মুসলমান হত্যা: গ্রেপ্তারের সময় ট্রাকচালকের উল্লাস

মুসলমান হত্যা: গ্রেপ্তারের সময় ট্রাকচালকের উল্লাস

কানাডার ওন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরে মুসলমানবিদ্বেষী হামলায় নিহতদের প্রতি মঙ্গলবারের শোক কর্মসূচিতে যোগ দেন সর্বস্তরের মানুষ। ছবি: এএফপি

লন্ডন ফ্রি প্রেস জানিয়েছে, লন্ডনের কাছেই স্ট্যাথ্রয় এলাকায় ডিম প্যাকেটজাত করার একটি কারখানার খণ্ডকালীন কর্মী ছিলেন ভেল্টম্যান। লন্ডনের যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন, সেখানকার অন্য বাসিন্দারা জানিয়েছেন, গভীর রাত পর্যন্ত ভেল্টম্যানের ভিডিও গেমস খেলার জোরালো আওয়াজ শুনতে পেতেন তার প্রতিবেশীরা।

কানাডায় ট্রাক তুলে দিয়ে চার মুসলমানকে হত্যার ঘটনায় দ্বিতীয় শুনানির জন্য আদালতে হাজিরা দেয়ার অপেক্ষায় চালক নাথানিয়েল ভেল্টম্যান।

২০ বছরের ছেলের এ অপকর্মে হতবাক অভিযুক্তের বাবা মার্ক ভেল্টম্যান।

ই-মেইলে তিনি লিখেছেন, ‘বর্ণনার অযোগ্য এ অপরাধের সঙ্গে আমার ছেলের জড়িত থাকার খবরে আমি স্তম্ভিত, শংকিত। কতটা দুঃখ পেয়েছি, তা বলে বোঝানোর ভাষা আমার জানা নেই।

‘বোধশক্তিহীন এ আচরণের ভুক্তভোগীদের সমবেদনা জানানো ছাড়া আর কিছু বলার নেই আমার।’

আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, বিচার প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা নিশ্চিতে তদন্তে প্রাপ্ত তথ্যের বেশির ভাগই এখন প্রকাশ করবে না পুলিশ।

তবে অভিযুক্ত ভেল্টম্যান নিহতদের আগে থেকে না চিনলেও মুসলমান বুঝতে পেরেই ইচ্ছা করে ওই হামলা চালান বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

কানাডিয়ান ব্রডকাস্টিং করপোরেশনকে লন্ডন পুলিশের প্রধান স্টিভ উইলিয়ামস বলেন, ‘আমাদের কোনো কথা বা কাজে যেন আদালতের বিচারপ্রক্রিয়া প্রশ্নবিদ্ধ না হয়, তা নিশ্চিতে তথ্য সুরক্ষিত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আমরা।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভেল্টম্যানের অ্যাকাউন্টটি মুছে দেয়ার কথা জানিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

এ অবস্থায় ভেল্টম্যানের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে খুব সামান্যই প্রকাশ পেয়েছে।

লন্ডন ফ্রি প্রেস জানিয়েছে, লন্ডনের কাছেই স্ট্যাথ্রয় এলাকায় ডিম প্যাকেটজাত করার একটি কারখানার খণ্ডকালীন কর্মী ছিলেন ভেল্টম্যান।

লন্ডনের যে অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন, সেখানকার অন্য বাসিন্দারা জানিয়েছেন, গভীর রাত পর্যন্ত ভেল্টম্যানের ভিডিও গেমস খেলার জোরালো আওয়াজ শুনতে পেতেন তার প্রতিবেশীরা।

মুসলমানদের ওপর ভেল্টম্যানের ক্ষোভের কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। বিদ্বেষপ্রসূত হামলা নিশ্চিত হলেও সুনির্দিষ্ট কোনো ‘হেইট গ্রুপের’ সঙ্গে তার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পায়নি পুলিশ।

পুলিশের হেফাজতে ভেল্টম্যান নিরাপদে আছেন জানালেও তার ছবি প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে পুলিশ।

ওন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরে স্থানীয় সময় গত রোববার সন্ধ্যার ওই হামলায় নিহত হন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত একটি পরিবারের তিন প্রজন্মের চার সদস্য। সন্ধ্যায় হাঁটতে বেরিয়ে রাস্তা পার হওয়ার সময় হামলার শিকার হন তারা।

পরিবারটির বেঁচে যাওয়া একমাত্র সদস্য, ৯ বছরের একটি ছেলেশিশু গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি।

হামলা চালানোর কিছুক্ষণ পরই ঘটনাস্থল থেকে খানিকটা দূরে একটি শপিং মলের পার্কিং লট থেকে আটক ও গ্রেপ্তার হন ঘাতক ট্রাকচালক।

সে সময় ভেল্টম্যান একটি সশস্ত্র ভেস্ট ও হেলমেট পরে ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

তাকে আটকের সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত এক ট্যাক্সিচালকের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন ট্যাক্সি ভাড়া দেয়া একটি প্রতিষ্ঠানের প্রেসিডেন্ট হাসান সাভেহিলাঘি।

লন্ডন সিটিভি নিউজের প্রতিবেদনে সাভেহিলাঘির উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, ভেল্টম্যানের পিক-আপ ট্রাকটির সামনের দিক ভেঙেচুরে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত। সেখানে রক্তের দাগ লেগে ছিল।

সাভেহিলাঘি বলেন, ‘সন্দেহভাজন হিসেবে যখন ভেল্টম্যানকে ট্রাক থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে আনছিল পুলিশ, তিনি হাসছিলেন, উল্লাস করছিলেন, অপমানসূচক কথাবার্তা বলছিলেন। চিৎকার করে স্লোগান দেয়ার মতো কিছু একটা বলছিলেন। কিন্তু তার বলা সব কথা স্পষ্ট শোনা যায়নি।’

তবে 'আমি মানুষ হত্যা করেছি' বলতে শোনা গেছে ভেল্টম্যানকে।

সাভেহিলাঘি জানান, তার ট্যাক্সির চালক এই আটকের ঘটনা ভিডিও করছিলেন বলে তার দিকে চিৎকার শুরু করেন ভেল্টম্যান।

সাভেহিলাঘি বলেন, ‘মনে হচ্ছিল যেন অভিযুক্ত লোকটি পুরো ঘটনা খুব উপভোগ করছেন। কেউ তার ভিডিও রেকর্ড করছেন, এটা তার কাছে বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হয়েছে।’

ভেল্টম্যানকে আটক বা তার হামলাসংক্রান্ত ভিডিও ফুটেজ পেলেও সেগুলো প্রকাশ করা হয়নি।

যে ট্রাক নিয়ে হামলা চালিয়েছেন ভেল্টম্যান, চলতি বছরের ১২ মে সেটি কিনেছেন তিনি।

ভিডিও কনফারেন্স অ্যাপ জুমের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার শুনানিতে অংশ নেন ভেল্টম্যান। আগামী সোমবার আবারও শুনানির জন্য আদালতে উপস্থাপন করা হবে তাকে।

তার বিরুদ্ধে চারটি হত্যা মামলা ও একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:
কানাডায় মুসলমানদের ওপর ট্রাকহামলা চালানো যুবক আদালতে
ট্রাকহামলায় নিহতদের প্রতি কানাডার সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা
‘কানাডায় মুসলমানবিদ্বেষ অস্বীকারের সুযোগ নেই’
কানাডার মুসলমানদের পাশে ট্রুডো

শেয়ার করুন

মন্তব্য