জুলাই মাসেই বাদল অধিবেশন শুরুর তোড়জোড় ভারতে

জুলাই মাসেই বাদল অধিবেশন শুরুর তোড়জোড় ভারতে

ফাইল ছবি

করোনা সংক্রমণের কারণে গত বছর নির্ধারিত সময়ে সংসদের বাদল অধিবেশন শুরু হয়নি। তা শুরু হয়েছিল সেপ্টেম্বরে। তবে একাধিক সাংসদ-বিধায়ক কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়ায় এর মেয়াদ কমিয়ে দিতে হয়েছিল।

করোনা মহামারির আবহে গত বছরের মার্চ মাস থেকেই ভারতের সংসদ অধিবেশনে কোপ পড়েছে বারবার।

নিয়ম অনুযায়ী আগামী জুলাই মাস থেকেই বাদল অধিবেশন হওয়ার কথা। কেন্দ্রীয় সরকারের সংসদীয় মন্ত্রণালয় সূত্রের খবর এবার বাদল অধিবেশন নির্দিষ্ট সময়ে অনুষ্ঠিত করার কথা ভাবা হচ্ছে।

সেই কারণেই চলতি মাস থেকেই যাবতীয় তোড়জোড় করতে বৈঠকে বসতে চলেছে সংসদীয় বিষয়ক কমিটি। এ বিষয়ে সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী বলেছেন, ‘জুলাই মাসে নির্ধারিত সময়েই এই বছরের বাদল অধিবেশন শুরু করা নিয়ে আমি আশাবাদী।’

জানা গেছে, আগামী ১৬ জুন পাবলিক অ্যাকাউন্ট কমিটি বৈঠকে বসতে পারে। এরপর ২৩ জুন শ্রমিকদের জন্য গঠিত সংসদীয় কমিটিও বৈঠকে বসবে।

করোনা সংক্রমণের কারণে গত বছর নির্ধারিত সময়ে সংসদের বাদল অধিবেশন শুরু হয়নি। তা শুরু হয়েছিল সেপ্টেম্বরে। তবে একাধিক সাংসদ-বিধায়ক কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়ায় এর মেয়াদ কমিয়ে দিতে হয়েছিল।

এরপর শীতকালীন অধিবেশনও বাতিল হয়ে যায় সংক্রমণের কারণে। চলতি বছরে বাজেট অধিবেশন হলেও লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা কোভিড আক্রান্ত হওয়ায় এবং পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের জন্য সাংসদদের ব্যবস্থায় নির্দিষ্ট সময়ের আগেই অধিবেশন শেষ করে দেয়া হয়।

অধিবেশনের পাশাপাশি সংসদীয় কমিটিগুলোর বৈঠকও স্থগিত করে দেয়া হয়। কিছু সাংসদ ভার্চুয়াল বৈঠকের দাবি জানালেও বৈঠকের গোপনীয়তা বজায় রাখতে প্রিসাইডিং অফিসাররা সেই আবেদন বাতিল করেন। সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ থেকে দেশ অনেকটাই সামলে ওঠায় নির্ধারিত সময়েই বাদল অধিবেশন শুরু করার পরিকল্পনা চলছে।

ইতিমধ্যে অধিকাংশ সাংসদ ও তাদের পরিবারকেই টিকা দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া সংসদভবনের সমস্ত কর্মীকে টিকা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:
ফিলিস্তিনের পাশে আছি, সহযোগিতা করে যাব
বাজেট দিতে অধিবেশনে সংসদ
জিয়ার অধ্যাদেশকে আইনে রূপ দিচ্ছে আ. লীগ সরকার
২ জুন বসছে বাজেট অধিবেশন
শোক প্রস্তাব নিয়ে মুলতবি সংসদের অধিবেশন 

শেয়ার করুন

মন্তব্য