট্রের ইয়েমেনের রাজধানী সানার কাছে হুতিদের অবস্থান লক্ষ্য করে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের বিমান হামলার পর রোববার হুতি গোত্রের বাসিন্দাদের প্যারেড। ছবি: রয়টার্স
ভূমিতে হামলার জন্য ব্যবহৃত হুতিদের একটি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ও চারটি জাহাজবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রে যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনী আঘাত করেছে বলে সেন্টকম জানিয়েছে।

ইয়েমেনে ইরান সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠী হুতিদের ক্ষেপণাস্ত্রের ওপর যুক্তরাষ্ট্র রোববার ফের হামলা চালিয়েছে বলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক্সে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ড তথা সেন্টকম।

বিবিসি সোমবার এক প্রতিবেদনে জানায়, ভূমিতে হামলার জন্য ব্যবহৃত হুতিদের একটি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ও চারটি জাহাজবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রে যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনী আঘাত করেছে বলে সেন্টকম জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, ওই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো লোহিত সাগরে বিভিন্ন জাহাজে হামলার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল।

হুতিদের বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের যৌথ হামলার এক দিন পর ফের গোষ্ঠীটিকে লক্ষ্য করে হামলা চালাল আমেরিকা।

লোহিত সাগরে পণ্যবাহী জাহাজের ওপর বিভিন্ন সময়ে হুতিদের চালানো হামলার জবাবে যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্র যুক্তরাজ্য গোষ্ঠীটির ওপর পাল্টা হামলা চালাচ্ছে।

হুতিদের হামলায় জাহাজে পণ্য পরিবহনকারী বড় প্রতিষ্ঠানগুলো লোহিত সাগর এড়িয়ে চলছে, যার প্রভাব পড়েছে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে।

মিসর জানিয়েছে, সুয়েজ খাল থেকে তাদের আয় জানুয়ারিতে প্রায় অর্ধেক কমেছে। গুরুত্বপূর্ণ এ জলপথ দিয়ে চলাচলকারী জাহাজের সংখ্যা গত মাসে এক-তৃতীয়াংশের বেশি কমে গেছে।

আরও পড়ুন:
এবার হুতিদের ওপর হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের
ইরাক ও সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় নিহত ৩৯
হামলার কথা ইরাককে জানিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র: হোয়াইট হাউস
ইরাক সিরিয়ায় ইরান সংশ্লিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলা শুরু যুক্তরাষ্ট্রের
ইরানের সেনাদের ওপর সিরিজ হামলা পরিকল্পনায় অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

মন্তব্য

p
উপরে