20201002104319.jpg
মানুষের ত্বকে করোনাভাইরাস বাঁচে ৯ ঘণ্টা

মানুষের ত্বকে করোনাভাইরাস বাঁচে ৯ ঘণ্টা

মানুষের ত্বকে করোনাভাইরাস ৯ ঘণ্টা ধরে সক্রিয় থাকায় আইএভির (ইনফ্লুয়েঞ্জা এ ভাইরাস) তুলনায় একজনের দেহ থেকে অন্যজনের দেহে ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিকে বাড়িয়ে তোলে।

মানুষের ত্বকে নভেল করোনাভাইরাস ৯ ঘণ্টা ধরে বেঁচে থাকতে পারে। জাপানের একদল গবেষক নতুন এক গবেষণায় এই তথ্য পেয়েছেন।

চলতি মাসে ক্লিনিক্যাল ইনফেকশাস ডিজিজেস জার্নালে গবেষণার এই তথ্য প্রকাশিত হয়।

গবেষণা নিবন্ধে গবেষকরা বলেছেন, নতুন এই তথ্য কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় মানুষের ঘন ঘন হাত ধোয়ার প্রয়োজনীয়তার গুরুত্বকে তুলে ধরেছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, করোনাভাইরাসের তুলনায় ফ্লুর জীবাণু মানুষের ত্বকে কম সময় বেঁচে থাকে। মাত্র ১ ঘণ্টা ৪৮ মিনিট।

মানুষের ত্বকে করোনাভাইরাস ৯ ঘণ্টা ধরে সক্রিয় থাকায় আইএভির (ইনফ্লুয়েঞ্জা এ ভাইরাস) তুলনায় একজনের দেহ থেকে অন্যজনের দেহে ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিকে বাড়িয়ে তোলে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর একদিন পর ময়নাতদন্তের নমুনা থেকে ত্বক সংগ্রহ করে গবেষণা পরিচালনা করেছেন গবেষকরা।

করোনাভাইরাস এবং অন্যান্য ফ্লুর ভাইরাস ইথানল প্রয়োগের মাত্র ১৫ সেকেন্ডের মধ্যে নিস্ক্রিয় হয়ে যায়। এই ইথানল হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরিতে ব্যবহার করা হয়।

এ জন্য গবেষকরা করোনা মহামারি মোকাবিলায় মানুষের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার ও ঘন ঘন হাত ধোয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন।

করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা্ও এ ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে বার বার হাত ধোয়ার পরামর্শ দিয়ে আসছে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দেয়। এর পর বিশ্বের দুই শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। বিশ্বজুড়ে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন চার কোটিরও বেশি মানুষ এবং মৃত্যু হয়েছে ১১ লাখ ১৪ হাজারেরও বেশি।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

শেয়ার করুন

মন্তব্য