× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

আন্তর্জাতিক
প্রতি তিনজন নারীর একজন সহিংসতার শিকার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
hear-news
player
google_news print-icon

প্রতি তিনজন নারীর একজন সহিংসতার শিকার: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

প্রতি-তিনজন-নারীর-একজন--সহিংসতার-শিকার-বিশ্ব-স্বাস্থ্য-সংস্থা
সমীক্ষায় দেখা গেছে, ঘনিষ্ঠ সঙ্গীর হাতে হয়রানি বা সহিংসতার শিকার হওয়ার ঘটনা সবচেয়ে বেশি ঘটছে। ১৪ কোটি ১০ লাখ নারী বলেছেন তাদের এ অভিজ্ঞতা হয়েছে। তবে ৬ শতাংশ নারী বলেছেন যে তাদের স্বামী বা ঘনিষ্ঠ সঙ্গী ছাড়াও তারা অন্য কারও দ্বারা লাঞ্ছিত হয়েছেন।

বিশ্বব্যাপী প্রতি তিনজন নারীর মধ্যে একজন তাদের জীবনকালে কখনও না কখনও শারীরিক বা যৌন সহিংসতার শিকার হন। বর্তমানে এ সংখ্যা ৭৩ কোটি ৬০ লাখ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এক নতুন সমীক্ষায় এ কথা বলা হয়েছে। মঙ্গলবার এ সমীক্ষা প্রকাশিত হয়।

এতে বলা হয়েছে, নারীর ওপর এই সহিংসতা তাদের অল্প বয়স থেকেই শুরু হয়। ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সের মধ্যে চার নারীর মধ্যে একজন ঘনিষ্ঠ সঙ্গীর দ্বারা নিপীড়িত এবং যৌন হেনস্তার শিকার হন

সমীক্ষায় দেখা গেছে, ঘনিষ্ঠ সঙ্গীর হাতে হয়রানি বা সহিংসতার শিকার হওয়ার ঘটনা সবচেয়ে বেশি ঘটছে। ১৪ কোটি ১০ লাখ নারী বলেছেন তাদের এ অভিজ্ঞতা হয়েছে। তবে ৬ শতাংশ নারী বলেছেন যে তাদের স্বামী বা ঘনিষ্ঠ সঙ্গী ছাড়াও তারা অন্য কারও দ্বারা লাঞ্ছিত হয়েছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, নারীর প্রতি সহিংসতা নিয়ে এত বৃহৎ পরিসরে সমীক্ষা এর আগে হয়নি। ২০০০ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ১৬১ দেশের ওপর চালানো বিভিন্ন জরিপের ভিত্তিতে এই গবেষণা করা হয়। গবেষণায় কোভিড-১৯ মহামারির তথ্য অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

বিবিসির খবরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওই সমীক্ষার বরাতে জানানো হয়, ফিজি, দক্ষিণ এশিয়া এবং আফ্রিকার সাবসাহারা অঞ্চলের মতো স্বল্প আয়ের অঞ্চলে বসবাসকারী নারীরা অনেক বেশি নিপীড়নের ঝুঁকিতে থাকে।

সমীক্ষায় এটাও দেখা গেছে, অনেক ক্ষেত্রে নারীরা নিজের পরিবারের মধ্যেই নির্যাতিত এবং নিপীড়িত হন। কিন্তু এসব ঘটনা বাইরে বেরিয়ে আসে না। কর্মস্থলেও যৌন হেনস্তার পরিসংখ্যানটা প্রতিবছর বাড়ছে। যদিও এ ক্ষেত্রে অনেকাংশে নারীরা বিষয়গুলো প্রকাশ্যে নিয়ে আসছেন। যারা দোষী তাদের শাস্তির দাবিও তুলছেন।

কিন্তু গ্রামীণ এলাকায় এই প্রবণতা এখনো অনেক কম। যদিও নির্যাতনের সংখ্যা গ্রামীণ এলাকাতেই বেশি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রকাশিত এই সমীক্ষায় এমন অস্বস্তিকর তথ্য বেরিয়ে আসায় যথেষ্ট চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মনে করছে সচেতন মহল।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেন, প্রতিটি দেশ ও সংস্কৃতিতে নারীদের প্রতি সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। সহিংসতার শিকার হয়ে লাখ লাখ নারী ও তাদের পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের টিকা আছে, কিন্তু নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধের কোনো টিকা নেই।

গেব্রেয়াসুস আরও বলেন, ‘নারীদের উন্নতির জন্য সামাজিক ও প্রশাসনিক সুযোগসুবিধা বৃদ্ধি, স্বাস্থ্যকর ও পারস্পরিক সম্মানজনক সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য তৃণমূল স্তর থেকে লড়াই করতে হবে আমাদের।’

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
The father of 102 children he does not know all their names

১০২ সন্তানের বাবা, জানেন না সবার নাম

১০২ সন্তানের বাবা, জানেন না সবার নাম সন্তান ও নাতি-নাতনিদের সঙ্গে মুসা হাসহ্যা কাসেরা। ছবি: এএফপি
৬৮ বছর বয়সী মুসা এএফপিকে বলেন, প্রথমে এটি মজার বিষয় ছিল। এখন এটি সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

১২ স্ত্রীর ঘরে ১০২ সন্তান আর নাতি-নাতনির সংখ্যা ৫৭৮ জন। এটি হচ্ছে উগান্ডার বুতালেজা জেলার বুগিসা গ্রামের বাসিন্দা মুসা হাসহ্যা কাসেরার সংসারে চিত্র।

৬৮ বছর বয়সী মুসা এএফপিকে বলেন, ‘প্রথমে এটি মজার বিষয় ছিল। এখন এটি সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এত বিশাল পরিবারের জন্য মাত্র দুই একর জমি রয়েছে। আমার দুই স্ত্রী চলে গেছেন কারণ আমি খাদ্য, শিক্ষা, পোশাকের মতো মৌলিক চাহিদা মেটাতে পারিনি। ’

এক সময়ের গরু ব্যবসায়ী মুসার এখন বেকার, তবে তাকে দেখতে অনেক পর্যটক তার বাড়িতে ভিড় জমান।

৬৮ বছর বয়সী এই বৃদ্ধ বলেন, ‘আমার স্ত্রীরা গর্ভনিরোধক ব্যবহার করছে, কিন্তু আমি নই। আমি আর সন্তানের আশা করি না কারণ আমি আমার দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজ থেকে শিক্ষা নিয়েছি।’

মুসা প্রথম বিয়ে করেন ১৯৭২ সালে। ১৮ বছর বয়সে তিনি প্রথম সন্তানের বাবা হন।

মুসা জানান, পারিবারিক ঐতিহ্য ধরে রাখতেই আত্মীয় স্বজনদের পরামর্শ শুনে বেশি স্ত্রী ও সন্তান নিয়েছেন তিনি।

মুসার ১০২ সন্তানের বয়স ১০ থেকে ৫০-এর মধ্যে ও সবচেয়ে কম বয়সী স্ত্রীর বয়স ৩৫।

সন্তানদের নাম জিজ্ঞেস করা হলে মুসা বলেন, ‘আমি শুধু প্রথম ও শেষ জনের নাম মনে রাখতে পারি। বাকিদের নাম মনে নেই।

আরও পড়ুন:
বৃষ্টিবিঘ্নিত তৃতীয় দিন শেষে জয়ের কাছাকাছি অস্ট্রেলিয়া
গ্রিনের বোলিং তোপে বক্সিং ডে টেস্টের প্রথম দিন অস্ট্রেলিয়ার
সাউথ আফ্রিকায় ট্যাংকার বিস্ফোরণে নিহত ১০, আহত ৪০
পেইসারদের টেস্টে ৬ উইকেটে জয় অস্ট্রেলিয়ার
ডিআর কঙ্গোতে বন্যা, ভূমিধসে ১২০ মৃত্যু

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Kappan the popular journalist of Kerala released after 2 years

২ বছর পর কারামুক্ত কেরালার আলোচিত সাংবাদিক কাপ্পান

২ বছর পর কারামুক্ত কেরালার আলোচিত সাংবাদিক কাপ্পান কেরালার সাংবাদিক সিদ্দিক কাপ্পান বৃহস্পতিবার লক্ষ্ণৌর কারাগার থেকে মুক্তি পান। ছবি: সংগৃহীত
উত্তর প্রদেশের রাজধানীর কারাগার থেকে বের হয়ে এনডিটিভিকে কাপ্পান বলেন, ‘আমাকে জেলে রেখে কার লাভ হয়েছে, জানি না। এ দুই বছর খুবই কঠিন ছিল, তবে আমি কখনোই শঙ্কিত ছিলাম না।’

ভারতের উত্তর প্রদেশে দলিত তরুণীকে ‘ধর্ষণের’ পর হত্যার বিষয়ে প্রতিবেদন করতে গিয়ে গ্রেপ্তার হওয়া কেরালার আলোচিত সাংবাদিক সিদ্দিক কাপ্পান বৃহস্পতিবার কারামুক্ত হয়েছেন।

দুই মামলায় জামিন পাওয়ার এক মাসের বেশি সময় পর লক্ষ্ণৌর বিশেষ আদালত কাপ্পানের মুক্তির আদেশে সই করে বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

উত্তর প্রদেশের রাজধানীর কারাগার থেকে বের হয়ে এনডিটিভিকে কাপ্পান বলেন, ‘নির্মম আইনের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখব। জামিন পাওয়ার পরও তারা আমাকে কারারুদ্ধ করে রেখেছে।

‘আমাকে জেলে রেখে কার লাভ হয়েছে, জানি না। এ দুই বছর খুবই কঠিন ছিল, তবে আমি কখনোই শঙ্কিত ছিলাম না।’

কারাগার থেকে কাপ্পানের মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল বুধবার সন্ধ্যায়, তবে অর্থপাচার প্রতিরোধবিষয়ক বিশেষ আদালতের বিচারক বার কাউন্সিল নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত থাকায় মুক্তির আদেশে সই করতে পারেননি।

উত্তর প্রদেশে দলিত তরুণীকে ‘সংঘবদ্ধ ধর্ষণের’ পর হত্যার সংবাদ সংগ্রহ করতে ঘটনাস্থল হাথরাসে যাওয়ার পথে ২০২০ সালের অক্টোবরে গ্রেপ্তার হন সিদ্দিক কাপ্পান।

রাজ্য পুলিশ সে সময় জানিয়েছিল, দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি করা ঘটনা কাভার করতে যাওয়া সাংবাদিক হাথরাসে অস্থিরতা তৈরি করতে যাচ্ছিলেন।

সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগের দুই সপ্তাহ পর দিল্লির একটি হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছিল দলিত তরুণীর। পরে মধ্যরাতে তরুণীর শেষকৃত্য সম্পন্ন করে হাথরাস জেলা প্রশাসন, যাকে অনেকে ঘটনা আড়াল করার চেষ্টা হিসেবে অভিহিত করে ব্যাপক সমালোচনা করে যোগী আদিত্যনাথের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারের।

কাপ্পানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ করা হয়, যাকে অভিযুক্ত করা হয় সন্ত্রাসবিরোধী কঠোর আইন ইউএপিএতে। নিষিদ্ধ সংগঠন পিপল’স ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার কাছ থেকে অর্থ গ্রহণের অভিযোগে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে তার নামে অর্থ পাচারের মামলা করে ভারতের অর্থ গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

এ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠনিক কোনো অভিযোগ গঠন না করায় গত বছরের সেপ্টেম্বরে তাকে জামিন দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন:
উত্তর প্রদেশে সড়কে গেল ৩১ প্রাণ
দলিত বোনদের ধর্ষণ ও হত্যায় ভেঙে পড়েছে পরিবারটি
বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ-হত্যা দলিত ২ বোনকে
গাছে ঝুলছিল দুই বোনের নিথর দেহ
মায়ের হত্যার বিচার চেয়ে রক্তে লেখা চিঠি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Adani Group bought Haifa port in Israel

ইসরায়েলের বন্দর হাইফা কিনল আদানি গ্রুপ

ইসরায়েলের বন্দর হাইফা কিনল আদানি গ্রুপ ফাইল ছবি
আদানি গ্রুপ ইসরায়েলে অধিকতর বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে তারা হাইফা বন্দর কিনল।

১২০ কোটি ডলারে ইসরায়েলের গুরুত্বপূর্ণ বন্দর হাইফা কিনে নিল ভারতের শীর্ষ শিল্পগোষ্ঠী আদানি গ্রুপ।

হিনডেনবার্গের প্রতিবেদনের জেরে বিধ্বস্ত আদানি গোষ্ঠীর বাজার মূলধন প্রায় ৭ হাজার কোটি ডলার কমার মধ্যেই মঙ্গলবার ওই বন্দর কেনার ঘোষণা আসে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

সুউচ্চ বিভিন্ন ভবন নির্মাণ করে ভূমধ্যসাগরীয় শহরটিকে পাল্টে দেয়ার অঙ্গীকার করা হয়েছে ভারতীয় এই ব্যবসায়ী গ্রুপের পক্ষে।

আদানি গ্রুপ ইসরায়েলে অধিকতর বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে তারা হাইফা বন্দর কিনল। এছাড়া তারা তেল আবিবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা গবেষণাগার (আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ল্যাবরেটরি) চালু করতে যাচ্ছে।

জালিয়াতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে বিপুল পরিমাণ লোকসানের কারণে গৌতম আদানির ব্যবসায়িক সাম্রাজ্যে সম্প্রতি বড় ধরনের ধস নেমেছে।

কৌশলগত কারণে হাইফা বন্দরটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। এখান থেকে পণ্যবাহী জাহাজ চলাচল করে এবং সবচেয়ে বড় পর্যটকবাহী বিলাসবহুল জাহাজও (ক্রুজ শিপ) এই বন্দরে ভিড়ে। এছাড়া এটি ইসরায়েলের দ্বিতীয় বৃহত্তম বন্দর।

আরও পড়ুন:
বিশ্বের শীর্ষ ধনীর পাঁচেও নেই আদানি
পুঁজিবাজারে কয়েক ঘণ্টায় ২ লাখ কোটি রুপি উধাও আদানির
ভারতের আদানি এখন বিশ্বের তৃতীয় ধনী

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
The United States is preparing to provide more than and200 million to Ukraine
রয়টার্সের প্রতিবেদন

ইউক্রেনকে ২০০ কোটি ডলারের বেশি সহায়তার প্রস্তুতি যুক্তরাষ্ট্রের

ইউক্রেনকে ২০০ কোটি ডলারের বেশি সহায়তার প্রস্তুতি যুক্তরাষ্ট্রের গত বছরের ৩ মে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দেশটির আলাবামার ট্রয় এলাকায় লকহিড মার্টিনের কারখানা পরিদর্শনে গেলে প্রদর্শন করা হয় ট্যাংকবিধ্বংসী জ্যাভেলিন ক্ষেপণাস্ত্র। ছবি: জোনাথন আর্নস্ট/রয়টার্স
যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের একজন জানান, সহায়তা প্যাকেজের একাংশ হতে পারে ১৭২ কোটি ডলার, যা আসবে ইউক্রেন সিকিউরিটি অ্যাসিস্ট্যান্স ইনিশিয়েটিভ নামের তহবিল থেকে। এ তহবিলের মাধ্যমে মজুতকৃত অস্ত্রের পরিবর্তে বাজার থেকে সামরিক সরঞ্জাম কিনতে পারে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্র প্রথমবারের মতো দূরপাল্লার রকেটের পাশাপাশি অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম ও অস্ত্র সরবরাহ বাবদ ইউক্রেনকে ২০০ কোটি ডলারের বেশি মূল্যের সামরিক সহায়তা দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন আমেরিকার দুই কর্মকর্তা।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তারা জানান, চলতি সপ্তাহেই সহায়তার ঘোষণা আসতে পারে।

ওই কর্মকর্তারা আরও জানান, প্যাকেজে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্যাট্রিয়টের আনুষঙ্গিক সরঞ্জাম, দূর নিয়ন্ত্রিত সরঞ্জাম ও ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্র জ্যাভেলিন অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।

কর্মকর্তাদের একজন জানান, সহায়তা প্যাকেজের একাংশ হতে পারে ১৭২ কোটি ডলার, যা আসবে ইউক্রেন সিকিউরিটি অ্যাসিস্ট্যান্স ইনিশিয়েটিভ (ইউএসএআই) নামের তহবিল থেকে। এ তহবিলের মাধ্যমে মজুতকৃত অস্ত্রের পরিবর্তে বাজার থেকে সামরিক সরঞ্জাম কিনতে পারে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন।

তিনি আরও জানান, ইউএসএআই থেকে অর্থ নিয়ে বোয়িং কোম্পানির কাছ থেকে গ্রাউন্ড লঞ্চড স্মল ডায়ামিটার বোম্ব (জিএলএসডিবি) নামের রকেট কেনা হবে, যেটি দেড় শ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে।

গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া যুদ্ধে রুশ বাহিনীকে পিছু হটাতে ২৯৭ কিলোমিটার দূরে আঘাত হানতে সক্ষম এটিএসিএমএস ক্ষেপণাস্ত্র চেয়েছিল ইউক্রেন, যা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এখন জিএলএসডিবি দিয়ে সে কাজ চালাতে পারবে ইউক্রেন।

আরও পড়ুন:
রুশ ভাড়াটে সেনা গোষ্ঠীকে অপরাধী সংগঠন ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের
পুতিন জীবিত কি না, নিশ্চিত নন জেলেনস্কি
রাশিয়া হারলেই পরমাণু যুদ্ধ, জানালেন পুতিনের সহযোগী
ইউক্রেনে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ নিহত ১৬
সবজি চাষে নিরাপদ মানুষের মলমূত্র: গবেষণা

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
14 dead in multi storey building fire in India

ভারতে বহুতল ভবনে আগুনে ১৪ মৃত্যু

ভারতে বহুতল ভবনে আগুনে ১৪ মৃত্যু ভারতের ঝাড়খণ্ডের বহুতল ভবনে ধরা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের প্রায় ৪০টি ইউনিট। ছবি: পিটিআই
আগুনে হতাহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, ‘ধানবাদে আগুনে প্রাণহানির ঘটনায় (আমি) গভীরভাবে শোকাহত। স্বজন হারানো লোকজনের প্রতি আমার সমবেদনা। অসুস্থরা দ্রুত আরোগ্য লাভ করুক।’

ভারতের ঝাড়খণ্ডের ধানবাদ এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভয়াবহ আগুনে ১০ নারী ও তিন শিশুসহ কমপক্ষে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

রাজ্যের মুখ্যসচিব সুখদেব সিং প্রেস ট্রাস্ট অফ ইন্ডিয়াকে (পিটিআিই) বিষয়টি জানিয়েছেন বলে এনডিটিভির প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সুখদেব বলেন, ‘মৃতের সংখ্যা এ মুহূর্তে ১৪ এবং ১১ জন চিকিৎসাধীন। আগুনের প্রকৃত কারণ জানা যায়নি।’

আগুনে হতাহতের ঘটনায় শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, ‘ধানবাদে আগুনে প্রাণহানির ঘটনায় (আমি) গভীরভাবে শোকাহত। স্বজন হারানো লোকজনের প্রতি আমার সমবেদনা। অসুস্থরা দ্রুত আরোগ্য লাভ করুক।’

ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সরেন জানান, জেলা প্রশাসন তাৎক্ষণিক কাজ শুরু করেছে। অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ঝাড়খণ্ডের রাজধানী রাঁচি থেকে প্রায় ১৬০ কিলোমিটার দূরে জরাফাতাক এলাকায় ‘আশীর্বাদ টাওয়ার’ নামের ১৩ তলা ভবনে আগুন ধরে। সে আগুন নেভাতে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের প্রায় ৪০টি ইউনিট।

ধানবাদের জেলা প্রশাসক সন্দীপ কুমার জানান, ভবন থেকে আট থেকে ১০ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে, যাদের শরীর মারাত্মক দগ্ধ হয়েছে।

আরও পড়ুন:
মোদিকে নিয়ে ডকুমেন্টারি ফের প্রদর্শন হায়দরাবাদ ইউনিভার্সিটিতে
গণিত শিক্ষক চাওয়া এই বিজ্ঞাপনই যেন এক জটিল প্রশ্নপত্র
নদীতে পরিবারের ৭ সদস্যের লাশ
গোহত্যা বন্ধ হলেই পৃথিবীর সমস্যা শেষ: ভারতের আদালত
কামরাঙ্গীরচরে জুতার কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Death toll rises to 100 in Peshawar

পেশাওয়ারে মিলল হামলাকারীর মাথা, নিহত বেড়ে ১০০

পেশাওয়ারে মিলল হামলাকারীর মাথা, নিহত বেড়ে ১০০ পাকিস্তানের পেশাওয়ারে মসজিদে হামলার পর চলছে উদ্ধারকাজ। ছবি: এএফপি
তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) এক সদস্য প্রাথমিক পর্যায়ে এ হামলার দায় স্বীকার করলেও পরে তা টিটিপির পক্ষ থেকে অস্বীকার করা হয়।

পাকিস্তানের পেশাওয়ারের পুলিশ হেডকোয়ার্টের ভেতরে অবস্থিত মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত বেড়ে ১০০ জনে দাঁড়িয়েছে। এরইমধ্যে সন্দেহভাজন হামলাকারীর মাথা উদ্ধার করার খবর জানিয়েছে পাকিস্তান পুলিশ।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার বেলা ৩টার পর ওই হামলা হয়।

হামলায় দেড় শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন এবং তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জিও টিভিকে পেশোয়ার ক্যাপিটাল সিটি পুলিশ অফিসার (সিসিপিও) মোহাম্মদ আইজাজ খান বলেন, বিস্ফোরণটি একটি আত্মঘাতী হামলা ছিল বলে মনে হচ্ছে। সন্দেহভাজন হামলাকারীর মাথা উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ এই হামলা নিন্দা জানিয়ে বলেন, যারা পাকিস্তানকে রক্ষা করার দায়িত্ব পালন করে, তাদের টার্গেট করে সন্ত্রাসীরা ভয় দেখাতে চায়।

তেহরিক-ই-তালেবান পাকিস্তানের (টিটিপি) এক সদস্য প্রাথমিক পর্যায়ে এ হামলার দায় স্বীকার করলেও পরে তা টিটিপির পক্ষ থেকে অস্বীকার করা হয়।

গত বছরের আগস্টে আফগানিস্তানে নিরাপত্তা বাহিনীর এক অভিযানে নিহত হন পাকিস্তানি তালেবানের কমান্ডার উমর খালিদ। তার এক ভাই দাবি করেন, আত্মঘাতী বিস্ফোরণটি ওই ঘটনার প্রতিশোধ নিতেই চালানো হয়েছে।

কর্মকর্তারা জানান, আফগানিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকাটিতে যোহর নামাজের সময় হামলাটি হয়। হতাহতদের মধ্যে বেশিরভাগই পুলিশ সদস্য।

গত বছরের মার্চে জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের হামলা পেশাওয়ারের একটি শিয়া মসজিদে ৬৪ জন নিহত হন। ২০১৮ সালের পর এটি ছিল পাকিস্তানের সবচেয়ে ভয়াবহ হামলার ঘটনা।

আরও পড়ুন:
পাকিস্তানের মসজিদে হামলায় নিহত বেড়ে ৮৩
মসজিদে হামলার দায় স্বীকার পাকিস্তানি তালেবানের, নিহত বেড়ে ৪৬
পাকিস্তানে পুলিশ হেডকোয়ার্টার মসজিদে বোমা, নিহত ২৮
একাই ৩৩ আসনে লড়বেন ইমরান
প্রধানমন্ত্রী ইমরানের হেলিকপ্টার ব্যয় ১০০ কোটি

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
US will not send warplanes to Ukraine

ইউক্রেনে যুদ্ধবিমান পাঠাবে না যুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেনে যুদ্ধবিমান পাঠাবে না যুক্তরাষ্ট্র
গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়া হামলা শুরু করে ইউক্রেনে। এরপর থেকে পশ্চিমা দেশগুলোর কাছে সহযোগিতা চেয়ে আসছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কি।

রাশিয়ার সঙ্গে লড়তে ইউক্রেনকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান দেবেন না বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

হোয়াইট হাউসে এক সাংবাদিকের প্রশ্নে সোমবার তিনি এ কথা জানান বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে যুদ্ধবিমান পাঠাবে কি না- প্রশ্নে প্রেসিডেন্ট বাইডেন শুধু বলেন, ‘না’।

গত বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে রাশিয়া হামলা শুরু করে ইউক্রেনে। এরপর থেকে পশ্চিমা দেশগুলোর কাছে সহযোগিতা চেয়ে আসছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেনস্কি।

দীর্ঘদিন ধরে আলোচনার পর যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, যুক্তরাজ্য, পোল্যান্ড, কানাডাসহ কয়েকটি দেশ ইউক্রেনকে অত্যাধুনিক ট্যাংক দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। তবে এরই মধ্যে জার্মানিও যুদ্ধবিমান নেতিবাচক ইঙ্গিত দিয়েছে।

আরও পড়ুন:
দ্রুত আরও অস্ত্র দরকার ইউক্রেনের: জেলেনস্কি
মার্চে লেপার্ড পাচ্ছে ইউক্রেন
ট্যাংকের পর যুদ্ধবিমানে নজর ইউক্রেনের

মন্তব্য

p
উপরে