× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
School children having the longest holiday in the world
hear-news
player
google_news print-icon

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা ছুটি কাটিয়ে স্কুলে শিশুরা

বিশ্বের-সবচেয়ে-লম্বা-ছুটি-কাটিয়ে-স্কুলে-শিশুরা-
দুই বছরের বেশি সময় পর স্কুলে ফিরল ফিলিপাইনের লাখ লাখ শিশু। ছবি: সংগৃহীত
করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্ক আছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। স্যানিটাইজার ব্যবহার ও মাস্ক পরা নিশ্চিত করা হচ্ছে কঠোরভাবে। স্কুলের গেটে সবার তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা ছুটি কাটিয়ে স্কুলে ফিরল ফিলিপাইনের লাখ লাখ শিক্ষার্থী। করোনার কারণে দীর্ঘ দুই বছরের বেশি সময় ধরে বাড়ি থেকে পাঠদানে অংশ নিত এসব ছাত্র-ছাত্রী।

বিবিসির খবরে বলা হয়, সোমবার দেশটির প্রায় অর্ধেক স্কুলে সশরীরে পাঠদান শুরু হয়। প্রায় ২৪ হাজার পাবলিক স্কুলে এখন থেকে সপ্তাহে ৫ দিন পাঠদান চলবে। বাকি স্কুলগুলোয় ব্যক্তিগত বা অনলাইনের মাধ্যমে ক্লাস হবে

ফিলিপাইনের শিক্ষা কর্মকর্তারা আশা করছেন, নভেম্বরের মধ্যে ফিলিপাইনের নিবন্ধিত ২ কোটি ৭০ লাখ স্কুলশিক্ষার্থীই সশরীরে ক্লাসে অংশ নেবে। শ্রেণিকক্ষের সংকট এবং ভিড় এড়াতে অনেক স্কুলে শিফট করে পাঠদান চলবে।

করোনায় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে নাজুক পরিস্থিতিতে পড়ে ফিলিপাইন। দেশটিতে প্রায় ৩০ লাখ আক্রান্তের পাশাপাশি প্রাণ হারিয়েছেন ৫০ হাজার মানুষ।

ম্যানিলার সান পেড্রো প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী সোফিয়া ম্যাকাহিলিগ বলে, ‘দুই বছর ধরে অনলাইনে ক্লাস করছি। স্কুলে এসে সহপাঠী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা হওয়ায় অনেক উচ্ছ্বসিত আমি।’

‘আমরা অনেক মজা করতাম, এখন আবার মজা করব।’

ফিলিপানের শিক্ষা বিভাগ বলছে, লম্বা ছুটি ছাড়া উপায় ছিল না। কারণ বেশির ভাগ শিক্ষার্থীই তাদের অভিভাবক কিংবা বৃদ্ধ দাদা-দাদির সঙ্গে একই বাড়িতে বাস করে।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্ক আছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। স্যানিটাইজার ব্যবহার ও মাস্ক পরা নিশ্চিত করা হচ্ছে কঠোরভাবে। স্কুলে গেটে সবার তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

অনেক বিশেষজ্ঞ বলছেন, এ দীর্ঘ বিরতি শিক্ষা সংকটকে আরও নাজুক করেছে। মহামারি তাদের মনোজগতে শক্ত প্রভাব ফেলেছে।

দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ, স্বাস্থ্যঝুঁকি এবং দারিদ্র্য- শিশুদের শেখার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলেছে বলে মনে করছে ইউনিসেফ।

আরও পড়ুন:
মৃত্যুশূন্য দিনে শনাক্ত ২১২
মৃত্যুহীন দিনে বেড়েছে শনাক্ত
করোনা: নিম্নমুখী শনাক্তের হার, মৃত্যু ১
করোনা: নিয়ন্ত্রিত পরিস্থিতিতে দুজনের মৃত্যু
করোনার পর চীনে এবার ‘ল্যাংগায়া’ ভাইরাস

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Protests against corona rules are increasing in China

চীনে করোনা বিধির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ বাড়ছে

চীনে করোনা বিধির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ বাড়ছে চীনে করোনাভাইরাসজনিত বিধিনিষেধের প্রতিবাদে সাংহাইয়ে বিক্ষোভে নামে হাজারো মানুষ। ছবি: বিবিসি
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিদেশি সাংবাদিকদের পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায়, উরুমকিতে মৃত ব্যক্তিদের স্মরণ ও করোনা বিধির বিরুদ্ধে সাংহাই শহরে বিক্ষোভে নামে হাজারো জনতা। তাদের মধ্যে অনেকে প্রেসিডেন্ট শি চিনপিংয়ের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

চীনের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল শিনজিয়াংয়ের রাজধানী উরুমকিতে ভবনের আগুনে ১০ মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে দৃশ্যত বিস্তৃত হচ্ছে করোনাভাইরাসজনিত কঠোর বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ।

বিবিসির রোববারের প্রতিবেদনে জানানো হয়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিদেশি সাংবাদিকদের পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যায়, উরুমকিতে মৃত ব্যক্তিদের স্মরণ ও কঠোর করোনাবিধির বিরুদ্ধে সাংহাই শহরে বিক্ষোভে নামেন হাজারো জনতা। তাদের মধ্যে অনেকে প্রেসিডেন্ট শি চিনপিংয়ের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

উরুমকিতে আগুনে মৃত্যুর জন্য অনেকে আবাসিক ভবনগুলোতে লকডাউনকে দায়ী করেন, তবে চীন কর্তৃপক্ষ এই কারণ মানতে নারাজ।

আগুনে প্রাণহানির পর উরুমকির কর্মকর্তারা শুক্রবার রাতে দুঃখ প্রকাশ করে দায়িত্বে অবহেলাকারীদের শাস্তির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

আগুনে মৃতদের স্মরণে সাংহাইয়ে সমবেত জনতার কয়েকজনকে মোমবাতি প্রজ্বালন করতে দেখা যায়। কেউ কেউ সড়কে ফুল রেখে ভুক্তভোগীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

অনেককে ‘শি চিনপিং, সরে দাঁড়াও’, ‘কমিউনিস্ট পার্টি, বিদায় নাও’ স্লোগান দিতে শোনা যায়। কাউকে কাউকে কালো ব্যানার নিয়ে দাঁড়াতেও দেখা যায়।

চীনে এ ধরনের প্রতিবাদ অস্বাভাবিক। দেশটিতে সরকার ও প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে সরাসরি যেকোনো সমালোচনার পরিণতি হতে পারে কঠোর শাস্তি।

বিক্ষোভকারীদের কেউ কেউ পুলিশকে গালমন্দও করেন। তাদের একজন বার্তা সংস্থা এপিকে বলেন, তার এক বন্ধুকে পিটিয়েছে পুলিশ। দুজনের দিকে পিপার স্প্রে ছোড়া হয়েছে।

কিছু ভিডিওতে দেখা যায়, লোকজন বিক্ষোভ করছে; পুলিশ তাকিয়ে দেখছে।

বিবিসির প্রতিবেদক দেখেছেন, বিক্ষোভস্থলে বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্য পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন:
চীনে কমিউনিস্ট পার্টির ২০তম কংগ্রেস শুরু
মিয়ানমার নিয়ে অবশেষে মুখ খুলল চীন
চীনা নাগরিকের ৭ বছরের কারাদণ্ড
চীনের প্রবৃদ্ধি অনুসরণ করতে হবে: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী
বিচারমন্ত্রীর বিচার বসাল চীন, দেয়া হলো মৃত্যুদণ্ড

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
32 killed by Russian shelling after leaving Kherson Ukraine

খেরসন ছাড়ার পর রাশিয়ার ছোড়া গোলায় নিহত ৩২: ইউক্রেন

খেরসন ছাড়ার পর রাশিয়ার ছোড়া গোলায় নিহত ৩২: ইউক্রেন ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর হামলায় নিহত একজনকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ছবি: এপি
পুলিশপ্রধান ইহোর বলেন, প্রতিদিনের গোলাবর্ষণ শহরটিকে ধ্বংস করে ফেলছে। হত্যা করা হচ্ছে শান্তিপূর্ণ বাসিন্দাদের। খেরসন ছেড়ে যাওয়া রুশ বাহিনী হামলা চালিয়ে এখন পর্যন্ত ৩২ জন সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছে।

মস্কোপন্থি বাহিনী প্রত্যাহারের পর ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খেরসনে রাশিয়ার সেনাদের গোলাবর্ষণে কমপক্ষে ৩২ জন নিহত হয়েছেন।

ইউক্রেনের পুলিশপ্রধান ইহোর ক্লাইমেনকোর ফেসবুক পোস্টের বরাতে স্থানীয় সময় শনিবার এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স

প্রায় ৯ মাস ধরে খেরসন দখল করে রেখেছিল রুশ বহিনী। গত ১১ নভেম্বর অবশেষে এই অঞ্চল ছেড়ে দিয়ে ডিনিপ্রো নদীর পূর্বপারে অবস্থান নিয়ে সেখান থেকেই গোলাবর্ষণ করে যাচ্ছে তারা।

পুলিশপ্রধান ইহোর বলেন, প্রতিদিনের গোলাবর্ষণ শহরটিকে ধ্বংস করে ফেলছে। হত্যা করা হচ্ছে শান্তিপূর্ণ বাসিন্দাদের। খেরসন ছেড়ে যাওয়া রুশ বাহিনী হামলা চালিয়ে এখন পর্যন্ত ৩২ জন সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছে।

পুলিশ আবারও এই অঞ্চলে দায়িত্ব পালন শুরু করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, নিরাপদে থাকার জন্য অনেক লোক দেশের অন্য এলাকায় চলে যাচ্ছে। কিন্তু অনেক বাসিন্দা তাদের বাড়িতেই রয়ে গেছে। আমাদের তাদের সর্বোচ্চ সম্ভাব্য নিরাপত্তা দিতে হবে।

এদিকে শহরে এরই মধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ আবার চালু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের এক সিনিয়র সহকারী। আরেক কর্মকর্তা গত সপ্তাহে জানান, যারা এলাকা ত্যাগ করতে চান তাদের সরিয়ে নেয়া হবে।

রুশ সেনাদের দ্বারা ওই এলাকায় ৫৭৮টি যুদ্ধাপরাধের ঘটনা ঘটেছে বলে তদন্তকারীদের তদন্তের বরাতে জানিয়েছেন পুলিশপ্রধান ইহোর। তবে রাশিয়া এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় গুরুত্বপূর্ণ খেরসন শহর থেকে রুশ সেনারা সরে যাওয়ার পর এর নিয়ন্ত্রণ নেয় ইউক্রেনের সেনারা। এর মধ্য দিয়ে যুদ্ধে দখলে থাকা একমাত্র আঞ্চলিক রাজধানী শহর থেকেও পিছু হটে রাশিয়া। এর আগে সেপ্টেম্বরে খেরসনসহ চার অঞ্চলকে রাশিয়ার অংশ ঘোষণা করেছিলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে ইউক্রেনে হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে ইউক্রেনও। যুদ্ধে প্রতিদিনই আসছে প্রাণহানির খবর।
পশ্চিমাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ রাশিয়াকে এই হামলা বন্ধের অনুরোধ করলেও তাতে সাড়া দেননি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

এ ছাড়া কয়েক দফা দুই দেশের বৈঠকেও আসেনি কোনো সমাধান। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব পড়েছে সারা বিশ্বে। বেড়েছে জ্বালানি, খাদ্যপণ্যসহ নানা পণ্যের দাম। ইউক্রেন থেকে বাস্তুচ্যুত হচ্ছে অসংখ্য মানুষ।

আরও পড়ুন:
মিসাইল ভান্ডার ফুরিয়েছে রাশিয়ার, দাবি ব্রিটিশ গোয়েন্দাদের
ইউক্রেনে ৬০ লাখ পরিবার বিদ্যুৎহীন: জেলেনস্কি
ইউক্রেনের পাশাপাশি মলদোভায়ও ব্ল্যাকআউট

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The husband divorced his wife at the daughters wedding

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে মাইকে স্ত্রীকে তালাক

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে মাইকে স্ত্রীকে তালাক প্রতীকী ছবি
মেয়ের বিয়ের আগে ওই ব্যক্তির সঙ্গে তার স্ত্রীর কিছু বিষয় নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। তবে এই বিরোধের জেরে যে মেয়ের বিয়ের দিনই তিনি স্ত্রীকে তালাক দেবেন, এটি ভাবতে পারেননি কেউ।

মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে স্ত্রীকে তালাক দিলেন এক ব্যক্তি। আর এই তালাকের ঘোষণাও তিনি দিয়েছেন মাইক্রোফোনে। ঘটনাটি ঘটেছে মিসরের দামিয়েত্তা শহরে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে গালফ নিউজ।

ইতোমধ্যে এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, ওই ব্যক্তি তার মেয়ে ও জামাতার প্রতি শুভ কামনা জানাচ্ছেন। এরপরই মাইক্রোফোনে তিনি স্ত্রীকে তালাকের ঘোষণা দেন, যা শুনে আঁতকে ওঠেন উপস্থিত মানুষজন। তবে ওই সময় তালাকের কোনো কারণ জানাননি ওই ব্যক্তি।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, মেয়ের বিয়ের আগে ওই ব্যক্তির সঙ্গে তার স্ত্রীর কিছু বিষয় নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। তবে এই বিরোধের জেরে যে মেয়ের বিয়ের দিনই তিনি স্ত্রীকে তালাক দিয়ে বসবেন- এমনটা ভাবতে পারেননি কেউ। এই ঘটনার পর তার মেয়ের বিয়ে স্থগিত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মিসরের সরকারি পরিসংখ্যান সংস্থা সেন্ট্রাল এজেন্সি ফর পাবলিক মোবিলাইজেশন অ্যান্ড স্ট্যাটিস্টিকসের (সিএপিএমএএস) তথ্য অনুসারে, দেশটিতে বিয়ের হার বৃদ্ধি পেয়েছে ০.৫ শতাংশ। আর বিয়েবিচ্ছেদের হার বেড়েছে ১৪ শতাংশ।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
3 criminals are waiting to kill me Imran Khan

আমাকে হত্যার অপেক্ষায় ওই তিনজন: ইমরান

আমাকে হত্যার অপেক্ষায় ওই তিনজন: ইমরান পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি: সংগৃহীত
শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়ে ইমরান খান বলেন, ‘দেশের ইতিহাস সাক্ষ্য দেবে ইমরান শেষ বল পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে গেছে।’

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দাবি করেছেন, তাকে হত্যাচেষ্টায় অভিযুক্ত তিনজন আবারও তার ওপর হামলার অপেক্ষায় রয়েছে।

শনিবার রাওয়ালপিন্ডিতে এক সমাবেশে ইমরান এমনটি জানান। লং মার্চে গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের এটি প্রথম সমাবেশে ভাষণ। পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

আগাম নির্বাচনের দাবিতে চলতি মাসের শুরুতে পাঞ্জাব প্রদেশের ওয়াজিরাবাদে আয়োজিত ইসলামাবাদ অভিমুখী লং মার্চে ইমরান খানের ওপর বন্দুক হামলা চালানো হয়। তার পায়ে গুলি লাগে। এই হামলার জন্য তিনজনকে দায়ী করেন ইমরান খান। তারা হলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ ও সেনা কর্মকর্তা মেজর জেনারেল ফয়সাল।

রাওয়ালপিন্ডিতে দেয়া ভাষণে ইমরান খান জানান, তিনি মৃত্যুকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন। হামলার সময় তার মাথার ওপর দিয়ে বুলেট চলে যায় বলেও জানান পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।

ইমরান বলেন, ‘যখন আমি পড়ে গেলাম, তখনই বুঝতে পেরেছি আল্লাহ আমাকে বাঁচিয়েছেন।’



সমাবেশে ভাষণে দলের কর্মীদের মৃত্যুভয় কাটানোর আহ্বান জানান পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ দলের প্রধান ইমরান খান।

তিনি বলেন, ‘ভয় পুরো জাতিকে দাস বানিয়ে রাখে।’

কারবালায় হযরত ইমাম হাসান (রা.) শহীদ হওয়ার ঘটনা তুলে ধরে ইমরান বলেন, ‘কর্তৃপক্ষের প্রতিশোধের ভয়ে সেদিন কুফাবাসী তার সাহায্যে এগিয়ে আসেনি।’

পাকিস্তানের কোনো সংসদেই পিটিআইর আর কোনো সদস্য থাকবে না বলেও জানান ইমরান । তিনি বলেন, ‘আমরা এই ব্যবস্থার অংশ হব না। আমরা সবাই এসব দুর্নীতিগ্রস্ত সংসদ থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

পাকিস্তানের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো অতীত থেকে শিক্ষা নেয় না বলেও মন্তব্য করেন ইমরান খান। তিনি অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচন কমিশন বর্তমান সরকারের সঙ্গে যুক্ত হয়ে তার বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে। তবে জনগণ দৃঢ়ভাবে জানিয়ে দিয়েছে যে তারা পিটিআইয়ের সঙ্গে আছে।

আরও পড়ুন: শেখ মুজিবের মতো লড়ছি: ইমরান খান

ইমরান খান বলেন, ‘আমার মনে আছে পূর্ব পাকিস্তানে কী ঘটেছিল…আমরা তাদের সঙ্গে বা পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ন্যায়বিচার করিনি এবং আমরা অতীত থেকেও শিক্ষা নেইনি।’

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, সম্পদের অভাব নয়, বরং শুরু থেকেই আইনের শাসন না থাকার কারণে তার দেশে সমস্যা তৈরি হয়েছে।

শরিফ ও জারদারি পরিবার জাতীয় স্বার্থ উপেক্ষা করে নিজেদের স্বার্থের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ইমরান।

ভাষণে করোনা মহামারিতে নিজ দলের কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করেন ইমরান খান। তিনি বলেন, ‘ওই সময় লকডাউন দেয়ার জন্য বিরোধীরা অনবরত বলে আসছিল। তবে দিনমজুর এবং শ্রমিকদের কথা চিন্তা করে তা দেয়া হয়নি।’

পাকিস্তানের ক্ষমতাশালীদের আইনের আওতায় আনতে না পারাকে নিজের ব্যর্থতা বলেও জানান পিটিআই প্রধান। তিনি বলেন, ‘যেসব প্রতিষ্ঠান তাদের আইনের আওতায় আনতে পারত, তারা তা করেনি। বরং তারা অপরাধীদের সঙ্গে চুক্তি করছে।’

ভাষণে শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় জানিয়ে ইমরান বলেন, ‘দেশের ইতিহাস সাক্ষ্য দেবে, ইমরান শেষ বল পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে গেছে।’

আরও পড়ুন:
ইমরানের ওপর হামলার নিন্দা ক্রিকেটারদের
গুলিবিদ্ধ ইমরান, পাকিস্তানজুড়ে প্রবল বিক্ষোভ
রাতেও কেন ইমরান খানের চোখে সানগ্লাস
ইমরানের লং মার্চে লাইভ দিতে গিয়ে নারী সাংবাদিক নিহত
গ্রেপ্তারের ভয় ‘আপাতত কাটল’ ইমরানের

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
British intelligence claims that Russia has run out of missile stockpile

মিসাইল ভান্ডার ফুরিয়েছে রাশিয়ার, দাবি ব্রিটিশ গোয়েন্দাদের

মিসাইল ভান্ডার ফুরিয়েছে রাশিয়ার, দাবি ব্রিটিশ গোয়েন্দাদের রুশ মিসাইল। ছবি: সংগৃহীত
যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, রাশিয়ার মিসাইল কমে যাওয়ায় তারা এখন পুরোনো ক্রুজ মিসাইল কাজে লাগাচ্ছে।

৯ মাস ধরে চলছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। এরই মধ্যে ফুরিয়ে গেছে রাশিয়ার মিসাইলের ভান্ডার। এ কারণে এখন তারা নিজেদের পুরোনো মিসাইল ব্যবহার করছে। গোয়েন্দা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শনিবার এমনটি জানিয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, রাশিয়ার মিসাইল কমে যাওয়ায় তারা এখন পুরোনো ক্রুজ মিসাইল কাজে লাগাচ্ছে। তবে এর আগে পরমাণু ওয়ারহেড খুলে নেয়া হচ্ছে।

প্রমাণ হিসেবে ভূপাতিত করা একটি এএস-১৫ কেইএনটি ক্রুজ মিসাইলের ধ্বংসাবশেষের একাধিক ছবি প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এ মিসাইল ১৯৮০ সালে পরমাণু অস্ত্র বহনের জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছিল। এটিতে থাকা পরমাণু অস্ত্রটির জায়গায় খুব সম্ভবত ব্যালাস্ট যুক্ত করে হামলা চালাচ্ছে রাশিয়া। যাতে এটি ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে বিভ্রান্ত করতে পারে।

একটি বিবৃতিতে ব্রিটিশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, যদিও এই ধরনের মিসাইলের মাধ্যমে ইউক্রেনের কিছু ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে তবে এগুলো দিয়ে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন সম্ভব নয়।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন, ক্রেমলিনের মিসাইল হামলায় ইউক্রেনে ৬০ লাখ মানুষ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে। আসন্ন শীতে তাপমাত্রা কমতে থাকলে এই বিদ্যুৎ-সংকটের কারণে ইউক্রেনীয়রা ভয়াবহ স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে পারে।

আরও পড়ুন:
রুশ দখলমুক্ত খেরসনে ইউক্রেনীয়দের উচ্ছ্বাস
রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক অত্যন্ত মজবুত, আমেরিকাকে চীন
ইউক্রেনের খেরসন থেকে সেনা সরিয়ে নিচ্ছে রাশিয়া
রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনার জন্য যে শর্ত দিলেন জেলেনস্কি
যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে হস্তক্ষেপের কথা স্বীকার পুতিনঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ীর

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Aftab dated Shraddhas dead body in the fridge

শ্রদ্ধার মরদেহ ফ্রিজে রেখেই ডেটিংয়ে আফতাব

শ্রদ্ধার মরদেহ ফ্রিজে রেখেই ডেটিংয়ে আফতাব শ্রদ্ধা ওয়াকার হত্যাকাণ্ড মামলায় অভিযুক্ত আফতাব আমিন পুনাওয়ালা। ছবি: সংগৃহীত
মরদেহ ৩৫ টুকরা করে ৩০০ লিটার ধারণক্ষমতার ফ্রিজে প্রায় তিন সপ্তাহ রাখেন আফতাব। ফ্রিজ থেকে টুকরাগুলো কয়েক দিন ধরে শহরের বিভিন্ন জায়গায় ফেলেন তিনি।

লিভ ইন পার্টনার শ্রদ্ধা ওয়াকারকে হত্যার পর একজন নারী চিকিৎসকের সঙ্গে ডেটিং করেন ভারতের মুম্বাইয়ের বাসিন্দা আফতাব আমিন পুনাওয়ালা। ওই নারী যখন তার বাসায় আসেন, তখনও আফতাবের ফ্রিজেই ছিল শ্রদ্ধার মরদেহের খণ্ডিত অংশ।

দিল্লি পুলিশের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি

পুলিশ জানায়, শ্রদ্ধার সঙ্গে যে ডেটিং অ্যাপ থেকে পরিচয় হয় সেখান থেকেই ওই চিকিৎসকের সঙ্গে পরিচয় হয় আফতাবের।

মুম্বাইয়ের বাসিন্দা ২৮ বছরের যুবক আফতাব পুনাওয়ালা তার লিভ ইন পার্টনার ২৬ বছরের শ্রদ্ধা ওয়াকারের সঙ্গে দিল্লির ছাতারপুর এলাকার একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। চলতি বছরের ১৮ মে তাদের মধ্যে তুমুল ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে সেদিন শ্রদ্ধাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন আফতাব।

পরে মরদেহ ৩৫ টুকরা করে ৩০০ লিটার ধারণক্ষমতার ফ্রিজে প্রায় তিন সপ্তাহ রাখেন। ফ্রিজ থেকে টুকরাগুলো কয়েক দিন ধরে শহরের বিভিন্ন জায়গায় ফেলেন তিনি। ৮ নভেম্বর শ্রদ্ধার বাবা বিকাশ মদন ওয়াকার মেয়ের খোঁজে মেহরাউলি পুলিশের কাছে অপহরণের অভিযোগ করেন। তার ভিত্তিতে ১২ নভেম্বর আফতাবকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এর আগে দিল্লি পুলিশ জানায়, শ্রদ্ধার মরদেহের খণ্ডিত অংশ ফ্রিজে রেখেই আফতাব তার অ্যাপার্টমেন্টে আরেক নারীকে এনেছিলেন। তবে তখন ওই নারীর পরিচয় নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

এবার শেষ পর্যন্ত ওই নারীর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। পুলিশ জানায়, ওই নারী একজন সাইকোলজিস্ট।

শ্রদ্ধার ওয়াকারের মৃত্যু নিয়ে এখনো অনেক ধোঁয়াশা রয়েছে। শুক্রবার দিল্লির রোহিনির ফরেনসিক সায়েন্স ল্যাবরেটরিতে আফতাবের পলিগ্রাফ টেস্ট সম্পন্ন করেছে পুলিশ। এতে সে মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে কি না তা যাচাই করা যাবে।

আরও পড়ুন: শ্রদ্ধার দেহাংশের সন্ধান দিয়েছি, আদালতে আফতাব

পলিগ্রাফ টেস্টে অভিযুক্তের সঙ্গে ওয়াকারের সম্পর্ক, সম্পর্কের টানাপোড়েন, মরদেহ কোথায় রাখা রয়েছে, কী ধরনের অস্ত্র দিয়ে হত্যা করা হয় তা জানতে চাওয়া হয়।

একজন কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এনএনআইকে জানিয়েছেন, কয়েকদিন মধ্যে এই পরীক্ষার ফল তদন্ত কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
পুলিশ এখনো শ্রদ্ধার খুলি ও মরদেহের খণ্ডিত অংশ উদ্ধার করতে পারেনি। পাশাপাশি তাকে হত্যায় যেসব অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে তাও এখনো উদ্ধার হয়নি।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Indias first 3D planetarium is opening on December 2

ভারতের প্রথম থ্রিডি তারামণ্ডল উন্মুক্ত হচ্ছে ২ ডিসেম্বর

ভারতের প্রথম থ্রিডি তারামণ্ডল উন্মুক্ত হচ্ছে ২ ডিসেম্বর হাওড়া পৌরসভার উদ্যোগে তৈরি দেশটির প্রথম থ্রিডি তারামণ্ডল
প্রায় ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে হাওড়া শরৎ সদনের কাছে তৈরি এই অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল রিসার্চ সেন্টারটি গত অক্টোবরে উদ্বোধন করেছিলেন কলকাতার মেয়র ও রাজ্যের পৌর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কিন্তু কিছু যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য এটি সেসময় খুলে দেয়া যায়নি।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া পৌরসভার উদ্যোগে তৈরি দেশটির প্রথম থ্রিডি তারামণ্ডল সবার জন্য উন্মুক্ত করা হবে আগামী ২ ডিসেম্বর।

প্রায় ১৪ কোটি রূপি ব্যয়ে হাওড়া শরৎ সদনের কাছে তৈরি এই অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল রিসার্চ সেন্টারটি গত অক্টোবরে উদ্বোধন করেছিলেন কলকাতার মেয়র ও রাজ্যের পৌর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কিন্তু কিছু যান্ত্রিক ত্রুটির জন্য সেসময় সাধারণের জন্য খুলে দেয়া যায়নি এ তারামণ্ডল।

হাওড়া পৌরসভা কর্তৃপক্ষ জানায়, এখন দর্শকদের জন্য প্রস্তুত এই থ্রিডি তারামণ্ডল। থ্রিডি অ্যানিমেশন ও অন্যান্য প্রযুক্তিগত দিকগুলো ঠিক করতে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থা একসঙ্গে কাজ করেছে। কলকাতার বিড়লা তারামণ্ডলের মতো এখানেও প্রদর্শনীর বিভিন্ন সময় থাকছে। বেলা তিনটা, বিকেল চারটা এবং বিকেল পাঁচটা, আপাতত এই তিনটি শো চলবে। প্রবেশ মূল্য ছোটদের জন্য ৭০ রুপি এবং বড়দের জন্য ১২০ রুপি। উন্নত থ্রিডি অ্যানিমেশনের মাধ্যমে মহাকাশের বিভিন্ন বস্তু সম্পর্কে জানা যাবে এখানে।

হাওড়া পৌরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান সুজয় চক্রবর্তী বলেন, ‘উদ্বোধন হয়ে গিয়েছিল। প্রযুক্তিগত কিছু কাজ বাকি ছিল। ১০০ টির মতো আসন রয়েছে এখানে। বিরতির সময় নিয়ে প্রত্যেকটি শো হবে ৪৫ মিনিটের। অডিটোরিয়ামের বেশ কিছু কঠোর নিয়ম মানতে হবে দর্শকদের। এটা দেশের প্রথম থ্রিডি প্ল্যানেটোরিয়াম। আশা করি শীতের ছুটিতে প্রচুর মানুষ এখানে আসবেন। আমরা চাই, স্কুল পড়ুয়ারা এখানে আসুক। তাদের ভালো লাগবে।’

হাওড়ার বাসিন্দা অনিল মাঝি বলেন, ‘আমাদের হাওড়ার জন্য এটা গর্বের বিষয়। ছেলেমেয়েকে নিয়ে অবশ্যই প্রথম দিন, প্রথম শো দেখতে যাব।’

মন্তব্য

p
উপরে