মিয়ানমারকে সাবমেরিন উপহার ভারতের

আইএনএস সিন্ধুবীর

মিয়ানমারকে সাবমেরিন উপহার ভারতের

চীনের কৌশলগত আক্রমণের পাল্টা জবাব দিতে ভারত এ পদক্ষেপ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পূর্ব লাদাখকে ঘিরে চীনের সঙ্গে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই মিয়ানমারকে পুরনো একটি সাবমেরিন উপহার দিয়েছে ভারত।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ‘আইএনএস সিন্ধুবীর’ নামে তিন হাজার টনের ডিজেল-ইলেকট্রিক সাবমেরিনটি মিয়ানমার নৌবাহিনীকে দেয়া হয়।

চীনের কৌশলগত আক্রমণের পাল্টা জবাব দিতে ভারত এ পদক্ষেপ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

রাশিয়ার তৈরি সাবমেরিনটি ৩১ বছরের পুরনো। তবে গত বছর ভারতের বিশাখাপত্তনমে এটি মেরামত করা হয়।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তবা বলেন, ‘সমুদ্রে সহযোগিতা মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের বৈচিত্র্যপূর্ণ ও সম্প্রসারিত সম্পৃক্তির অংশ। আমাদের সাগার (এ অঞ্চলের সবার নিরাপত্তা ও সমৃদ্ধি) ভিশন ও প্রতিবেশী সব দেশের সক্ষমতা বাড়ানো ও আত্মনির্ভরশীল করার অঙ্গীকারের আলোকে এমনটি (সাবমেরিন উপহার) করা হয়েছে।’

চলতি মাসের শুরুতে ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নারাভান ও পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা মিয়ানমার সফর করেন। এরপরই দেশটিকে সাবমেরিন দেয়ার ঘোষণা আসে।

ভারত এরই মধ্যে মিয়ানমারকে বিভিন্ন ধরনের সামরিক হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার সরবরাহ করেছে।

২০১৬ সালে বাংলাদেশকে দুইটি ডিজেল-ইলেকট্রিক সাবমেরিন দেয় চীন। এই প্রেক্ষাপটে মিয়ানমারকে ভারতের সাবমেরিন দেয়া আঞ্চলিক রাজনীতির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা।

২০২৩ সালে থাইল্যান্ডকে সাবমেরিন দেয়ার কথা রয়েছে চীনের।

সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া

শেয়ার করুন