ইরাকের প্রধানমন্ত্রী কাধিমিকে আমন্ত্রণ বাইডেনের

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী কাধিমিকে আমন্ত্রণ বাইডেনের

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদারে ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাধিমিকে হোয়াইট হাউজে আমন্ত্রণ জানান যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: এএফপি

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, ‘ইরাকের সঙ্গে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তাসংক্রান্ত দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা জোরদারে বাইডেনও উদ্গ্রীব। জঙ্গি সংগঠন আইএস মোকাবিলায় উভয় দেশের যৌথ প্রচেষ্টার বিকল্প নেই।’

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাধিমিকে ২৬ জুলাই হোয়াইট হাউসে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে বলে আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, ‘ইরাকের সঙ্গে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তাসংক্রান্ত দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা জোরদারে বাইডেনও উদ্গ্রীব।

‘জঙ্গি সংগঠন আইএস মোকাবিলায় উভয় দেশের যৌথ প্রচেষ্টার বিকল্প নেই।’

সম্প্রতি ইরাক ও সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা বেড়েছে। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের উদ্বেগের মধ্যেই বৈঠকে বসছে ওয়াশিংটন ও বাগদাদ।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাইডেন ক্ষমতা নেয়ার পর ইরাক ও সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের স্থাপনা লক্ষ্য করে কমপক্ষে ৮টি ড্রোন ও ১৭টি রকেট হামলা হয়।

জবাবে সিরিয়ায় ইরাকি সশস্ত্র সংগঠনের স্থাপনায় দুবার বিমান হামলা চালায় বাইডেনের নেতৃত্বাধীন প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের শত্রুতাপূর্ণ সম্পর্কের রণক্ষেত্র হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে ইরাকের ভূখণ্ড ব্যবহার করা হয়ে আসছে।

গত বছরের ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইরানের শীর্ষ সামরিক কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলাইমানি ও ইরাকি মিলিশিয়া কমান্ডার আবু মাহদি আল-মুহানদিসকে ড্রোন হামলায় হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।

ওই ঘটনার পর ইরাকের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক জটিল দিকে মোড় নেয়।

ইরাক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের নির্দিষ্ট সময়সীমা আসন্ন বৈঠকে ইরাকের প্রধানমন্ত্রী কাধিমি তুলবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার ইরাকে অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে বাগদাদে ওয়াশিংটনের দূত ব্রেট ম্যাকগার্কের সঙ্গে বৈঠক করেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী কাধিমি।

২০১৪ সাল থেকে আইএস নির্মূলে সাড়ে তিন হাজার বিদেশি সেনা ইরাকে অবস্থান করছে। এদের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা রয়েছে আড়াই হাজার।

আরও পড়ুন:
ইরাকে হাসপাতালে আগুনে মৃত্যু বেড়ে ৯২
ইরাকে হাসপাতালে আগুনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৪
হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে আগুন, অর্ধশতাধিক মৃত্যু
ইরাক-সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের ওপর দফায় দফায় হামলা
বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছে ড্রোন ভূপাতিত

শেয়ার করুন

মন্তব্য