মোদিকে 'তাড়াতে' জোট চাইছেন মমতা

মোদিকে 'তাড়াতে' জোট চাইছেন মমতা

তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

'তারা গরিবদের টাকা না দিয়ে, টিকা না দিয়ে স্পাইগিরি করছে। গণতন্ত্রের তিনটি স্তম্ভকে ধ্বংস করে দিয়েছে মোদি সরকার।’

নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারকে উৎখাতের আহ্বান জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিরোধী দলগুলোর কাছে তিনি সরাসরি এ প্রস্তাব দিয়ে পরবর্তী লোকসভা নির্বাচনে সবাইকে জোটবদ্ধ হতে বলেন।

শহীদ দিবস পালনে বুধবার ভার্চুয়াল সভায় অংশ নেন তৃণমূল নেত্রী মমতা। এবারই প্রথম তৃণমূলের শহীদ দিবসের অনুষ্ঠান জাতীয় স্তরে সম্প্রচার করা হয়। ২৮ বছর আগে ২১ জুলাই পুলিশের গুলিতে ১৩ জন যুব কংগ্রেস কর্মী নিহত হন। সেই থেকে শহীদ দিবস পালন করে আসছে তৃণমূল।

গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, আসাম, ত্রিপুরা, বিহার, ঝড়খান্ড, তামিলনাড়ু এবং দিল্লিতে সম্প্রচার হয় তৃণমূল নেত্রীর ভাষণ। দিল্লির কনস্টিটিউশন ক্লাবে বসে মমতার ভাষণ শোনেন দ্বিগবিজয় সিং, পি চিদাম্বরম, শারদ পাওয়ার, সুপ্রিয়া সুলে, কেশব রাও, রামগোপাল যাদবের মতো নেতারাও।

বিজেপিবিরোধী জোট গঠনের আহ্বান জানিয়ে মমতা বলেন, ‘ছেড়ে দিলে চলবে না। খেলা একটা হয়েছে, ৫ মে তার রেজাল্ট আপনারা পেয়েছেন। কিন্তু খেলা এখনো শেষ হয়নি। খেলা হবে, যতদিন না বিজেপি দেশ থেকে বিদায় নিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘জনবিরোধী মোদি সরকারকে উৎখাত করতে হবে। বিজেপিবিরোধী দলগুলোকে এখনই জোট গঠন করতে হবে। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের জন্য ঐক্য প্রয়োজন।

‘দেশের স্বাধীনতা বিপন্ন। বিরোধীদের বিরক্ত করা হচ্ছে। এজেন্সিগুলোর অপব্যবহার হচ্ছে। কে বাদ আছে? শারদজি আপনিও না, চিদাম্বরমজিও নন। প্রতিবাদ করলে গুলি চলছে। গোলি, বোলি আর গালি, গোটা দেশে এই রাজনীতি করছে বিজেপি। বিভাজন মেরুকরণ আর সংঘাত।’

মমতা বলেন, ‘বাংলা দেখিয়েছে, এবার গোটা দেশ দেখাবে। দেশের সব রাজনৈতিক নেতাদের বলছি, নিজের পার্টিকে বোঝান, লোকসভা নির্বাচনের আর মাত্র আড়াই বছর বাকি। এখন থেকে পরিকল্পনা করুন। ফ্রন্ট তৈরি করুন। তাড়াহুড়ো যেমন নয়, তেমন ফেলে রাখাও নয়। বিজেপিকে দেশ থাকে তাড়াবই।'

তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘নির্বাচনের সময় জোট করলে হবে না। আগেই জোটবদ্ধ হতে হবে। আমি আপনাদের নির্দেশমতো সেই জোটের একজন কর্মী হিসেবে লড়াই চালিয়ে যাব।’

সংকীর্ণ স্বার্থ ভুলে গিয়ে, দেশের স্বার্থে পুরো বিজেপিবিরোধী দলগুলোকে একজোট হয়ে দেশকে বিজেপির হাত থেকে বাঁচানোর জন্য আহ্বান জানান তিনি।

কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে সরাসরি আক্রমণ করে তৃণমূল নেত্রী বলেন, ‘গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে তারা গোয়েন্দাগিরি করছে। ফোনে যা কথা বলব, রেকর্ড হয়ে যাচ্ছে। পেগাসাস, ডেঞ্জারাস, ফেরোসাস। তারা গরিবদের টাকা না দিয়ে, টিকা না দিয়ে স্পাইগিরি করছে। গণতন্ত্রের তিনটি স্তম্ভকে ধ্বংস করে দিয়েছে মোদি সরকার।’

২৬ জুলাই দিল্লি যাচ্ছেন তৃণমূল নেত্রী। তার দিল্লিতে থাকার সময় বিজেপিবিরোধী জোট গড়ার জন্য বৈঠকের আয়োজন করার জন্য শারদ পাওয়ার, চিদাম্বরমদের অনুরোধ করেন মমতা।

এর আগে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর দিল্লিতে গিয়ে এনসিপি নেতা শারদ পাওয়ার এবং কংগ্রেস হাই কমান্ডের সঙ্গে মোদিবিরোধী মঞ্চের ক্ষেত্র প্রস্তুত করার জন্য আলোচনা করেন।

আরও পড়ুন:
মোদি বিরোধী ঐক্য করতে দিল্লি যাচ্ছেন মমতা
দিল্লি জয়ের লক্ষ্যে মমতার ভার্চুয়াল ভাষণ

শেয়ার করুন

মন্তব্য