20201002104319.jpg
20201003015625.jpg
আগামী কয়েক দিনই মূল পরীক্ষা: ট্রাম্প

আগামী কয়েক দিনই মূল পরীক্ষা: ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প আপাতত ভালো আছেন বলে জানিয়েছেন। শনিবার টুইটারে এক ভিডিওবার্তায় ট্রাম্প বলেন, তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। তবে পরবর্তী কয়েক দিনই ‘আসল পরীক্ষা’।

করোনা আক্রান্তের শুরু থেকেই ট্রাম্পের শারীরিক অবস্থা নিয়ে মিশ্র তথ্য আসার পর শনিবার সন্ধ্যায় টুইটারে ভিডিওটি পোস্ট করা হয়।

ট্রাম্পের চিকিৎসক ডা. শন কনলে স্থানীয় সময় শনিবার জানান, করোনা শনাক্তের পর থেকে যথেষ্ট উন্নতি করেছেন ট্রাম্প।

এর আগে কনলে এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, ট্রাম্প এখনও উচ্চ ঝুঁকির বাইরে নন। এ কারণে চিকিৎসক দল সতর্ক। তবে তারা তার শারীরিক অবস্থার উন্নতির বিষয়ে আশাবাদী।

শুক্রবার ট্রাম্পকে ওয়াশিংটন ডিসির কাছে দেশটির অন্যতম সামরিক হাসপাতাল ওয়াল্টার রিড ন্যাশনাল মিলিটারি মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

চার মিনিটের ওই ভিডিওবার্তায় ট্রাম্প ওই মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসক ও নার্সদের ধন্যবাদ জানান।

ট্রাম্প বলেন, ‘আমি এখানে আসার সময় ভালো অনুভব করছিলাম না। তবে এখন অনেক ভালো আছি। ধারণা করছি, আগামী কয়েক দিনই মূলত ঝুঁকিপূর্ণ; দেখা যাক কী হয়।’

দ্রুত নির্বাচনী প্রচারে ফিরতে চান বলেও এ সময় জানান তিনি।

শুক্রবার সকালে টুইটের মাধ্যমে নিজের ও ফার্স্ট লেডি মেলানিয়ার করোনা আক্রান্তের খবর জানান ট্রাম্প। উচ্চ সতর্কতার কারণে ওই দিনই তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে ক্লিনিক্যাল পরীক্ষায় আশাব্যঞ্জক ফল পাওয়া একটি অ্যান্টিবডি ককটেল দেয়া হয় ট্রাম্পকে।

শনিবার সকালে ট্রাম্পের চিকিসক ডা. কনলে জানিয়েছিলেন, ট্রাম্পকে তখন পর্যন্ত অতিরিক্ত অক্সিজেন দিতে হয়নি। প্রায় ২৪ ঘণ্টা তার জ্বর নেই।

ট্রাম্পকে আরও কিছুদিন হাসপাতালে থাকতে হবে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ। ডা. কনলে জানান, প্রেসিডেন্ট কবে হাসপাতাল ছাড়বেন, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কিছু বলতে পারছেন না তিনি।

তবে হোয়াইট হাউজের চিফ অব স্টাফ মার্ক মিডোস বলেন, ট্রাম্প সেরে ওঠার সুস্পষ্ট পথে আছেন কি না, তা এখনও নিশ্চিত নয়। আগামী ৪৮ ঘণ্টা তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ট্রাম্পের বয়স ৭৪ বছর। এ ছাড়া তিনি স্থুল এবং পুরুষ। এই তিনটি বিষয়ই তাকে গুরুতর সংক্রমণের ঝুঁকিতে ফেলেছে।

সূত্র: বিবিসি

শেয়ার করুন