20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার পর ব্রাজিলে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ

ফাইল ছবি

কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার পর ব্রাজিলে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ব্ল্যাক কনশাসনেস ডের আগের রাতে বৃহস্পতিবার এই হত্যাকাণ্ড ঘটে। এর প্রতিবাদে শুক্রবার থেকে দেশটিতে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।

ব্রাজিলের দক্ষিণাঞ্চলের শহর পোর্তো অ্যালেগ্রির একটি সুপারমার্কেটে নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি নিহত হওয়ার পর দেশটিতে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। ৪০ বয়সী ওই ব্যক্তির নাম জোয়াও অ্যালবার্টো সিলভেইরা ফ্রেইটাস।

শনিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, ব্রাজিলের অগ্রগতিতে কৃষ্ণাঙ্গদের অবদান স্মরণে ঘোষিত দিবস ব্ল্যাক কনশাসনেস ডের আগের রাতে বৃহস্পতিবার এই হত্যাকাণ্ড ঘটে। এর প্রতিবাদে শুক্রবার থেকে দেশটিতে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওচিত্রে দেখা যায়, ক্যারফোর নামের সুপারমার্কেটে অ্যালবার্টো সিলভেইরা ফ্রেইটাসকে মেঝেতে শুইয়ে রেখে মুখে একের পর এক ঘুষি মারছেন দুজন শ্বেতাঙ্গ নিরাপত্তারক্ষী। এদের একজন ছুটিতে থাকা সামরিক কর্মকর্তা বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় দুজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই নিরাপত্তারক্ষীদের সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে ফরাসি সুপারমার্কেট গ্রুপ ক্যারফোর।

ব্রাজিলে বর্ণবাদের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। দেশটিতে ১৮৮৮ সালে দাসপ্রথা বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

শুক্রবার বিক্ষোভকারীরা সুপারমার্কেটটির সামনে জড়ো হন। এদিন দেশটির রাজধানী ব্রাসিলিয়াতেও বিক্ষোভ করেন তারা। অনেকের প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘আমাদের হত্যা বন্ধ কর’। অন্যান্য শহরেও বিক্ষোভ ডেকেছেন আন্দোলনকারীরা।

মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের পর গড়ে ওঠা ব্ল্যাক লাইভ ম্যাটার আন্দোলন ব্রাজিলের কৃষ্ণাঙ্গদের অনুপ্রাণিত করছে বলে জানানো হয়েছে বিবিসির প্রতিবেদনে।

২০১৯ সালে দেশটিতে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে অন্তত ছয় গুণ বেশি মানুষ পুলিশের খুন হয়েছেন। এদের বেশিরভাগই ছিলেন কৃষ্ণাঙ্গ।

শেয়ার করুন

মন্তব্য