× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
The price of wheat is falling in the world market
google_news print-icon

বিশ্ববাজারে কমছে গমের দাম

বিশ্ববাজারে-কমছে-গমের-দাম-
রাশিয়া-ইউক্রেনের মধ্যে গমসহ অন্য খাদ্যশস্য রপ্তানির খবর প্রকাশ হলে বিশ্ববাজারে গমের দাম ৩ শতাংশ কমে যায়। গত ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেনে অভিযান শুরু পর গমসহ বিভিন্ন খাদ্যশস্যের দাম রেকর্ড বেড়ে যায়। এমনকি বিশ্বের অনেক দেশে খাদ্য ঘাটতিও দেখা দেয়। 

ইউক্রেনের বন্দরগুলো থেকে গমসহ অন্য খাদ্যশস্য রপ্তানির খবরে বিশ্ববাজারে গমের দাম কমতে শুরু করেছে। বিশ্বব্যাপী খাদ্য সঙ্কট দূর করতে জাতিসংঘ ও তুরস্কের মধ্যস্থতায় স্থানীয় সময় শুক্রবার একটি চুক্তি করে ইউক্রেন ও রাশিয়া।

এর এক দিন পরেই কিয়েভ কৃষ্ণ সাগরে অবস্থিত তাদের বন্দরগুলোর মাধ্যমে প্রতি মাসে ৩০ লাখ টনের বেশি গম ও অন্য কৃষিপণ্য রপ্তানির পরিকল্পনার কথা জানায়।

রাশিয়ার সংবাদমাধ্যম আরটির এক প্রতিবেদনে এমন পরিকল্পনার কথা জানান ইউক্রেনের উপমন্ত্রী ইউরি ভাসকভ। তিনি বলেন, ইউক্রেনের বন্দর থেকে শস্য, খাদ্য এবং সার রপ্তানি করা হবে।

ইকোনমিক ট্রুথ পত্রিকাকে তিনি বলেন, ‘এই রপ্তানি মাসে ৩০ লাখ টন বা তার বেশি হতে পারে। এটি পর্যায়ক্রমে হবে। আমরা যদি পরিমাণ আরও বাড়াতে চাই, তাহলে আরও কয়েক সপ্তাহ সময় প্রয়োজন। তখন আমরা এর সঠিক পরিমাণ উল্লেখ করতে পারব। তবে আমরা দেখছি, এটি ৩০ লাখ টনের বেশি করা সম্ভব।’

ফোর্বস ইউক্রেনকে দেয়া আলাদা এক সাক্ষাৎকারে ভাসকভ বলেন, ‘শস্য বোঝাই প্রথম জাহাজটি চার দিনের মধ্যেই ইউক্রেনের বন্দর ছাড়তে পারে। এ ছাড়া অন্য তিন বন্দর ওডেসা, চেরনোমরস্ক এবং ইউজনি পুরোপুরি চালু হতে তিন সপ্তাহ সময় লাগবে।’

চুক্তির অংশ হিসেবে জাতিসংঘ রাশিয়ার খাদ্য ও সার রপ্তানির বাধাগুলোও দূর করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

খাদ্যশস্য রপ্তানির এই চুক্তির খবরের পর বিশ্ববাজারে গমের দাম কমতে শুরু করেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে মার্কেট ইনসাইডার

শুক্রবার রাশিয়া-ইউক্রেনের মধ্যে গমসহ অন্য খাদ্যশস্য রপ্তানির খবর প্রকাশ হলে বিশ্ববাজারে গমের দাম ৩ শতাংশ কমে যায়। গত ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেনে অভিযান শুরু পর গমসহ বিভিন্ন খাদ্যশস্যের দাম রেকর্ড বেড়ে যায়। এমনকি বিশ্বের অনেক দেশে খাদ্য ঘাটতিও দেখা দেয়।

তাই ইউক্রেনের বন্দরগুলোকে অবরোধমুক্ত করা জরুরি হয়ে পড়ে। দেশটি জানিয়েছে, তাদের সবচেয়ে বড় বন্দর ওডেসায় প্রায় দুই কোটি টন শস্য আটকে আছে।

অবশ্য চুক্তির পর এক দিন না পেরোতেই বন্দরনগরী ওডেসায় হামলা হয়েছে। রাশিয়ার ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ইউক্রেনের এই বন্দরনগরের অবকাঠামোয় আঘাত করেছে বলে জানিয়েছে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম।

আরও পড়ুন:
ফিফার কাছে ৫ কোটি ইউরো দাবি শাখতারের
রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে ভোগান্তি বেড়েছে সাধারণ মানুষের: প্রধানমন্ত্রী
‘পুতিনের জ্বালায়’ বন্ধ টিভি চ্যানেল বিদেশ গিয়ে আবার সম্প্রচারে
বাল্যবন্ধুকে বিদায় করলেন জেলেনস্কি
৫১৪৮ শিশুসহ ২৮ হাজার ইউক্রেনীয়কে সরিয়ে নিল রাশিয়া

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Left on top in Frances hung parliament vote

ফ্রান্সে ঝুলন্ত পার্লামেন্ট, ভোটে শীর্ষে বামপন্থিরা

ফ্রান্সে ঝুলন্ত পার্লামেন্ট, ভোটে শীর্ষে বামপন্থিরা ফ্রান্সে রোববার অনুষ্ঠিত পার্লামেন্ট নির্বাচনের দ্বিতীয় দফার ভোটের আংশিক ফল ঘোষণার পর প্যারিসের প্লেস দে লা রিপাবলিকে জড়ো হয়ে হাত উচ্চকিত করেন লোকজন। ছবি: রয়টার্স
দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে মারি লো পেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী, ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সমালোচক দল ন্যাশনাল র‌্যালিকে (আরএন) বড় ধাক্কা দিয়েছেন ভোটাররা। ভোটের আগে জনমত জরিপগুলোতে আরএনের শীর্ষে থাকার ইঙ্গিত মিললেও বুথ পরবর্তী পূর্বাভাসগুলোতে দলটির অবস্থান তৃতীয়।

ফ্রান্সের সাধারণ নির্বাচনে রোববার অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় দফার ভোটে অপ্রত্যাশিতভাবে বামপন্থি জোট শীর্ষস্থান দখল করলেও কোনো দল নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় ঝুলন্ত পার্লামেন্ট পেয়েছেন ফরাসিরা।

এর মধ্য দিয়ে ইউরোপের দেশটি সম্ভাব্য রাজনৈতিক অচলাবস্থার মুখোমুখি হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

বার্তা সংস্থাটির প্রতিবেদনে জানানো হয়, দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে মারি লো পেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী, ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সমালোচক দল ন্যাশনাল র‌্যালিকে (আরএন) বড় ধাক্কা দিয়েছেন ভোটাররা। ভোটের আগে জনমত জরিপগুলোতে আরএনের শীর্ষে থাকার ইঙ্গিত মিললেও বুথ পরবর্তী পূর্বাভাসগুলোতে দলটির অবস্থান তৃতীয়।

নির্বাচনের এ ফল মধ্যমপন্থি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁর জন্যও বড় ধরনের ধাক্কা, যিনি ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টে আরএনের বিপরীতে দুর্বল পারফরম্যান্সের পর গত মাসে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

আগাম ভোটের পর বড় ধরনের বিভক্ত পার্লামেন্ট পেয়েছেন মাখোঁ, যা ইউরোপীয় ইউনিয়নে ফান্সের ভূমিকাকে দুর্বল করে দেবে।

এ ভোটের মধ্য দিয়ে তিনটি বড় গ্রুপে (বামপন্থি, মধ্যমপন্থি ও কট্টর ডানপন্থি) বিভক্ত হলো ফ্রান্সের পার্লামেন্টে। এ পক্ষগুলোর একত্রে কাজ করার নজির নেই। এর ফলে অনিশ্চয়তা অপেক্ষা করছে ফ্রান্সের জন্য।

আরও পড়ুন:
ফ্রান্সে জাতীয় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে
ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পেজেশকিয়ান ও জলিলির হাড্ডাহাড্ডি লড়াই
যুক্তরাষ্ট্রে এবারের প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্ক যে পাঁচ কারণে গুরুত্বপূর্ণ
ঝালকাঠির দুই উপজেলায় জয়ী বাচ্চু ও মনির
আনসার সদস্যকে মারধর, চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীর কারাদণ্ড

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
UKs new Prime Minister pledges to rebuild the country

দেশ পুনর্গঠনের অঙ্গীকার যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রীর

দেশ পুনর্গঠনের অঙ্গীকার যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রীর ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে কার্যালয় ও বাসভবনের বাইরে দাঁড়িয়ে শুক্রবার লেবার পার্টির নেতৃত্বাধীন সরকারের সামনে থাকা চ্যালেঞ্জগুলো স্বীকার করেন স্টারমার। ছবি: পিএ ওয়্যার
বিরোধীদের উদ্দেশে যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনি লেবারকে ভোট দিয়েছেন কিংবা দেননি, বিশেষ করে আপনি যদি (ভোট) না দেন, আপনার উদ্দেশে সরাসরি বলছি, আমার সরকার আপনাকে সেবা দেবে। রাজনীতি কল্যাণের শক্তি হতে পারে। আমরা তা দেখাব।’

যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে বিশাল জয়কে কাজে লাগিয়ে দেশ পুনর্গঠনের অঙ্গীকার করেছেন দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী কিয়ার স্টারমার।

স্থানীয় সময় শুক্রবার তিনি এ অঙ্গীকার করেন বলে জানায় রয়টার্স।

বার্তা সংস্থাটির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে কার্যালয় ও বাসভবনের বাইরে দাঁড়িয়ে লেবার পার্টির নেতৃত্বাধীন নতুন সরকারের সামনে থাকা চ্যালেঞ্জগুলো স্বীকার করেন স্টারমার।

যুক্তরাজ্যে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে লেবারদের জয়ের মধ্য দিয়ে প্রায়ই টালমাটাল অবস্থায় পড়া কনজারভেটিভ পার্টির ১৪ বছরের শাসনের অবসান হয়।

স্টারমার সতর্ক করে বলেন, যুক্তরাজ্যের পরিস্থিতির যেকোনো ধরনের উন্নতির জন্য দরকার সময়। সর্বপ্রথম তাকে রাজনীতির ওপর আস্থা ফেরাতে হবে।

তিনি বলেন, ‘আস্থার এ ঘাটতি কেবল কাজের মাধ্যমে পূরণ করা সম্ভব; কথার মধ্য দিয়ে নয়। আমি এটি জানি।’

বিরোধীদের উদ্দেশে যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনি লেবারকে ভোট দিয়েছেন কিংবা দেননি, বিশেষ করে আপনি যদি (ভোট) না দেন, আপনার উদ্দেশে সরাসরি বলছি, আমার সরকার আপনাকে সেবা দেবে। রাজনীতি কল্যাণের শক্তি হতে পারে। আমরা তা দেখাব।’

যুক্তরাজ্যে গতকাল অনুষ্ঠিত নির্বাচনে লেবার পার্টি পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অফ কমন্সের ৬৫০ আসনের মধ্যে জয়ী হয় ৪১২টিতে। অন্যদিকে কনজারভেটিভ পার্টি পায় ১২১টি আসন।

দেশটির পার্লামেন্টে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য দরকার ৩২৬ আসন।

আরও পড়ুন:
এবার হুতিদের ১৮টি লক্ষ্যবস্তুতে হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের
এবার হুতিদের ওপর হামলা যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের
ইইউ-যুক্তরাজ্য থেকে আমদানিকৃত পণ্যের কন্ট্রাক্ট ম্যানুফ্যাকচারিং চায় বাংলাদেশ
ইয়েমেনে হুতিদের ওপর যুক্তরাষ্ট্র যুক্তরাজ্যের হামলা
বাংলাদেশিদের ভোট দেয়ার যথেষ্ট বিকল্প ছিল না: যুক্তরাজ্য

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Sunak concedes Labor Party defeat en route to huge UK victory

যুক্তরাজ্যে বিশাল জয়ের পথে লেবার পার্টি, পরাজয় স্বীকার সুনাকের

যুক্তরাজ্যে বিশাল জয়ের পথে লেবার পার্টি, পরাজয় স্বীকার সুনাকের নির্বাচনে লেবারদের জয়ের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন দলটির প্রধান কির স্টারমার (মাঝে হাস্যোজ্জ্বল)। ছবি: এপি
নির্বাচনে লেবার পার্টি যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের ৬৫০ আসনের মধ্যে ৪১০টিতে জয়ী হবে বলে আশা করা হচ্ছে। অন্যদিকে এক যুগের বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ পার্টি পেতে পারে ১৪৪টি আসন।

যুক্তরাজ্যে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে বিরোধী লেবার পার্টি বিশাল জয়ের পথে রয়েছে বলে আভাস দিয়েছে বিবিসি।

ভোটের পরের দিন শুক্রবার সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে জানানো হয়, নির্বাচনে লেবারদের জয়ের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন দলটির প্রধান কির স্টারমার।

বিবিসির খবরে বলা হয়, নির্বাচনে লেবার পার্টি যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের ৬৫০ আসনের মধ্যে ৪১০টিতে জয়ী হবে বলে আশা করা হচ্ছে। অন্যদিকে এক যুগের বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ পার্টি পেতে পারে ১৪৪টি আসন।

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অফ কমন্সে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে দরকার ৩২৬টি আসন।

এদিকে ভোটের ফল প্রকাশের মধ্যে পরাজয় স্বীকার করে নিয়ে কনজারভেটিভ পার্টির নেতা ও প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক বলেন, কল করে স্টারমারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে হলবর্ন অ্যান্ড সেন্ট প্যানক্র্যাস আসনে জয়ী হওয়ার পর স্টারমার বলেন, এখানে পরিবর্তনের সূচনা হয়েছে।

কনজারভেটিভদের বিশাল পরাজয়ের দিনে লেবার পার্টির প্রার্থীর কাছে হেরেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী গ্র্যান্ট শ্যাপস ও আলোচিত নেতা পেনি মরডন্ট।

এবারের নির্বাচনে ডানপন্থি দল রিফর্ম ইউকের নেতা নাইজেল ফারাজ জিতেছেন ক্ল্যাকটন আসনে, যার মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো এমপি হতে যাচ্ছেন তিনি। তার দলের প্রার্থী রিচার্ড টাইস ও লি অ্যান্ডারসনও জয়ী হয়েছেন।

লেবার পার্টির সাবেক প্রধান জেরেমি করবিন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জয়ী হন ইসলিংটন নর্থ আসনে। আর লেবার পার্টির জন অ্যাশওর্থ হেরেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাজ্যে ১৯৪৫ সালের পর ফের জুলাইয়ের নির্বাচনে ভোট শুরু
ম্যাক্রোঁ দ্বিতীয় দফায় উগ্র ডানপন্থীদের পরাজিত করতে চান
ফ্রান্সে নির্বাচন: বুথফেরত জরিপে এগিয়ে কট্টর ডানপন্থিরা
ফ্রান্সে জাতীয় নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে
ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পেজেশকিয়ান ও জলিলির হাড্ডাহাড্ডি লড়াই

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
After 1945 in the United Kingdom voting began again in the July election

যুক্তরাজ্যে ১৯৪৫ সালের পর ফের জুলাইয়ের নির্বাচনে ভোট শুরু

যুক্তরাজ্যে ১৯৪৫ সালের পর ফের জুলাইয়ের নির্বাচনে ভোট শুরু যুক্তরাজ্যের ভোটকেন্দ্র নির্দেশক তীর। ছবি: বিবিসি
নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন প্রায় চার কোটি ৬০ লাখ ভোটার। তারা পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অফ কমন্সের ৬৫০ জন আইপ্রণেতা নির্বাচন করবেন।

যুক্তরাজ্যে ১৯৪৫ সালের পর দ্বিতীয়বার জুলাইয়ে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল সাতটায় (বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টা) এ ভোট শুরু হয় জানিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ভোটগ্রহণ চলবে ব্রিটেনের মান সময় রাত ১০টা নাগাদ।

সংবাদমাধ্যমটির খবরে উল্লেখ করা হয়, ভোটকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে স্থানীয় স্কুল কিংবা কমিউনিটি হলের মতো ভবনগুলোতে।

নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন প্রায় চার কোটি ৬০ লাখ ভোটার। তারা পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অফ কমন্সের ৬৫০ জন আইপ্রণেতা নির্বাচন করবেন।

প্রতিটি আসনের ফল ঘোষণা করা হবে বৃহস্পতিবার রাত কিংবা শুক্রবার সকালে।

নির্বাচনে জিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে কোনো রাজনৈতিক দলের একক বা জোটগতভাবে দরকার ৩২৬টি আসন।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক চলতি বছরের মে মাসে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেন। জনসংখ্যাগত পরিবর্তনের কারণে এবারের নির্বাচন হচ্ছে বিভিন্ন আসনের সীমানা পুনর্নির্ধারণের মাধ্যমে।

ভোটার নিবন্ধনের সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে নতুন সীমানা নির্ধারণ করা হয়। এর ফলে এবার ইংল্যান্ডে আসন বেড়েছে ১০টি। সেখানে এবার মোট আসন ৫৪৩টি।

অন্যদিকে ওয়েলসে আসন আটটি কমে ৩২টি এবং স্কটল্যান্ডে আসন দুটি কমে ৫৯টি থেকে ৫৭টি হয়েছে, তবে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে আসন আগের মতো ১৮টিই রয়েছে।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রে এবারের প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্ক যে পাঁচ কারণে গুরুত্বপূর্ণ
ঝালকাঠির দুই উপজেলায় জয়ী বাচ্চু ও মনির
আনসার সদস্যকে মারধর, চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীর কারাদণ্ড
‘জীব‌নে আর ভোট দি‌তে পা‌রি কি না জা‌নি না’
মোদির তৃতীয় মেয়াদে কারা থাকছেন মন্ত্রিসভায়

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
France election Hard right leads in polls

ফ্রান্সে নির্বাচন: বুথফেরত জরিপে এগিয়ে কট্টর ডানপন্থিরা

ফ্রান্সে নির্বাচন: বুথফেরত জরিপে এগিয়ে কট্টর ডানপন্থিরা ফ্রান্সে রোববার অনুষ্ঠিত পার্লামেন্ট নির্বাচনের আংশিক ফল পাওয়ার পর হেনিন-বিউমন্ট এলাকায় মঞ্চে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন কট্টর ডানপন্থি দল আরএনের নেতা মারি লো পেন। ছবি: রয়টার্স
ফ্রান্সে আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় দফার নির্বাচনের পর চূড়ান্ত ফল নির্ধারণ হবে।

ফ্রান্সে রোববার অনুষ্ঠিত পার্লামেন্ট নির্বাচনে বুথফেরত জরিপে এগিয়ে রয়েছে মারি লো পেনের নেতৃত্বাধীন কট্টর ডানপন্থি দল ন্যাশনাল র‌্যালি (আরএল)।

বার্তা রয়টার্স জানায়, আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় দফার নির্বাচনের পর চূড়ান্ত ফল নির্ধারণ হবে।

ইপসস, আইফপ, অপিনিয়নওয়ে ও এলাবের বুথফেরত জরিপ অনুযায়ী, প্রথম রাউন্ডে পড়া ভোটের প্রায় ৩৪ শতাংশ পায় আরএন, যেটি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁর জন্য বড় ধাক্কা। চলতি মাসের শুরুতে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট নির্বাচনে আরএনের কাছে হোঁচট খাওয়ার পর আগাম নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছিলেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট।

গতকাল অনুষ্ঠিত নির্বাচনে মাখোঁর জোট টুগেদারসহ বামপন্থি ও মধ্যমপন্থি প্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে পরিষ্কারভাবে এগিয়ে ছিল আরএন।

বুথফেরত জরিপ অনুযায়ী, নির্বাচনে মাখোঁর জোট পায় ২০ দশমিক ৫ থেকে ২৩ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে বামপন্থিদের জোট দ্য নিউ পপুলার ফ্রন্ট পায় প্রায় ২৯ শতাংশ ভোট।

আগামী রোববার দ্বিতীয় দফার ভোট অনুষ্ঠিত হবে ইউরোপের শিল্প-সংস্কৃতির প্রাণকেন্দ্রে।

আরও পড়ুন:
‘জীব‌নে আর ভোট দি‌তে পা‌রি কি না জা‌নি না’
মোদির তৃতীয় মেয়াদে কারা থাকছেন মন্ত্রিসভায়
১৯ উপজেলায় ভোট চলছে
স্থগিত ১৯ উপজেলায় ভোট কাল
লোকসভায় বিরোধী দলনেতা হচ্ছেন রাহুল গান্ধী

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
15 killed in Russia synagogue shooting

রাশিয়ায় সিনাগগ গির্জায় বন্দুক হামলা, নিহত ১৫

রাশিয়ায় সিনাগগ গির্জায় বন্দুক হামলা, নিহত ১৫ রাশিয়ার দাগেস্তানে রোববার হামলার শিকার একটি অঞ্চল সিলগালা করে দেয় পুলিশ। ছবি: এএফপি
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়, হামলায় নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে পুলিশ সদস্য ও ন্যাশনাল গার্ড কর্মকর্তা, কয়েকজন বেসামরিক নাগরিক এবং একজন অর্থোডক্স পাদ্রী রয়েছেন।

রাশিয়ার উত্তর ককেশাস অঞ্চলের দাগেস্তানে রোববার কয়েকটি গির্জা, একটি সিনাগগ (ইহুদিদের প্রার্থনাস্থল) ও এক পুলিশ চেকপয়েন্টে বন্দুকধারীদের হামলায় কমপক্ষে ১৫ জন নিহত হয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়, হামলায় নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে পুলিশ সদস্য ও ন্যাশনাল গার্ড কর্মকর্তা, কয়েকজন বেসামরিক নাগরিক এবং একজন অর্থোডক্স পাদ্রী রয়েছেন।

সংবাদমাধ্যমটি আরও জানায়, দাগেস্তানের দেরবেন্ত ও মাখাচকালা শহরে চালানো এসব হামলায় আহত হন কমপক্ষে ১২ জন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ও টেলিভিশনের ফুটেজে দেখা যায়, মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেরবেন্তে হামলার পর আগুন ধরে যাওয়া সিনাগগ থেকে উড়ছে ধোঁয়া। এ অঞ্চলে বসবাস প্রাচীন ইহুদি সম্প্রদায়ের।

দাগেস্তানের রাজধানী ও বৃহত্তম শহর মাখাচকালাতে উপাসনালয়ে হামলা হয়েছে, যেখানে পুলিশ চৌকিতেও আক্রমণ হয়।

রাশিয়ার তদন্ত কমিটি বলেছে, দাগেস্তানে ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের’ বিষয়ে অপরাধবিষয়ক তদন্ত শুরু হয়েছে। চেচনিয়া সীমান্তবর্তী দাগেস্তান রাশিয়ার অন্যতম দরিদ্রতম অঞ্চল।

দেশটির জাতীয় সন্ত্রাসবিরোধী কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, রোববার সন্ধ্যায় দেরবেন্ত ও মাখাচকালায় দুটি অর্থোডক্স গির্জা, একটি সিনাগগ ও একটি ‍পুলিশ চেকপয়েন্টে সশস্ত্র হামলা হয়েছে। প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, হামলায় রুশ অর্থোডক্স গির্জার একজন পাদ্রী ও কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন।

রুশ অর্থোডক্স গির্জার দাবি, তাদের আর্চপ্রিস্ট নিকোলাই কোতেলনিকভকে বর্বরোচিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
নিরাপত্তা উদ্বেগ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় রাজি রাশিয়া: ক্রেমলিন
পাবনায় সংবাদ সংগ্রহের পথে সাংবাদিকের ওপর হামলা
প্রতিরক্ষা সম্পর্ক জোরদার করতে উত্তর কোরিয়ায় পুতিন
যুদ্ধে রাশিয়াকে সহায়তার ফল ভোগ করতে হবে চীনকে: নেটো প্রধান
রাশিয়ার জব্দকৃত সম্পত্তিকেন্দ্রিক জি৭ চুক্তি, ‘চুরি’ বললেন পুতিন

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Putin said the G7 agreement centered on Russias seized assets was stolen

রাশিয়ার জব্দকৃত সম্পত্তিকেন্দ্রিক জি৭ চুক্তি, ‘চুরি’ বললেন পুতিন

রাশিয়ার জব্দকৃত সম্পত্তিকেন্দ্রিক জি৭ চুক্তি, ‘চুরি’ বললেন পুতিন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে স্থানীয় সময় শুক্রবার বৈঠকের সময় বক্তব্য দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: ম্যাক্সিম শেমেতভ/রয়টার্স
পুতিন বলেন, জব্দকৃত সম্পত্তি কাজে লাগানোর জন্য আইনি ভিত্তি দাঁড় করাতে চাইছেন পশ্চিমা দেশগুলোর নেতারা, কিন্তু সব ধরনের চাতুরির পরও চুরি চুরিই এবং সে জন্য তাদের শাস্তি পেতেই হবে।

রাশিয়ার জব্দকৃত সম্পত্তি থেকে ইউক্রেনকে ঋণ সহায়তা দিতে পশ্চিমা দেশগুলো যে চুক্তি করেছে, তার নিন্দা জানিয়ে বদলা নেয়ার অঙ্গীকার করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে পুতিন এ অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন বলে জানায় আল জাজিরা।

পুতিন বলেন, জব্দকৃত সম্পত্তি কাজে লাগানোর জন্য আইনি ভিত্তি দাঁড় করাতে চাইছেন পশ্চিমা দেশগুলোর নেতারা, কিন্তু সব ধরনের চাতুরির পরও চুরি চুরিই এবং সে জন্য তাদের শাস্তি পেতেই হবে।

তিনি বলেন, পশ্চিমারা মস্কোর সঙ্গে যে আচরণ করেছে, তা থেকে বোঝা যাচ্ছে, যে কেউ পরবর্তী লক্ষ্যবস্তু হতে পারে।

পুতিনের ওই বক্তব্যের আগে ইতালিতে গ্রুপ অফ সেভেনের (জি৭) সম্মেলনে বিদেশে থাকা রাশিয়ার জব্দকৃত সম্পত্তি থেকে ইউক্রেনের জন্য ৫০ বিলিয়ন ডলারের ঋণ সহায়তা চুক্তিতে সম্মত হয় জোটের সদস্য দেশগুলো।

এ ঋণের মাধ্যমে ইউক্রেনকে অস্ত্র কেনা ও ধ্বংস হওয়া অবকাঠামো পুনর্নির্মাণে সহায়তা করতে চায় পশ্চিমা দেশগুলো।

কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রকে গঠিত জোট জি৭। এ জোটের সব আলোচনায় অংশ নেয় ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

ইতালির আপুলিয়াতে জি৭ বার্ষিক সম্মেলনে ঋণচুক্তির ঘোষণার পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, জব্দকৃত সম্পত্তির ওপর ভিত্তি করে চুক্তিটি গুরুত্বপূর্ণ ফলাফল এবং এটি পুতিনকে আরেকবার স্মরণ করিয়ে দিল যে, ইউক্রেনের মিত্ররা নতি স্বীকার করছে না।

ওই চুক্তির বিস্তারিত আসন্ন সপ্তাহগুলোতে চূড়ান্ত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ ঋণের অর্থ ইউক্রেন পেতে শুরু করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এদিকে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা শুক্রবার চুক্তিকে নাকচ করে বলেন, এটি কয়েক টুকরা কাগজ মাত্র।

আরও পড়ুন:
ইউক্রেনকে ৫ হাজার কোটি ডলার দেবে জি-৭
সফরের দ্বিতীয় দিনে চীনের ‘লিটল মস্কোতে’ পুতিন
চীন-রাশিয়ার ‘কষ্টার্জিত’ সম্পর্কের লালনপালন চান শি
ইউক্রেন সংকট নিরসনে চীনের পরিকল্পনায় সমর্থন পুতিনের
অর্থনীতিবিদ বেলাউসভকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী বানাচ্ছেন পুতিন

মন্তব্য

p
উপরে