বিমানবাহিনীর ধারণা

জম্মুর বিমানবন্দরে বিস্ফোরণ ড্রোন হামলায়

জম্মুর বিমানবন্দরে বিস্ফোরণ ড্রোন হামলায়

জম্মু বিমানবন্দরের বিমানবাহিনী পরিচালিত অংশ রোববার মধ্যরাতে বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে। ছবি: এনডিটিভি

বিস্ফোরণের কারণ অনুসন্ধানে সব ধরনের সম্ভাবনাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ড্রোন হামলা সবচেয়ে যৌক্তিক বলে মনে হচ্ছে। ড্রোন হামলার ধারণা সত্য হলে ভারতীয় বিমানবাহিনীর কোনো ঘাঁটিতে এ ধরনের হামলা এটিই প্রথম।

ড্রোন হামলায় ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের জম্মু বিমানবন্দরে জোড়া বিস্ফোরণ হয়েছে বলে মনে করছে প্রশাসন।

ভারতীয় বিমানবাহিনীর প্রাথমিক তদন্তে জানানো হয়েছে, দুটি বিস্ফোরণই তুলনামূলক কম শক্তিশালী ছিল।

বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, ড্রোন হামলার সম্ভাব্য লক্ষ্য ছিল দাঁড়িয়ে থাকা একটি বিমান।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়, বিস্ফোরণে হতাহত বা তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি না হলেও একে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে ভারতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বিমানবন্দরের ভারতীয় বিমানবাহিনী পরিচালিত কৌশলগত অংশ সাতওয়ারি এয়ার ফোর্স স্টেশনের ভেতরে স্থানীয় সময় রোববার মধ্যরাতে এ বিস্ফোরণ হয়। পাঁচ মিনিটের মধ্যে দুটি বিস্ফোরণ হয়।

প্রথম বিস্ফোরণটি একটি ভবনের ছাদে হয়। দ্বিতীয়টি হয় একটি খোলা জায়গায়। বিস্ফোরণের আওয়াজ শোনা গেছে এক কিলোমিটার দূর পর্যন্ত।

খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল, জাতীয় বোমাবিষয়ক কেন্দ্রের ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও বেসামরিক বিমান কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে বিমানবন্দরটি ব্যবহার করে। সাধারণ যাত্রীবাহী বিমান চলাচলে বিমানবন্দরের রানওয়ে ও এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল ব্যবহৃত হলেও তা নিয়ন্ত্রণ করে বিমানবাহিনী।

হামলার পরপরই এ বিষয়ে ভারতের বিমানবাহিনীর ভাইস চিফ এয়ার মার্শাল এইচ এস অরোরার সঙ্গে কথা বলেন দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাচ্ছেন এয়ার মার্শাল বিক্রম সিং।

সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, বিস্ফোরণের কারণ অনুসন্ধানে সব ধরনের সম্ভাবনাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ড্রোন হামলাই সবচেয়ে যৌক্তিক বলে মনে হচ্ছে।

ড্রোন হামলার ধারণা সত্য হলে ভারতীয় বিমানবাহিনীর কোনো ঘাঁটিতে এ ধরনের হামলা এটিই প্রথম।

আরও পড়ুন:
জম্মুর বিমানবন্দরে বিস্ফোরণ, আহত ২
নিয়ন্ত্রণরেখায় গোলাগুলি বন্ধে রাজি ভারত-পাকিস্তান
দেড় বছর পর ফোরজি ফিরে পাচ্ছে কাশ্মীর
কাশ্মীরে আবদুল্লাহ-মুফতি জোটের জয়

শেয়ার করুন

মন্তব্য