× হোম জাতীয় রাজধানী সারা দেশ অনুসন্ধান বিশেষ রাজনীতি আইন-অপরাধ ফলোআপ কৃষি বিজ্ঞান চাকরি-ক্যারিয়ার প্রযুক্তি উদ্যোগ আয়োজন ফোরাম অন্যান্য ঐতিহ্য বিনোদন সাহিত্য ইভেন্ট শিল্প উৎসব ধর্ম ট্রেন্ড রূপচর্চা টিপস ফুড অ্যান্ড ট্রাভেল সোশ্যাল মিডিয়া বিচিত্র সিটিজেন জার্নালিজম ব্যাংক পুঁজিবাজার বিমা বাজার অন্যান্য ট্রান্সজেন্ডার নারী পুরুষ নির্বাচন রেস অন্যান্য স্বপ্ন বাজেট আরব বিশ্ব পরিবেশ কী-কেন ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান বিশ্লেষণ ইন্টারভিউ মুজিব শতবর্ষ ভিডিও ক্রিকেট প্রবাসী দক্ষিণ এশিয়া আমেরিকা ইউরোপ সিনেমা নাটক মিউজিক শোবিজ অন্যান্য ক্যাম্পাস পরীক্ষা শিক্ষক গবেষণা অন্যান্য কোভিড ১৯ শারীরিক স্বাস্থ্য মানসিক স্বাস্থ্য যৌনতা-প্রজনন অন্যান্য উদ্ভাবন আফ্রিকা ফুটবল ভাষান্তর অন্যান্য ব্লকচেইন অন্যান্য পডকাস্ট বাংলা কনভার্টার নামাজের সময়সূচি আমাদের সম্পর্কে যোগাযোগ প্রাইভেসি পলিসি

google_news print-icon

অ্যারিজোনায় ট্রাম্প সমর্থকদের বিক্ষোভ

অ্যারিজোনায়-ট্রাম্প-সমর্থকদের-বিক্ষোভ
এ সময় কয়েকজনের হাতে বন্দুক ও পিস্তল দেখা যায় বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যে একটি নির্বাচন কেন্দ্রের বাইরে বিক্ষোভ করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডনাল্ড ট্রাম্পের একদল সমর্থক।

স্থানীয় সময় বুধবার রাতে অঙ্গরাজ্যের ফিনিক্স শহরে ট্রাম্পের ভোট ইচ্ছাকৃতভাবে গণনা হয়নি গুজব শুনে তারা বিক্ষোভ করেন।

এ সময় কয়েকজনের হাতে বন্দুক ও পিস্তল দেখা যায় বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

ফিনিক্সের মারিকোপা কাউন্টি নির্বাচন বিভাগের সামনে ‘চুরি বন্ধ করো’ ও ‘আমার ভোট গণনা করো’ স্লোগান দেন ট্রাম্পের সমর্থকরা।

নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন ইলেকটোরাল কলেজ ভোটে এগিয়ে আছেন। নির্বাচনের অন্যতম লড়াইক্ষেত্র অ্যারিজোনায় খুব অল্প ব্যবধানে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট। ঠিক এমন সময়ে ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে রাস্তায় নামেন ট্রাম্পের সমর্থকরা।

ভোটের রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গুজব ছড়িয়ে পড়ে যে, মারিকোপা কাউন্টির কিছু ভোট গণনা করা হয়নি। কারণ ভোটাররা ব্যালটে টিক দিতে শার্পি ব্র্যান্ডের কলম ব্যবহার করেন। স্থানীয় নির্বাচন কর্মকর্তারা অবশ্য এ অভিযোগ প্রত্যাখান করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে ভোট গণনা এখনো শেষ হয়নি। এরই মধ্যে ডেমোক্র্যাটরা নির্বাচনে কারচুপি করছে বলে অভিযোগ করেছেন ট্রাম্প। কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে ভোট গণনা নিয়ে মামলাও করেছেন তিনি।

বুধবার দুপুরে মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়েট শহরেও কারচুপির অভিযোগ তোলে ট্রাম্পের সমর্থকরা। সেখানে নির্বাচন কর্মকর্তারা প্রায় ৩০ জন ব্যক্তিকে ভোট গণনার কক্ষে ঢুকতে বাধা দেন। ওই ব্যক্তিরা গণনা ঠিকভাবে হচ্ছে না বলে ভিত্তিহীন অভিযোগ তোলেন।

মন্তব্য

আরও পড়ুন

আন্তর্জাতিক
Former General Gantz threatens to leave Netanyahus cabinet

নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভা ছাড়ার হুমকি সাবেক জেনারেল গানৎজের

নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভা ছাড়ার হুমকি সাবেক জেনারেল গানৎজের ইসরায়েলের যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার সদস্য বেনি গানৎজ। ছবি: রয়টার্স
সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী গানৎজ জানান, দাবি পূরণ না হলে গাজায় যুদ্ধের বিষয়টি তদারকির জন্য গত বছর হওয়া জরুরি ঐক্যের সরকার থেকে বেরিয়ে আসবে তার দল।

ফিলিস্তিনের গাজার জন্য যুদ্ধ পরবর্তী পরিকল্পনা পেশ করতে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে আগামী ৮ জুন পর্যন্ত সময় দিয়েছেন দেশটির যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভার সদস্য বেনি গানৎজ।

ওই সময়ের মধ্যে নেতানিয়াহু পরিকল্পনা উপস্থাপনে ব্যর্থ হলে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন সাবেক এ জেনারেল।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে জানানো হয়, স্থানীয় সময় শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে গানৎজ এ হুমকি দেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভাকে ছয় দফা পরিকল্পনায় সম্মত হওয়ার আহ্বান জানান। ওই ছয় দফায় গাজায় যুদ্ধ শেষে উপত্যকার শাসনের সম্ভাব্য পরিকল্পনা রয়েছে।

সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী গানৎজ জানান, দাবি পূরণ না হলে গাজায় যুদ্ধের বিষয়টি তদারকির জন্য গত বছর হওয়া জরুরি ঐক্যের সরকার থেকে বেরিয়ে আসবে তার দল।

ইসরায়েলে নেতানিয়াহুর প্রধান রাজনৈতিক বিরোধী হিসেবে মনে করা হয় গানৎজকে। যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভায় যোগ দেয়ার আগে বিরোধী দলগুলোর শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তি ছিলেন তিনি।

গানৎজের এ আলটিমেটাম ইসরায়েল সরকারে ফাটল আরও বাড়িয়েছে। একই সঙ্গে এটি গাজায় নেতানিয়াহুর নীতির বিরুদ্ধে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক অব্যাহত চাপে রসদ জুগিয়েছে।

আরও পড়ুন:
নিজেদের হামলায় ৫ ইসরায়েলি সেনা নিহত
অবস্থান পাল্টাল বাইডেন প্রশাসন, যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্রেই গাজায় হামলা চালাবে ইসরায়েল
রাফায় হামলা চালিয়ে হামাসকে নির্মূল করা যাবে না: ব্লিংকেন
গাজায় বোলতার কামড়ে হাসপাতালে ইসরায়েলের ১২ সেনা
বাইডেন ইসরায়েলে সব সহায়তা বন্ধ করতে চান: ট্রাম্প

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Four people including three tourists from Spain were killed in Afghanistan

আফগানিস্তানে স্পেনের তিন পর্যটকসহ চারজনকে হত্যা

আফগানিস্তানে স্পেনের তিন পর্যটকসহ চারজনকে হত্যা আফগানিস্তানের বামিয়ান প্রদেশে শুক্রবারের হামলার ঘটনাস্থল। ছবি: সংগৃহীত
তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আবদুল মতিন কানি শুক্রবার বলেন, ‘বন্দুকধারীদের গুলিতে তিন বিদেশি পর্যটক ও এক আফগান নাগরিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন তিন আফগান নাগরিক। এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে।’

আফগানিস্তানের মধ্যাঞ্চলীয় বামিয়ান প্রদেশে শুক্রবার বন্দুকধারীদের হামলায় স্পেনের তিন পর্যটকসহ চারজন নিহত হয়েছেন। এ সময় কমপক্ষে তিনজন আহত হয়েছেন। কী কারণে এই হামলা হয়েছে সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি।

তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আবদুল মতিন কানি শুক্রবার বলেন, ‘হামলায় তিন বিদেশি পর্যটক ও এক আফগান নাগরিক নিহত হয়েছেন।

‘বন্দুকধারীদের গুলিতে চারজন নিহত হওয়া ছাড়াও তিন আফগান নাগরিক আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে।’

স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কনস্যুলার ইমার্জেন্সি ইউনিটকে পুরোপুরি সক্রিয় করা হয়েছে এবং হতাহত ও তাদের পরিবারকে সহায়তা করা হচ্ছে।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেস সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ লিখেছেন, ‘আফগানিস্তানে স্প্যানিশ পর্যটকদের হত্যার খবরে তিনি মর্মাহত।’

আফগানিস্তানের পার্বত্য বামিয়ান একটি ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান। এখানে দুটি বিশাল বুদ্ধ মূর্তির ধ্বংসাবশেষ রয়েছে। ২০০১ সালে তালেবানরা বোমা ও কামানের গোলা ছুঁড়ে মূর্তি দুটি ধ্বংস করে দেয়।

২০২১ সালে আফগানিস্তান দখলের পর থেকে ক্ষমতাসীন তালেবান নিরাপত্তা পুনরুদ্ধার এবং বিদেশি পর্যটকদের উৎসাহিত করার জন্য বুদ্ধ মূর্তিগুলোর দর্শন টিকিটের বিনিময়ে খুলে দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রসহ বিদেশি বাহিনী ২০২১ সালে চলে যাওয়া এবং তালেবান ক্ষমতা দখলের পর থেকে শুক্রবারের হামলাটি ছিল বিদেশি নাগরিকদের লক্ষ্য করে সবচেয়ে বড় হামলা।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Advice for Bangladeshi students to stay at home in Kyrgyzstan

কিরগিজস্তানে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকার পরামর্শ

কিরগিজস্তানে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ঘরে থাকার পরামর্শ কিরগিজস্তানের বিসকেকে শুক্রবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে হামলা চালায় স্থানীয়রা। ছবি: সংগৃহীত
কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের জন্য স্বীকৃত উজবেকিস্তানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস বলেছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আর সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এ সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যায় দূতাবাসের সঙ্গে ২৪ ঘণ্টা যোগাযোগের জন্য জরুরি নম্বরে (+৯৯৮৯৩০০০৯৭৮০) কল করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের জন্য স্বীকৃত উজবেকিস্তানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস বলেছে, কিরগিজস্তানের পরিস্থিতি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

দূতাবাস থেকে একইসঙ্গে বলা হয়েছে, তবে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এই মুহূর্তে বাড়ির ভেতরে থাকতে এবং এ সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যায় দূতাবাসের সঙ্গে ২৪ ঘণ্টা যোগাযোগের জন্য জরুরি নম্বরে (+৯৯৮৯৩০০০৯৭৮০) কল করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

শনিবার রাতে ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, উজবেকিস্তানে বাংলাদেশ দূতাবাস কিরগিজ প্রজাতন্ত্রে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিসকেকে সাম্প্রতিক গণসহিংসতার বিষয়ে যোগাযোগ রাখছে।

দূতাবাস এ বিষয়ে কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গেও যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে।

প্রসঙ্গত, কিরগিজস্তানে বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের শিক্ষার্থীরা স্থানীয় উত্তেজিত জনতার হামলার শিকার হয়েছে। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ও শনিবার এই হামলার শিকার হন দেশটিতে অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন:
কিরগিজস্তানে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা: সাহায্য চাইলেন বাংলাদেশিরা

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Attack on students of Bangladesh India and Pakistan in Kyrgyzstan

কিরগিজস্তানে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা: সাহায্য চাইলেন বাংলাদেশিরা

কিরগিজস্তানে বিদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা: সাহায্য চাইলেন বাংলাদেশিরা স্থানীয় বিক্ষুব্ধ কিরগিজস্তানের রাজধানী বিসকেকের রাস্তায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অবস্থান। ছবি: সংগৃহীত
কিরগিজস্তানের ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অফ মেডিসিনের বাংলাদেশি শিক্ষার্থী সামিয়া কবির শনিবার সন্ধ্যায় ইউএনবিকে বলেন, ‘আমরা এখানে পাঁচজন বাংলাদেশি মেয়ে আছি। আমরা এখন আমাদের অ্যাপার্টমেন্টের ভেতরে। আমাদের অ্যাপার্টমেন্টের সামনে কিছু লোক জড়ো হচ্ছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন।’

কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে বাংলাদেশি, ভারত ও পাকিস্তানের শিক্ষার্থীদের ওপর সহিংস জনতা হামলা চালানোর খবর পাওয়া গেছে।

দেশটিতে নিযুক্ত পাকিস্তানের মিশন জানিয়েছে, শুক্রবার (১৭ মে) রাতে শুরু হওয়া সহিংসতার মধ্যে বিশকেকের কয়েকটি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেলে হামলা হয়েছে। সেখানে ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের শিক্ষার্থীরা বসবাস করেন।

কিরগিজ সরকার জানিয়েছে, ১৭-১৮ মে রাতে বিশকেকে জনতার সহিংসতায় বেশ কয়েকজন বিদেশিসহ কমপক্ষে ২৮ জন আহত হওয়ার পর চারজন বিদেশি নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

এই সহিংসতার বিষয়ে পাকিস্তান ও ভারত কূটনৈতিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। দেশ দুটি বিশকেকে তাদের শিক্ষার্থীদের বাড়ির ভেতরে অবস্থান করার জন্য সতর্ক করেছিল।

রেডিও ফ্রি ইউরোপ জানিয়েছে, ১৩ মে মিসরের মেডিক্যাল শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কিরগিজ ছাত্রদের বিবাদের একটি ভিডিও অনলাইনে ব্যাপকভাবে শেয়ার হওয়ার পর এই সহিংসতা শুরু হয়।

যাদের মারধর করা হয়েছে তারা কিরগিজ যুবক বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা দাবি করার পর শুক্রবার রাতে বিশকেকের বেশ কয়েকটি স্থানে উত্তেজিত জনতা জড়ো হয়।

শনিবার বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি শিক্ষার্থী তাদের নিরাপত্তার জন্য ইউএনবির কাছে সহায়তা চান।

স্থানীয় সময় শনিবার এই হামলার শিকার হন দেশটিতে অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীরা।

কিরগিজস্তানের ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অফ মেডিসিনের বাংলাদেশি শিক্ষার্থী সামিয়া কবির শনিবার সন্ধ্যায় ইউএনবিকে বলেন, ‘আমরা এখানে পাঁচজন বাংলাদেশি মেয়ে আছি। আমরা এখন অ্যাপার্টমেন্টের ভেতরে আছি। আমাদের অ্যাপার্টমেন্টের সামনে কিছু লোক জড়ো হচ্ছে। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন।’

তিনি আরও বলেন, ‘কর্তৃপক্ষ আমাদের ভেতরে থাকতে বলেছে। আমরা কাছাকাছি অন্যান্য অ্যাপার্টমেন্ট থেকে কিছু আওয়াজ শুনতে পাচ্ছি। সেখানে কিছু পাকিস্তানি থাকতে পারে।’

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ইউএনবিকে বলেন, ‘আমরা শিগগিরই একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন শেয়ার করব। উজবেকিস্তানে আমাদের মিশন বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। এখন পর্যন্ত কোনো বাংলাদেশি হতাহত হওয়ার খবর আমরা পাইনি। আমরা আমাদের মিশনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি।’

এদিকে কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘বর্তমানে বিশকেকের পরিস্থিতি পুরোপুরি শান্ত এবং সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

তারা গণমাধ্যমের প্রতিনিধি, ব্লগিং সম্প্রদায় এবং বিদেশি সহকর্মীদের শুধু কিরগিজ প্রজাতন্ত্রের উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে পাওয়া সরকারি এবং যাচাইকৃত তথ্যের ভিত্তিতে খবর পরিবেশন করতে বলেছে।

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
US seeks Hamas chief Sinwar in Gaza

গাজায় হামাসপ্রধান সিনওয়ারের খোঁজে যুক্তরাষ্ট্র

গাজায় হামাসপ্রধান সিনওয়ারের খোঁজে যুক্তরাষ্ট্র গাজা সিটিতে ২০২২ সালের ১৪ ডিসেম্বর মুখোশ পরা এক যোদ্ধার সঙ্গে করমর্দন করেন হামাসের গাজা উপত্যকার প্রধান ইয়াহইয়া সিনওয়ার। ছবি: মোহাম্মেদ আবেদ/এএফপি
যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা মিডল ইস্ট আইকে বলেন, হামাসের গাজা উপত্যকার প্রধান সিনওয়ার পালিয়ে প্রথমে মিসরের সিনাই উপদ্বীপ এবং পরবর্তী সময়ে লেবানন কিংবা সিরিয়ায় গেছেন কি না, সে সম্ভাবনাও খতিয়ে দেখছে যুক্তরাষ্ট্র।  

ফিলিস্তিনের গাজায় চলমান যুদ্ধে ইসরায়েলের ‘সম্পূর্ণ বিজয়’ অর্জনে সহায়তার অংশ হিসেবে উপত্যকায় হামাসের প্রধান ইয়াহইয়া সিনওয়ারের অবস্থান শনাক্তের ওপর যুক্তরাষ্ট্র মূল দৃষ্টি রেখেছে বলে জানিয়েছে মিডল ইস্ট আই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটি।

যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান ও সাবেক এসব কর্মকর্তা মিডল ইস্ট আইকে জানান, ৬১ বছর বয়সী সিনওয়ার গাজার গভীরে টানেলগুলোতে লুকিয়ে আছেন বলে ধারণা করছে যুক্তরাষ্ট্র। এর ভিত্তিতে দেশটি এ অঞ্চলে তল্লাশি জোরদার করেছে।

দেশটির এক কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, হামাসের গাজা উপত্যকার প্রধান সিনওয়ার পালিয়ে প্রথমে মিসরের সিনাই উপদ্বীপ এবং পরবর্তী সময়ে লেবানন কিংবা সিরিয়ায় গেছেন কি না, সে সম্ভাবনাও খতিয়ে দেখছে যুক্তরাষ্ট্র।

এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভানের বক্তব্য জানতে চায় মিডল ইস্ট আই, তবে সিনওয়ার সংক্রান্ত গোয়েন্দা তথ্যের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করবেন না বলে জানান তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান ও সাবেক কর্মকর্তারা সুনির্দিষ্ট কোনো গোপন তথ্যের কথা জানাননি। তাদের ভাষ্য, একটি বিষয়কে ঘিরে বির্তক এগোচ্ছে। আর তা হলো সিনওয়ারের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে তথ্যের ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্র।

ওই কর্মকর্তাদের মতে, সিনওয়ারের সর্বশেষ অবস্থান শনাক্তে মোটাদাগে এক মাসের মতো পিছিয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির কাছে থাকা তথ্য অনুযায়ী, গাজায় ছিলেন হামাসের শীর্ষস্থানীয় এ নেতা।

আরও পড়ুন:
ইসরায়েলের সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধে প্রস্তুত হামাস: মুখপাত্র
হামাসের সুড়ঙ্গ থেকে ৩ জিম্মির মরদেহ উদ্ধারের দাবি ইসরায়েলের
গাজা নিয়ে ইসরায়েলের মন্ত্রিসভার বিরোধ প্রকাশ্যে
‘যুক্তরাষ্ট্র নির্মিত ঘাট দিয়ে গাজায় ত্রাণ ঢুকছে’
নিজেদের হামলায় ৫ ইসরায়েলি সেনা নিহত

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
9 people died in a moving bus fire in India

ভারতে চলন্ত বাসে আগুনে ৯ জনের মৃত্যু

ভারতে চলন্ত বাসে আগুনে ৯ জনের মৃত্যু বাসটিতে মহিলা ও শিশুসহ ৬০ জনের বেশি যাত্রী ছিলেন। ছবি: এনডিটিভি
বেঁচে যাওয়া এক যাত্রী বলেন, ‘আমরা ১০ দিনের জন্য তীর্থযাত্রা করতে বাস ভাড়া করেছিলাম। শুক্রবার রাতে আমরা বাড়ি ফিরছিলাম। রাতে ঘুমানোর সময় ধোঁয়ার গন্ধ পেয়েছি। মোটরসাইকেল আরোহী চালককে সতর্ক করার পরে বাসটি থামানো হয়।’

ভারতে হরিয়ানা রাজ্যে একটি যাত্রীবাহী চলন্ত বাসে আগুন লেগে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশের মথুরা ও বৃন্দাবনে তীর্থস্থান থেকে ফেরার সময় রাজ্যের নুহ জেলায় শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। এতে আহত হয়েছেন অনেকে।

বাসটিতে মহিলা ও শিশুসহ একটি পরিবারের ৬০ জনেরও বেশি লোক ছিল, যাদের সবাই পাঞ্জাবের বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে বাসের পেছনে ধোঁয়ার গন্ধ পান তারা। একজন মোটরসাইকেল আরোহী বাসের পেছনে আগুন দেখতে পেয়ে সেটি অনুসরণ করেন। পরে তিনি বাসে উঠে বাস থামানোর জন্য চালককে সতর্ক করেন।

বেঁচে যাওয়া এক যাত্রী বলেন, ‘আমরা ১০ দিনের জন্য তীর্থযাত্রা করতে বাস ভাড়া করেছিলাম। শুক্রবার রাতে আমরা বাড়ি ফিরছিলাম। রাতে ঘুমানোর সময় ধোঁয়ার গন্ধ পেয়েছি। মোটরসাইকেল আরোহী চালককে সতর্ক করার পরে বাসটি থামানো হয়।’

ইন্সপেক্টর জিতেন্দ্র কুমার সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানান, দুর্ঘটনায় ছয় নারী ও তিন পুরুষসহ ৯ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ১৫ জন আহত হয়েছেন এবং তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, বাসটি সম্পূর্ণ পুড়ে যাওয়ার তিন ঘণ্টা পর উদ্ধার কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছান।

স্থানীয় একজনের ভাষ্য, ‘আগুনের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ার আগেই আমরা বাসের পেছনে দৌড়ে গিয়ে জানালা ভেঙে যতটা সম্ভব লোকদের বের করে আনতে পারি। পুলিশকে খবর দিয়েছিলাম, কিন্তু তারা আসতে অনেক সময় নেয়।’

আগুন লাগার কারণ এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন:
যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার হুঁশিয়ারির জবাব ভারতের
ভারতকে নিষেধাজ্ঞার হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের
মুম্বাইয়ে বিলবোর্ড পড়ে নিহত ১৪, আহত অন্তত ৭০
লোকসভা নির্বাচন: চতুর্থ ধাপে ভোট দিচ্ছেন ভারতীয়রা
ভারতের পররাষ্ট্র সচিব ঢাকায়

মন্তব্য

আন্তর্জাতিক
Hamas ready for long war with Israel spokesman

ইসরায়েলের সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধে প্রস্তুত হামাস: মুখপাত্র

ইসরায়েলের সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধে প্রস্তুত হামাস: মুখপাত্র ফিলিস্তিনের গাজার রাফাহতে ২০১৭ সালের ৩১ জানুয়ারি সাংবাদিকদের উদ্দেশে বক্তব্য দেন হামাসের সামরিক শাখা আল-কাসাম ব্রিগেডসের মুখপাত্র আবু ওবেইদা। ছবি: আলি জাদাল্লাহ/আনাদোলু এজেন্সি
‘আমাদের জনগণের ওপর আগ্রাসন বন্ধে আমাদের (হামাস) পূর্ণ অঙ্গীকার সত্ত্বেও আমরা শত্রুর সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত’, বলেন আবু ওবেইদা।

ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতির কথা শুক্রবার জানিয়েছে হামাস।

ফিলিস্তিনের গাজার শাসক দলটির সামরিক শাখা আল-কাসাম ব্রিগেডসের মুখপাত্র আবু ওবেইদা এক ভিডিওবার্তায় এ কথা জানান বলে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদোলুর প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

‘আমাদের জনগণের ওপর আগ্রাসন বন্ধে আমাদের (হামাস) পূর্ণ অঙ্গীকার সত্ত্বেও আমরা শত্রুর সঙ্গে দীর্ঘ যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত’, বলেন আবু ওবেইদা।

তিনি জানান, আল-কাসাম ব্রিগেডসের যোদ্ধারা গত ১০ দিনে গাজা উপত্যকাজুড়ে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর ১০০ সামরিক যানকে লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছে।

তার অভিযোগ, ইসরায়েলের সেনাবাহিনী তাদের সব ক্ষতির কথা ঘোষণা করে না।

‘আল-কাসাম ব্রিগেডস যোদ্ধারা রাফাহ শহরের পূর্বাঞ্চলে শত্রুদের ওপর মারাত্মক আঘাত হেনেছে’, বলেন আবু ওবেইদা।

গত সপ্তাহে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী মিসর সীমান্তবর্তী গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রাফাহতে হামলা করে, যেখানে আশ্রয় নেন বাস্তুচ্যুত ১৫ লাখের বেশি ফিলিস্তিনি।

রাফাহতে হামলার পাশাপাশি সীমান্তের ফিলিস্তিন অংশের নিয়ন্ত্রণও নেয় ইসরায়েল।

গত বছরের ৭ অক্টোবর দক্ষিণ ইসরায়েলে হামাসের প্রাণঘাতী হামলার জবাবে গাজায় পাশবিক আক্রমণ শুরু করে ইসরায়েল।

হামাসের হামলায় নিহত হয় প্রায় এক হাজার ১৩৯ ইসরায়েলি। অন্যদিকে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত হয় ৩৫ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি।

আরও পড়ুন:
রাফায় হামলা চালিয়ে হামাসকে নির্মূল করা যাবে না: ব্লিংকেন
গাজায় বোলতার কামড়ে হাসপাতালে ইসরায়েলের ১২ সেনা
বাইডেন ইসরায়েলে সব সহায়তা বন্ধ করতে চান: ট্রাম্প
ফিলিস্তিনকে পূর্ণ সদস্য করতে জাতিসংঘে বিপুল ভোটে প্রস্তাব পাস
আমেরিকান অস্ত্র দিয়ে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে থাকতে পারে ইসরায়েল

মন্তব্য

p
উপরে