× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
Grandmother gave birth to her granddaughter
hear-news
player
google_news print-icon

দাদির পেটে নাতনির জন্ম!

দাদির-পেটে-নাতনির-জন্ম
নাতনির জন্ম দিয়েছে ৫৬ বছর বয়সী ন্যানসি হক। ছবি: সংগৃহীত
নাতনিকে জন্ম দেয়ার আগে ৯ ঘণ্টার মতো প্রসব ব্যাথায় ভুগেছেন ন্যানসি। এ বয়সে নাতনির জন্ম দেয়ার পর রোমাঞ্চিত তিনি।

দাদির গর্ভে জন্ম নিলেন নাতনি! শুনতে অবাক লাগলেও এ ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্র ইউটাহ রাজ্যে।

মার্কিন ম্যাগাজিন পিপলের প্রতিবেদনে বলা হয়, ৫৬ বছর বয়সী ন্যানসি হকের ছেলে জেফ হকের স্ত্রীর একটি রোগের কারণে জরায়ু অপসারণ করতে হয়। এতে তার গর্ভধারণের সম্ভাবনা একেবারেই শেষ হয়ে যায়।

এমন অবস্থায় ছেলের সন্তানের জন্ম দেয়ার জন্য নিজ গর্ভকে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেন ন্যানসি। আর এরপরই সারোগ্যাসি পদ্ধতিতে নিজের ছেলের সন্তানকে ধারণ করেন তিনি।

নাতনিকে নিয়ে এ পর্যন্ত পঞ্চমবারের মতো শিশুর জন্ম দিলেন ন্যানসি।

ন্যানসির ছেলে জেফ পেশায় একজন ওয়েব ডেভলপার। মায়ের গর্ভে নিজের সন্তান জন্ম দেয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘দারুণ মুহূর্ত ছিল। মায়ের শিশু জন্মানো দেখতে পারে কয়জন!’

পিপলের প্রতিবেদনে বলা হয়, নাতনিকে জন্ম দেয়ার আগে ৯ ঘণ্টার মতো প্রসব ব্যাথায় ভুগেছেন ন্যানসি। এ বয়সে নাতনির জন্ম দেয়ার পর রোমাঞ্চিত তিনি। তবে ন্যানসির একটু কষ্টও আছে কারণ মা অন্যজন হওয়ায় শিশুটিকে নিজের কাছে রাখতে পারছেন না তিনি।

দাদির পেটে নাতনির জন্ম!
ছেলের স্ত্রীর সঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা ন্যানসি

দাদির ইচ্ছা অনুয়ায়ী, সদ্যোজাত ওই শিশুর নাম রাখা হয়েছে হান্নাহ। জেফ জানান, তার মা হঠাৎ মধ্যরাতে জেগে ওঠার পর একটি কণ্ঠস্বরকে বলে উঠতে শোনেন, ‘আমার নাম হান্নাহ।’

ন্যানসি হক ইউটাহর টেক ইউনিভার্সিটিতে চাকরি করেন। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর কোনোরকম পরীক্ষা ছাড়াই তিনি আত্মবিশ্বাসী ছিলেন যে নাতনির জন্ম দেবেন।

ন্যানসির ছেলের স্ত্রী ক্যামবিরা জানান, ন্যানসি ও হান্নাহ দুটোর অর্থই দয়া।

এমন জন্মদানের বিষয়ে চিকিৎসক রাসেল ফাউলক বলেন, ‘দাদির গর্ভে নাতনি থাকাটা স্বাভাবিক ঘটনা নয়। এখানে বয়স কোনো বাধা হতে পারেনি।’

আরও পড়ুন:
ছেলেকে বিক্রির সিদ্ধান্ত যেভাবে নিলেন মা
একসঙ্গে চার সন্তান জন্ম দিলেন প্রবাসীর স্ত্রী
৫ হাজারের সুদ ৩ লাখ ৮ হাজার, দিতে না পারায় সন্তান বিক্রি
পুত্রকে বুক আগলে রাখলেন ‘ভারসাম্যহীন’ নারী
‘এলেম আমি কোথা থেকে’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Anthonys world record with ear hair

কানের চুলে অ্যান্তনির বিশ্বরেকর্ড

কানের চুলে অ্যান্তনির বিশ্বরেকর্ড কানের চুল দিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন তামিলনাড়ুর অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অ্যান্তনি ভিক্টর। ছবি: সংগৃহীত
অ্যান্তনির কানে সবচেয়ে লম্বা যে চুলটি আছে, তার দৈর্ঘ ১৮.১ সেন্টিমিটার বা ৭.১২ ইঞ্চি। এ কারণে তার স্কুলের সহকর্মী ও ছাত্রছাত্রীরা তাকে ‘কানে চুলওয়ালা স্যার’ বলেই ডাকতেন।

গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে কতরকম কারণেই না মানুষের নাম ওঠে । সর্বোচ্চ উচ্চতা হোক বা দীর্ঘতম চুল, গিনেস বুকে আছে এমন বহু রেকর্ড।

কিন্তু ভারতের তামিলনাড়ুর অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক অ্যান্তনি ভিক্টর যে বিশ্বরেকর্ড করলেন তা শুনে চমক উঠতে পারেন অনেকেই।

জানা গেছে, বিশ্বের দীর্ঘতম কানের চুল দিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন অ্যান্তনি।

গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, অ্যান্তনির কানে ৭ ইঞ্চিরও বেশি দৈর্ঘের লম্বা চুল রয়েছে। মজার কথা হলো, অ্যান্তনি এই রেকর্ড গড়েছেন সেই ২০০৭ সালে। এতদিন পরও তাকে কেউ ছাড়াতে পারেনি।

জানা গেছে, অ্যান্তনির কানে সবচেয়ে লম্বা যে চুলটি আছে তার দৈর্ঘ ১৮.১ সেন্টিমিটার বা ৭.১২ ইঞ্চি। এ কারণে তার স্কুলের সহকর্মী ও ছাত্রছাত্রীরা তাকে ‘কানে চুলওয়ালা স্যার’ বলেই ডাকতেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অ্যান্তনির বিশ্বরেকর্ডের পোস্টে অভিনন্দনের বদলে হাসাহাসিই বেশি করেছে লোক। কেউ লিখেছে, ‘এমন আজব রেকর্ড কে গড়তে চায়!’ কারও বক্তব্য, ‘আমি আর কিছু শেভ করি বা না করি, এই চুল শেভ করবই।’ কেউ আবার ব্যঙ্গ করে লিখেছেন, ‘এই রেকর্ড ভাঙাই এখন আমার লক্ষ্য।’

তবে কানের চুল নিয়ে অ্যান্তনির আগেও গিনেস বুকে এই ক্যাটাগরিতে নাম তুলেছিলেন এক ভারতীয়। উত্তরপ্রদেশের মুদি ব্যবসায়ী রাধাকান্ত বাজপেয়ীর কানের চুল ছিল ১৩ দশমিক ২ সেন্টিমিটার লম্বা। ২০০৩ সালে গিনেস বুকে এ কারণে তার নাম উঠেছিল।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Divorce your wife if your favorite team loses in the World Cup

বিশ্বকাপে পছন্দের দল হারলে ডিভোর্স!

বিশ্বকাপে পছন্দের দল হারলে ডিভোর্স! গত ৩০ নভেম্বর সৌদি-মেক্সিকো ফুটবল ম্যাচের একটি দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত
৩০ নভেম্বর সৌদি আরবের বিপক্ষে মেক্সিকোর ম্যাচের কয়েক ঘণ্টা আগে অনলাইনে এসে শপথ নিতে দেখা যায় এক ব্যক্তিকে। তাকে বলতে শোনা যায়, মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচে যদি সৌদি আরব হেরে যায়, তবে স্ত্রীকে ছেড়ে দেবেন তিনি। 

কাতার বিশ্বকাপের উত্তেজনায় কাঁপছে বিশ্ব। পছন্দের দল নিয়ে মাতামাতিও চলছে সেই তালে। তবে এই উন্মাদনায় ওমানের এক সৌদিভক্ত যে কাণ্ড করেছেন সেটাতে সমর্থন দেয়া কঠিন। তিনি বলেছেন, বিশ্বকাপে পছন্দের দল হেরে বসলে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়ে দেবেন!

ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। গালফ নিউজের খবরে বলা হয়, ৩০ নভেম্বর সৌদি আরবের বিপক্ষে মেক্সিকোর ম্যাচের কয়েক ঘণ্টা আগে অনলাইনে এসে শপথ নিতে দেখা যায় ওই ব্যক্তিকে। তাকে বলতে শোনা যায়, মেক্সিকোর বিপক্ষে ম্যাচে যদি সৌদি আরব হেরে যায়, তবে স্ত্রীকে ছেড়ে দেবেন তিনি।

ম্যাচে মেক্সিকোর কাছে ২-১ গোলে হেরে যায় সৌদি আরব। শুধু তাই নয়, এই ম্যাচের সঙ্গে সৌদিদের নকআউট পর্বে খেলার আশাও শেষ হয়ে যায়।

ম্যাচ শেষে স্ত্রীকে তালাক দিয়েছিলেন কী না, তা অবশ্য জানা যায়নি। তারপরও পুরো বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। অনেকেই ফুটবল অনুরাগীদের সচেতন হতে, আবার অনেকে ব্যক্তিগত জীবন থেকে খেলাকে আলাদা রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
From the wedding ceremony to the polling station

বিয়ের আসর থেকে ভোটকেন্দ্রে

বিয়ের আসর থেকে ভোটকেন্দ্রে ভোটকেন্দ্রে নবদম্পতি। ছবি: সংগৃহীত
গণতন্ত্রে বিশ্বাসী এই দম্পতি হলেন কবিতা ও বৈভব। তারা কুচ জেলার ভুজ আসনের একটি কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন। 

ভারতে বিয়ের আসর থেকে সরাসরি ভোটকেন্দ্রে ছুটে গেলেন এক নবদম্পতি। বিয়ের পোশাকে তাদের ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হওয়ার দৃশ্য নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। রাজস্থানের বিধানসভা নির্বাচনে ঘটেছে এই ঘটনা।

‘গণতন্ত্রে’ বিশ্বাসী এই দম্পতি হলেন কবিতা ও বৈভব। তারা কুচ জেলার ভুজ আসনের একটি কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন।

ভাইরাল ছবিতে দেখা যায়, ব্লাউজের ওপর জরির কাজসহ লেহেঙ্গা পরে আছেন নববধূ কবিতা। গলায় ঝুলছে বিয়ের মালা। পাশে শেরওয়ানিতে দেখা যায় বৈভবকে।

২০১৭ সালেও এমন ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল ভারত। গুজরাটের বিধানসভা নির্বাচনে ভোট দিতে হলুদের অনুষ্ঠান থেকে সরাসরি ভোটকেন্দ্রে হাজির হন এক কনে। ফেনি পারেখে নামের ওই কনে সুরাটের কাতারগামের একটি কেন্দ্রে ভোট দেন।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
30 surgeries in a 4 week coma from one mosquito bite

মশার কামড়ে ৪ সপ্তাহ কোমায়, ৩০ সার্জারি!

মশার কামড়ে ৪ সপ্তাহ কোমায়, ৩০ সার্জারি! এশিয়ান টাইগার মশা। ছবি: সংগৃহীত
অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে রটস্কে বলেন, ‘আমি দেশের বাইরে যাইনি। জার্মানিতেই ওই মশা আমাকে কামড়িয়েছে। এরপরই ধকল শুরু । আমি শয্যাশায়ী হলাম, বাথরুমেও যেতে পারতাম না। জ্বর ছিল। কিছুই খেতে পারতাম না। মনে হচ্ছিল, সব শেষ হয়ে যাচ্ছে। পরে চিকিৎসকরা ধারণা করে, এশিয়ান টাইগার মশা আমাকে কামড়িয়েছে। তারা বিশেষজ্ঞকে ডাকেন।’

মশার কামড় সবসময় বিরক্তিকর। অনেক সময় এটির কামড় জটিল রোগের কারণ। দেশে প্রতি বছরই বহু মানুষের প্রাণহানি ঘটে ডেঙ্গুতে। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর এটি আরও ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। এডিসবাহী মশার মতোই একটি মশার কামড় ভুগিয়েছে ২৭ বছর বয়সী জার্মান যুবক সেবাস্তিয়ান রটস্কেকে। ৩০টি অস্ত্রোপচার এবং ৪ সপ্তাহ কোমায় থাকার পর বেঁচে ফিরেছেন তিনি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টারের প্রতিবেদনে বলা হয়, সেবাস্তিয়ান রটস্কে জার্মানির রোডারমার্ক শহরের বাসিন্দা। গত বছরের গ্রীষ্মে ‘এশিয়ান টাইগার’ নামে এক ধরনের মশা তাকে কামড়েছিল। এরপর তার সর্দি–জ্বরের উপসর্গ দেখা দেয়।

তবে সেটা ছিল কেবল শুরু। এরপর ভয়াবহ সব শারীরিক জটিলতায় ভোগতে হয় রটস্কেকে।

গত দেড় বছরে রক্তদূষণ, যকৃৎ, কিডনি, হৃৎপিণ্ড ও ফুসফুস অকার্যকর হয়ে যাওয়ার মতো অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে তাকে। এসব শারীরিক জটিলতার কারণে চার সপ্তাহ কোমায় ছিলেন রটস্কে। অস্ত্রের নিচে নিজেকে সঁপে দিয়েছেন ৩০ বার।

ঊরুতেও অস্ত্রোপচার হয়েছে রটস্কের। সেখানে মারাত্মক একটি ফোড়া ছিল। এ কারণে ঊরুর একটা অংশে পচন ধরেছিল। তখন রটস্কের মনে হয়েছিল, তার বাঁচার সম্ভাবনা খুব কম।

মশার কামড়ে ৪ সপ্তাহ কোমায়, ৩০ সার্জারি!
এশিয়ান টাইগার মশার কামড়ে শয্যাশায়ী সেবাস্তিয়ান রটস্কে

অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে রটস্কে বলেন, ‘আমি দেশের বাইরে যাইনি। জার্মানিতেই ওই মশা আমাকে কামড়িয়েছে। এরপরই ধকল শুরু । আমি শয্যাশায়ী হলাম, বাথরুমেও যেতে পারতাম না। জ্বর ছিল। কিছুই খেতে পারতাম না। মনে হচ্ছিল, সব শেষ হয়ে যাচ্ছে। পরে চিকিৎসকরা ধারণা করে, এশিয়ান টাইগার মশা আমাকে কামড়িয়েছে। তারা বিশেষজ্ঞকে ডাকেন।’

‘এশিয়ান টাইগার মশা’ জংলি মশা নামেও পরিচিত। এই মশাগুলো দিনের বেলায় কামড়ায়। জিকা ভাইরাস, ওয়েস্ট নিল ভাইরাস, চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গুর মতো মারাত্মক সব রোগের জীবাণু বহন করে এই মশা।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Lover jumps into the sea to retrieve the ring during the proposal

প্রপোজের সময় সমুদ্রে আংটি, প্রেমিকের ঝাঁপ

প্রপোজের সময় সমুদ্রে আংটি, প্রেমিকের ঝাঁপ আংটি উদ্ধারের জন্য ক্লাইনের সমুদ্রে ঝাঁপ দেয়ার মুহূর্তটি। ছবি: সংগৃহীত
আংটি উদ্ধারের পরই আবারও প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ক্লাইন। এতে রাজিও হয়ে যান তার প্রেমিকা।

প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়ার সময় সমুদ্রে পড়ে যায় বাগদানের আংটি! হতবিহ্বল প্রেমিক আংটিটি উদ্ধারে সঙ্গে সঙ্গেই ঝাঁপ দেন সমুদ্রে! এমন ঘটনাই ঘটলো যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডাতে। আর এ ঘটনার একটি ভিডিও ফেসবুকে পোস্ট করেছে স্কট ক্লাইন নামের ওই প্রেমিক নিজেই।

ভিডিওতে দেখা যায়, প্রেমিকা সুজি টাকারকে নিয়ে একটি নৌকায় দাঁড়িয়ে আছেন ক্লাইন। সূর্যাস্তের সময় এই যুগল একটি রোমান্টিক ভঙ্গিতে একে-অপরের হাত ধরে রেখেছিলেন। এ সময় হাঁটু গেড়ে প্রেমিকাকে আংটি পরানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ক্লাইন।

তিনি যখন তার প্যান্টের পকেট থেকে আংটির বক্সটি বের করতে যান তখনই সেটি পড়ে যায় সমুদ্রে। আর এরপরই সাত-পাঁচ না ভেবে সমুদ্রে ঝাঁপ দেন ক্লাইন।

সমুদ্রে ঝাঁপ দেয়ার কিছু মুহূর্তের মধ্যেই ক্লাইন ওই আংটির বক্সটি উদ্ধার করেও নিয়ে আসেন।

ক্লাইন তার ফেসবুক পোস্টে বলেন, ‘এটি ১০০ ভাগ সত্য। আমি কখনও এটি ভুলবো না।’

এ ঘটনাটি পুরোটা ভিডিও করেন ক্লাইনের এক বন্ধু। আংটি উদ্ধারের পরই আবারও প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ক্লাইন। এতে রাজিও হয়ে যান তার প্রেমিকা।

ক্লাইন নিউ ইয়র্ক পোস্টকে বলেন, ‘আমার প্যান্টের পেছনের পকেটে আংটির বক্সটি ছিল। আমি যখন এটি বের করতে গেলাম তখন এটি হাত থেকে ফসকে যায়। আমি ঝাঁপ দিতে দ্বিধা করিনি। কারণ আমার মনে হচ্ছিল, এটি দ্রুত ডুবে যাবে। পরে আমি দেখলাম এটি নৌকার সঙ্গে বাড়ি খেয়ে পানিতে পড়ে ভাসছে। আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলাম এবং আমি পানিতে পড়তে দ্বিধা করিনি। ভাগ্যক্রমে, আমি আংটিটি উদ্ধার করতে পেরেছি!’

আরও পড়ুন:
বন্ধুর প্রাক্তন প্রেমিকার সঙ্গে প্রেমের জেরে খুন
প্রেমের টানে আসা ফরাসি তরুণীর ফ্লাইং কিস
হঠাৎ ব্রেকআপ? সামলাবেন কীভাবে?
এবার ‘প্রেমের টানে’ বরিশালে আসা ভারতীয় যুবকের গেল প্রাণ
কিউবায় বৈধতা পেল সমলিঙ্গের বিয়ে

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The husband divorced his wife at the daughters wedding

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে মাইকে স্ত্রীকে তালাক

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে মাইকে স্ত্রীকে তালাক প্রতীকী ছবি
মেয়ের বিয়ের আগে ওই ব্যক্তির সঙ্গে তার স্ত্রীর কিছু বিষয় নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। তবে এই বিরোধের জেরে যে মেয়ের বিয়ের দিনই তিনি স্ত্রীকে তালাক দেবেন, এটি ভাবতে পারেননি কেউ।

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে স্ত্রীকে তালাক দিলেন এক ব্যক্তি। আর এই তালাকের ঘোষণাও তিনি দিয়েছেন মাইক্রোফোনে। ঘটনাটি ঘটেছে মিসরের দামিয়েত্তা শহরে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে গালফ নিউজ।

ইতোমধ্যে এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, ওই ব্যক্তি তার মেয়ে ও জামাতার প্রতি শুভ কামনা জানাচ্ছেন। এরপরই মাইক্রোফোনে তিনি স্ত্রীকে তালাকের ঘোষণা দেন, যা শুনে আঁতকে ওঠেন উপস্থিত মানুষজন। তবে ওই সময় তালাকের কোনো কারণ জানাননি ওই ব্যক্তি।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, মেয়ের বিয়ের আগে ওই ব্যক্তির সঙ্গে তার স্ত্রীর কিছু বিষয় নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। তবে এই বিরোধের জেরে যে মেয়ের বিয়ের দিনই তিনি স্ত্রীকে তালাক দিয়ে বসবেন- এমনটা ভাবতে পারেননি কেউ। এই ঘটনার পর তার মেয়ের বিয়ে স্থগিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মিসরের সরকারি পরিসংখ্যান সংস্থা সেন্ট্রাল এজেন্সি ফর পাবলিক মোবিলাইজেশন অ্যান্ড স্ট্যাটিস্টিকসের (সিএপিএমএএস) তথ্য অনুসারে, দেশটিতে বিয়ের হার বৃদ্ধি পেয়েছে ০.৫ শতাংশ। আর বিয়েবিচ্ছেদের হার বেড়েছে ১৪ শতাংশ।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Flossy is the oldest cat in the world

বিশ্বের সবচেয়ে ‘বুড়ো বিড়াল’ ফ্লসি

বিশ্বের সবচেয়ে ‘বুড়ো বিড়াল’ ফ্লসি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়াল ফ্লসি। ছবি:সংগৃহীত
ফ্লসির বয়স এখন ২৬ বছর ৩৩০ দিন। বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়ালের তকমা এখন তার।

বিড়াল ভালোবাসেন অনেকেই। গৃহপালিত এই প্রাণীর গড় বয়স ১৪ থেকে ১৮ বছর। তবে দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনের বিড়াল ফ্লসির বয়স শুনলে অবাক হবেন অনেকেই । এই বিড়ালের বয়স এখন ২৬ বছর ৩৩০ দিন! বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়ালের তকমাও জুটেছে ফ্লসির।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের বরাতে বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ফ্লসির মালিক ভিকি গ্রিন বিবিসিকে বলেন, ‘ফ্লসি একটা আশ্চর্য বিড়াল।’

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৯৫ সালে জন্ম নেয়া ফ্লসির শুরুতে কোনো আশ্রয় ছিল না। সে মার্সিসাইড হাসপাতালের কাছেই থাকত। সেখান থেকে তাকে এক নারী নিয়ে যায়। ১০ বছর তার সঙ্গেই ছিল ফ্লসি। ওই নারীর মৃত্যুর পর ফ্লসিকে নিয়ে যান তার বোন। তার কাছে ১৪ বছর ছিল ফ্লসি। পরে তার মৃত্যু হলে ফ্লসির দায়িত্ব নেয় ক্যাটস প্রটেকশন নামের একটি চ্যারিটি সংগঠনের কর্মকর্তা ভিকি গ্রিন।

ভিকি বলেন, ‘ফ্লসি বধির। সে এখন চোখেও কম দেখে। তারপরও সে এখনো অনেক প্রাণবন্ত। আমার বাড়িতে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের স্বীকৃতি আসবে... এটা কখনও ভাবিনি।’

মন্তব্য

p
উপরে