× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
Corona In India detection increased by 35 in 1 day
google_news print-icon

করোনা: ভারতে ১ দিনে শনাক্ত বাড়ল ৩৫%

করোনা-ভারতে-১-দিনে-শনাক্ত-বাড়ল-৩৫
ভারতে বেড়েছে দৈনিক করোনা শনাক্তের হার। ছবি: এনডিটিভি
ভারতে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শনিবার একই সময় পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ২২ হাজার ৭৭৫ জনের দেহে। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১৬ হাজার ৭৬৪।

ভারতে এক দিনের ব্যবধানে করোনাভাইরাস শনাক্তের হার বেড়েছে ৩৫ শতাংশ।

দেশটিতে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে শনিবার একই সময় পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ২২ হাজার ৭৭৫ জনের দেহে। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১৬ হাজার ৭৬৪।

দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম দেশটিতে করোনার অতি সংক্রামক আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন শনাক্তের সংখ্যাও বাড়ছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের শনিবারের ডেটা অনুযায়ী, ভারতে ওমিক্রন শনাক্তের সংখ্যা ১ হাজার ৪৩১। ভ্যারিয়েন্টটি সবচেয়ে বেশি (৪৫৪) শনাক্ত হয়েছে মহারাষ্ট্রে।

দেশটির পাঁচ রাজ্যে ওমিক্রন শনাক্তের সংখ্যা বেশি। এ তালিকায় মহারাষ্ট্রের পরের অবস্থানে আছে দিল্লি। সেখানে শনাক্তের সংখ্যা ৩৫১। তামিলনাড়ু, গুজরাট ও কেরালায় ওমিক্রন শনাক্তের সংখ্যা যথাক্রমে ১১৮, ১১৫ ও ১০৯।

করোনায় বড় প্রাণহানি দেখা ভারতে গত ২ ডিসেম্বর প্রথম ওমিক্রন শনাক্ত হয়। ভ্যারিয়েন্টটি এখন ২৩টি রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৪০৬ জনের। দেশটির বেশ কয়েকটি রাজ্যে নতুন বছরের শুরুতে করোনা শনাক্তের সংখ্যা বেড়েছে।

মহারাষ্ট্রে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮ হাজার ৬৭ জনের শরীরে। পশ্চিমবঙ্গ ও নয়াদিল্লিতে এ সংখ্যা যথাক্রমে ৩ হাজার ৪৫১ ও ১ হাজার ৭৯৬।

এমন বাস্তবতায় ভারতের স্বাস্থ্যব্যবস্থা নিয়ে সতর্কবার্তা দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী ড. সৌম্য স্বামীনাথান।

তার আশঙ্কা, করোনা অত্যন্ত দ্রুতগতিতে ছড়াবে। এত বেশি মানুষ অসুস্থ হবে যে, হাসপাতালের সাধারণ বেড থেকে আইসিইউ ও আউটডোর ভরে যাবে।

এ অবস্থা মোকাবিলায় ভারতের স্বাস্থ্য অবকাঠামো ঢেলে সাজানোর পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

এদিকে করোনার সংক্রমণ মোকাবিলার অংশ হিসেবে শনিবার ‘কোউইন’ পোর্টালে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের জন্য করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকার রেজিস্ট্রেশন চালু করেছে।

এ নিয়ে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানসুখ মান্দাভিয়া বলেন, ‘শিশুরা নিরাপদ থাকলে দেশের ভবিষ্যৎ নিরাপদ। আমি টিকা দেয়ার জন্য ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের নাম নথিভুক্ত করতে তাদের পরিবারের সদস্যদের অনুরোধ করছি।’

আরও পড়ুন:
করোনা মহামারির ‘প্রাকৃতিক ভ্যাকসিন’ ওমিক্রন
৩ কোটি ৩২ লাখ মানুষকে টিকাদানে ক্যাম্পেইন শুরু
কাশ্মীরে মন্দিরে পদদলিত হয়ে অন্তত ১২ মৃত্যু
লকডাউনে আটকে খাবারের জন্য কাঁদছে চীনের মানুষ
দেশে নিজস্ব টিকা উৎপাদন কতদূর

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
At Netrakona lawyer Munsis birthday function on the stage of drinking teacher

নেত্রকোণায় উকিল মুন্সীর জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের মঞ্চে মদ্যপান শিক্ষকের

নেত্রকোণায় উকিল মুন্সীর জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের মঞ্চে মদ্যপান শিক্ষকের প্রকাশ্যে মদ পান করা আবদুস সালাম দরদী নেত্রকোণার আটপাড়া উপজেলার সুখারী ইউনিয়নের ধর্মরায় রামধন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। ছবি: সংগৃহীত
নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনুষ্ঠানে অংশ্রগ্রহণকারী একাধিক ব্যক্তি জানান, আবদুস সালাম দরদী মঞ্চে বসে মদ পানের পাশাপাশি মাতলামিও করেন।

নেত্রকোণার খালিয়াজুরীতে বাউল সাধক ও মরমী কবি উকিল মুন্সীর জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের মঞ্চে বসে মদ্যপান করেছেন স্থানীয় একটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক।

আবদুস সালাম দরদী নামের ওই শিক্ষকের মদ পানের ছবি এরই মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে অনলাইনে।

দরদীর বাড়ি জেলার খালিয়াজুরী উপজেলার নূরপুর বোয়ালী গ্রামে। তিনি নেত্রকোণার আটপাড়া উপজেলার সুখারী ইউনিয়নের ধর্মরায় রামধন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে জানা যায়, দেশের বিখ্যাত বাউল সাধক ও মরমী কবি উকিল মুন্সীর ১৩৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে শিক্ষক আবদুস সালাম দরদীর নিজ গ্রাম নূরপুর বোয়ালীতে সম্প্রতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে রাতভর উকিল মুন্সীর গান পরিবেশন করেন বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা বাউল শিল্পীরা।

অনুষ্ঠানের মঞ্চের এক পাশে চেয়ারে বসে মদ্যপান করেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আবদুস সালাম দরদী। এ ঘটনার ছবি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকে পোস্ট করেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনুষ্ঠানে অংশ্রগ্রহণকারী একাধিক ব্যক্তি জানান, আবদুস সালাম দরদী মঞ্চে বসে মদ পানের পাশাপাশি মাতলামিও করেন।

অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া একজন বলেন, ‘একজন শিক্ষক যদি মাদকে আসক্ত হয় এবং প্রকাশ্যে মদ পান করে, তাহলে ছাত্রদের কী শিক্ষা দেবেন?’

এ বিষয়ে শিক্ষক আবদুস সালাম দরদী বলেন, ‘একটা চক্র শক্রতা করছে আমার সাথে। এই বিষয়টা (মদ্যপান) নিয়ে যেন কোনো সমস্যা না করে, আমার একজন আত্মীয় সাংবাদিকদের সাথে সমাধান করে দিয়েছিল।

এর পরেও বিষয়টি নিয়ে বারবার কথা হচ্ছে।’

তিনি ঘটনাটি একটু ‘পজিটিভভাবে’ (ইতিবাচক) দেখার অনুরোধ করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নেত্রকোণা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মিজানুর রহমান খান বলেন, ‘সরকারি চাকরির নীতিমালা অনুযায়ী কেউ মদ্যপান করতে পারে না। শিক্ষক যদি মদ পান করে, তা আরও দুঃখজনক।

‘আমার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক প্রকাশ্যে মদ্যপান করেছে, বিষয়টি শুনলাম। খোঁজখবর নিয়ে এ ব্যাপারে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

আরও পড়ুন:
ইউএনওর সামনে শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ
নেত্রকোণায় জঙ্গি আস্তানায় ২৯ ঘণ্টার অভিযান সমাপ্ত
মোহনগঞ্জ লোকাল ট্রেন বন্ধে দুর্ভোগে যাত্রীরা
পেনশন স্কিম বাতিলের দাবিতে জবি শিক্ষকদের অর্ধদিবস কর্মবিরতি
‘প্রত্যয় স্কিম’ বাতিলের দাবিতে ঢাবি শিক্ষকদের অর্ধদিবস কর্মবিরতি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Mild heat wave in 5 districts including Chuadanga

চুয়াডাঙ্গাসহ ৫ জেলায় মৃদু তাপপ্রবাহ

চুয়াডাঙ্গাসহ ৫ জেলায় মৃদু তাপপ্রবাহ চুয়াডাঙ্গার চৌরাস্তার মোড়। ছবি: উইকিমিডিয়া কমন্স
তাপপ্রবাহের বিষয়ে পূর্বাভাসে বলা হয়, রাজশাহী, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, যশোর ও চুয়াডাঙ্গা জেলার ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

উচ্চ তাপমাত্রার জন্য আলোচিত চুয়াডাঙ্গাসহ দেশের পাঁচ জেলার ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে জানিয়ে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর সোমবার বলেছে, এটি অব্যাহত থাকতে পারে।

রাষ্ট্রীয় সংস্থাটি আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এমন বার্তা দিয়েছে।

পূর্বাভাসে সিনপটিক অবস্থা নিয়ে বলা হয়, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ থেকে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর কম সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় আছে।

আজ সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাত নিয়ে পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গা এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুই-এক জায়গায অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে।

তাপমাত্রার বিষয়ে অধিদপ্তর জানায়, সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

তাপপ্রবাহের বিষয়ে পূর্বাভাসে বলা হয়, রাজশাহী, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, যশোর ও চুয়াডাঙ্গা জেলার ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

আরও পড়ুন:
দেশজুড়ে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস
চার অঞ্চলে ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আভাস
ঈদের দিন হালকা থেকে অতিভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস
দেশজুড়ে সামান্য বাড়তে পারে তাপমাত্রা
দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Prime Minister inaugurated the program of distribution of stipend and tuition fee to students

শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি টিউশন ফি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি টিউশন ফি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সোমবার মাধ্যমিক থেকে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের অসচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি ও টিউশন ফি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ অতিথিরা। ছবি: ইয়াসিন কবির জয়
ইউএনবি জানায়, অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ মেধাবীদের হাতে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।

মাধ্যমিক থেকে স্নাতক (পাস) ও সমমান পর্যায়ের অসচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি এবং টিউশন ফি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সোমবার এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তিনি।

ইউএনবি জানায়, অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ মেধাবীদের হাতে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।

বার্তা সংস্থাটির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা ও সংস্কৃতিবিষয়ক উপদেষ্টা কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী এবং শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বেগম শামসুন নাহার বক্তৃতা করেন।

স্বাগত বক্তব্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সুলেমান খান বলেন, এ প্রকল্পের মাধ্যমে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক এবং স্নাতক ও সমপর্যায়ের ৬৪ লাখ ৭০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর মধ্যে দুই হাজার ২০৮ কোটি টাকা বিতরণ করা হবে।

তিনি বলেন, চলতি অর্থবছরে গভর্নমেন্ট টু পারসন (জিটুপি) পদ্ধতিতে শিক্ষার্থীদের অনলাইনে মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের মাধ্যমে উপবৃত্তি ও টিউশন ফি দেয়া হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে ১৫ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ২১ জন শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ দেয়া হয়।

১৫ শিক্ষার্থীকে একটি করে সনদ ও দুই লাখ করে টাকা এবং স্কলার অ্যাওয়ার্ড-২০২৩-এর জন্য নির্বাচিত ২১ শিক্ষার্থীর প্রত্যেককে একটি সনদ ও তিন লাখ করে টাকা দেয়া হয়।

বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ-২০২৪ প্রাপ্তদের পক্ষে হাজারীবাগ গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী নুসরাত জাহান মালিহা, দিনাজপুরের আমেনা-বাকি রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্রী আতিফা রহমান এবং খুলনার সরকারি মজিদ মেমোরিয়াল সিটি কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী পিনাক মুগ্ধা দাস তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কলার-২০২৩ প্রাপ্তদের পক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী জারিন তাসনিম রাইসা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা বিভাগের ছাত্র আল ফয়সাল বিন কাশেম কানন তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

আরও পড়ুন:
উভয় দেশের কল্যাণে সহযোগিতার বিষয়ে একমত ঢাকা-দিল্লি: শেখ হাসিনা
বৈঠকে হাসিনা-মোদি
মহাত্মা গান্ধীর প্রতি শেখ হাসিনার শ্রদ্ধা
ভারতে রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা
ঢাকা-দিল্লি সংলাপের মাধ্যমে বাণিজ্য প্রতিবন্ধকতা দূর করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The income of Bangabandhu Bridge in one day is about 3 crores

এক দিনে বঙ্গবন্ধু সেতুতে আয় প্রায় ৩ কোটি

এক দিনে বঙ্গবন্ধু সেতুতে আয় প্রায় ৩ কোটি বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব টোল প্লাজা এলাকায় বিভিন্ন যানবাহন। ছবি: নিউজবাংলা
স্থাপনাটিতে এক দিনে প্রায় তিন কোটি টাকা টোল আদায় করা হয় বলে সোমবার সকালে জানান বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল।

বঙ্গবন্ধু সেতুতে ঈদের পরও বেড়েছে যানবাহন পারাপারের সংখ্যা ও টোল আদায়ের পরিমাণ।

স্থাপনাটিতে এক দিনে প্রায় তিন কোটি টাকা টোল আদায় করা হয় বলে সোমবার সকালে জানান বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল।

তিনি জানান, ২৪ ঘণ্টায় সেতুটি পার হয় ৩৭ হাজার ৬০০টি যানবাহন।

বঙ্গবন্ধু সেতু সাইট অফিস জানায়, শনিবার (২২ জুন) রাত ১২টার পর থেকে থেকে রোববার (২৩ জুন) রাত ১২টা পর্যন্ত এক দিনে টাঙ্গাইলে সেতু পূর্ব প্রান্তের টোল প্লাজা দিয়ে উত্তরবঙ্গে ১৪ হাজার ৮৯৭টি যানবাহন পার হয়। এর বিপরীতে টোল আদায় হয় এক কোটি ২৬ লাখ ৯৫০ টাকা।

সিরাজগঞ্জে সেতু পশ্চিম প্রান্তের টোল প্লাজা দিয়ে ঢাকা ও ময়মনসিংহের দিকে ২২ হাজার ৭০৩টি যানবাহন পার হয়, যার বিপরীতে এক কোটি ৬৬ লাখ ৩০ হাজার ৬০০ টাকা টোল আদায় করা হয়।

এর আগে গত শুক্রবার রাত ১২টার পর থেকে শনিবার রাত ১২টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে ৪৪ হাজার ১৮৯টি যানবাহন পারাপার হয়েছিল, যার বিপরীতে টোল আদায় করা হয় তিন কোটি ৬০ লাখ ছয় হাজার ৩০০ টাকা।

আরও পড়ুন:
বঙ্গবন্ধু সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় আড়াই কোটি টাকার টোল আদায়
বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলে ঈদযাত্রার হাওয়া
বঙ্গবন্ধু সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় ২ কোটি ১৩ লাখ টাকার টোল আদায়
বিকল্প সড়কের ব্যবস্থা না করেই কোটালীপাড়ায় সেতু নির্মাণ, ভোগান্তি
চলন্ত ট্রেন থেকে মেঘনায় পড়ে যুবক নিখোঁজ

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Former Vice President of Kishoreganj Chhatra League arrested

চিনি চোরাচালানে অভিযুক্ত কিশোরগঞ্জ ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি গ্রেপ্তার

চিনি চোরাচালানে অভিযুক্ত কিশোরগঞ্জ ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি গ্রেপ্তার কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি নাজমুল হীরা। ছবি: সংগৃহীত
ময়মনসিংহের গাঙিনারপাড় এলাকা থেকে শনিবার রাত দেড়টার দিকে হীরাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

চিনি চোরাচালানে অভিযুক্ত ও পর্নোগ্রাফি আইনে করা মামলার আসামি কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি নাজমুল হীরাকে বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ময়মনসিংহের গাঙিনারপাড় এলাকা থেকে শনিবার রাত দেড়টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এর আগে কিশোরগঞ্জের ১ নম্বর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. আশিকুর আদালতে রোববার দুপুরে পর্নোগ্রাফি আইনে হীরাসহ তিনজনের নামে মামলা করেন এক ছাত্রী। মামলার বাদী শহরের একটি সরকারি কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি নাজমুল হোসেন হীরাকে। এ ছাড়া হীরার দুই মামা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন ও তার বড় ভাই মোশাররফ হোসেন মোল্লা বাবুলকে মামলার আসামি করা হয়েছে।

আসামিদের সবাই শহরের বয়লা তারাপাশা এলাকার বাসিন্দা।

কিশোরগঞ্জের ১ নম্বর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বেঞ্চ সহকারী শিখা রাণী দাস এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

যা আছে এজাহারে

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালে দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী এক যুবকের সঙ্গে বিয়ে হয় কলেজপড়ুয়া তরুণীর। দাম্পত্য জীবনে বনিবনা না হওয়ায় বিয়ের এক মাস পরই তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় এবং তিনি বাবার বাড়িতে চলে আসেন। সেখান থেকে ফের কলেজে যাওয়া শুরু করেন।

কলেজে যাওয়ার পথে প্রায়ই তাকে প্রেম নিবেদন করতেন নাজমুল হোসেন হীরা। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে বিয়ের কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক করেন হীরা। ওই সময় হীরা কৌশলে তাদের ব্যক্তিগত মুহূর্তের কিছু স্থিরচিত্র ও ভিডিও ধারণ করে রাখেন।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়, সম্পর্কের বিষয়টি হীরার মামা আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন ও মোশাররফ হোসেন মোল্লা বাবুলকে জানান মেয়েটি। তখন সুমন ও বাবুল মেয়েটিকে হুমকি দিয়ে বলেন, তাদের ভাগ্নের সঙ্গে বেশি বাড়াবাড়ি করলে শহরে থাকতে দেবেন না।

এভাবে ভয়-ভীতি প্রদর্শনের মাধ্যমে মেয়েটিকে বেশ কিছুদিন থামিয়ে রাখেন তারা। পরে বাধ্য হয়েই নাজমুল হীরার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক বজায় রাখতে হয় মেয়েটিকে। এভাবে টানা এক মাস অতিক্রান্ত হলে আবারও হীরাকে বিয়ের জন্য চাপ দেন তিনি।

একপর্যায়ে ২০২৩ সালের ৮ জুন গোপনে কাজী ডেকে বিয়েও করেন তারা। বিয়ের পরে তিনি জানতে পারেন, নাজমুল হীরা বিবাহিত; বাড়িতে তার স্ত্রী রয়েছে। বিষয়টি জানার পর মৌখিকভাবে হীরাকে তালাক দিয়ে চলে আসেন তিনি।

পরবর্তী সময়ে হীরা আবারও যোগাযোগ স্থাপন করে শারীরিক সম্পর্ক না রাখলে তাদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও ভাইরাল করে দেয়ার হুমকি দেন। এভাবে মেয়েটিকে ব্ল্যাকমেইল করে দুইবারে পাঁচ লাখ টাকা আদায় করেন তিনি। এই টাকা দিয়ে একটি মোটরসাইকেল কেনেন তিনি।

এজাহারে বলা হয়, হীরার পর একই পন্থা অবলম্বন করেন তার মামা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন। তিনিও ভয় দেখিয়ে মেয়েটির কাছ থেকে টাকা আদায় করে একটি আইফোন ও একটি স্যামসাংয়ের স্মার্টফোন কেনেন। সুমনের বড় ভাই মোশারফ হোসেন মোল্লা বাবুল আদায় করেন নগদ তিন লাখ টাকা। তিনিও কেনেন একটি পালসার মোটরসাইকেল।

এভাবে টাকা দিতে দিতে বর্তমানে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন বলে এজাহারে উল্লেখ করেন তরুণী।

এজাহারে অভিযোগ করা হয়, এতকিছুর পরও তাদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়া হয়।

মেয়েটির অভিযোগ, ‘নাজমুল হীরার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন এবং যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়ার কারণেই সে এমনটা করেছে। আর এ ক্ষেত্রে তাকে সহযোগিতা করেছেন তার মামা সুমন ও বাবুল।’

হীরা ও আনোয়ারের ভাষ্য

গতকাল এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাজমুল হোসেন হীরা বলেন, ‘যিনি মামলা করেছেন, তিনি তার বিবাহিত স্ত্রী। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটির বিষয়ে আমি নিজেও মামলা করেছি।

‘সে মামলায় আমার স্ত্রী সাক্ষী। কিছু লোকের কুপরামর্শে সে হয়তো এমনটা করেছে।’

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন ঘটনাটিকে ‘ষড়যন্ত্র’ উল্লেখ করে বলেন, ‘আমার ভাগ্নে হীরার সঙ্গে মেয়েটির বিয়ে হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপত্তিকর ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার বিষয়ে ঢাকা সাইবার ট্রাইব্যুনালে হীরা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছিল, কিন্তু এখন কী কারণে মেয়েটি ভাগ্নের বিষয় টেনে এনে বড় ভাইসহ আমাকে মামলার আসামি করেছে, সেটা আমার বোধগম্য হচ্ছে না।’

চিনি চোরাচালানে অভিযুক্ত

ভারত থেকে চোরাচালানের মাধ্যমে চিনি এনে দেশে বিক্রি চক্রে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন ও তার স্বজন নাজমুল হীরার বিরুদ্ধে। এ নিয়ে নিউজবাংলায় সম্প্রতি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।

ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, হীরা নিজেও ছাত্রলীগের কমিটিতে ছিলেন। সুমন-হীরা একা নন, তাদের অনুসারীরাও এ কর্মকাণ্ডে জড়িয়েছেন। এ বিষয়ে হোয়াটসঅ্যাপে কথোপকথনের স্ক্রিনশট ফাঁস হয়েছে।

সম্প্রতি চোরাচালানের চিনিসহ একটি ট্রাক আটক করে পুলিশ। ট্রাকটি সুমন ও হীরার ঘনিষ্ঠ একজন আনেন বলে খবর চাউর হয়। অথচ মামলার আসামি করা হয় ছাত্রলীগের অন্য এক নেতাকে। ওই নেতার দাবি, চোরাই চিনিবোঝাই ট্রাক ধরিয়ে দিতে তিনি সহযোগিতা করেছেন।

দেশে প্রতি কেজি চিনির দাম ১৪০ টাকা হলেও ভারতে দাম ৫০ রুপির মতো। ফলে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে অনেকে চিনি নিয়ে এসে অবৈধভাবে দেশে বিক্রি করেন। সম্প্রতি সিলেট ছাত্রলীগের একাধিক নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে চিনি চোরাকারবারে সম্পৃক্ততার অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুন:
কিশোরগঞ্জে ক্যারিয়ারের দিকনির্দেশনা পেলেন শিক্ষার্থীরা
‘ছাত্রলীগ নেতা আল-আমিন হত্যাকারীদের খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’
ছাত্রলীগ নেতা হত্যা: মানববন্ধনে নিস্তব্ধতা, গ্রেপ্তার ১
লিজগ্রহীতাকে না জানিয়ে সম্পত্তি বিক্রির অভিযোগ 
‘রিমালে’ ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে ছাত্রলীগ

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Farmers League leader accused of stealing goats under suspicion

‘সন্দেহের বসে’ ছাগল চুরিতে অভিযুক্ত কৃষক লীগ নেতা

‘সন্দেহের বসে’ ছাগল চুরিতে অভিযুক্ত কৃষক লীগ নেতা ছাগল চুরির ঘটনায় অভিযুক্ত নেতা সানাউল হক হিরো (বাঁয়ে) এবং ছাগলের মালিক অভিযোগকারী জাহেরা বেগম। কোলাজ: নিউজবাংলা
জাহেরা বেগম নামে এক নারী শুক্রবার তাকে বিবাদী করে থানায় ছাগল চুরির অভিযোগ করেন। এরপর কিছু সংবাদমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে এলাকায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। তবে হয়রানির জন্যই এমন অভিযোগ করা হয়েছে বলে দাবি ওই কৃষকলীগ নেতার।

নওগাঁর বদলগাছীতে ব্যক্তিগত আক্রোশ ও পারিবারিক শক্রতার জেরে বদলগাছী উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে ছাগল চুরির অপবাদ এনে হয়রানি করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত নেতা সানাউল হক হিরো।

একই এলাকার জাহেরা বেগম নামে এক নারী শুক্রবার তাকে বিবাদী করে থানায় ছাগল চুরির অভিযোগ করেন। এরপর কিছু সংবাদমাধ্যমে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হলে এলাকায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। তবে হয়রানির জন্যই এমন অভিযোগ করা হয়েছে বলে দাবি ওই কৃষকলীগ নেতার।

বদলগাছী উপজেলার সদর ইউনিয়নের মাস্টারপাড়া এলাকার বাসিন্দা সানাউল হক বর্তমানে বদলগাছী উপজেলার কৃষকলীগের সভাপতি।

স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকার বাসিন্দা চা দোকানি জাহেরা বেগমের সঙ্গে ছানাউল হোসেন হিরোর পারিবারিক বিষয়ে বিরোধ চলছিল। এই বিরোধের জের ধরে গত শনিবার (১৫ জুন) দুপুরে জাহেরা বেগমের আনুমানিক ২৬ হাজার টাকা মূল্যের একটি ছাগল (খাসি) বিবাদী হিরোর বাড়ির গেটে গেলে এরপর ছাগলটি (খাসি) অনেক খোঁজাখুঁজি করে পায়নি ভুক্তভোগী ওই নারী। পরে বিভিন্নভাবে তিনি জানতে পারেন, ছাগলটি চুরি করে অন্যের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন হিরো।

এ ঘটনায় তিনি থানায় অভিযোগ এবং বিভিন্ন মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের পর এলাকায় সমালোচনার ঝড় ওঠে।

তবে সরেজমিনে গিয়ে সব কিছুতে অস্পষ্টতা চোখে পড়েছে নিউজবাংলার। অভিযোগপত্রে উল্লিখিত সাক্ষী ও বিবাদীদের কেউেই ছাগল চুরির বিয়টি স্বচক্ষে দেখেননি। সন্দেহের বশবর্তী হয়ে বিবাদীকে অভিযুক্ত করেছেন ছাগলের মালিক জাহেরা বিবি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় বাসিন্দা রতন ও শাহীনের সঙ্গে কথা হয় নিউজবাংলার। তারা বলেন, জাহেরা বেগমের সঙ্গে উপজেলা কৃষকলীগ সভাপতি সানাউল হক হিরোর সঙ্গে বিগত ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে পারিবারিক দ্বন্দ্ব চলছে। এর আগেও জাহেরা বিভিন্ন মামলা ও অভিযোগ দিয়ে হিরোকে হয়রানি ও সন্মানহানির চেষ্টা করেছে।

অভিযোগপত্রে উল্লিখিত সাক্ষীদের অন্যতম স্থানীয় বাসিন্দা সানজিদা বলেন, ‘আমরা ছাগল চুরির ব্যপারে কিছুই জানি না। কে বা কারা নিয়েছে বলতে পারছি না। তবে ছাগলটিকে হিরোর বাড়ির সামনে তার ছাগলের সঙ্গে দেখেছিলাম। একটু পর শুনি, ছাগল নাকি হারায় গেছে। আমি ছাগলটাকে হিরোর বাড়ির সামনে দেখেছিলাম, এটুকুই ছাগল মালিককে বলেছি। তবে ছাগল চুরির বিষয়টি আমি নিজ চোখে দেখিনি।’

স্থানীয় আবু বক্কর পলাশ বলেন, ‘এ এলাকায় নেশাখোর বা মাদকসেবীরা প্রতিনিয়ত এসব কাজ করে। এটা তাদের কাজও হতে পারে।’

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে জাহেরা বেগম বলেন, ‘হিরোর সঙ্গে আমাদের পরিবারের অনেক দিনের ঝামেলা। এর আগে, ঈদের সময় তার সঙ্গে ঝামেলা ও ঝগড়া হলে আমার ছাগল হারিয়ে যায়; এবারও একই ঘটনা ঘটেছে।’

ছাগল চুরি করতে তিনি নিজে বা সাক্ষীরা কেউ দেখেছেন কি না- জানতে চাইলে এই নারী বলেন, ‘ছাগল চুরি করতে আমি বা যে সাক্ষীর নাম দিয়েছি অভিযোগপত্রে তারা কেউ দেখেননি। তবে আমার সন্দেহ যে, হিরোই ছাগল চুরি করেছে। তার সঙ্গে ঝগড়া হলেই এর দুদিন বাদে আমার জিনিস হারায়। সেই সন্দেহের বসে আমি তার নামে অভিযোগ করেছি।’

তবে অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করে সানাউল হক হিরো বলেন, ‘আমাকে সামাজিকভাবে হয়রানি করার জন্যই এমন অভিযোগ করা হয়েছে, যা সাজানো নাটক। বংশগতভাবে এবং ব্যবসা করে যা আয় উর্পাজন করি, তা-ই আমার ও পরিবারের জন্য যথেষ্ট। অন্যের ছাগল কেন ছুরি করতে যাব?’

প্রতিবেশী জাহেরার সঙ্গে পূর্বশত্রুতার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, ‘এর আগেও আমার নামে বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে। এই মহিলা অত্যন্ত খারাপ প্রকৃতির মানুষ। বিভিন্নভাবে মানুষের নামে অভিযোগ দিয়ে তাদের হয়রানি করে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এলাকার প্রভাবশালী মহলের চক্রান্তে আমার বিরুদ্ধে চুরির এই অভিযোগ করেছে সে (জাহেরা)। এই মিথ্যা অভিযোগের ফলে পরিবার নিয়ে আমি অপমানজনক পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছি। আমি চাইব, এই ঘটনার সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে প্রকৃত দোষী ব্যক্তিকে আইনের আওতায় আনা হোক।’

বদলগাছী থানার ওসি মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘জাহেরা বেগম নামের একজন ছাগল চুরির ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। যতটুকু জেনেছি, তাদের মধ্যে পারিবারিক গণ্ডগোল আছে। বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা দরকার। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে । শিগগিরিই ছাগল চুরির সঠিক কারণ জানা যাবে।’

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
England in the semi finals after stopping the dream of the United States

যুক্তরাষ্ট্রের স্বপ্নযাত্রা থামিয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড

যুক্তরাষ্ট্রের স্বপ্নযাত্রা থামিয়ে সেমিতে ইংল্যান্ড ম্যাচ জয়ের পর সল্টের সঙ্গে বাটলারের উদযাপন। ছবি: সংগৃহীত
১১৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ৯.৪ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ইংল্যান্ড। ব্যাট হাতে ৩৮ বলে ৮৩ রান করেছেন বাটলার। এই রান করতে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বোলারদের তুলোধুনা করেন তিনি।

সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করতে দক্ষিণ আফ্রিকার নেট রান রেট (0.৬২৫) টপকে যাওয়া লাগত ইংল্যান্ডের। প্রথম ইনিংসে ক্রিস জর্ডানের হ্যাটট্রিক ও আদিল রশিদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে ১১৫ রানে গুটিয়ে দিয়ে, দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং ঝড় তোলেন অধিনায়ক জস বাটলার। আর তাতেই হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হয়েছে স্বাগতিক যুক্তরাষ্ট্রকে।

১১৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় নেমে ৯.৪ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় ইংল্যান্ড। ব্যাট হাতে ৩৮ বলে ৮৩ রান করেছেন বাটলার। এই রান করতে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বোলারদের তুলোধুনা করেন তিনি। ৭টি ছক্কা ও ৬টি চার মেরে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন বাটলার। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন আরেক ওপেনার ফিলিপ সল্ট। তিনি ২১ বলে ২৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন। এই রান করতে গিয়ে মাত্র দুটি চার মারেন সল্ট।

জর্ডানের হ্যাটট্রিকসহ চার উইকেট এবং বাটলারের ৩৮ বলে ৮৩ রানের ইনিংস সত্ত্বেও নিয়ন্ত্রিত বোলিং আর প্রয়োজনীয় মুহূর্তে দলকে উইকেট এনে দিয়ে ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন আদিল রশিদ।

৬২ বল ও ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানের জয়ে নেট রান রেটে লম্বা লাফ দিয়েছে ইংল্যান্ড। ০.৪১২ থেকে ১ দশমিক ৯৯২ রান রেট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থেকে সুপার এইট শেষ করেছে ইংলিশরা।

এর ফলে দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচের জন্য অপেক্ষা না করেই সেমি-ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছে জস বাটলার অ্যান্ড কোং।

পাশাপাশি, স্বাগতিক দেশ হওয়ার সুবাদে বিশ্বকাপের মতো আসর দিয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট শুরু করা যুক্তরাষ্ট্রের স্বপ্নযাত্রা থেমেছে সুপার এইট অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে। সবাইকে চমকে দিয়ে সুপার এইট নিশ্চিত করলেও এই পর্বের কোনো ম্যাচই জিততে পারেনি অ্যারন জোন্সের দল। ফলে অনেক অর্জনের সঙ্গে শূন্য হাতেই ফিরতে হচ্ছে তাদের।

অন্যদিকে, দুই ম্যাচে দুই জয় পেয়ে শূন্য দশমিক ৬২৫ নেট রান রেট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে নেমেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তাদের পয়েন্ট চার। আরেক স্বাগতিক দেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজ একটি ম্যাচ জিতে ২ পয়েন্ট সংগ্রহ করলেও তাদের নেট রান রেট অনেক বেশি (১.৮১৪)। ফলে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ম্যাচটিতে যারা জিতবে, তারাই সেমি-ফাইনালে উঠে যাবে।

ম্যাচটি জিতলে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে থাকবে দক্ষিণ আফ্রিকা। আর ক্যারিবীয়রা জিতলে প্রোটিয়াদের সমান ৪ পয়েন্ট নিয়েও নেট রান রেটে অনেক এগিয়ে থেকে সেমিতে চলে যাবে নিকোলাস পুরানের দল।

আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরই সোমবার ভোর সাড়ে ৬টায় অ্যান্টিগার স্যার ভিভিয়ান রিচার্ড স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে।

আরও পড়ুন:
জর্ডানের হ্যাটট্রিকে ১১৫ রানে গুটিয়ে গেল যুক্তরাষ্ট্র
টস জিতে বোলিং করছে ইংল্যান্ড
অজিদের বধ করে ইতিহাস আফগানদের
ভারতের বিপক্ষেও হেরে বিদায় প্রায় নিশ্চিত বাংলাদেশের
সুপার এইটে হার দিয়ে শুরু বাংলাদেশের

মন্তব্য

p
উপরে