আদালতে সু চি, দেশে কী চলছে জানেন না

আদালতে সু চি, দেশে কী চলছে জানেন না

মিয়ানমার নেতা অং সান সু চি। ফাইল ছবি

সু চি বলেছেন, ‘আমাদের দল (ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি) জনগণের দল। তাই, জনগণ যতদিন থাকবে, দলও থাকবে।’

সেনা অভ্যুত্থানের পর প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে এসেছেন মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চি। তবে গৃহবন্দী থাকায় এই কয়েক মাসে দেশের কী ঘটেছে সেটি তার তেমন কোনো ধারণা নেই।

রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা লঙ্ঘনসহ বেশ কিছু অভিযোগে সোমবার সু চিকে রাজধানী নাইপিদোর একটি আদালতে হাজির করা হয়। কিছুক্ষণ পরেই এর শুনানি স্থগিত করে আদালত।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, শুনানির শুরুর আগে নিজের আইনজীবীদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পান সু চি।

তাদের একজন খিন মাং জং জানান সু চি তার সঙ্গে সাক্ষাতে বলেছেন, ‘আমাদের দল (ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি) জনগণের দল। তাই, জনগণ যতদিন থাকবে, দলও থাকবে।’

এ সময় জনগণের সুস্বাস্থ্যও কামনা করেন তিনি।

আইনজীবীরা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সাক্ষাতের সময় সু চির ‘স্বাস্থ্য ভালো’ ছিল। সু চি তাদের জানিয়েছেন, প্রায় চার মাস গৃহবন্দি থাকা অবস্থায় তাকে সংবাদমাধ্যমের সুবিধা দেয়া হয়নি। দেশে কী চলছে সে বিষয়েও তেমন কিছু জানেন না।

সু চির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) বিরুদ্ধে নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ তুলেছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। তবে আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ২০২০ সালের নভেম্বরে হওয়া ওই নির্বাচন স্বচ্ছ ও স্বাধীনভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ফেব্রুয়ারিতে সেনা অভ্যুত্থানে সু চি কে ক্ষমতাচ্যুত ও গৃহবন্দী করার পরই মিয়ানমারে ব্যাপক গণআন্দোলন শুরু হয়। গণতন্ত্রের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনে হামলা চালিয়ে এখন পর্যন্ত প্রায় ৮০০ মানুষকে হত্যা করেছে সামরিক জান্তা। আটক হয়েছেন প্রায় ৪ হাজার মানুষ।

আরও পড়ুন:
সু চিকে নিয়ে মুখ খুললেন জান্তাপ্রধান
ভারতে আশ্রয়ের অপেক্ষায় মিয়ানমারের ৬ হাজার মানুষ
মিয়ানমারে সাড়ে তিন মাসে নিহত ৮০২
মিস ইউনিভার্সের মঞ্চে মিয়ানমারের প্রতিযোগীর আর্তি
সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার মঞ্চ থেকে রণাঙ্গনে

শেয়ার করুন

মন্তব্য