× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
Suu Kyi has been charged with embezzlement
hear-news
player
print-icon

দেড় শ বছরের সাজার সামনে সুচি?

দেড়-শ-বছরের-সাজার-সামনে-সুচি?
দুর্নীতির অভিযোগে অং সান সুচির বিরুদ্ধে নতুন করে আরও ১১ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ছবি: এএফপি
ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নেত্রী ৭৭ বছর বয়সী অং সান সুচি গত বছর ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকেই আটক রয়েছেন। সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা, মহামারিকালীন বিধিনিষেধ উপেক্ষা ও টেলিকমিউনিকেশন আইন ভাঙার দায়ে ইতিমধ্যে তাকে ৬ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের তৎকালীন সরকারপ্রধান অং সান সুচিকে ক্ষমতাচ্যুত করে দেশটির সামরিক বাহিনী। জান্তা সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, দেশটির নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়মের পরিপ্রেক্ষিতে তারা পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছে। পরবর্তী সময়ে অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগে জান্তা সরকারের ইন্ধনে অং সান সুচির বিরুদ্ধে প্রায় ডজনখানেক মামলা দেয়া হয়। যার রায়ে ইতিমধ্যে তিনি কারাভোগ করছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুর্নীতির অভিযোগ এনে নোবেল শান্তি পুরস্কার পাওয়া অং সান সুচির বিরুদ্ধে নতুন করে আরও ১১টি মামলা করেছে। অভিযোগগুলো প্রমাণিত হলে প্রত্যেকটি অভিযোগের জন্য অং সান সুচির ১৫ বছর করে ১৫০ বছরের বেশি কারাদণ্ড হতে পারে।

এর মাঝে পুলিশে দায়ের করা এক অভিযোগে বলা হয়েছে, অং সান সুচির নিজের মায়ের নামে করা একটি দাতব্য সংস্থায় ৫ লাখ ৫০ হাজার ডলার নিয়েছেন।

এমন দিনে জান্তা সরকার এই অভিযোগ আনল যখন দেশটির সামরিক বাহিনী উত্তর-পশ্চিমের সাগাইন অঞ্চলে বেসামরিক মানুষের ওপর হামলা চালিয়েছে। এ সময় সেনারা প্রায় ৪০০ বাড়িঘরে আগুন দেয় এবং হাজারও মানুষকে পালিয়ে যেতে বাধ্য করে।

ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নেত্রী ৭৭ বছর বয়সী অং সান সুচি গত বছর ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর থেকেই আটক রয়েছেন। সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে চক্রান্ত করা, মহামারিকালীন বিধিনিষেধ উপেক্ষা ও টেলিকমিউনিকেশন আইন ভাঙার দায়ে ইতিমধ্যে তাকে ৬ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

ইতিমধ্যেই তার বিরুদ্ধে আরও দুর্নীতির অভিযোগ ও ঔপনিবেশিক আমলের রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে বিচারকাজ চলছে।

যদিও অং সান সুচি তার বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

গত বছরের ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের নির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে দেশটির সেনাবাহিনী; আটক করে শান্তিতে নোবেলজয়ী সু চি, প্রেসিডেন্ট উইন মিন্তসহ অনেককে।

তাদের গ্রেপ্তারের পর থেকেই গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে নজিরবিহীন বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে মিয়ানমার। বিক্ষোভ দমনে কঠোর হয় সেনাবাহিনী।

বর্তমানে দেশটি গৃহযুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে, গণতন্ত্রপন্থিদের সঙ্গে সামরিক বাহিনীর সংঘাত লেগেই আছে। ফলে বহু মানুষ হতাহত হচ্ছে।

আরও পড়ুন:
গৃহযুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে মিয়ানমার
মিয়ানমারে পুড়িয়ে মারাদের মধ্যে সেভ দ্য চিলড্রেনের ২ কর্মী
মিয়ানমারে ৩০ জনকে পুড়িয়ে মারল সেনারা
মিয়ানমারে জেড পাথরের খনি ধস, নিখোঁজ অন্তত ৫০
মিয়ানমারে হেলিকপ্টার হামলায় নিহত ৯

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Guterres Erdogan is sitting with Zelensky

জেলেনস্কির সঙ্গে বসছেন গুতেরেস, এরদোয়ান

জেলেনস্কির সঙ্গে বসছেন গুতেরেস, এরদোয়ান ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কি, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। ছবি কোলাজ: এএফপি
জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কির আমন্ত্রণে বৃহস্পতিবার লাভিভে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও ইউক্রেনের রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে বসবেন (জাতিসংঘের) মহাসচিব।’

ইউক্রেনে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে বৈঠক করবেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক মঙ্গলবার বিষয়টি জানিয়েছেন।

দুজারিক বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কির আমন্ত্রণে বৃহস্পতিবার লাভিভে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও ইউক্রেনের রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে বসবেন (জাতিসংঘের) মহাসচিব।’

গুতেরেসের মুখপাত্রের বরাত দিয়ে আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়, ত্রিপক্ষীয় বৈঠকের পরের দিন শুক্রবার কৃষ্ণসাগরীয় বন্দর ওডেসায় যাবেন জাতিসংঘের মহাসচিব ও দুই প্রেসিডেন্ট। জাতিসংঘের মধ্যস্থতায় চুক্তি অনুযায়ী ওডেসা দিয়ে খাদ্যশস্য রপ্তানি শুরু হয়।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার সামরিক অভিযান শুরুর পর ইউক্রেন থেকে খাদ্যশস্য রপ্তানি বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এতে বিশ্বজুড়ে খাদ্য সংকট সৃষ্টি হয়।

এমন বাস্তবতায় জাতিসংঘ ও তুরস্কের সঙ্গে গত ২২ জুলাই আলোচিত চুক্তিতে সই করে রাশিয়া ও ইউক্রেন। ওই চুক্তি অনুযায়ী ইউক্রেনের বন্দর ছেড়ে যায় শস্যবাহী জাহাজ।

ইউক্রেনে জাতিসংঘ মহাসচিবের কর্মসূচি নিয়ে দুজারিক আরও বলেন, জেলেনস্কির সঙ্গে বৈঠকে জাপোরিজ্জা পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলবেন গুতেরেস। পাশাপাশি রাশিয়ার সঙ্গে সংঘাতের রাজনৈতিক সমাধান নিয়েও আলোচনা করবেন তিনি।

সামরিক অভিযান শুরুর পরপরই জাপোরিজ্জা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের দখল নেন রুশ সেনারা। পূর্ব ইউক্রেনের এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে গোলাবর্ষণের জন্য পরস্পরকে দায়ী করে আসছে ইউক্রেন ও রাশিয়া।

আরও পড়ুন:
ভয়াবহ বিস্ফোরণের জেরে ক্রিমিয়া ছেড়ে পালাচ্ছে রুশরা
যুদ্ধের থ্রিল নিতে পর্যটক ডাকছে ইউক্রেনীয় প্রতিষ্ঠান
ইউরোপে রুশ তেলের পাইপলাইন বন্ধ করল ইউক্রেন
ইউরোপে পারমাণবিক বিপর্যয়ের শঙ্কা জাতিসংঘের
‘রাজাকার’ ধরতে ইউক্রেনীয় শহরে অভিযান

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Large explosion at Russian arsenal in Crimea

ক্রিমিয়ায় রাশিয়ার অস্ত্রাগারে বড় বিস্ফোরণ

ক্রিমিয়ায় রাশিয়ার অস্ত্রাগারে বড় বিস্ফোরণ ছবি: সংগৃহীত
ইউক্রেন দাবি করেছে, বিস্ফোরণের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত একটি বিদ্যুৎ সাবস্টেশন জাপোরিজ্জিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে রাশিয়া-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ করত।

মঙ্গলবার ইউক্রেনের রুশ অধীকৃত ক্রিমিয়া উপদ্বীপে একটি সামরিক ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটেছে। এতে বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হলে ওই এলাকা থেকে ৩ হাজারেরও বেশি লোককে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়, মেসকোয়ের একটি গোলাবারুদ সংরক্ষণ কেন্দ্রে বড় আকারের এই বিস্ফোরণটি ঘটে।

২০১৪ সালে দখল করা অঞ্চলটিতে এক সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল।

প্রাথমিকভাবে এই বিস্ফোরণকে ‘নাশকতা’ হিসেবে অভিহিত করেছে রুশ কর্তৃপক্ষ। গত সপ্তাহেও ক্রিমিয়ার সাকি বিমান ঘাঁটিতে এক হামলায় ৯টি রুশ যুদ্ধবিমান ধ্বংস করে দেয়া হয়।

বিস্ফোরণের ঘটনায় ইউক্রেন দায় স্বীকার না করলেও দেশটির প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা মিখাইলো পোদোলিয়াক এক টুইটে মন্তব্য করেন, রুশদের দখলে থাকা ক্রিমিয়া হচ্ছে বিস্ফোরণ এবং আক্রমণকারী ও চোরদের জন্য মৃত্যুর উচ্চ ঝুঁকিসম্পন্ন স্থান।

রুশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ডিপোতে আগুন লাগার ফলে একটি বিদ্যুৎকেন্দ্র, বিদ্যুৎলাইন, রেললাইন ও কিছু ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে এতে কেউ গুরুতর আহত হননি।

ইউক্রেনের পোদোলিয়াক দাবি করেছেন, বিস্ফোরণের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত একটি বিদ্যুৎ সাবস্টেশন জাপোরিজ্জিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে রাশিয়া-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ করত।

আরও পড়ুন:
যুদ্ধের থ্রিল নিতে পর্যটক ডাকছে ইউক্রেনীয় প্রতিষ্ঠান
ইউরোপে রুশ তেলের পাইপলাইন বন্ধ করল ইউক্রেন
ইউরোপে পারমাণবিক বিপর্যয়ের শঙ্কা জাতিসংঘের
‘রাজাকার’ ধরতে ইউক্রেনীয় শহরে অভিযান
রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধে মুসলমানরা কোন পক্ষে?

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Supporters will be on the streets on game days

‘খেলা হবে’ দিবসে রাস্তায় সমর্থকরা

‘খেলা হবে’ দিবসে রাস্তায় সমর্থকরা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত
জেলায় জেলায় চোর ধরো, জেলে ভরো কর্মসূচিতে পথে নেমেছে সিপিএম, বিজেপি। বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ তৃণমূলের দিবসটিকে কটাক্ষ করে মঙ্গলবার বলেন, আমরাও দেখব, কী খেলা হয়। খেলা তো শুরু হয়ে গিয়েছে। দুটো গোল খেয়েছে । তিন নম্বর হলেই চিৎ।’

ভারতের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ‘খেলা হবে’ দিবসে রাজ্যজুড়ে রাস্তায় নেমে ইডি সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে দাঁড়ালেন তৃণমূল সমর্থকরা।

সারদা আর্থিক কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত বিরোধী দলনেতা বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীর মুখোশ পরা একজন লোকের কোমরে দড়ি বেঁধে মিছিলে ঘোরানো হয়। গায়ে লেখা আমি চোর। মিছিল থেকে প্রশ্ন তোলা হয়, শুভেন্দু অধিকারীকে ছাড় দেয়া হচ্ছে কেন?

মঙ্গলবার সকালে তৃণমূলের খেলা হবে দিবসে টুইট করে রাজ্যবাসীকে শুভেচ্ছা জানান তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি টুইটে লিখেছেন, ‘সবাইকে খেলা হবে দিবসের শুভেচ্ছা। গতবার এই দিনটি সাফল্যের সঙ্গে উদযাপিত হয়েছে। এ বছর আরও বেশি যুবক-যুবতী এতে অংশগ্রহণ করুক।’

২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের খেলা হবে স্লোগানটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। রাজ্যে তৃতীয়বার সরকার গঠনের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খেলা হবে স্লোগানটিকে চিরস্থায়ী করতে প্রতি বছর ১৬ আগস্ট খেলা হবে দিবস হিসেবে পালন করার কথা ঘোষণা করেন।

স্কুলশিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় রাজ্যের সাবেক শিক্ষামন্ত্রী, তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব ইডির হাতে গ্রেপ্তার হলে দল কারও পাপের দায় নেবে না বলে দলীয় ও প্রশাসনিক সব পদ থেকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সরিয়ে দেয়া হয়। বর্তমানে ইডি হেফাজতে রয়েছেন তিনি।

এর মধ্যে আবার গরু পাচার মামলায় বীরভূমের প্রতাপশালী তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডল ওরফে কেষ্ট মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই। দুর্নীতি ইস্যুতে তৃণমূল কংগ্রেস কার্যত চাপের মুখে পড়ে যায়। তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের মনোবল ধাক্কা খায়।

এই পরিস্থিতিতে শনিবার বেহালার একটি দলীয় অনুষ্ঠানে গিয়ে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘১৬ আগস্ট থেকে আন্দোলন আবার শুরু হবে । খেলা হবে দিবসে মিটিং মিছিল, প্রতিবাদ, প্রতিরোধ, কাজকর্মও করবেন। রাস্তায় নামতে হবে । রাস্তাই আমাদের রাস্তা দেখাবে। সেই যুদ্ধটা হবে, খেলা দিবস থেকে । খেলা হবে। সকলে খেলা দিবসে অংশগ্রহণ করবেন। একটু খেলাধুলা করবেন । খেলতে খেলতে রাস্তায় মিছিল করুন না, ভালো লাগবে।’

অন্যদিকে জেলায় জেলায় চোর ধরো, জেলে ভরো কর্মসূচিতে পথে নেমেছে সিপিএম, বিজেপি।

বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ তৃণমূলের দিবসটিকে কটাক্ষ করে মঙ্গলবার বলেন, ‘আমরাও দেখব, কী খেলা হয়। খেলা তো শুরু হয়ে গিয়েছে। দুটো গোল খেয়েছে । তিন নম্বর হলেই চিৎ।’

এ দিন খেলা হবে দিবসের মূল অনুষ্ঠানটি হয় কলকাতার নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে । অনুষ্ঠানে কমনওয়েলথ গেমসে স্বর্ণপদক জয়ী অচিন্ত্য শিউলি ও ব্রোঞ্জ পদকজয়ী সৌরভ ঘোষালকে বিশেষ সম্মান জানানো হয়।

কয়েকদিন আগে কয়েক হাজার কোটি টাকার সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারির মূল হোতা সুদীপ্ত সেন সংবাদমাধ্যমের কাছে অভিযোগ তোলেন, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ব্ল্যাকমেইল করে তার কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এ বিষয়ে তিনি চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট এবং হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতিকে চিঠি লিখে বিস্তারিত জানিয়েছেন।

আর সুদীপ্ত সেনের এই অভিযোগকে হাতিয়ার করে তৃণমূলের প্রশ্ন, সুদীপ্ত সেন নিজে যখন শুভেন্দুর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছেন, তখন তাকে গ্রেপ্তার করা হবে না কেন? বিজেপিতে আছেন বলেই কি সিবিআই গ্রেপ্তারি থেকে ছাড়া পেয়ে চলেছেন শুভেন্দু?

আরও পড়ুন:
জেল হেফাজতে পার্থ-অর্পিতা
আগামী লোকসভা নির্বাচনে ভেসে যাবে বিজেপি: মমতা
ভারতের উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দেবে না তৃণমূল
ত্রিপুরায় তৃণমূলের নতুন কমিটি
জয়প্রকাশ যোগ দিলেন তৃণমূলে

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Mamata told about her dream India

নিজের স্বপ্নের ভারতের কথা জানালেন মমতা

নিজের স্বপ্নের ভারতের কথা জানালেন মমতা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীত
স্বপ্নের ভারতের কথা বলতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন, আমি এমন একটি দেশ গঠন করতে চাই, যেখানে কেউ অভুক্ত থাকবে না। যেখানে কোনো নারী নিরাপত্তা হীনতায় ভুগবে না । যেখানে প্রতিটি শিশু শিক্ষার আলো দেখবে। যেখানে সবাইকে সমান চোখে দেখা হবে। যেখানে কোনো বিভেদকামী শক্তি থাকবে না। সম্প্রীতির দিন আসবে।

ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তির দিনে নিজের স্বপ্নের ভারতের কথা এক টুইট বার্তায় জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি এমন এক ভারতের কথা বলেছেন, যেখানে বিভেদকামী শক্তি থাকবে না, বইবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাতাবরণ, যেখানে কোনো মানুষ অভুক্ত থাকবে না।

মমতা টুইটে বলেন, ‘ভারতের জন্য আমার একটা স্বপ্ন আছে। আমি এমন একটি দেশ গঠন করতে চাই, যেখানে কেউ অভুক্ত থাকবে না। যেখানে কোনো নারী নিরাপত্তা হীনতায় ভুগবে না । যেখানে প্রতিটি শিশু শিক্ষার আলো দেখবে। যেখানে সবাইকে সমান চোখে দেখা হবে। যেখানে কোনো বিভেদকামী শক্তি থাকবে না। সম্প্রীতির দিন আসবে।’

মমতা এদিনের টুইটে আরও লিখেছেন, ‘দেশের মহান মানুষের কাছে আমার প্রতিশ্রুতি, আমি স্বপ্নের ভারতের জন্য প্রতিদিন চেষ্টা করে যাব।’

তবে মুখমন্ত্রীর এই টুইটকে কটাক্ষ করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তিনি বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। তাই এ ধরনের টুইট করেছেন। পশ্চিমবঙ্গের নারীদের নিরাপত্তা নেই। পেটের জ্বালায় শ্রমিকরা অন্য রাজ্যে কাজে যাচ্ছেন। আর মুখ্যমন্ত্রী ভারত গড়ার দিবাস্বপ্ন দেখছেন।’

আরও পড়ুন:
সেই অর্পিতার আরেক ফ্ল্যাটে ২৯ কোটি রুপি
কে এই অর্পিতা
পশ্চিমবঙ্গে মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ মডেলের ঘর থেকে ২০ কোটি রুপি জব্দ
পশ্চিমবঙ্গের নতুন রাজ্যপাল হিসেবে গণেশনের শপথ
চলন্ত বাইক আরোহীর ওপর চিতার হামলা

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
20 killed in a bus collision with an oil tanker in Pakistan

পাকিস্তানে তেলের ট্যাংকারের সঙ্গে বাসের সংঘর্ষে নিহত ২০

পাকিস্তানে তেলের ট্যাংকারের সঙ্গে বাসের সংঘর্ষে নিহত ২০ দুর্ঘটনার পর মোটরওয়েতে কয়েক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। ছবি: রেডিও পাকিস্তান
তেল ট্যাংকারের সঙ্গে স্লিপার কোচের সংঘর্ষে আগুন ধরে যায়। আগুন এতটাই তীব্র ও ভয়ংকর ছিল যে অনেক দূর থেকেও তা দেখা যাচ্ছিল এবং তা নেভাতে উদ্ধারকারী দলের কয়েক ঘণ্টা সময় লেগেছিল।

পাকিস্তানে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে একটি তেলবাহী ট্যাংকারের সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন নিহত ও ৬ জন আহত হয়েছেন।

দ্য নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার মুলতান-সুককুর মোটরওয়েতে(এম-ফাইভ) এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

বাস কোম্পানির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, স্লিপার কোচটিতে ২ জন ড্রাইভার ও ২৪ জন যাত্রী ছিল।

মোটরওয়ের কর্মকর্তারা বলেছেন, অতিরিক্ত গতির কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

দ্রুতগামী একটি স্লিপার বাস নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়ে একটি তেলের ট্যাংকারের সঙ্গে ধাক্কা খায়।

মোটরওয়ে পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, সংঘর্ষের পরপরই তেল ট্যাংকার ও যাত্রীবাহী বাসটিতে আগুন ধরে যায়।

দুর্ঘটনার পরপরই দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন পুলিশ ও উদ্ধারকর্মীরা।

আগুনে পুড়ে যাওয়া বাস থেকে অন্তত ৯ যাত্রীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। তাদের নিকটবর্তী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আগুন এতটাই তীব্র ও ভয়ংকর ছিল যে অনেক দূর থেকেও তা দেখা যাচ্ছিল এবং তা নেভাতে উদ্ধারকারী দলের কয়েক ঘণ্টা সময় লেগেছিল।

দুর্ঘটনার পর কয়েক ঘণ্টা হাইওয়েতে যান চলাচল বন্ধ থাকে।

আরও পড়ুন:
এশিয়া কাপে পাকিস্তান দল থেকে বাদ হাসান আলি
শেখ হাসিনার কাছ থেকে শিখুন: পাকিস্তানি আমলা
ইমরান খানের পিটিআই নিয়েছিল নিষিদ্ধ বিদেশি অনুদান
পাকিস্তানে বন্যায় ১৩৬ মৃত্যু, ইরানে ৬৯
রেটিং বলছে শ্রীলঙ্কাই হতে যাচ্ছে পাকিস্তান

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
US airstrike 13 killed in Somalia

আমেরিকার বিমান হামলা: সোমালিয়ায় নিহত ১৩

আমেরিকার বিমান হামলা: সোমালিয়ায় নিহত ১৩ চলতি মাসে আল-শাবাবের ওপর দুই দফা বিমান হামলা চালিয়েছে আমেরিকা। ছবি: সংগৃহীত
আফ্রিকার সেন্ট্রাল কমান্ড ৯ আগস্ট আল শাবাবের ওপর হামলার বিষয়টি বিবৃতি দিয়ে জানালেও সাম্প্রতিক হামলার বিষয়ে কিছু বলেনি। তবে সোমালিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশন বলছে, আল শাবাবের ওপর আকাশ পথে আবারও চড়াও হয়েছে আমেরিকা।

মধ্য সোমালিয়ায় আমেরিকার বিমান হামলায় ১৩ আল-শাবাব জঙ্গি নিহত হয়েছেন।

তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলুর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোববার সোমালিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভশনে দেশটির কর্মকর্তারাই এমনটা জানিয়েছেন।

সোমালি ন্যাশনাল টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, সোমালি সামরিক বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

সোমালিয়ার সামরিক কর্মকর্তাদের গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার অনুমোদন নেই, তাই নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সেনা কর্মকর্তা আনাদোলুকে জানিয়েছেন, আমেরিকা বিমান হামলা চালিয়ে সন্ত্রাসীদের আস্তানা ধ্বংস করেছে।

যদিও আমেরিকার সশস্ত্র বাহিনীর পক্ষ থেকে বিমান হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়নি।

এর আগে আমেরিকার সশস্ত্র বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ড জানিয়েছিল, ৯ আগস্ট সোমালিয়ার প্রদেশ হিরানের রাজধানী বেলেডওয়েনের লাচজে সোমালি ন্যাশনাল আর্মির ওপর যারা আক্রমণ করেছিল, সেই আল শাবাব গোষ্ঠীর ওপর তিনটি বিমান হামলা চালিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। এই হামলাগুলোতে আল-শাবাবের ৯ সদস্য নিহত হন।

আরও পড়ুন:
প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন সোমালি প্রেসিডেন্ট
সোমালিয়ায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত ৮
সোমালিয়ায় আত্মঘাতী গাড়িবোমায় নিহত ২০

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
After 38 years Senas body was found on the hill

৩৮ বছর পর সিয়াচেনে পাওয়া গেল সেনার মরদেহ

৩৮ বছর পর সিয়াচেনে পাওয়া গেল সেনার মরদেহ হিমবাহে টহলরত ভারতীয় সেনা। ছবি: সংগৃহীত
হারবোলা ছিলেন ২০ সদস্যের সৈনিকের দলের একজন সদস্য, যাদেরকে ১৯৮৪ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য ‘অপারেশন মেঘদূত’ এ বিশ্বের সর্বোচ্চ শিখরে পাঠানো হয়েছিল। সে সময় টহল দেয়ার সময় তুষার ঝড়ের কবলে পড়ে ২০ জন সেনাই মারা যান।

টহল দেয়ার সময় তুষারধসে নিখোঁজ হওয়ার ৩৮ বছর পর সিয়াচনের একটি পুরোনো বাঙ্কারে এক ভারতীয় সেনা জওয়ানের দেহ পাওয়া গেছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রানিক্ষেতের সৈনিক গ্রুপ সেন্টার মরদেহটি শনাক্ত করেছে।

মরদেহটি নাইন্টিন কুমায়ন রেজিমেন্টের সেনা চন্দ্রশেখর হারবোলার।

হারবোলা ছিলেন ২০ সদস্যের সৈনিকের দলের একজন সদস্য, যাদেরকে ১৯৮৪ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য ‘অপারেশন মেঘদূত’ এ বিশ্বের সর্বোচ্চ শিখরে পাঠানো হয়েছিল।

সে সময় টহল দেয়ার সময় তুষার ঝড়ের কবলে পড়ে ২০ জন সেনাই মারা যান। সে সময় ১৫ জন সেনার মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হলেও বাকি পাঁচজনের দেহ আর পাওয়া যায়নি। তাদের মধ্যেই একজন হারবোলা।

মরদেহ পাওয়ার পর এবার পরিপূর্ণ সামরিক মর্যাদায় তার শেষকৃত্য করা হবে।

হরবোলার স্ত্রী শান্তি দেবী বলেছেন, পরিবারের থেকেও দেশকে অগ্রাধিকার দিয়েছেন তার স্বামী। এতে তিনি গর্বিত।

তিনি জানিয়েছেন, যখন তার স্বামী নিখোঁজ হয় তখন তার বয়স ছিল মাত্র ২৮ বছর। তার বড় মেয়ের বয়স ছিল ৪ বছর এবং ছোট মেয়ের বয়স দেড় বছর।

১৯৮৪ সালে সবশেষ হারবোলা বাড়ি ফেরার প্রতিশ্রুতি দিয়েই ঘর ছেড়েছিলেন, এমনটাই জানান তার সহধর্মিনী।

১৯৭৫ সালে তিনি ভারতীয় সেনাবাহিনীতে যোগ দেন।

হরবোলার পাশাপাশি অন্য আরেকজন সেনার মৃতদেহ পাওয়া গেলেও তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন:
কাশ্মীরে বন্দুকধারীর হামলায় ৩ ভারতীয় সেনা নিহত

মন্তব্য

p
উপরে