আমিরাতের নাগরিকদের বাংলাদেশে আসতে মানা

আমিরাতের নাগরিকদের বাংলাদেশে আসতে মানা

বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশে নিজেদের নাগরিক ভ্রমণে বৃহস্পতিবার নিষেধাজ্ঞা দেয় আমিরাত।

বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, নাইজেরিয়া, সাউথ আফ্রিকাসহ ১৪টি দেশের ওপর নিজেদের নাগরিকদের ভ্রমণে নিষেধ করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশে ভ্রমণে নিজেদের নাগরিকদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। পাশাপাশি একই ধরনের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কাসহ আরও ১৩টি দেশ ভ্রমণে।

২১ জুলাই পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর থাকবে বলে বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে।

ভারতভিত্তিক বার্তা সংস্থা এশিয়ান নিউজ ইন্টারন্যাশনালের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মাসে আরব আমিরাত থেকে জানানো হয়, এই ১৪ দেশের কোনো নাগরিক ২১ জুলাই পর্যন্ত তাদের দেশে প্রবেশ করতে পারবে না। ওই পদক্ষেপের পর এবার নিজেদের যাত্রীদের ওপরও দেশগুলোতে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল আরব আমিরাত।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পর্যটন মৌসুম শুরু হওয়ায় দেশের নাগরিকদের করোনা-সংশ্লিষ্ট সতর্কতা ও প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ জানায়, ১৪টি দেশের তালিকায় অন্য দেশগুলো হলো নাইজেরিয়া, সাউথ আফ্রিকা, উগান্ডা, জাম্বিয়া, ভিয়েতনাম, লাইবেরিয়া, নামিবিয়া, সিয়েরা লিওন ও ডেমোক্র্যাটিক রিপাবলিক অফ কঙ্গো।

ওই সব দেশের কোনো বিমান ২১ জুলাই স্থানীয় সময় রাত ১২টা পর্যন্ত আমিরাতে প্রবেশ করতে পারবে না।

অবশ্য কার্গো বিমানের পাশাপাশি ব্যবসাসংক্রান্ত ও চার্টার বিমান এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে।

নিজেদের নাগরিকের উদ্দেশে আমিরাত কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, ভ্রমণের সময় করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ এলে স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে যেতে হবে।

স্বাগতিক দেশে করোনাসংক্রান্ত সব ধরনের নির্দেশনা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতেও নাগরিকদের আহ্বান জানিয়েছে উপসাগরীয় দেশটির কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন:
ইসরায়েল-আমিরাতে শুরু হচ্ছে বিমান চলাচল
সড়কে প্রাণ গেল আমিরাতের নারী অধিকারকর্মীর
নিষেধাজ্ঞার আগে দুবাইয়ে বিমানের জোড়া ফ্লাইট
বাংলাদেশিদের জন্য বন্ধ সংযুক্ত আরব আমিরাত
নাগরিকত্বের দুয়ার খুলছে আমিরাত

শেয়ার করুন

মন্তব্য