করোনা নিয়ে উত্তেজনা ছড়াবেন না: মমতা

করোনা নিয়ে উত্তেজনা ছড়াবেন না: মমতা

‘চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীরা সাধ্যমতো করছেন। ছোট নার্সিংহোম, ছোট হাসপাতাল এগিয়ে এসেছে। আপনারা, সাংবাদিকরা ইতিবাচক ভূমিকা পালন করুন।’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে করোনা অতিমারির দুই-একটি ঘটনাকে তুলে ধরে উত্তেজনা না ছড়িয়ে বরং ইতিবাচক প্রতিবেদন করার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

তিনি বলেন, ‘চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীরা সাধ্যমতো করছেন। ছোট নার্সিংহোম, ছোট হাসপাতাল এগিয়ে এসেছে। আপনারা, সাংবাদিকরা ইতিবাচক ভূমিকা পালন করুন।’

রাজভবনে সোমবার তৃণমূল সরকারের তৃতীয় মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেয়ার পর নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

বিধানসভা নির্বাচনে টানা তিনবারের জয় সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘মানুষের রায়ে এই জয়, উন্নয়ন, শান্তি, সম্প্রীতির জয়। আমরা বিভেদ চাই না। ঐক্য চাই। ৯৫ শতাংশ মানুষকে আমরা উন্নয়নের আওতায় আনতে পেরেছিলাম। দুয়ারে রেশন থেকে শুরু করে, সব কাজ একটু একটু করে করা হবে। তবে অগ্রাধিকার, কোভিড মোকাবিলা।’

এর অংশ হিসেবে কেন্দ্রের কাছে ৩ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন চেয়েছেন জানিয়ে মমতা ব্যানার্জি বলেন, ‘১ কোটি ডোজ টিকা বেসরকারি হাসপাতালকে দেয়া হবে। আর রাজ্যের সবাইকে বিনা মূল্যে ভ্যাকসিন দেয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আর সংবাদমাধ্যমকে বলব, প্লিজ উত্তেজনা ছড়াবেন না। অতিমারির আইন খুব কড়া আইন। দয়া করে মানুষের জন্য কাজ করুন। পজিটিভ স্টোরি করুন।’

করোনা নিয়ে উত্তেজনা ছড়াবেন না: মমতা

মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘পেনশন, কৃষকের টাকা, স্কলারশিপ কিছুই আটকাবে না। স্কুল, মেডিক্যাল কলেজ বাড়ানো হবে। আমরাই পশ্চিমবঙ্গবাসীর বেঁচে থাকার মানোন্নয়ন করতে পারি।’

মমতা বলেন, প্রতিটি মেডিক্যাল কলেজকে অক্সিজেন সেন্টার করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এখন ৩০ হাজার শয্যা রয়েছে। বহু করপোরেট সেক্টর আমাদের সাহায্য করছে। উত্তীর্ণ ভবন, কিশোর ভারতী স্টেডিয়াম, সেন্ট জেভিয়ার্স সেফ হোম ও ফিল্ড হাসপাতাল রূপান্তর করা হয়েছে। বহু হোটেল বিনা মূল্যে খাবার দিচ্ছে। আমরা চাইব করপোরেটরা আমাদের টাকা দিয়ে সাহায্য করুক। সেই টাকায় শয্যা বাড়াতে পারব। গোটা টাকাটাই অডিট হবে।

মমতা আরও বলেন, ‘আগেরবার ঝড় সামলে ছিলাম। এবার আমাদের চ্যালেঞ্জ করোনা। আমার আবেদন এখনই লকডাউন নয়। কিন্তু সবাই লকডাউনের মতো ব্যবহার করুন। লকডাউন করলে গরিব মানুষ খেতে পাবে না। তাই সময় বেঁধে দিয়েছি।

‘ছোট বস্তি থেকে মাল্টি ন্যাশনাল বিল্ডিং সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে। বহু চেম্বার্স বিভিন্ন বাজারের করোনা বিধি পালনের দায়িত্ব নিয়েছে। পুজো কমিটিগুলোকেও কাজে লাগাব।’

তার নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভা গঠনের বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চিফ সেক্রেটারির নেতৃত্বে আজ একটি ক্যাবিনেট গঠন করা হয়েছে। হোম, ফিন্যান্স, হেলথ, ইন্ডাস্ট্রির সেক্রেটারিদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে এই ক্যাবিনেট। এখন থেকে তারা রাজ্য সরকারের প্রত্যেকটি পলিসির ব্যাপারে কাজ করবে।’

এদিকে রাজ্যের সহিংসতা নিয়ে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদলের বিজেপিকর্মীদের বাড়ি বাড়ি ঘুরে বেড়ানো প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ভুয়ো ভিডিও ছড়াচ্ছে বিজেপির আইটি সেল। শপথ নেয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেন্ট্রাল টিম এসেছে রাজ্যে। ন্যূনতম সৌজন্যবোধ আছে কেন্দ্রের!’

যারা বাইরে থেকে আসবেন, তাদের আরটিপিসিআর পরীক্ষা নিশ্চিত করতে তিনি সাংবাদিক বৈঠকেই মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে নির্দেশ দেন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শনিবার সকাল ৮টা থেকে রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৯২ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ৪২ হাজার ৩৬২ জনে দাঁড়িয়েছে।

আরও পড়ুন:
অক্সিজেন দিচ্ছে না কেন্দ্র: মোদিকে ফের চিঠি মমতার
করোনা মোকাবিলাই হবে আমার প্রথম কাজ: মমতা
পশ্চিমবঙ্গে মোদি-করোনায় কপাল পুড়েছে বিজেপির
‘মমতা দিদি হারছেন, তাই ভয় পেয়েছেন’

শেয়ার করুন

মন্তব্য