20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
শুধু এক জন পর্যটকের জন্য খোলা হলো মাচু পিচু

শুধু এক জন পর্যটকের জন্য খোলা হলো মাচু পিচু

ভাইরাসে বন্ধ হওয়া পেরুর এ পর্যটন গন্তব্যে যেতে প্রায় সাত মাস ধরে অপেক্ষা করেছেন জাপানি এক পর্যটক। অবশেষে তার অপেক্ষার অবসান হয়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারিতে বন্ধ বিশ্বের অনেক জনপ্রিয় পর্যটনস্থল। ব্যতিক্রম নয় ইনকা সভ্যতার ধ্বংসাবশেষ মাচু পিচুও।

ভাইরাসে বন্ধ হওয়া পেরুর এ পর্যটন গন্তব্যে যেতে প্রায় সাত মাস ধরে অপেক্ষা করেছেন জাপানি এক পর্যটক। অবশেষে তার অপেক্ষার অবসান হয়েছে। শুধু তার জন্য খোলা হয়েছে ইউনেস্কোর এ বিশ্ব ঐতিহ্য।

জেসে তাকায়ামা নামের ওই জাপানি মার্চে মাচু পিচুতে যেতে চেয়েছিলেন।

এ বিষয়ে পেরুর সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আলেসান্দ্রো নেইরা বলেন, বিশেষ অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে তাকায়ামাকে ভ্রমণের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

ইনকাদের প্রাচীন এ দুর্গটি আগামী মাসে পর্যটকদের জন্য সীমিত পরিসরে খুলে দেয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে কবে খোলা হবে, সেটি জানায়নি পেরুর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

তাকায়ামা পেরুতে কয়েক দিন থাকার পরিকল্পনা করেছিলেন। তবে মধ্য মার্চে করোনাভাইরাসের কারণে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা শুরু হওয়ায় তিনি মাচু পিচুর কাছে আগুয়াস সেলিয়েন্তেস নামের শহরে আটকা পড়েন।

সোমবার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সংস্কৃতিমন্ত্রী নেইরা বলেন, তিনি (তাকায়ামা) মাচু পিচুতে প্রবেশের জন্যই পেরুতে আসেন।

মাচু পিচু পাহাড়ের উপরে উঠে জাপানি পর্যটক ভিডিও ধারণ করে মুহূর্ত উদযাপন করেন। তিনি বলেন, ‌‘সফরটি আসলেই দারুণ। আপনাদের ধন্যবাদ।’

সূত্র: বিবিসি

শেয়ার করুন