20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
বিতর্ক নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ ট্রাম্প-বাইডেনের

বিতর্ক নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ ট্রাম্প-বাইডেনের

গত সপ্তাহে সঞ্চালক ও এনবিসির সাংবাদিক ক্রিস্টেন ওয়াকার আমেরিকান পরিবার, জাতি, জলবায়ু পরিবর্তন, জাতীয় নিরাপত্তা ও নেতৃত্ব শেষ বিতর্কের আলোচ্য বিষয় হবে বলে ঘোষণা দেন।

তৃতীয় ও শেষ টেলিভিশন বিতর্ক নিয়ে আয়োজকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান পার্টি। অন্যদিকে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে করোনা সংক্রান্ত প্রশ্ন এড়ানোর অভিযোগ করেছে বিরোধী ডেমোক্র্যাটিক পার্টি।

ট্রাম্পের প্রচার দলের অভিযোগ, বিতর্কের বিষয় থেকে পররাষ্ট্রনীতি বাদ দিয়ে ডেমোক্র্যাটিক পার্টিকে আদতে সহায়তাই করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় সোমবার প্রচার দল কমিশনকে একটি চিঠি পাঠায়।

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠেয় ট্রাম্প ও বাইডেনের শেষ বিতর্কের বিষয় সামঞ্জস্য করার কথা ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

ট্রাম্পের প্রচার ব্যবস্থাপক বিল স্টিপিয়েন জানান, শেষ বিতর্কে পররাষ্ট্রনীতিকে প্রাধান্য দিতে প্রচার দল একমত হয়েছে।

স্টিপিয়েনের অভিযোগ, পররাষ্ট্রনীতি কী হবে, তা নিয়ে আলোচনা এড়াতে মরিয়া বাইডেন।

তিনি বলেন, ‘বাইডেনের প্রতি কমিশনের পক্ষপাত পুরো বিতর্ক অনুষ্ঠানকে ব্যর্থ করেছে। বিতর্কের বস্তুনিষ্ঠতা নিয়ে জনগণ আস্থা হারালেও তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই।’

ছেলে হান্টারের উদ্দেশ্যমূলক ইমেইল নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন নিয়ে বাইডেন মুখ খুলতে চান না বলেও অভিযোগ স্টিপিয়েনের।

গত সপ্তাহে সঞ্চালক ও এনবিসির সাংবাদিক ক্রিস্টেন ওয়াকার আমেরিকান পরিবার, জাতি, জলবায়ু পরিবর্তন, জাতীয় নিরাপত্তা ও নেতৃত্ব শেষ বিতর্কের আলোচ্য বিষয় হবে বলে ঘোষণা দেন।

সোমবার অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের প্রেসকট শহরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনি সমাবেশে ওয়াকারকে ‘উগ্র ডেমোক্র্যাট’ বলে আখ্যা দেন ট্রাম্প। সে সময় তিনি আরও বলেন, ওয়াকার কোনো কাজের নন।

ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রচার দলের পাল্টা অভিযোগ, তৃতীয় বিতর্কে করোনা মহামারি সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাব এড়ানোর চেষ্টা করছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।

বাইডেনের প্রচার দলের জাতীয় প্রেস সেক্রেটারি টিজে ডাকলো বলেন, ‘বিতর্কের বিষয় সঞ্চালকই ঠিক করবেন। এ বিষয়ে মাসখানেক আগেই দুই পক্ষের প্রচার দল ও কমিশন সম্মত হয়েছিলেন।

‘ট্রাম্পের প্রচার দল বিষয়টি নিয়ে এখন মিথ্যা কথা বলছে। কারণ করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ সংশ্লিষ্ট আরও প্রশ্নের মুখোমুখি হতে ভয় পাচ্ছেন ট্রাম্প।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় ট্রাম্পের ব্যর্থতার কারণে দেশ সংকটের মুখে। এ সংক্রান্ত প্রশ্নের চেয়ে বিতর্কের নিয়ম-কানুন নিয়ে যথারীতি উদ্বিগ্ন ট্রাম্প।’

সূত্র: বিবিসি

শেয়ার করুন

মন্তব্য