20201002104319.jpg
সাত দশক পর নারীর মৃত্যুদণ্ড

সাত দশক পর নারীর মৃত্যুদণ্ড

মিজৌরি অঙ্গরাজ্যে এক জন অন্তঃসত্ত্বা নারীকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে তাকে এই দণ্ড দেয়া হচ্ছে । ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের পেনিটেনশিয়ারি টেরে হাউতে প্রাণঘাতী ইনজেকশন দিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় সাত দশক পর প্রথম একজন নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হতে যাচ্ছে।

দেশটির বিচার বিভাগ শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ২০০৪ সালের একটি হত্যার দায়ে দোষী সাব্যস্ত লিসা মন্টগোমারিকে মৃত্যুদণ্ড দেয়ার জন্য তারা আগামী ৮ ডিসেম্বর তারিখ নির্ধারণ করেছে।

মিজৌরি অঙ্গরাজ্যে এক জন অন্তঃসত্ত্বা নারীকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে তাকে এই দণ্ড দেয়া হচ্ছে। ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের পেনিটেনশিয়ারি টেরে হাউতে প্রাণঘাতী ইনজেকশন দিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে বলে বিচার বিভাগ জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া সর্বশেষ নারী হলেন বনি হেডি। ১৯৫৩ সালে মিজৌরিতে একটি গ্যাস চেম্বারে তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০০৭ সালে লিসার মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছিলেন মিজৌরির একটি আদালত।

তবে তার আইনজীবী কেলি হেনরির দাবি, লিসা ছোটবেলায় নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন এবং বর্তমানে মানসিকভাবে অসুস্থ। এ কারণে তিনি রেহাই পেতে পারেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ ব্র্যানডন বার্নার্ড নামে আরেক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের তারিখ ১০ ডিসেম্বর নির্ধারণ করেছে। ১৯৯৯ সালে ২‍ জন মন্ত্রীকে হত্যার জন্য তাকে এই দণ্ড দেয়া হবে।

শেয়ার করুন

মন্তব্য