× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
Istanbul blast Bomber arrested
hear-news
player
google_news print-icon

ইস্তাম্বুলে বিস্ফোরণ: ‘বোমা রাখা ব্যক্তি’ গ্রেপ্তার

ইস্তাম্বুলে-বিস্ফোরণ-বোমা-রাখা-ব্যক্তি-গ্রেপ্তার
বিস্ফোরণের পর ইস্তাম্বুলের ব্যস্ত সড়কে অ্যাম্বুলেন্স ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতি দেখা যায়। ছবি: আনাদোলু
ইস্তাম্বুলের প্রাণকেন্দ্রে রোববার ব্যস্ত পথচারী সড়কে বোমা বিস্ফোরণে ছয়জন নিহত ও ৮১ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সয়লু।

তুরস্কের ইস্তাম্বুলের ইশতিকলাল সড়কে বোমা রাখা ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেইমান সয়লু।

তার বরাত দিয়ে সোমবার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলুর টুইটে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

ইস্তাম্বুলের প্রাণকেন্দ্রে রোববার ব্যস্ত পথচারী সড়কে বোমা বিস্ফোরণে ছয়জন নিহত ও ৮১ জন আহত হয়েছেন, যাকে ‘সন্ত্রাসবাদের মতো মনে হচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

এর আগে দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াত ওকতাই রোববার রাতে বিবৃতিতে হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, এক নারীকে এ বোমা বিস্ফোরণের জন্য দায়ী মনে করা হচ্ছে।

বিস্ফোরণের দিন জি-টোয়েন্টি সম্মেলনে যোগ দিতে ইন্দোনেশিয়ার উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেছেন, তুর্কি জাতির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ ব্যর্থ হবে।

তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহর প্রতিবেদনে জানানো হয়,

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে অগ্নিশিখা দেখা যায়। এসব ছবি দেখে মনে হয়, অনেক দূর থেকে বিস্ফোরণের আওয়াজ পাওয়া গেছে।

বিভিন্ন ফুটেজে দেখা যায়, ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছে অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও পুলিশ। পুরো এলাকাটি খালি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
এজিয়ানে সামরিক স্থাপনা: গ্রিসকে দেখে নেয়ার হুমকি তুরস্কের
তুরস্কের যুদ্ধবিমানকে ক্ষেপণাস্ত্রের ভয় দেখাল গ্রিস
তুর্কি ব্যবসায়ীদের নজিরবিহীন হুমকি সিআইএর
আরও কাছাকাছি তুরস্ক-ইসরায়েল
রুবলে রাশিয়ার গ্যাস কিনবে তুরস্ক

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Abandonment of morality police in Iran is uproar

ইরানে নৈতিকতা পুলিশের বিলুপ্তি নিয়ে ধূম্রজাল

ইরানে নৈতিকতা পুলিশের বিলুপ্তি নিয়ে ধূম্রজাল ইরানে ইসলামিক পোশাকবিধি কার্যকর করার দায়িত্ব নৈতিকতা পুলিশের ওপর। ছবি: এএফপি
ইরানের রাজনৈতিক বিশ্লেষক এবং অধিকারকর্মীরা সোমবারের প্রকাশিত খবর নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ এটিকে ইরানের জাতীয় ছাত্র দিবস ঘিরে ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচি বানচালে শাসকদের চক্রান্ত বলে বর্ণনা করেছেন। আগামী বুধবার ইরানের জাতীয় ছাত্র দিবস।

ইরানের নৈতিকতা পুলিশের বিলুপ্তি নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশের এই বিভাগের হেফাজতে এক তরুণীর মৃত্যুর পর ইরানজুড়ে যে তীব্র প্রতিবাদ শুরু হয়েছে তা সামলাতে সোমবার নৈতিকতা পুলিশকে বিলুপ্তির কথা জানান দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল।

ইরানে পুলিশের এই বিভাগটি ‘গশত-ই-এরশাদ’ নামে পরিচিত। ইসলামিক শাসনের দেশটিতে বিদ্যমান কঠোর পোশাকবিধি অমান্যকারীদের আটক করে ব্যবস্থা নেয়ার দায়িত্ব এই নৈতিকতা পুলিশের ওপর। ইরানের সাবেক কট্টরপন্থি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমাদিনেজাদের শাসনামলে বাহিনীটি গঠন করা হয়েছিল।

অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মাদ জাফর মোনতাজেরি বলেছিলেন, গশত-ই-এরশাদ নামে পরিচিত নৈতিকতা পুলিশের কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। পোশাকবিধির বিষয়টি পর্যালোচনা করা হবে।

নৈতিকতা পুলিশ ব্যবস্থা কার্যকর আছে কি না, তা স্পষ্ট হওয়ার জন্য রোববার জানতে চাইলে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমিরাবদুল্লাহিয়ান সরাসরি উত্তর দেননি।

সার্বিয়ার বেলগ্রেডে সফরে থাকা আমিরাবদুল্লাহিয়ান বলেছিলেন, ‘ইরানে গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা নিয়ে কোনো আপস হয় না। এটা নিয়ে সন্দেহের কোনো সুযোগ নেই। সবকিছু খুব ভালোভাবে চলছে।’

সেপ্টেম্বরে ইরানের রাজধানী তেহরানে ২২ বছরের এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করে নৈতিকতা পুলিশ। মাহসা আমিনি নামের ওই তরুণীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তিনি সঠিকভাবে হিজাব করেননি। ১৬ সেপ্টেম্বর হেফাজতে থাকা অবস্থায় মাহসার মৃত্যু হয়। সেদিন সন্ধ্যা থেকে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে ইরানের জনগণ। নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে গোটা ইরানে।

ইরানে নৈতিকতা পুলিশের বিলুপ্তি নিয়ে ধূম্রজাল
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৬ সেপ্টেম্বর মারা যান মাহসা আমিনি

সোমবার সকাল পর্যন্ত নৈতিকতা পুলিশের দায়িত্বে থাকা ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কার্যক্রম স্থগিত করার কোনো নিশ্চিতকরণ পাওয়া যায়নি।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, নৈতিকতা পুলিশ বাহিনীর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার এখতিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ মনতাজেরি বা সরকারের বিচার বিভাগীয় শাখার নেই।

ইরানের রাজনৈতিক বিশ্লেষক এবং অধিকারকর্মীরা সোমবারের প্রকাশিত খবর নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ এটিকে ইরানের জাতীয় ছাত্র দিবস ঘিরে ঘোষিত বিক্ষোভ কর্মসূচি বানচালে শাসকদের চক্রান্ত বলে বর্ণনা করেছেন। আগামী বুধবার ইরানের জাতীয় ছাত্র দিবস।

ইরানে নৈতিকতা পুলিশের বিলুপ্তি নিয়ে ধূম্রজাল
তেহরানে একটি ম্যুরালের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন এক নারী

টনি ব্লেয়ার ইনস্টিটিউট ফর গ্লোবাল চেঞ্জের ইরানের প্রোগ্রামের প্রধান কাসরা আরাবি টুইটারে বলেছেন, “ইরানের সর্বোচ্চ নেতা খামেনির শাসন ‘নৈতিকতা পুলিশ’ বিলুপ্ত করেছে এমন প্রতিবেদনগুলো ভুয়া খবর।

“ইরানে আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া তিন দিনের বড় বিক্ষোভ থেকে মিডিয়ার মনোযোগকে বিভ্রান্ত করার জন্য এই বিভ্রান্তিমূলক প্রচার চালানো হয়েছে। কেন মূলধারার মিডিয়া এই প্রসঙ্গ উপেক্ষা করল?”

আরব উপদ্বীপের সঙ্গে সম্পর্কের জন্য ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধিদলের চেয়ারওম্যান হান্না নিউম্যান রোববার প্রতিবেদনগুলোকেকে প্রত্যাখ্যান করেছেন।

নিউম্যান টুইটে লেখেন, “ইরান সরকারের ‘নৈতিকতা পুলিশ’-এর বিল্পপতি ঘোষণা করা ছিল একটি জনসংযোগ স্টান্ট। মৃত্যুদণ্ড, নির্বিচারে আটক এবং ধর্ষণ আজও দুঃখজনক বাস্তবতা।"

তেহরান নৈতিকতা পুলিশের কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে…এ খবর যেদিন অ্যাটর্নি জেনারেল মনতাজেরি জানিয়েছিলেন, সেদিন পার্লামেন্টে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। কঠোর পোশাকবিধি শিথিল করতে সংবিধান পরিবর্তনে সংস্কারবাদী এবং বিক্ষোভকারীদের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেন স্পিকার মোহাম্মদ গালিবাফ।

গালিবাফ শনিবার বলেছিলেন, ‘দেশে সংবিধান ছাড়া আমাদের আর কোনো বৈধ দলিল নেই। একটি নতুন শাসনের জন্য আলোচনায় আমাদের ফোকাস সংবিধান বাস্তবায়নের দিকে থাকা উচিত, বিধান পরিবর্তনের দিকে নয়।’

ইরানের সংবিধান সংস্কারের দাবিকে দুই-তৃতীয়াংশ আইনপ্রণেতা সমর্থন করলে অথবা সর্বোচ্চ নেতা খামেনি অনুরোধ করলে, গণভোটের আয়োজন করতে হবে।

রাষ্ট্রীয় ধর্মের মতো ইরানের ‘অ-সংশোধনযোগ্য নীতি’ ছাড়া যেকোনো বিষয়ে গণভোটের সুযোগ হয়েছে ইরানের সংবিধানে।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Java Volcano 2000 people evacuated

জাভার আগ্নেয়গিরি: সরানো হলো ২ হাজার মানুষ

জাভার আগ্নেয়গিরি: সরানো হলো ২ হাজার মানুষ ইন্দোনেশিয়ার সেমেরু পর্বতে আগ্নেয়গিরির ঘটনায় দুই হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। ছবি কোলাজ: নিউজবাংলা
বিএনপিবির প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, লাভার সঙ্গে বের হওয়া ঘন ধূসর ধোঁয়ার কুণ্ডলী ও ছাইয়ে ঢেকে যাচ্ছে একের পর এক গ্রাম। উদগিরণের ছাই থেকে বাসিন্দাদের সুরক্ষা দিতে এরই মধ্যে ২০ হাজারের বেশি ফেসমাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

ইন্দোনেশিয়ার সেমেরু পর্বতে আগ্নেয়গিরি শুরুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে দুই হাজার বাসিন্দাকে পূর্ব জাভা দ্বীপ থেকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

দেশটির জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থার (বিএনপিবি) রোববার প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। তাদের স্কুল, গ্রাম্য কমিউনিটি হলসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানে রাখা হয়েছে।

বিএনপিবির প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা গেছে, লাভার সঙ্গে বের হওয়া ঘন ধূসর ধোঁয়ার কুণ্ডলী ও ছাইয়ে ঢেকে যাচ্ছে একের পর এক গ্রাম।

উদগিরণের ছাই-ধোঁয়া থেকে বাসিন্দাদের সুরক্ষা দিতে এরই মধ্যে ২০ হাজারের বেশি ফেস মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

এর আগে স্থানীয় সময় রোববার রাত ২টা ৪৫ মিনিটে সেমেরু পর্বতের আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়।

জাভার আগ্নেয়গিরি: সরানো হলো ২ হাজার মানুষ

ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপের সেমেরু পর্বতের আগ্নেয়গিরি থেকে উদগীরিত লাভা, ধোঁয়া, ছাইসহ অন্যান্য উপাদান পর্যবেক্ষণ করছেন উদ্ধারকর্মীরা। ছবি: এপি

ওই পার্বত্য এলাকা থেকে সাধারণ মানুষকে দূরে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এর পরপরই ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে অনেকে বাসিন্দাকে পালাতে দেখা গেছে। তাদের উদ্ধারে কাজ করছে সরকারি সংস্থা।

এদিকে প্রতিবেশী দেশ জাপানের আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের পর আকাশের প্রায় ১৫ কিলোমিটার পর্যন্ত ছাই ও ধোঁয়ার কুণ্ডলী তৈরি হয়। অগ্ন্যুৎপাতের পর সুনামি হতে পারে বলে আশঙ্কার কথাও জানিয়েছে সংস্থাটি।

ইন্দোনেশিয়ার সেন্টার ফর ভলক্যানোলোজি অ্যান্ড জিওলজিক্যাল হ্যাজার্ড মিটিগেশন (পিভিএমজি) একটি বিবৃতিতে জানায়, অগ্ন্যুৎপাতের সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সেমেরু পর্বত দেশটির রাজধানী জাকার্তা থেকে ৬৪০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত। রোববার রাত ২টা ৪৫ মিনিটে এই অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়।

গত মাসে ইন্দোনেশিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্পের পরই অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটে। ওই ভূমিকম্পে তিন শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়। বিশ্বে যে কয়েকটি দেশে সক্রিয় আগ্নেয়গিরি আছে ইন্দোনেশিয়া তাদের মধ্যে একটি। এগুলোতে প্রায়ই অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটে।

আরও পড়ুন:
বিশ্বের সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরিতে বের হচ্ছে লাভা
নজীরবিহীন দুর্যোগে টোঙ্গা
সাগরতলে ১০ লাখ আগ্নেয়গিরি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
People are fleeing the eruption in Indonesia

ইন্দোনেশিয়ায় অগ্ন্যুৎপাত,পালাচ্ছে মানুষ

ইন্দোনেশিয়ায় অগ্ন্যুৎপাত,পালাচ্ছে মানুষ ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপের সেমেরু পর্বতের আগ্নেয়গিরি। ছবি: সংগৃহীত
ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে স্থানীয় জনগণ পালাতে শুরু করেছে। তাদের উদ্ধারে কাজ করছে ইন্দোনেশিয়া সরকার।

ইন্দোনেশিয়ার জাভা দ্বীপের সেমেরু পর্বতের আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। এতে করে ওই এলাকা থেকে সাধারণ মানুষকে দূরে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে স্থানীয় জনগণ পালাতে শুরু করেছে। তাদের উদ্ধারে কাজ করছে ইন্দোনেশিয়া সরকার।

জাপানের আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের পর আকাশে ১৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ছাইয়ের কুণ্ডলী তৈরি হয়। আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাতের পর সুনামি হতে পারে বলে আশঙ্কা করেছে জাপান।

ইন্দোনেশিয়ায় অগ্ন্যুৎপাত,পালাচ্ছে মানুষ

অগ্ন্যুৎপাতে এখনো হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

ইন্দোনেশিয়ার সেন্টার ফর ভলক্যানোলোজি অ্যান্ড জিওলজিক্যাল হ্যাজার্ড মিটিগেশন (পিভিএমজি) একটি বিবৃতিতে জানায়, অগ্ন্যুৎপাতের সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সেমেরু পর্বত ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তা থেকে ৮০০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত। শনিবার দিনগত রাত ২টা ৪৬ মিনিটে এই অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়।

ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ প্রশমন সংস্থার বরাত দিয়ে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, পূর্ব জাভা প্রদেশের আগ্নেয়গিরির কাছে বসবাসকারী শিশু এবং বয়স্কদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলছে। এখন পর্যন্ত ৯৩ জন বাসিন্দাকে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

পিভিএমজির প্রধান হেন্দ্রা গুনাওয়ান বলেন, ‘চলতি বছর ২০২১ ও ২০২০ সালের চেয়েও বেশি ম্যাগমা বের হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।’

ইন্দোনেশিয়ার প্রাণকেন্দ্র হলো জাভা। এই প্রদেশেই দেশটির রাজধানী জাকার্তা অবস্থিত। জাভা দ্বীপের সর্বোচ্চ পর্বত হলো সেমেরু। এর উচ্চতা ১২ হাজার ফুট।

গত মাসে ইন্দোনেশিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্পের পরই অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটল। ওই ভূমিকম্পে ইন্দোনেশিয়ায় ৩ শতাধিক মানুষ নিহত হন। বিশ্বে যে কয়েকটি দেশে সক্রিয় আগ্নেয়গিরি আছে ইন্দোনেশিয়া তাদের মধ্যে একটি। এগুলোতে প্রায়ই অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটে।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
In the face of the movement Irans moral police is abolished

ইরানে নৈতিকতা পুলিশ বিলুপ্ত

ইরানে নৈতিকতা পুলিশ বিলুপ্ত প্রায় আড়াই মাস ধরে ইরানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ চলছে। ছবি:এএফপি
ইরানের অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মাদ জাফর মোনতাজেরি বলেন, ‘বিচার বিভাগের সঙ্গে নৈতিকতা পুলিশের কোনো সম্পর্ক নেই। এই বিভাগকে বিলুপ্ত করা হয়েছে।’

নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে ইরানে চলা বিক্ষোভের মুখে দেশটির নৈতিকতা পুলিশ বিভাগকে বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে সরকার। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে রোববার এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

সঠিকভাবে হিজাব না করার অভিযোগে ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার কুর্দি তরুণী মাহসা আমিনির মৃত্যু হয় গত ১৬ সেপ্টেম্বর। এ ঘটনায় ক্রমান্বয়ে গোটা ইরানে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

ইরানের অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মাদ জাফর মোনতাজেরি বলেন, ‘বিচার বিভাগের সঙ্গে নৈতিকতা পুলিশের কোনো সম্পর্ক নেই। এই বিভাগকে বিলুপ্ত করা হয়েছে।’

একটি ধর্মীয় সম্মেলনে যোগ দিয়ে মোনতাজেরি এমনটি জানান বলে জানিয়েছে ইরানের বার্তা সংস্থা আইএসএনএ। সেখানে একজন অংশগ্রহণকারী ‘কেন নৈতিকতা পুলিশ বাতিল করা হচ্ছে’ জানতে চাইলে ইরানের অ্যাটর্নি জেনারেল ওই মন্তব্য করেন।

ইরানে নৈতিকতা পুলিশ গাশত-এ এরশাদ নামে পরিচিত। দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমাদিনেজাদের সময়ে সঠিকভাবে হিজাব করা এবং ইরানের সংস্কৃতি ছড়িয়ে দেয়ার জন্য দেশটিতে ২০০৬ সালে নৈতিকতাবিষয়ক পুলিশ তাদের কার্যক্রম শুরু করে।

ইরানে নৈতিকতা পুলিশ বিলুপ্ত
ইরানে বিদ্যমান কঠোর পোশাকবিধি অমান্যকারী ব্যক্তিদের আটক করে ব্যবস্থা নেয়ার দায়িত্বে ছিল নৈতিকতা পুলিশ

এর আগে শনিবার ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ভাষণে বলেন, ‘ইরানের প্রজাতন্ত্র ও ইসলামিক ভিত্তি সাংবিধানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত। তবে সংবিধান বাস্তবায়নের পদ্ধতি নমনীয় করা হতে পারে।’

যুক্তরাষ্ট্র-সমর্থিত রাজতন্ত্রকে উৎখাত করার মাধ্যমে ১৯৭৯ সালের ইরানে ইসলামি বিপ্লব ঘটে। এ বিপ্লবের চার বছর পর ইরানে হিজাব বাধ্যতামূলক করা হয়।

১৬ সেপ্টেম্বর নৈতিকতা পুলিশের হেফাজতে ২২ বছর বয়সী মাহসা আমিনীর মৃত্যুর প্রতিবাদে শুরু হওয়া আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীসহ তরুণ-তরুণীরা। ২০০৯ সালের প্রতিবাদ আন্দোলনের পর ইরানের শাসনের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে চলমান বিক্ষোভ।

ইরানে নৈতিকতা পুলিশ বিলুপ্ত
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৬ সেপ্টেম্বর মারা যান মাহসা আমিনি

মাহসার মৃত্যুর পর থেকেই উত্তাল ইরান। ফেসবুক ও টুইটারে #mahsaamini এবং #Mahsa_Amini হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে চলছে প্রতিবাদ। দেশটির বিভিন্ন জায়গায় নারীর পোশাকের স্বাধীনতার পক্ষে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ চলছে নিরাপত্তা বাহিনীর।

আরও পড়ুন:
চীনের গুয়াংজুতে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ
সম্পর্ক জোরদারের সুযোগ ইরান-যুক্তরাষ্ট্র ম্যাচ!
কথা না শুনলে ইরানি ফুটবলারদের পরিবার পড়বে বিপদে
ইরান-আমেরিকা ‘মহারণ’ কাতারে
ইরান ম্যাচের আগে ক্ষমা চাইলেন আমেরিকার কোচ

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Argentinians have the upper hand in the knockout tiebreak

বিশ্বকাপের টাইব্রেকে পাল্লা ভারী আর্জেন্টিনার

বিশ্বকাপের টাইব্রেকে পাল্লা ভারী আর্জেন্টিনার ২০১৪ বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে টাইব্রেকে জয়ের পর আর্জেন্টাইন ফুটবলারদের উচ্ছ্বাস। ছবি: ইন্টেলিজেন্সার
পরিসংখ্যান বলছে, নকআউট ম্যাচগুলোতে টাইব্রেকে আর্জেন্টিনার জেতার রেকর্ডই বেশি। নকআউট পর্বে এ পর্যন্ত পাঁচবারের টাইব্রেকে চারবারই জিতেছে লা আলবিসেলেস্তেরা।

কাতার বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা-অস্ট্রেলিয়া।

টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডে বেশ কয়েকটি ম্যাচ ড্র হলেও নকআউট পর্বে সে সুযোগ নেই। গোল সংখ্যা সমান হলে কিংবা নির্ধারিত সময়ে কোনো গোল না হলে টাইব্রেকারে হবে নিষ্পত্তি।

পরিসংখ্যান বলছে, নকআউট ম্যাচগুলোর টাইব্রেকে আর্জেন্টিনার জেতার রেকর্ডই বেশি।

নকআউট পর্বে এ পর্যন্ত পাঁচবারের টাইব্রেকে চারবারই জিতেছে দেশটি।

১৯৯০ সালের বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে ইউগোস্লাভিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। ম্যাচের ১২০ মিনিট গোলশূন্য থাকার পর টাইব্রেকারে ইউগোস্লাভিয়াকে ৩-২ গোলের ব্যবধানে হারায় মেসির পূর্বসূরীরা।

বিশ্বকাপের টাইব্রেকে পাল্লা ভারী আর্জেন্টিনার

ওই বিশ্বকাপেই সেমিফাইনাল ম্যাচ ইতালির সঙ্গে ১-১ ড্র হলে টাইব্রেকে ৪-৩ গোলের ব্যবধানে জেতে আর্জেন্টিনা।

১৯৯৮ সালে আবারও দ্বিতীয় রাউন্ডে টাইব্রেকারে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হয় আর্জেন্টিনা। এর আগে ২-২ গোলে তাদের নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হয। টাইব্রেকারে হার্নান ক্রেসপো আর্জেন্টিনার হয়ে দ্বিতীয় কিকটি মিস করেন। ডেভিড ব্যাটি এবং পল ইনসের কিক ঠেকিয়ে দেন আর্জেন্টাইন গোল কিপার কার্লোস রোয়া। এতে ওই টুর্নামেন্টে এগিয়ে যায় দক্ষিণ আমেরিকার দলটি। এ ম্যাচে ৪-৩ গোলে টাইব্রেকে জেতে লা আলবিসেলেস্তেরা।

আর্জেন্টিনা পরবর্তী টাইব্রেকের মুখোমুখি হয় ২০০৬ সালের বিশ্বকাপে। কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মানির কাছে টাইব্রেকে ৪-২ গোলে হারে তারা। এটি ছিল আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসির প্রথম বিশ্বকাপ। জার্মান গোলকিপার ইয়েনস লেহমান রবার্তো আয়ালা এবং এস্তেবান কাম্বিয়াসোর কিক ঠেকিয়ে দেন। এতেই নিশ্চিত হয়ে যায় জার্মানির সেমিফাইনাল।

বিশ্বকাপের টাইব্রেকে পাল্লা ভারী আর্জেন্টিনার

আর্জেন্টিনা নকআউট পর্বে শেষ টাইব্রেকের মুখোমুখি হয় ২০১৪ সালে। ওই বছর নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে সেমিফাইনালে ৪-২ গোলের ব্যবধানে জয় পায় আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টাইন গোলকিপার সার্জিও রোমেরো এ জয়ের নায়ক ছিলেন। তিনি রন ভ্লার এবং ওয়েসলি স্নাইডারের পেনাল্টি কিক ঠেকিয়ে দিলে ফাইনালে জায়গা করে নেয় আর্জেন্টিনা।

আরও পড়ুন:
বাংলাদেশের পতাকা হাতে মেসির ছবি কীভাবে?
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্বকাপ গ্রাফিতি
‘বিচ্ছকাপ আইসা পড়ছে’
বিশ্বকাপের ঢেউ আছড়ে পড়েছে দেশে
ডিআরইউ ফুটবলের শিরোপা জিতল চ্যানেল আই

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
If you get a legend at the end

অন্তিমক্ষণে পেলে!

অন্তিমক্ষণে পেলে! ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে। ছবি: সংগৃহীত
হৃদযন্ত্রের সমস্যা ও শরীর ফুলে যাওয়ায় ৮২ বছর বয়সী পেলেকে সাও পাওলোর অ্যালবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এমন একসময় এই কিংবদন্তি হাসপাতালে ভর্তি হলেন, যখন কাতারে বিশ্বকাপে লড়ছেন তার উত্তরসূরীরা।

শারীরিক অবস্থা আরও সঙ্কটজনক হয়েছে ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলের। কেমোথেরাপি কাজ করছে না তার শরীরে। ব্রাজিলের সংবাদপত্র ‘ফোলহা ডে সাও পাওলো’ এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পেলেকে রাখা হয়েছে ‘প্যালিয়াটিভ কেয়ার’-এ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, প্যালিয়াটিভ কেয়ার একটি বিশেষ ব্যবস্থা। মুমূর্ষু রোগীদের এই ব্যবস্থায় নেয়া হয়। যখন রোগীর শরীরে কোনও চিকিৎসা কাজ করে না, তখনই তাকে প্যালিয়াটিভ কেয়ারে রাখা হয়।

গত মঙ্গলবার হৃদযন্ত্রের সমস্যা ও শরীর ফুলে যাওয়ায় ৮২ বছর বয়সী পেলেকে সাও পাওলোর অ্যালবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এমন একসময় এই কিংবদন্তি হাসপাতালে ভর্তি হলেন, যখন কাতারে বিশ্বকাপে লড়ছেন তার উত্তরসূরীরা।

১৯৫৮, ১৯৬২ ও ১৯৭০ বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি অ্যাডসন অ্যারানটিস দো নাসিমেন্তো বিশ্বজুড়ে পরিচিত পেলে নামেই। তাকে বলা হয় সর্বকালের সেরা ফুটবলার।

কয়েক বছর ধরেই ক্যানসারের চিকিৎসা নিচ্ছেন পেলে। গত বছর তার কোলন টিউমারও ধরা পড়ে। শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে খারাপ হওয়ায় তাকে আর সেভাবে প্রকাশ্যে দেখা যায় না এখন।

একদিন আগেই পেলের অসুস্থতার খবর ছড়িয়ে পড়লে ভক্তদের আশ্বস্ত করেছিলেন তার মেয়ে কেলি নাসিমেন্তো। গত শুক্রবার ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, ‘বাবার শরীর নিয়ে গণমাধ্যমে বেশ উদ্বেগ। তবে জরুরি বা ভয়ের কিছু নেই।’

এদিকে শনিবার ফোলহা ডে সাও পাওলো জানায়, পেলে অন্ত্রের ক্যান্সার মোকাবিলা করার জন্য কয়েক মাস ধরে কেমোথেরাপি নিচ্ছেন। তবে এখন চিকিৎসা আর কাজ করছে না।

আরও পড়ুন:
শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে আবার নেপালের মুখোমুখি বাংলাদেশ
ভুটানকে ৮-০ গোলে হারাল বাংলাদেশের মেয়েরা
তারা খালি টাকা চায়: সালাউদ্দিন
অস্ত্রোপচারের পর সুস্থ আছেন মান্ডা
পুরস্কার আর সংবর্ধনায় ভাসলেন সাফজয়ী পাহাড়ি কন্যারা

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
For the first time Iran released the number of people killed in the movement

প্রথমবারের মতো আন্দোলনে নিহতের সংখ্যা প্রকাশ ইরানের

প্রথমবারের মতো আন্দোলনে নিহতের সংখ্যা প্রকাশ ইরানের ইরানে তীব্র সরকারবিরোধী আন্দোলন চলছে। ছবি: সংগৃহীত
তেহরানের নিরাপত্তা সংস্থার বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘সন্ত্রাসীদের মিডিয়া গ্রুপ দ্বারা পরিচালিত একটি হাইব্রিড যুদ্ধ মোকাবিলা করছে ইরান।’

নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে ইরানজুড়ে চলা বিক্ষোভে ২ শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ইরান সরকার এই প্রথমবারের মতো আন্দোলনে নিহতের সংখ্যা প্রকাশ করল।

শনিবার এক বিবৃতিতে ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা পরিষদ সংস্থার পক্ষ থেকে এই নিহতের সংখ্যা প্রকাশ করা হয়। এতে বিক্ষোভকে দাঙ্গা হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

বিবৃতিতে জানানো হয়, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, বিদেশি মদদপুষ্ট দলের দাঙ্গা এবং বিপ্লববিরোধী বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যসহ ২ শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নিরপরাধ ব্যক্তিরা নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় মারা গেছে।

তবে কীভাবে তারা নিহত হয়েছে তা প্রকাশ করা হয়নি।

কয়েকদিন আগেই ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড কোরের (আইআরজিসি) কমান্ডার আমির আলি হাজিজাদেহ জানান, ইরানে বিক্ষোভ ঘিরে অস্থিরতায় তিন শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন।

তবে বিদেশি মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, এই আন্দোলনে চার শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সঠিকভাবে হিজাব না করার অভিযোগে ইরানের নৈতিকতা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার কুর্দি তরুণী মাহসা আমিনির মৃত্যু হয় ১৬ সেপ্টেম্বর। এ ঘটনায় ক্রমান্বয়ে গোটা ইরানে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

ইরানের অভিযোগ, যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল, যুক্তরাজ্য ও সৌদি আরবের মদদে এই অরাজক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

তেহরানের নিরাপত্তা সংস্থার বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘সন্ত্রাসীদের মিডিয়া গ্রুপ দ্বারা পরিচালিত একটি হাইব্রিড যুদ্ধ মোকাবিলা করছে ইরান।’

জাতিসংঘ ইরান সরকারকে বিক্ষোভকারীদের ওপর অসম শক্তি ব্যবহার না করার আহ্বান জানিয়েছে। পাশাপাশি মৃত্যুদণ্ডের বিরোধিতা করে বেশ কয়েকজন রাজনৈতিক বন্দিকে মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

গত মাসে জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে ভোটের পর ইরানের আন্দোলন ইস্যুতে তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। তবে তেহরান জানিয়ে দিয়েছে, তারা তদন্তে সহায়তা করবে না।

মন্তব্য

p
উপরে