সাউথ আফ্রিকার সাবেক প্রেসিডেন্টের কারাদণ্ড

সাউথ আফ্রিকার সাবেক প্রেসিডেন্টের কারাদণ্ড

সাউথ আফ্রিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমাকে ১৫ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। ছবি: এএফপি

সাউথ আফ্রিকার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি সিসি খ্যামপেপে বলেন, আদালতে এসে নিজের কর্মকাণ্ডের ব্যাখ্যা দেননি সাবেক প্রেসিডেন্ট জুমা। তার বদলে দেশের বিচারব্যবস্থার বিরুদ্ধে উসকানিমূলক ও অবমাননাকর বক্তব্য দেন তিনি।

সাউথ আফ্রিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমাকে ১৫ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।

বিবিসির প্রতিবেদনে মঙ্গলবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণে সাবেক প্রেসিডেন্ট জুমাকে পাঁচ দিন সময় দেয়া হয়। আত্মসমর্পণ না করলে তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।

প্রেসিডেন্ট থাকাকালে জুমার বিরুদ্ধে আনা দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে তাকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল সাউথ আফ্রিকার আদালত।

কিন্তু সে সময় আদালতে হাজির হতে অসম্মতি জানান দেশটির সাবেক এই প্রেসিডেন্ট। এ কারণেই তাকে কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

সাউথ আফ্রিকার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি সিসি খ্যামপেপে বলেন, আদালতে এসে নিজের কর্মকাণ্ডের ব্যাখ্যা দেননি সাবেক প্রেসিডেন্ট জুমা। তার বদলে দেশের বিচারব্যবস্থার বিরুদ্ধে উসকানিমূলক ও অবমাননাকর বক্তব্য দেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘প্রেসিডেন্টকে কারাদণ্ড দেয়া ছাড়া আমার আর কিছু করার ছিল না।

‘আমি আশাবাদী, দেশবাসী এর মাধ্যমে সুস্পষ্ট বার্তা পাবেন। সাউথ আফ্রিকায় আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার বজায় থাকবে।’

২০০৯ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত টানা প্রায় নয় বছর সাউথ আফ্রিকার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন জুমা। সে সময় তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে।

এ ছাড়া জ্যাকব জুমার শাসনামলে সাউথ আফ্রিকার নীতিনির্ধারণী প্রক্রিয়া প্রভাবিত করতে রাজনীতিকদের সঙ্গে মিলে ব্যবসায়ীদের চক্রান্তেরও অভিযোগ রয়েছে।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে আন্দোলনের মুখে পদত্যাগে বাধ্য হন জুমা।

রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে দুর্নীতির অভিযোগ আনা হয় বলে বিভিন্ন সময়ে দাবি করেন সাউথ আফ্রিকার এই প্রেসিডেন্ট।

আরও পড়ুন:
‘হীরার’ সন্ধানে চলছে মাটি খোঁড়াখুঁড়ি

শেয়ার করুন

মন্তব্য