20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
শক্তিশালী ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন উত্তর কোরিয়ার

ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের উন্মোচন করে উত্তর কোরিয়া। ছবি: এপি

শক্তিশালী ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন উত্তর কোরিয়ার

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন বলেন, ‘আত্মরক্ষার্থে আমরা প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী করব।’

উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করেছে উত্তর কোরিয়া।

ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে স্থানীয় সময় শনিবার দেশটির রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে ক্ষেপণাস্ত্রটি উন্মোচন করা হয়।

দুই ঘণ্টা ধরে চলা অনুষ্ঠান ও সামরিক কুচকাওয়াজের একপর্যায়ে ক্ষেপণাস্ত্রটি বহন করে আনে একটি ১১ এক্সেল ট্রাক।

তরল নয়, কঠিন জ্বালানি দিয়ে চলবে এ ক্ষেপণাস্ত্র। এর সুবিধা হলো এটি ব্যবহারের সময় জ্বালানি বহনকারী ট্রাকের প্রয়োজন পড়বে না।

এটি খুব সহজেই লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানবে ও গোয়েন্দা স্যাটেলাইট থেকে লুকিয়ে রাখা যাবে।

Kim Jong Un
উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন

উন্মোচনের আগে দেয়া বক্তব্যে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন বলেন, ‘আত্মরক্ষার্থে আমরা প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী করব।’

তিনি বলেন, ‘যুদ্ধাস্ত্রের অপব্যবহার বা আগে থেকে ব্যবহার কখনো করব না আমরা। দেশের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক শান্তির জন্য যুদ্ধাস্ত্র ব্যবহার করা হবে। তবে কেউ যদি আমাদের জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষতি করে বা সামরিক শক্তি ব্যবহারের হুমকি দেয়, তাহলে তাকে শাস্তি দিতে আমরা সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করব।’

২০১৭ সালে হোয়াসং-১৫ নামের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার সময় উত্তর কোরিয়া বলেছিল, এটি অত্যন্ত ভারী পারমাণবিক অস্ত্র বহন করতে সক্ষম।

বিশেষজ্ঞরা সে সময় বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বড় অংশ আঘাত করার ক্ষমতা হোয়াসং-১৫ ক্ষেপণাস্ত্রটির আছে।

শনিবার উন্মোচিত ক্ষেপণাস্ত্রটি হোয়াসং-১৫-এর চেয়ে শক্তিশালী বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সূত্র: সিএনএন

শেয়ার করুন