20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
মোরগের ‘আঁচড়ে’ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

ছবি: বিবিসি

মোরগের ‘আঁচড়ে’ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

ফিলিপাইন নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, লড়াইয়ের সময় মোরগের পায়ে যে ধারালো ক্ষুর বেঁধে দেয়া হয় তারই আঘাতে ওই পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু ঘটে।

অবৈধ মোরগ লড়াই বন্ধে অভিযান চালাতে গিয়ে লড়াকু মোরগের ‘আঁচড়ে’ নিহত হয়েছেন ফিলিপাইনের এক পুলিশ কর্মকর্তা।

সোমবার দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ সামারের সান জোস শহরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত পুলিশ কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ক্রিস্টিন বোলোক শহরটির পুলিশপ্রধান ছিলেন।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ফিলিপাইন নিউজ এজেন্সি (পিএনএ) জানিয়েছে, লড়াইয়ের সময় মোরগের পায়ে যে ধারালো ক্ষুর বেঁধে দেয়া হয় তারই আঘাতে ওই পুলিশ কর্মকর্তা মারা গেছেন অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে।

পুলিশ জানিয়েছে, ধারালো ক্ষুরে ক্রিস্টিন বোলোকের বাম পায়ের ঊরুর ফিমোরাল ধমনী কেটে যায়। এতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। হাসপাতালের পৌঁছানোর পর চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

cockfight-NB
মোরগের পায়ে বাঁধা ধারালো ক্ষুর

সামার প্রদেশের পুলিশপ্রধান কর্নেল আর্নেল আপুদ একে ‘দুর্ভাগ্যজনক দুর্ঘটনা’ হিসেবে অভিহিত করেছে।

ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে তিনি বলেন, ‘আমাকে প্রথম যখন এটি বলা হয় আমি বিশ্বাসই করতে পারিনি। আমার ২৫ বছরের পেশাগত জীবনে এটি প্রথম ঘটনা, যেখানে লড়াকু মোরগের ক্ষুরের আঘাতে এক সহকর্মীকে হারালাম।’

পিএনএ জানিয়েছে, এই ঘটনায় সাতটি লড়াকু মোরগসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। জব্দ করা হয়েছে দুই সেট ক্ষুর ও সাড়ে পাঁচশ ফিলিপাইনি মুদ্রা ।

আরও তিনজন অভিযুক্ত পলাতক রয়েছেন।

ফিলিপাইনে মোরগ লড়াই একটি জনপ্রিয় খেলা। মোরগের উপর বাজি ধরা উপলক্ষে এই খেলায় প্রচুর মানুষের সমাগম ঘটে।

করোনাভাইরাসের কারণে দেশটিতে মোরগ লড়াই আয়োজন নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

শেয়ার করুন

মন্তব্য