বছর শেষে জার্মানিতে ডেল্টা ধরনের প্রাদুর্ভাবের শঙ্কা

বছর শেষে জার্মানিতে ডেল্টা ধরনের প্রাদুর্ভাবের শঙ্কা

টিকা নিতে অপেক্ষা করছেন জার্মানির বয়স্ক নাগরিকেরা। ছবি: এএফপি

ভারতে শনাক্ত করোনার ধরনের কথা উল্লেখ করে রবার্ট কখ ইনস্টিটিউট ফর ইনেফকশাস ডিজিজেজের প্রধান লোথার উইলার বলেন, ‘দেশের প্রায় ৬ শতাংশ মানুষের দেহে ডেল্টা ধরন শনাক্ত হয়েছে। তবে এর সংক্রমণ আরও বাড়বে।’

চলতি বছরের শেষ তিন মাসে করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ভারতীয় ধরন জার্মানিতে ব্যাপক মাত্রায় সংক্রমণ ঘটাবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন দেশটির শীর্ষ জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

করোনার ওই ধরন মোকাবিলায় মাস্ক পরা ও টিকা নিতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

শুক্রবার তিনি এ শঙ্কার কথা জানান বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ভারতে শনাক্ত করোনার ধরনের (যা ডেল্টা ধরন নামে পরিচিত) কথা উল্লেখ করে রবার্ট কখ ইনস্টিটিউট ফর ইনেফকশাস ডিজিজেজের প্রধান লোথার উইলার বলেন, ‘দেশের প্রায় ৬ শতাংশ মানুষের দেহে ডেল্টা ধরন শনাক্ত হয়েছে। তবে এর সংক্রমণ আরও বাড়বে।’

তিনি বলেন, ‘ডেল্টা ধরনের প্রাদুর্ভাব দেখা যাবে কি না, সেটা প্রশ্ন নয়। প্রশ্ন হচ্ছে, কবে এটি আঘাত হানবে। বছর শেষে ভারতীয় ধরনটি প্রভাব বিস্তার করবে।’

করোনার সংক্রমণ কমে যাওয়া ও টিকাদান কার্যক্রম শুরু হওয়ায় গত বছরের নভেম্বর থেকে জার্মানির ১৬টি অঙ্গরাজ্যে বিধিনিষেধ শিথিল হওয়া শুরু হয়। বড় অংশের জনগোষ্ঠী টিকার আওতায় আসায় করোনার তৃতীয় ধাক্কা দেশটিতে দেখা যায়নি।

সংক্রমণ কমে যাওয়ায় জার্মানির রেস্তোরাঁ, বার, বিয়ার গার্ডেন, হোটেল ও কনসার্ট হল খুলে দেয়া হয়েছে।

জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেনস পান বলেন, ভাইরাসের হাত থেকে কার্যকর সুরক্ষার জন্য দরকারী করোনার টিকার দুটি ডোজের একটি ডোজ ৫১ শতাংশ জার্মান নিয়েছেন। প্রায় ৩০ শতাংশ নাগরিক দুটি ডোজই নেন।

আরও পড়ুন:
ক্যাপিটলে হামলা নিয়ে মেরকেলের টুইটটি কার?
এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু, কঠোর লকডাউনে জার্মানি

শেয়ার করুন

মন্তব্য