20201002104319.jpg
পরিবেশ রক্ষায় ‘আর্থশট প্রাইজ’

পরিবেশ রক্ষায় ‘আর্থশট প্রাইজ’

বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন রোধ ও পরিবেশ সুরক্ষায় নতুন পথ বের করার লক্ষ্যে এক পরিবেশবাদী পুরস্কার দেয়ার আয়োজন করছেন প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রকৃতিবিদ ডেভিড অ্যাটেনবারো।

বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়,‘আর্থশট প্রাইজ’ নামের এ পুরস্কারের উদ্দেশ্য হলো আগামী দশ বছরের মধ্যে পৃথিবীকে বসবাসযোগ্য করে তোলা এবং এর জন্য যে পরিবর্তন প্রয়োজন তার পক্ষে মানুষকে উৎসাহিত করা।    

১৯৬১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডি ‘মুনশট চ্যালেঞ্জ’ নামে যে উদ্যোগ নেন তা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এ পুরস্কার দেয়ার আয়োজন করা হয়েছে। মুনশট চ্যালেঞ্জের উদ্দেশ্য ছিল দশ বছরের মধ্যে একজন মানুষকে চাঁদে পাঠানো,যা সফল হয়েছিল।   

এ বিষয়ে প্রিন্স উইলিয়াম স্কাই নিউজকে বলেন,'বিশেষজ্ঞদের মতে, এখন এমন এক অবস্থায় আমরা পৌঁছেছি, যেখান থেকে ফেরার কোনো পথ নেই। এ পৃথিবীকে ঠিক করতে আমাদের কাছে দশ বছর সময় আছে।'  

২০৩০ সালের মধ্যে পরিবেশ সুরক্ষায় অন্তত ৫০টি প্রধান সমস্যার সমাধান করতে চান পুরস্কারটির আয়োজকরা। প্রতি বছর ১৩ লাখ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১১ কোটি ২৫ লাখ ৬৫ হাজার ৭৬ টাকা ) করে পুরস্কার দেবার আশা করছেন তারা।   

প্রিন্স উইলিয়াম বলেন,'একটি পুরস্কার দিয়ে আমরা হয়ত দশ বছরের মধ্যে এতোগুলো সমস্যার সমাধান করতে পারব না। তবে আমরা আশা করছি মুনশট ল্যান্ডিং এর সময়ে তৈরি হওয়া যন্ত্রপাতি বা পদ্ধতি আবিষ্কারের মতো ঘটনার জন্ম দেবে এ পুরস্কার।'  

পুরস্কারের জন্য বিশ্বব্যাপী মনোনয়ন নেয়া শুরু হবে আগামী ১ নভেম্বর। প্রতি বছর নতুন কোনো শহর থেকে পুরস্কার দেবার অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। ২০২১ সালে  লন্ডন থেকে এ পুরস্কারের যাত্রা শুরু হবে।

অ্যাটেনবারো বিবিসি রেডিওকে বলেন,'বিষয়টি এখন খুব জরুরি। এরই মধ্যে উত্তরমেরুর বরফ গলতে শুরু করেছে, এটি বড় বিপদের আশঙ্কা তৈরি করছে।'

সুত্র: এউএনবি

শেয়ার করুন

মন্তব্য