পাকিস্তানে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৩৩

পাকিস্তানে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৩৩

পাকিস্তানের ইন্দুজ মহাসড়কে দুর্ঘটনায় বিধ্বস্ত যাত্রীবাহী বাস। ছবি: ডন নিউজ

দুর্ঘটনার কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে বাসচালক ঘুমিয়ে পড়েছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। আহত এক বাসযাত্রীর বরাত দিয়ে বলা হয়, এরপরই নিয়ন্ত্রণ হারায় বাসটি।

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে একটি ট্রাকের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেছে কমপক্ষে ৩৩ জনের। নিহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারী ও শিশু।

দেরা গাজি খানে ইন্দুজ মহাসড়কে সোমবার এ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৪০ জন।

পাকিস্তানী দৈনিক ডনের প্রতিবেদনে জানানো হয়, বাসটি শিয়ালকোট থেকে রজনপুরে যাচ্ছিল।

নিহত বাসযাত্রীদের বেশিরভাগই ছিলেন শ্রমিক। ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফিরছিলেন তারা।

দুর্ঘটনায় আহতদের স্থানীয় ডিএইচকিউ টিচিং হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ডিএইচকিউ টিচিং হসপিটাল মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ড. আসিফ কুরেশি জানিয়েছেন, আহতদের মধ্যে চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

দুর্ঘটনার কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে বাসচালক ঘুমিয়ে পড়েছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। আহত এক বাসযাত্রীর বরাত দিয়ে বলা হয়, এরপরই নিয়ন্ত্রণ হারায় বাসটি।

এ ঘটনায় যাত্রী ও নিজেদের নিরাপত্তার স্বার্থে চালকদের সতর্কভাবে গণপরিবহন চালানোর অনুরোধ করেছেন পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী।

দুর্ঘটনায় নিহতদের জন্য শোক জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও। তাদের পরিবারের সদস্যদের সব ধরনের সহযোগিতা দিতে পাঞ্জাব রাজ্য সরকারের প্রতি আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

দুর্ঘটনায় শোক জানালেও হতাহতদের জন্য কোনো ধরনের আর্থিক সহায়তার ঘোষণা দেননি পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী উসমান বুজদার।

পাকিস্তানের যোগাযোগ ব্যবস্থায় দুর্ঘটনায় প্রাণহানি প্রায় নিয়মিত। ট্রাফিক নিয়ম লঙ্ঘন আর আর গ্রামাঞ্চলে রাস্তাঘাটে দুর্বল ব্যবস্থাপনা ও অবকাঠামোগত সংকটসহ নানা সমস্যা রয়েছে দেশটিতে।

গত মাসেই সিন্ধু প্রদেশে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত হয় ৫৬ জন, আহত হয় অর্ধশতাধিক মানুষ।

আরও পড়ুন:
আফগানিস্তানের কূটনীতিক প্রত্যাহার দুঃখজনক: পাকিস্তান
বাস বিস্ফোরণ তদন্তে কাজ করছে চীনও: পাকিস্তান
পাকিস্তানকে দায়ী করা অন্যায্য: আফগান প্রেসিডেন্টকে ইমরান
বাস ট্র্যাজেডি: চীনকে তদন্তের আশ্বাস ইমরানের
আফগান সীমান্তে ৫ টেলিকম কর্মী উদ্ধার পাকিস্তানের

শেয়ার করুন

মন্তব্য