আফগানিস্তানকে ৫ বিলিয়ন রুপি দেবে পাকিস্তান

player
আফগানিস্তানকে ৫ বিলিয়ন রুপি দেবে পাকিস্তান

কাবুল বিমানবন্দরে বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিকে স্বাগত জানান তালেবান প্রতিনিধি। ছবি: ডন

কাবুলে দিনব্যাপী সফর শেষে পাকিস্তানে সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুরেশি বলেন, ‘হাসপাতালে ওষুধ বা অন্য কোনো কিছুর ঘাটতি থাকলে আফগানিস্তান আমাদের জানাবে। সে অনুযায়ী আমরা তাদের মানবিক সহায়তা দিতে প্রস্তুত।’

অর্থনৈতিক ও মানবিক বিপর্যয়ে পর্যুদস্ত দক্ষিণ এশিয়ার দেশ আফগানিস্তান। মধ্য আগস্টে তালেবান দেশটির ক্ষমতা দখলের পর সংকট আরও প্রকট আকার ধারণ করে।

আফগানিস্তানে চলমান সংকট কিছুটা লাঘবে মানবিক সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পাকিস্তান। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি আফগানিস্তানকে পাঁচ বিলিয়ন রুপি মূল্যের মানবিক সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে বৃহস্পতিবার তালেবানের সঙ্গে পাকিস্তান সরকারের উচ্চপর্যায়ের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে পাকিস্তানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মানবিক সহায়তার ঘোষণা দেন বলে ডনের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

কাবুলে দিনব্যাপী সফর শেষে পাকিস্তানে সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুরেশি বলেন, ‘হাসপাতালে ওষুধ বা অন্য কোনো কিছুর ঘাটতি থাকলে আফগানিস্তান আমাদের জানাবে। সে অনুযায়ী আমরা তাদের মানবিক সহায়তা দিতে প্রস্তুত।’

কুরেশি বলেন, ‘আফগানিস্তানে সংকটকালে পাকিস্তান যে বরাবরই দেশটির পাশে ছিল, বৈঠকে তার স্বীকৃতি দিয়েছে কাবুল। দশকের পর দশক ধরে আফগান শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়েছে পাকিস্তান। এ জন্যও দেশটি আমাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।’

তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তানে সম্প্রতি রাজনৈতিক পট পরিবর্তন হয়েছে। বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ দেশটিকে মোকাবিলা করতে হবে। সেসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আফগানিস্তানের পাশে থাকবে পাকিস্তান।’

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কুরেশি জানান, কাবুলে উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে পাকিস্তানের প্রতিনিধিদলে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার কর্মকর্তারা ছিলেন।

তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তানে প্রতিনিধিদল নিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্য, মূল আলোচনার পর যাতে ভিসা, বাণিজ্য, সীমান্তে চলাচলসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যায়।’

আগামী কয়েক দিনের মধ্যে তালেবানের প্রতিনিধিদল ইসলামাবাদ সফর করবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানান কুরেশি।

তিনি বলেন, ‘বৈঠকে সিএএসএ-১০০০, টিএপিআই গ্যাস পাইপলাইন, ট্রান্সন্যাশনাল রেলওয়ে প্রকল্পসহ অন্যান্য দ্বিপক্ষীয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট প্রকল্পে পূর্ণ সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে তালেবান নেতৃত্ব।’

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য উন্নত করতে আফগানিস্তান থেকে শুল্কমুক্ত ফল ও সবজি আমদানি করবে পাকিস্তান। এ ছাড়া উভয় দেশের বর্ডার ক্রসিং বাণিজ্যের জন্য সারাক্ষণ খোলা থাকবে।’

তিনি বলেন, ‘সশস্ত্র সংগঠন তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি), বেলুচিস্তান লিবারেশন আর্মিসহ (বিএলএ) অন্যান্য সংগঠনকে পাকিস্তান রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করতে দেয়া হবে না বলে বৈঠকে আশ্বস্ত করেছে তালেবানের নেতৃত্ব।’

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

মন্তব্য

দুই টিকা না থাকলে পাকিস্তানে মসজিদে প্রবেশে মানা

দুই টিকা না থাকলে পাকিস্তানে মসজিদে প্রবেশে মানা

দেশটিতে ইতোমধ্যে ৩৫ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ মানুষ পূর্ণ ডোজ টিকার আওতায় এসেছে। ছবি: সংগৃহীত

এর আগেও গত বছরের নভেম্বরে দেশটির সিন্ধু প্রদেশ কর্তৃপক্ষ করোনাভাইরাস টিকা ও মাস্ক ছাড়া মসজিদে প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছিল, সে সময় সিন্ধু প্রদেশের মসজিদগুলো থেকে কার্পেটগুলোও সরিয়ে নেয়া হয়েছিল।

পাকিস্তানে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশটির কর্তৃপক্ষ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কঠোর সিদ্ধান্ত নিচ্ছে।

এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধ পুনর্মূল্যায়ন করা হয়েছে। ন্যাশনাল কমান্ড অ্যান্ড অপারেশন সেন্টারের (এনসিওসি) দেয়া নতুন বিধিনিষেধে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকার দুই ডোজ নেয়া ছাড়া মসজিদে ঢুকতে পারবেন না নামাজ আদায়কারীরা।

দেশটিতে ইতোমধ্যে ৩৫ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ মানুষ পূর্ণ ডোজ টিকার আওতায় এসেছে।

এনসিওসি এমন সময় এই সিদ্ধান্ত নিল, যখন পাকিস্তানে করোনাভাইরাস শনাক্তের সংখ্যা আগের রেকর্ড ছাড়িয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে দেশটিতে ১৩ লাখ ৭০ হাজার মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। প্রাণ হারিয়েছে ২৯ হাজার ১০৫ জন।

এর আগেও গত বছরের নভেম্বরে দেশটির সিন্ধু প্রদেশ কর্তৃপক্ষ করোনাভাইরাস টিকা ও মাস্ক ছাড়া মসজিদে প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছিল, সে সময় সিন্ধু প্রদেশের মসজিদগুলো থেকে কার্পেটগুলোও সরিয়ে নেয়া হয়েছিল। মসজিদে নামাজ আদায়ের ক্ষেত্রে মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

ভারতে ৩ লাখের ওপর শনাক্ত টানা পাঁচ দিন

ভারতে ৩ লাখের ওপর শনাক্ত টানা পাঁচ দিন

ভারতে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। স্বাস্থ্যবিধি মানতে তবু উপেক্ষা মানুষের। ছবি: সংগৃহীত

সোমবার সকাল পর্যন্ত সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৬ হাজার ৬৪ জন। যা আগের দিনের চেয়ে ৮ শতাংশ কম। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৪৩ হাজার ৩২৮ জনে।

করোনার বিপর্যস্ত ভারতে বাড়ছে সংক্রমণ। ওমিক্রনের প্রভাবের মধ্যেই টানা পাঁচদিন ধরে দেশটিতে তিন লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এতথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি

সোমবার সকাল পর্যন্ত সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৬ হাজার ৬৪ জন। যা আগের দিনের চেয়ে ৮ শতাংশ কম। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৪৩ হাজার ৩২৮ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস ভারতে প্রাণ কেড়েছে ৪৩৯ জনের। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ হাজার ৮৪৮ জনের।

আক্রান্তের সংখ্যা কমলেও গত ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে দৈনিক সংক্রমণের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় এ দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে গত কয়েক দিনের তুলনায় কিছুটা কম। দেশজুড়ে এখন মোট সক্রিয় রোগী ২২ লাখ ৪৯ হাজার ৩৩৫ জন।

নয়াদিল্লিতে সর্বশেষ এক দিনে আরও ৯ হাজার ১৯৭ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে যা ১৯ শতাংশ কম। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৫ জনের।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম করোনার অস্তিত্ব শনাক্ত হয়। এরপর তা বিশ্বের অন্য দেশে ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসের নতুন ধরন শনাক্ত হচ্ছে। রূপ বদলাচ্ছে করোনা।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। এর পরের অবস্থানে আছে ভারত।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

গাড়ি চালনায় অবিশ্বাস্য দক্ষতা

গাড়ি চালনায় অবিশ্বাস্য দক্ষতা

খাদের কিনারে পাহাড়ির রাস্তায় ঘুরছে গাড়ি। ভিডিও থেকে নেয়া ছবি।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, সর্বোচ্চ পাঁচ ফুটের একটি পাহাড়ি রাস্তা। রাস্তার ধারের রেলিং নেই বললেই চলে। এবড়ো-খেবড়ো, ভাঙাচোরা। এমনই রাস্তায় দক্ষতার সঙ্গে গাড়ির মুখ উল্টো দিকে ঘুরিয়ে ফেললেন এক চালক।

পাহাড়ের ওপর ছোট্ট একটু রাস্তা। পাশেই বড় খাদ। মানুষ হাঁটলেও যেকোনো সময় পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়ে যায়। সেখানে কি না একটি বড় গাড়ি ঘুরিয়ে ফেলা হলো!

সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে ভাইরাল হয়েছে বলে আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা যায়, সর্বোচ্চ পাঁচ ফুটের একটি পাহাড়ি রাস্তা। রাস্তার ধারের রেলিং নেই বললেই চলে। এবড়ো-খেবড়ো, ভাঙাচোরা। এমনই রাস্তায় দক্ষতার সঙ্গে গাড়ির মুখ উল্টো দিকে ঘুরিয়ে ফেললেন এক চালক।

ঘটনাটি কোথায় ঘটেছে তা নিয়ে অবশ্য বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। এক টুইটার ব্যবহারকারী এটি শেয়ারের পর তা ভাইরাল হয়েছে।

দক্ষ চালক না হলে পাহাড়ি রাস্তায় গাড়ি চালানো যে কতটা কঠিন, তা বহু চালক হাড়ে হাড়ে টের পান। সাহস তো বটেই, তার সঙ্গে দক্ষতা জুড়ে গেলে অনেক কঠিন চড়াই-উতরাইও সহজ মনে হয়।

ভিডিও ছড়িয়ে পড়া এই চালককেও তা মনে করে প্রশংসা করছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা।

টুইটারে অনেকেই বলেছেন, একটু ভুল হলেই জীবন শেষ হয়ে যেতে পারত চালকের। একদিকে পাহাড়ের ঢাল, অন্যদিকে কয়েক শ ফুট গভীর খাদ। তার মাঝে পাঁচ ফুটের একটি রাস্তা। আর সেই রাস্তায় যেভাবে গাড়ি ঘোরালেন চালক, তা সত্যিই অবিশ্বাস্য।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

ওমিক্রনের ‘সাব ভ্যারিয়েন্ট’ ভারতে

ওমিক্রনের ‘সাব ভ্যারিয়েন্ট’ ভারতে

ভারতে বেড়েছে করোনার সংক্রমণ। ঝুঁকি বাড়িয়েছে ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন।

ভারতে ওমিক্রনের কমিউনিটি সংক্রমণ হচ্ছে। একাধিক বড় শহরে প্রভাব ফেলছে এই ধরন। এরই মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ওমিক্রনের সাব ভ্যারিয়েন্ট বিএ.২।

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (ভ্যারিয়েন্ট) ওমিক্রনে বিপর্যস্ত ভারত; এমন অবস্থাতেই দেশটিতে এবার শনাক্ত হলো ওমিক্রনের একটি উপধরন (সাব ভ্যারিয়েন্ট)।

‘ইন্ডিয়ান সার্স-কভ-২ জেনেটিকস কনসোর্টিয়াম’ (আইএনএসএসিওজি) )-এর সর্বশেষ বুলেটিনে রোববার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বুলেটিনে বলা হয়েছে, ভারতে ওমিক্রনের কমিউনিটি সংক্রমণ হচ্ছে। একাধিক বড় শহরে প্রভাব ফেলছে এই ধরন। এরই মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ওমিক্রনের উপধরন বিএ.২।

কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারে ওমিক্রনের এই উপধরন, তা জানার চেষ্টা করছেন গবেষকরা।

আইএনএসএসিওজি প্রকাশিত বুলেটিনে বলা হয়েছে, ভারতের বিভিন্ন এলাকায় বিএ.২ ধরনটি শনাক্ত হয়েছে। ওমিক্রনে আক্রান্তদের বেশির ভাগেরই এখনও পর্যন্ত লক্ষণ নেই বা মৃদু লক্ষণ রয়েছে। তবে হাসপাতালে ভর্তি এবং আইসিইউতে রাখার মতো পরিস্থিতি উদ্বেগজনক।

ইনফ্লুয়েঞ্জা ও করোনা সংক্রমণের জিনোম সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহকারী সংস্থাটি জানিয়েছ, বর্তমানে বিশ্বের ৪০টি দেশে মোট ৮ হাজার ৪০টি ওমিক্রনের বিএ.২ রূপ ধরা পড়েছে। প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে ফিলিপাইনে। ডেনমার্কেও ৬৪১১ জিনোম সিকোয়েন্সের মধ্যে অধিকাংশই বিএ.২ উপ-ধরন বলে জানা গেছে।

ভারতেও ৫৩০টি নমুনায় ওমিক্রনের এই উপ-ধরন ধরা পড়েছে। এরপরই রয়েছে সুইডেন, সেখানে ১৮১টি নমুনায় এই নতুন উপ-ধরন ধরা পড়েছে। সিঙ্গাপুরে ১২৭টি নমুনায় ওমিক্রন বিএ.২ ধরা পড়েছে।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

দিল্লিতে ৩২ বছর পর জানুয়ারিতে সর্বোচ্চ বৃষ্টি

দিল্লিতে ৩২ বছর পর জানুয়ারিতে সর্বোচ্চ বৃষ্টি

দিল্লিতে ৩২ বছর পর জানুয়ারিতে সর্বোচ্চ বৃষ্টির দিনে পথচারীরা। ছবি: এএফপি

শনিবার বৃষ্টিপাতের ফলে দিল্লিতে ঠান্ডা বেড়ে যায় প্রচণ্ডহারে। এ দিন সেখানে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ১৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা এই সময়ের গড় তাপমাত্রার চেয়ে ৭ ডিগ্রি কম। এটি চলতি শীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে শনিবার ৭০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে দেশটির আবহাওয়া অধিদপ্তর। শীতকালে অর্থাৎ জানুয়ারি মাসে এত বৃষ্টিপাত গত ৩২ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, শনিবার রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত সারা দিনে দিল্লিতে বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৬৯ দশমিক ৮ মিলিমিটার।

১৯৮৯ সালে দিল্লিতে জানুয়ারি মাসে ৭৯ দশমিক ৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছিল।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, শনিবার বৃষ্টিপাতের ফলে দিল্লিতে ঠান্ডা বেড়ে যায় প্রচণ্ডহারে। এ দিন সেখানে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ১৪ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা এই সময়ের গড় তাপমাত্রার চেয়ে ৭ ডিগ্রি কম। এটি চলতি শীতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

সফদরজং পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র বলছে, তারা সকাল ৮টার আগে মাত্র ৫ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছিল।

দেশটির আবহাওয়া অফিস জানায়, দিল্লির মতো পাঞ্জাব, হরিয়ানা, পূর্ব উত্তর প্রদেশ এবং উত্তর রাজস্থানেও রোববার পর্যন্ত বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে।

এমন অবস্থার মধ্যেও দিল্লির বাতাসের মান খুব খারাপ বলে জানানো হয়েছে। বাতাসের সূচকে শনিবার দিল্লির স্কোর ৩১৬, যা ‘ভেরি পুওর’ ক্যাটাগরির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের ফেলে যাওয়া অস্ত্র এখন কাশ্মীরে

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের ফেলে যাওয়া অস্ত্র এখন কাশ্মীরে

কাশ্মীরে পিপলস অ্যান্টি-ফ্যাসিস্ট ফ্রন্টের হাতে যুক্তরাষ্ট্রের নির্মিত অস্ত্র। ছবি: সংগৃহীত

পিপলস অ্যান্টি-ফ্যাসিস্ট ফ্রন্ট (পিএএফএফ) নামের একটি সশস্ত্র গোষ্ঠীর প্রকাশিত ভিডিওতে কয়েকজন সন্ত্রাসীকে এম ২৪৯ স্বয়ংক্রিয় রাইফেল, ৫০৯ ট্যাকটিক্যাল বন্দুক, এম ১৯১১ পিস্তল এবং এম৪ কারবাইন রাইফেল ব্যবহার করতে দেখা যায়।

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর রেখে যাওয়া অস্ত্র ও গোলাবারুদ এখন কাশ্মীর উপত্যকার সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর কাছে।

একটি সশস্ত্র সংগঠনের প্রকাশিত সাম্প্রতিক ভিডিওতে তাদের যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি রাইফেল এবং পিস্তল সন্ত্রাসীরা ব্যবহার করতে দেখা গেছে।

পিপলস অ্যান্টি-ফ্যাসিস্ট ফ্রন্ট (পিএএফএফ) নামের একটি সশস্ত্র গোষ্ঠীর প্রকাশিত ভিডিওতে কয়েকজন সন্ত্রাসীকে এম ২৪৯ স্বয়ংক্রিয় রাইফেল, ৫০৯ ট্যাকটিক্যাল বন্দুক, এম ১৯১১ পিস্তল এবং এম৪ কারবাইন রাইফেল ব্যবহার করতে দেখা যায়।

সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীরের নিরাপত্তা বাহিনী কয়েকটি অভিযানে ৬ জন অস্ত্রধারীকে হত্যা করেছে। কর্তৃপক্ষের দাবি, তারা বিদেশি নাগরিক। তাদের সবার কাছেই যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি এম৪১৬ কার্বাইন পাওয়া গেছে। উল্লেখ্য, এম৪১৬ কার্বাইন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর স্ট্যান্ডার্ড অ্যাসল্ট রাইফেল।

ভারতীয় গোয়েন্দাদের ধারণা, যুক্তরাষ্ট্রের ফেলে যাওয়া অস্ত্র ও গোলাবারুদের একটা অংশ আফগানিস্তানে তালেবানরা প্রকাশ্যে বিক্রি করছে।

পাকিস্তানের সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো তালেবানদের কাছ থেকে এই অস্ত্র ও গোলাবারুদ কিনে সীমান্ত পেরিয়ে কাশ্মীর উপত্যকায় পাঠাচ্ছে।

ভারতের প্রতিরক্ষা বিশ্লেষকরা আগেই ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন যে যুক্তরাষ্ট্রের ফেলে যাওয়া অস্ত্র ও গোলাবারুদ কাশ্মীরের সশস্ত্র গোষ্ঠীর হাতে পড়বে। নিরাপত্তা বাহিনীর মতে, কাশ্মীর উপত্যকায় প্রায় ৮৫ জন বিদেশি রয়েছেন। এই বিদেশি অস্ত্রধারীরা যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাসল্ট রাইফেল বহন করছেন।

ড্রোনের সাহায্যে সীমান্তের ওপার থেকে এই রাইফেল, পিস্তল, গ্রেনেড ইত্যাদি পাঠানো হচ্ছে বলেও মনে করেন নিরাপত্তা বাহিনী। তবে কয়েকবার সীমান্তে নিরাপত্তা বাহিনী এভাবে অস্ত্র পাচারের অনেক ঘটনা নস্যাৎও করেছে।

কাশ্মীর উপত্যকায় নিরাপত্তা বাহিনীর জন্য সশস্ত্র সংগঠনগুলোর হাতে আসা এসব অত্যাধুনিক অস্ত্র একটি নতুন এবং বড় চ্যালেঞ্জ। তাই ভারতীয় সরকারও জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশকে দেশের প্রথম পুলিশ বাহিনী হিসেবে তাদের মার্কিন তৈরি সিগ সাউয়ার ৭১৬ রাইফেলস এবং সিগ সাউয়ার এমপিএক্স ৯ এমএম পিস্তল দেবে।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন

ভারতে এক দিনে শনাক্ত ৩ লাখ ৩৭ হাজার

ভারতে এক দিনে শনাক্ত ৩ লাখ ৩৭ হাজার

দেশটিতে গতকালের চেয়ে আজ শনাক্ত কিছুটা কমেছে। প্রায় ২০ লাখ পরীক্ষার বিপরীতে এ দিন করোনা সংক্রমণের হার দাঁড়িয়েছে ১৭ দশমিক ২২ শতাংশে। আগের দিন সংক্রমণের হার ছিল ১৭ দশমিক ৯৪ শতাংশ। আর আক্রান্ত হয়েছিল ৩ লাখ ৮৯ হাজারের বেশি। 

করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি অব্যাহত রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারতে। শনিবার দেশটিতে ৩ লাখ ৩৭ হাজার জনের দেহে ভাইরাসটির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ১০ হাজার ৫০ জন ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, এই শনাক্ত নিয়ে ভারতে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৮৯ লাখ ছাড়াল।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, দেশটিতে গতকালের চেয়ে আজ শনাক্ত কিছুটা কমেছে। প্রায় ২০ লাখ পরীক্ষার বিপরীতে এ দিন করোনা সংক্রমণের হার দাঁড়িয়েছে ১৭ দশমিক ২২ শতাংশে। আগের দিন সংক্রমণের হার ছিল ১৭ দশমিক ৯৪ শতাংশ। আর আক্রান্ত হয়েছিল ৩ লাখ ৮৯ হাজারের বেশি।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৪৮৮ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় সরকারি হিসেবে মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ৮৮ হাজার ৮৮৪ জনের।

ভারত এখন যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশ।

করোনার প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত রাজ্য ছিল মহারাষ্ট্র। তৃতীয় ঢেউ শুরুর পরও সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রেই, রাজ্যটিতে শনিবারও সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এ দিন ৪৮ হাজার ২৭০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে রাজ্যটিতে।

বাংলাদেশের প্রতিবেশী রাজ্য পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণ কিছুটা কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ১৫৪ জনে।

আরও পড়ুন:
আইনের শাসনে দৃষ্টান্ত গড়তে চান ইমরান
পাকিস্তানে বিয়ের পরও এনআইডিতে রাখা যাবে বাবার নাম
পোলিও নির্মূলের সূচনা পাকিস্তানে
আইএমএফের পরামর্শে পেট্রলের দাম বাড়েনি: পাকিস্তান
পাকিস্তানে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বাড়ার রেকর্ড

শেয়ার করুন