শিশুদের গণকবর: চার্চকে দায় নিতে বললেন ট্রুডো

শিশুদের গণকবর: চার্চকে দায় নিতে বললেন ট্রুডো

কানাডার এই স্কুল থেকে পাওয়া যায় শিশুদের মৃতদেহ। ছবি: ক্যামলুপস দিজ উইক

ট্রুডো বলেন, ‘ক্যাথলিক চার্চকে আদালতে নেয়ার আগে আমি আশা করছি যে, ধর্মীয় নেতারা বিষয়টিতে সহযোগিতা করার গুরুত্ব বুঝবেন।’

কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া অঙ্গরাজ্যে বন্ধ এক আদিবাসী আবাসিক স্কুল থেকে ২১৫ শিশুর দেহাবশেষ উদ্ধারের ঘটনায় ক্যাথলিক চার্চকে দায় নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

শনিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

২৭ মে কানাডার ক্যামলুপস স্কুলে ওই শিশুদের দেহাবশেষ আবিষ্কারের কথা জানায় স্থানীয় একটি আদিবাসী সংগঠন। এরপরে দেশজুড়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

ঊনবিংশ ও বিংশ শতাব্দীতে কানাডার আদিবাসী শিশুদের জোর করে মূলধারার সংস্কৃতি আত্মস্থ করাতে দেশটির আবাসিক স্কুলে ভর্তি করানো হতো। সরকারি অর্থে চলা অনেক স্কুলের পরিচালনার দায়িত্বে ছিল রোমান ক্যাথলিক চার্চ।

দেহাবশেষ উদ্ধার হওয়া শিশুদের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায় নি। এমনকি স্কুলটির পুরনো নথিতেও তাদের সম্পর্কে কিছু বলা নেই।

এ ঘটনায় ক্যাথলিক চার্চকে স্কুল সংক্রান্ত তথ্যভাণ্ডার উন্মুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছেন ট্রুডো। চার্চ ওই শিশুদের সম্পর্কে তথ্য সরবরাহে অসহযোগিতা করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ট্রুডো বলেন, ‘আমি নিজে একজন ক্যাথলিক হিসেবে চার্চ এখন ও অতীতে যে ভূমিকা নিয়েছে তাতে ভীষণ হতাশ।’

চার্চের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার ইঙ্গিত জানিয়ে তিনি বলেন, ‘যদি আমি প্রয়োজন মনে করি, তাহলে আমরা আরও কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হব।’

তিনি বলেন, ‘ক্যাথলিক চার্চকে আদালতে নেয়ার আগে আমি আশা করছি যে, ধর্মীয় নেতারা বিষয়টিতে সহযোগিতা করার গুরুত্ব বুঝবেন।’

রোমান ক্যাথলিক প্রশাসনের আওতায় ১৮৯০ সালে ক্যামলুপস ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল স্কুল নামে ওই বিদ্যালয়টি খোলা হয়েছিল। ১৯৫০ সালেও স্কুলটিতে প্রায় ৫০০ শিক্ষার্থী ছিল। স্কুলটি ১৯৭৮ সালে বন্ধ করে দেয়া হয়।

আরও পড়ুন:
কানাডার আদিবাসী স্কুল থেকে ২১৫ শিশুর দেহাবশেষ উদ্ধার
হাজার ফুট ওপর থেকে পড়ে গেলেন পর্বতারোহী
নগ্ন হয়ে জুম কলে, ক্ষমা চাইলেন এমপি
‘জেলের মধ্যে আরেক জেল’
ট্রুডোর টাস্কফোর্সে সবাই নারী

শেয়ার করুন

মন্তব্য