সন্ধ্যায় মোদির মন্ত্রিসভায় বড় রদবদল

সন্ধ্যায় মোদির মন্ত্রিসভায় বড় রদবদল

মঙ্গলবার ৮টি রাজ্যের রাজ্যপাল পরিবর্তন ও নিয়োগের মধ্যে দিয়ে মন্ত্রিসভার রদবদলের প্রক্রিয়া শুরু করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। বুধবার সকালে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন আরও ১১ জন মন্ত্রী। এর মধ্যে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন, সামাজিক ন্যায় মন্ত্রী থাবরচাঁদ গেহলট, শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার।

বুধবার সন্ধ্যে ৬টায় নরেন্দ্র মোদি নেতৃত্বাধীন দ্বিতীয় এনডিএ মন্ত্রিসভায় ব্যাপক রদবদল হতে চলেছে।

প্রধানমন্ত্রী সচিবালয় সূত্রের খবর নতুন ও পুরাতন মিলিয়ে ৪৩ জন মন্ত্রী হিসাবে শপথ নেবেন।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার রদবদল নিয়ে গত মাসের মাঝামাঝি থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং বিজেপি সভাপতি জগৎপ্রকাশ নাড্ডা তৎপর ছিলেন।

দফায় দফায় এনডিএ শরিক দলগুলির সঙ্গে এবং বিজেপির রাজ্য শাখাগুলির সঙ্গে আলোচনা করেন তিন শীর্ষ নেতা। মঙ্গলবার চূড়ান্ত হয় ৪৩ জনের নামের তালিকা। বিজেপি মন্ত্রিসভার প্রত্যেক মন্ত্রীর পারফরম্যান্স বিচার করতে প্রধানমন্ত্রী নিজে আসরে নেমেছিলেন। তিনি ম্যারাথন মিটিং করেছেন বিভিন্ন মন্ত্রীর সঙ্গে।

তাদের গত এক বছরের কাজ খুঁটিয়ে দেখেছেন তিনি। একই সঙ্গে জানতে চেয়েছেন তাদের ভবিষ্যতের রুট ম্যাপ।

সূত্রের খবর, বিহার, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ—এই তিন রাজ্যের কয়েকজন মন্ত্রীর কাজে প্রধানমন্ত্রী খুশি নন। প্রধানমন্ত্রী চাইছেন, যোগ্যতমরাই উঠে আসুন। আজকের নতুন মন্ত্রিসভায় নারীদেরকেও গুরুত্ব দেয়া হবে।

মঙ্গলবার ৮টি রাজ্যের রাজ্যপাল পরিবর্তন ও নিয়োগের মধ্যে দিয়ে মন্ত্রিসভার রদবদলের প্রক্রিয়া শুরু করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার পূর্ণ মন্ত্রী থাবরচাঁদ গেহলটকে কর্ণাটকের রাজ্যপাল করা হয়।

বুধবার সকালে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন আরও ১১ জন মন্ত্রী। এর মধ্যে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষামন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন, সামাজিক ন্যায় মন্ত্রী থাবরচাঁদ গেহলট, শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার।

পশ্চিমবঙ্গের দুই মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী এবং বাবুল সুপ্রিয় বাদ পড়ছেন মন্ত্রিসভা থেকে, তাঁরা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন।

মধ্যপ্রদেশের জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, মহারাষ্ট্রের নারায়ন রাণে, অসমের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল, পশ্চিমবঙ্গের শান্তনু ঠাকুর, শরিক দল লোক জনশক্তি পার্টির পশুপতি পরস, আপনা দলর অনুপ্রিয়া প্যাটেল প্রমুখ নতুন মন্ত্রিসভায় স্থান পাবেন।

সূত্রের খবর, এই নতুন মন্ত্রিসভায় মূলত জোর দেয়া হবে তপশিলি সম্প্রদায়ভুক্তদের অন্তর্ভুক্তিকরণে। জনজাতি গোষ্ঠী থেকে উঠে আসতে পারেন অন্তত ১২ জন মন্ত্রী। ২৭ জন মন্ত্রী জায়গা পেতে পারেন ওবিসি সম্প্রদায় থেকে। বলা হচ্ছে, নরেন্দ্র মোদির চান তরুণতমদের নিয়ে একটি মন্ত্রিসভা গড়ে তুলতে যে মন্ত্রিসভার প্রধান ফোকাস হবে শোষিত, পীড়িত, বঞ্চিত, এবং আদিবাসীদের প্রতিনিধিত্ব।

শেয়ার করুন

মন্তব্য