× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ পৌর নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য

আন্তর্জাতিক
Erdogans lifelong opposition in Turkey
hear-news
player
print-icon

তুরস্কে এরদোয়ানবিরোধীর যাবজ্জীবন

তুরস্কে-এরদোয়ানবিরোধীর-যাবজ্জীবন- সামরিক অভ্যুত্থান চেষ্টায় অভিযুক্ত ওসমান কাভালা। ছবি: সংগৃহীত
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান দাবি করেছিলেন, কাভালা হচ্ছেন হাঙ্গেরীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের বিলিয়নেয়ার জর্জ সোরসের এজেন্ট, যিনি বিদেশি অর্থের সাহায্যে তুরস্কের পতন ঘটাতে চেয়েছিলেন। আমরা কাভালার মতো মানুষের সঙ্গে একসঙ্গে থাকতে পারি না।

রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান নেতৃত্বাধীন সরকার উৎখাতের চেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তুরস্কের অধিকারকর্মী ও সমাজসেবী ওসমান কাভালাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিন বিচারকের প্যানেল সোমবার সরকার পতনের প্রচেষ্টায় সহযোগিতা করার অভিযোগে আরও ৭ ব্যক্তিকে ১৮ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে।

২০১৩ সালে গেজি পার্কে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে জড়িত থাকা এবং ২০১৬ সালে দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থানের চেষ্টায় ভূমিকা রাখার অভিযোগে কাভালাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

ইস্তাম্বুলের একটি উচ্চ নিরাপত্তাসম্পন্ন কারাগার থেকে দেয়া ভিডিও বার্তায় কাভালা আদালতকে বলেছেন, পুরো প্রক্রিয়াকে তিনি বিচারিক হত্যা হিসেবে দেখছেন।

আদালতের রায় ঘোষণার আগে কাভালা বলেন, এগুলো রাজনৈতিক বিবেচনায় তৈরি ষড়যন্ত্র তত্ত্ব।

কাভালার বিরুদ্ধে করা মামলা এখন সুপ্রিম কোর্টে যাবে, যেখানে আপিলের সুযোগ পাবেন।

প্যারিসে জন্ম নেয়া ৬৪ বছর বয়সী কাভালা, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের কট্টর সমালোচক ছিলেন। তার বিরুদ্ধে দেয়া এই রায়ে তুরস্কের মিত্র দেশগুলো উদ্বেগ জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস এই রায়ের প্রেক্ষাপটে বলেন, ‘তুরস্কের জনগণ প্রতিহিংসার ভয় ছাড়াই মানবাধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতা চর্চার যোগ্য।’

এ ছাড়া দেশটির মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তুরস্কের বর্তমান সরকারকে নাগরিকদের অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এর আগে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে ইউরোপের মানবাধিকার আদালত তাকে মুক্তি দিতে নির্দেশ দেয়। সে সময় মানবাধিকার আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়, তুরস্ক কাভালার মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে এবং তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান অবশ্য ভিন্ন কথা বলেছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, ‘কাভালা হচ্ছেন হাঙ্গেরীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের বিলিয়নেয়ার জর্জ সোরসের এজেন্ট, যিনি বিদেশি অর্থের সাহায্যে তুরস্কের পতন ঘটাতে চেয়েছিলেন। আমরা কাভালার মতো মানুষের সঙ্গে একসঙ্গে থাকতে পারি না।’

আরও পড়ুন:
এবার ইরাকে তুরস্কের সামরিক অভিযান
বিশ্বের দীর্ঘতম ঝুলন্ত সেতু উদ্বোধন
ইসরায়েল তুরস্ক সম্পর্কে নতুন দিগন্তের সূচনা
তুর্কিদের হত্যা করতে হবে: জার্মান হামলাকারীর বাবা
তুরস্কের দাবি, থামছেই না গ্রিসের অমানবিক আচরণ

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Karin who danced with Putin quit his job

চাকরি ছাড়লেন পুতিনের সঙ্গে নাচা সেই কারিন

চাকরি ছাড়লেন পুতিনের সঙ্গে নাচা সেই কারিন নাচছেন কারিন নেইসল ও ভ্লাদিমির পুতিন
৫৭ বছর বয়সী কারিন ২০১৮ সালে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। সে সময় ‘বন্ধু’ পুতিনকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন তিনি। অনুষ্ঠানে পুতিনের সঙ্গে নেচে আলোচিত হন কারিন।

অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন, বিয়েতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে নেচে এসেছিলেন সংবাদের শিরোনামে। পরে যোগ দেন পুতিনের দেশেরই এক প্রতিষ্ঠানে। এবার সে চাকরি ছাড়লেন তিনি।

আলোচিত কারিন নেইসলের রাশিয়ার তেল কোম্পানি রোসনেফ্ট ছাড়ার তথ্য নিশ্চিত করেছে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতি দিয়ে কারিনের চাকরি ছাড়ার তথ্য জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি। শুক্রবার থেকে এই কর্মকর্তা আর দায়িত্বে নেই।

৫৭ বছর বয়সী কারিন ২০১৮ সালে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন। সে সময় ‘বন্ধু’ পুতিনকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন তিনি। বিয়ের অনুষ্ঠানে পুতিনের সঙ্গে নাচেন কারিন। এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে বিশ্বের প্রথম শ্রেণির গণমাধ্যমগুলো।

চাকরি ছাড়লেন পুতিনের সঙ্গে নাচা সেই কারিন

নিজ দেশের সরকারের দায়িত্ব ছেড়ে বিয়ের পরের বছরই রুশ কোম্পানি রোসনেফ্টে যোগ দেন কারিন। গত জুনে পান প্রতিষ্ঠানটির পরিচালকের দায়িত্ব।

জার্মানির সাবেক চ্যান্সেলর গেরহার্ড শ্রোডার রোসনেফ্টে ছেড়ে যাচ্ছেন বলে তথ্য প্রকাশের পরদিনই নিজের পদত্যাগের কথা জানান সাবেক এই মন্ত্রী। অবশ্য শুক্রবারই তিনি জানিয়েছিলেন, আরও বছরখানেক কোম্পানিতে থাকতে চান।

চার বছর আগে অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারিন যখন বিয়েতে পুতিনকে আমন্ত্রণ জানান, তখন বেশ সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।
বিরোধী দলীয় রাজনীতিকরা অভিযোগ করেছিলেন, কারিন তার বিয়েতে পুতিনকে আমন্ত্রণ জানিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন।

তৎকালীন মন্ত্রী কারিনের বিয়ের অনুষ্ঠানে ফুলের তোড়া নিয়ে প্রবেশ করেন পুতিন। তার সঙ্গে ছিল রাশিয়ার সংগীত শিল্পীদের একটি দল। তারা বিয়েতে গানও পরিবেশন করে। অস্ট্রিয়ার স্টাইরিয়া রাজ্যে হওয়া অনুষ্ঠানে কারিনের সঙ্গে কোমর দুলিয়ে নাচেন পুতিন। এ নিয়ে বিতর্ক হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগও দাবি করা হয়।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পর থেকেই পশ্চিমাদের বাধা উপেক্ষা করে পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে চলছে রুশ সেনাদের সামরিক অভিযান।

চাকরি ছাড়লেন পুতিনের সঙ্গে নাচা সেই কারিন

বাসিন্দাদের রক্ষা করার জন্যই এমন সামরিক পদক্ষেপ বলে দাবি করে আসছে রাশিয়া। ইউক্রেনের পক্ষ থেকে বলা হয়, সম্পূর্ণ বিনা উসকানিতে রাশিয়া হামলা চালিয়েছে। দেশটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়ে আসছে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর এখন পর্যন্ত দেশটির ৮০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। একই সঙ্গে দেশ ছেড়েছেন প্রায় ৫০ লাখ মানুষ। কারিনের পদ ছাড়ার সঙ্গে ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর হামলার কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা, তা অবশ্য এখনই স্পষ্ট হওয়া যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন:
পুতিনের কথিত প্রেমিকা কে এই কাবায়েভা
পুতিন ক্যানসারে আক্রান্ত, দাবি পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমের
পুতিন পাবে ‘জেলেনস্কি জালিয়াতি’

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Russian life sentence for war crimes in Ukraine

যুদ্ধাপরাধে ইউক্রেনে রুশ সেনার যাবজ্জীবন

যুদ্ধাপরাধে ইউক্রেনে রুশ সেনার যাবজ্জীবন দণ্ড পাওয়া ভাদিম সিসিমারিন। ছবি: বিবিসি
এক বেসামরিক নাগরিককে হত্যার দায়ে এ সাজা দেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো ইউক্রেন রাশিয়ার কোনো সেনাকে সাজা দিল।

যুদ্ধাপরাধের দায়ে রাশিয়ার এক সেনাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দিয়েছে ইউক্রেনের একটি আদালত।

সোমবার এই রায় ঘোষণা করা হয় বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি

৬২ বছর বয়সী এক বেসামরিক নাগরিককে হত্যার দায়ে এ সাজা দেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো ইউক্রেন রাশিয়ার কোনো সেনাকে সাজা দিল।

ইউক্রেনের একটি গ্রামে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ওই হত্যার ঘটনা ঘটে। হত্যার দায় স্বীকার করেছেন দণ্ডপ্রাপ্ত ২১ বছর বয়সী ট্যাঙ্ক কমান্ডার ভাদিম সিসিমারিন। তবে তিনি বলেছেন, আদেশ পেয়ে গুলি ছুড়েছিলেন।

রাশিয়ার এই সেনার বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধে আরও অভিযোগের তদন্ত হচ্ছে।

রাশিয়া বলছে, কোনো বেসামরিক নাগরিকের ওপর তাদের সেনারা কোনো হামলা চালাচ্ছে না। তবে ইউক্রেনের দাবি, এরই মধ্যে ১১ হাজারের বেশি যুদ্ধাপরাধের ঘটনা ঘটিয়েছে রুশ সেনারা।

এমন প্রেক্ষাপটে রুশ সেনাদের বিচার করতে কিয়েভে আদালত বসিয়েছে ইউক্রেন। রাশিয়ার পক্ষ থেকে তাদের সেনার দণ্ড পাওয়া নিয়ে কোনো মন্তব্য আসেনি।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর পর থেকেই পশ্চিমাদের বাধা উপেক্ষা করে পূর্ব ইউরোপের দেশটিতে চলছে রুশ সেনাদের সামরিক অভিযান।

বাসিন্দাদের রক্ষা করার জন্যই এমন সামরিক পদক্ষেপ বলে দাবি করে আসছে রাশিয়া। ইউক্রেনের পক্ষ থেকে বলা হয়, সম্পূর্ণ বিনা উসকানিতে রাশিয়া হামলা চালিয়েছে। দেশটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়ে আসছে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর এখন পর্যন্ত দেশটির ৮০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। একই সঙ্গে দেশ ছেড়েছেন প্রায় ৫০ লাখ মানুষ।

যুদ্ধের প্রভাবে বিশ্বজুড়ে জ্বালানি তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় অনেক পণ্যের দাম বেড়ে গেছে। এ যুদ্ধ বন্ধ না হলে বিশ্বজুড়ে বড় ধরনের খাদ্যসংকট তৈরি হবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।

আরও পড়ুন:
‘বেলারুশ সীমান্তে ইউক্রেনের সামরিক তৎপরতা’
রাশিয়ার সঙ্গে নতুন আলোচনা চায় ইউক্রেন
ইউক্রেনের শরণার্থী তরুণীর প্রেমে পড়ে স্ত্রীকে ত্যাগ

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Radford Ruther founder of feminist theology died

মারা গেলেন নারীবাদী ধর্মতত্ত্বের প্রতিষ্ঠাতা র‍্যাডফোর্ড রুথার

মারা গেলেন নারীবাদী ধর্মতত্ত্বের প্রতিষ্ঠাতা র‍্যাডফোর্ড রুথার নারীবাদী ধর্মতত্ত্বের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ক্যাথলিক ধর্মতাত্ত্বিক রোজমেরি র‍্যাডফোর্ড রুথার। ছবি: সংগৃহীত
ড. রুথার ছিলেন একজন সমাজকর্মী, পরিবেশবাদী, মুক্তিবাদী ধর্মতত্ত্বের অনুসারী। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে ছিল তার অবস্থান। তিনি নারী-গির্জা এবং আরও অনেক নারীবাদী কর্মকাণ্ডের জন্য সারা বিশ্বে পরিচিত। তাকে এই সময়ে একজন গুরুত্বপূর্ণ খ্রিষ্টীয় নারীবাদী ধর্মতাত্ত্বিক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

প্রচলিত খ্রিষ্টীয় মতবাদবিরোধী, নারীবাদী ধর্মতত্ত্বের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ক্যাথলিক ধর্মতাত্ত্বিক রোজমেরি র‍্যাডফোর্ড রুথার মারা গেছেন।

ন্যাশনাল পাবলিক রেডিওর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তার পরিবারের পক্ষ থেকে ধর্মতাত্ত্বিক মেরি হান্ট এক বিবৃতিতে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় ৮৫ বছর বয়সে তিনি মারা যান।

ড. রুথার ছিলেন একজন সমাজকর্মী, পরিবেশবাদী, মুক্তিবাদী ধর্মতত্ত্বের অনুসারী। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে ছিল তার অবস্থান। তিনি নারী-গির্জা এবং আরও অনেক নারীবাদী কর্মকাণ্ডের জন্য সারা বিশ্বে পরিচিত। তাকে এই সময়ে একজন গুরুত্বপূর্ণ খ্রিষ্টীয় নারীবাদী ধর্মতাত্ত্বিক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তার অনুসারীদের কাছেও তিনি ছিলেন অত্যন্ত সম্মানিত।

একজন ধর্মতত্ত্ববিদ হিসেবেই যিনি কথিত ও প্রচলিত মতবাদকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন।

তিনি গর্ভপাত, জন্মনিয়ন্ত্রণ ও পুরুষ যাজকদের সম্পর্কে শিক্ষার বিষয়ে ক্যাথলিক চার্চকেও চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। চার্চের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে এক ক্যাথলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও তার চাকরির প্রস্তাব ফিরিয়ে নেয়া হয়।

জলবায়ু ন্যায়বিচার নিয়েও কাজ করেছিলেন তিনি। এ বিষয়ে তার লেখা বই ‘গাইয়া অ্যান্ড গড: অ্যান ইকোফেমিনিস্ট থিওলজি অফ আর্থ হিলিং’ ১৯৯৪ সালে প্রকাশিত হয়।

আরও পড়ুন:
নারী উদ্যোক্তাদের জুসি ফেস্ট শনিবার
পিরিয়ড জটিলতায় মাসে তিন দিন ছুটি পাচ্ছেন স্পেনের নারীরা
সালমার পর নারী আইপিএলে সুপ্তা
মোহামেডানে সালমা-রুমানা, আবাহনীতে জাহানারা
যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী গভর্নর

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Belgium was the first country to launch quarantine at MonkeyPix

প্রথম দেশ হিসেবে মাঙ্কিপক্সে কোয়ারেন্টিন চালু বেলজিয়ামে

প্রথম দেশ হিসেবে মাঙ্কিপক্সে কোয়ারেন্টিন চালু বেলজিয়ামে মাঙ্কিপক্স মোকাবেলায় প্রস্তুতি নিচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। ছবি: সংগৃহীত
১৯৮০ সালে নির্মূল হওয়া গুটিবসন্তের কাছাকাছি এই মাঙ্কিপক্স। এর লক্ষণগুলো অনেকটা চিকেনপক্সের মতো। প্রাথমিকভাবে আক্রান্ত ব্যক্তির জ্বর, মাথাব্যথা, পেশির ব্যথা, পিঠে ব্যথা, ঠান্ডা লাগা ও ক্লান্তি। এর ফুসকুড়িগুলো মুখে ওঠা শুরু করে। পরে পুরো দেহে ছড়িয়ে পড়ে।

ইউরোপের দেশ বেলজিয়ামে তিন জনের দেহে মাঙ্কিপক্স শনাক্ত হওয়ার পরেই পরিস্থিতি যাতে খারাপের দিকে যেতে না পারে তার জন্য বেলজিয়ামের রিস্ক অ্যাসেসমেন্ট গ্রুপ আক্রান্তদের জন্য ২১ দিনের কোয়ারেন্টিন ঘোষণা করেছে।

এদিকে রাশিয়া টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভাইরোলজিস্ট মার্ক ভ্যান রানস্ট রোববার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া এক পোস্টে দেশটিতে চতুর্থ রোগীর বিষয়টি জানিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন যে আগের তিন জন আক্রান্তের মত চতুর্থজনও সমকামী ফেটিশ উৎসব ডার্কল্যান্ডসের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, যা মে মাসের প্রথম দিকে এন্টওয়ার্পে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

তিনি বলেন, ‘এটি গুরুত্বপূর্ণ যে প্রত্যেকে যারা ডার্কল্যান্ডস ফেস্টিভ্যালে অংশ নিয়েছিলেন তারা যেন উপসর্গের বিষয়ে সজাগ থাকেন।’

এরই মধ্যে আফ্রিকার বাইরে ১৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মাঙ্কিপক্স। ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া ও ইসরায়েলে ৮০ জনের বেশি সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। যদিও বলা হচ্ছে, এই ভাইরাস ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি কম।

মাঙ্কিপক্স ভাইরাস সাধারণত মধ্য ও পশ্চিমা আফ্রিকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। তবে এই ভাইরাসের মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ার প্রবণতা কম।

যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের মতে, ভাইরাসে আক্রান্ত বেশির ভাগ মানুষই কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সুস্থ হয়ে যান।

আফ্রিকার বাইরে মাঙ্কিপক্সের বর্তমান প্রাদুর্ভাব বিজ্ঞানীদের অবাক করে দিয়েছে এবং যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা নতুন পরামর্শ জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, উচ্চ-ঝুঁকিপূর্ণদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের তিন সপ্তাহের জন্য সেলফ- কোয়ারেন্টিনে থাকা উচিত।

বেলজিয়াম প্রথম দেশ হিসেবে শুক্রবার মাঙ্কিপক্স সংক্রমিত ব্যক্তিদের জন্য তিন সপ্তাহের কোয়ারেন্টিন ঘোষণা করেছে।

আরও পড়ুন:
মাঙ্কিপক্স: দেশের সব বন্দরে সতর্কতা
১১ দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত ৮০
মাঙ্কিপক্স নিয়ে যে বিষয়গুলো জানা দরকার
মাঙ্কিপক্স নিয়ে ডব্লিউএইচওর জরুরি বৈঠক
স্পেনে সতর্কতার পর এবার যুক্তরাষ্ট্রেও মাঙ্কিপক্স

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Imran wants to stop war in Pakistan Shahbaz

ইমরান পাকিস্তানে যুদ্ধ বাধাতে চান: শাহবাজ

ইমরান পাকিস্তানে যুদ্ধ বাধাতে চান: শাহবাজ সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন শাহবাজ শরিফ। ছবি: ডন
শাহবাজ শরিফ বলেন, ‘ইমরান খান দেশে গৃহযুদ্ধ বাধাতে চান। কিন্তু তিনি ভ্রান্তির মধ্যে আছেন। তিনি যে পাপ করেছেন, জনগণ কখনই তা ভুলবে না। তাকে শার্টের কলার ধরে নামাবে মানুষ।’

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পাকিস্তানে যুদ্ধ বাধাতে চান বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ।

ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক ই-ইনসাফের (পিটিআই) এক কর্মসূচি নিয়ে রোববার শাহবাজ এ মন্তব্য করেন।

বুধবার ইসলামাবাদে লংমার্চের ঘোষণা দিয়েছে পিটিআই। ওই প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ডন

শাহবাজ শরিফ বলেন, ‘ইমরান খান দেশে গৃহযুদ্ধ বাধাতে চান। কিন্তু তিনি ভ্রান্তির মধ্যে আছেন। তিনি যে পাপ করেছেন, জনগণ কখনই তা ভুলবে না। তাকে শার্টের কলার ধরে নামাবে মানুষ।’

ইমরানের দলের কর্মসূচি নিয়ে প্রয়োজনে যেকোনো পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

বিভিন্ন নাটকীয়তার পর গত ৯ এপ্রিল মধ্যরাতের অনাস্থা ভোটে ৬৯ বছর বয়সী ইমরান খানের প্রধানমন্ত্রিত্বের অবসান ঘটে। তিনি দেশটির ২২তম প্রধানমন্ত্রী।

পরে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদে আবার ভোটাভুটিতে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) নেতা শাহবাজ শরিফ।

দুর্নীতির দায়ে নওয়াজ শরিফ অভিশংসিত হওয়ার পর ২০১৮ সালে চার দলের সমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় এসেছিলেন ইমরান। তার সরকারের মেয়াদ ছিল ২০২৩ সালের আগস্ট পর্যন্ত।

আরও পড়ুন:
পাকিস্তানে ৩৮ বিলাস পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা
টানা ৬ দিন দর হারাল পাকিস্তানি রুপি
পাকিস্তানে হঠাৎ বন্যা, সেতু ধসে আটকা অনেক পর্যটক
ক্ষমতা পোক্ত করতে শাহবাজের জোর চেষ্টা
শাহবাজের পাকিস্তানের পাশেও সৌদি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Air services damaged in relief rains in Delhi

স্বস্তির বৃষ্টিতে দিল্লিতে ব্যাহত বিমান সেবা

স্বস্তির বৃষ্টিতে দিল্লিতে ব্যাহত বিমান সেবা প্রবল বৃষ্টিতে ব্যাহত দিল্লি বিমানবন্দরের বিমান সেবা
অধিক বৃষ্টির ফলে দিল্লির বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে, যার ফলে দিল্লির বহু স্থানে ট্রাফিক জ্যামের পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে। বৃষ্টিতে ব্যাহত হয়েছে ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বিমান সেবা। দিল্লি বিমানবন্দরের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্যানুসারে, খারাপ আবহাওয়া ও অন্যান্য কারণে ৪০টি ফ্লাইট বিলম্বিত হয়েছে।

তীব্র গরমে অতিষ্ঠ ভারতের রাজধানী দিল্লির বাসিন্দাদের জীবনে এলো স্বস্তির বৃষ্টি। সোমবার ভোররাত থেকে প্রবল বাতাসের সঙ্গে বৃষ্টি হয়েছে দিল্লি ও আশপাশের এলাকায়। দিল্লিবাসীর মনে স্বস্তি এনে দেয়া এই বৃষ্টি সারা দিনই অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর (আইএমডি)।

ভারতের আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, বৃষ্টির কারণে দিল্লির তাপমাত্রা ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমেছে। সোমবার ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে তাপমাত্রা ছিল ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা বৃষ্টির পর সকাল ৭টায় ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে। এদিকে আবহাওয়া দপ্তরের সর্বশেষ বুলেটিনে বলা হয়েছে, দিল্লি ও এর আশপাশের এলাকায় আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ৫০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বাতাস বইতে পারে।

আবহাওয়া দপ্তর সতর্কতা জারি করে বলেছে, শুধু দরকারেই ঘর থেকে বের হতে হবে, ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ রাখতে হবে। পাশাপাশি বৃষ্টি ও ঝড়ের কারণে ঝুপড়ি, টিনের চালার মতো দুর্বল স্থাপনাগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

এদিকে ভারি বৃষ্টির কারণে দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বিমান সেবা ব্যাহত হয়েছে। দিল্লি বিমানবন্দরের ওয়েবসাইটে দেয়া তথ্যানুসারে, খারাপ আবহাওয়া ও অন্যান্য কারণে ৪০টি ফ্লাইট বিলম্বিত হয়েছে। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে যাত্রীদের ফ্লাইট আপডেটের জন্য সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইনসের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

অধিক বৃষ্টির ফলে দিল্লির বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে, যার ফলে দিল্লির বহু স্থানে ট্রাফিক জ্যামের পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে। রাজধানীর কিছু অংশে গাছ উপড়ে গেছে এবং সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে আইটিও, ডিএনডি ফ্লাইওভার ও অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট মেডিক্যাল সায়েন্সের কাছাকাছি বিভিন্ন এলাকায় ট্র্যাফিক জ্যামের খবর পাওয়া গেছে এবং গাড়ির দীর্ঘ সারি দেখা গেছে।

দিল্লির মতিবাগ এলাকায় একটি চলন্ত গাড়ির ওপর গাছ ভেঙে পড়েছে। ঘটনার সময় সেই গাড়িতে তিনজন ছিলেন। তাদের নিরাপদে গাড়ি থেকে বের করে আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
জামিন পেলেন জ্ঞানবাপী নিয়ে মন্তব্য করা ভারতীয় অধ্যাপক
চা-বাগানে বিষাক্ত মাশরুমের প্রকোপ
ভারতীয় রুপির মান স্মরণকালের সর্বনিম্ন
খাদ্যশস্য বণ্টনে অসাম্য হওয়া উচিত নয়: ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী
রাজিব গান্ধী হত্যা: যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত আসামি খালাস

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Sri Lanka appoints 10 more ministers

শ্রীলঙ্কায় আরও ১০ মন্ত্রী নিয়োগ

শ্রীলঙ্কায় আরও ১০ মন্ত্রী নিয়োগ
ভারত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কায় টানা কয়েক দিন ধরে চলা সরকারবিরোধী আন্দোলন গত ১১ মে আরও বড় রূপ ধারণ করে।

অর্থনৈতিকসহ নানা সংকটে বিপর্যস্ত শ্রীলঙ্কায় নতুন করে আরও ১০ মন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

সোমবার সকালে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে ওই মন্ত্রীদের নিয়োগ দেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম সিলন টুডে

নতুন নিয়োগ পাওয়া মন্ত্রীদের মধ্যে ইলাম পিউপিলস ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা ডগলাস দেবানন্দকে দেয়া হয়েছে মৎস্য সম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। পরিবহন, সড়ক ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন ব্যান্দুলা গানওয়ার্দেনা।

এ ছাড়া পানি সম্পদ, কৃষি, বন, শিল্প, ধর্ম, সংস্কৃতি ও পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রণালয়েও নতুন মন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এই ১০ মন্ত্রীই শপথ গ্রহণ করেছেন।

ভারত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কায় টানা কয়েক দিন ধরে চলা সরকারবিরোধী আন্দোলন গত ১১ মে আরও বড় রূপ ধারণ করে। ওইদিনের সংঘর্ষে নিহত হন ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের এক এমপি ও পুলিশ সদস্যসহ অন্তত নয়জন।

করোনাভাইরাস মহামারি, ক্রমবর্ধমান জ্বালানি মূল্য এবং কর কর্তনে বড় ধরনের সংকটে পড়েছে শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি। বিদেশি মুদ্রার তীব্র সংকট এবং ক্রমবর্ধমান মূল্যস্ফীতিতে দেশটিতে ওষুধ, জ্বালানি ও প্রয়োজনীয় অন্যান্য সামগ্রীর সংকটও চরমে।

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে বড় ধরনের বিক্ষোভ হয়েছে, যার কোনো কোনোটি সহিংস রূপ নিয়েছে। এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাকাপাকসে পদ ছেড়েছেন। এসেছেন নতুন প্রধানমন্ত্রী।

আরও পড়ুন:
শ্রীলঙ্কায় জ্বালানি মজুতদারির বিরুদ্ধে অভিযান
শ্রীলঙ্কা এখন ঋণখেলাপি

মন্তব্য

p
উপরে